×
South Asian Languages:
ঘটনা প্রসঙ্গ, 17 মে 2011
পাকিস্তান ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্কের রিসেট বাটন টিপছে. দুই পক্ষই আবার করে স্ট্র্যাটেজিক আলোচনা শুরু করতে চলেছে, যা এর আগে ডেভিসের কাণ্ড ও পাকিস্তানের অ্যাবত্তাবাদে আমেরিকার বিশেষ বাহিনীর হাতে ওসামা বেন লাদেন ধ্বংসের কারণে থমকে গিয়েছিল. এই বিষয়ে নতুন করে সহমতে আসা সম্ভব হয়েছে মার্কিন কংগ্রেসের পররাষ্ট্র পর্ষদের প্রধান জন কেরি ও পাকিস্তানের নেতৃত্বের মধ্যে আলোচনা চলার সময়ে.
দূর প্রাচ্য ফেডারেল অঞ্চলে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতির প্রতিনিধি ভিক্তর ইশায়েভ রাষ্ট্রপতির মোবাইল অভ্যর্থনাকক্ষের কাজের প্রথা অনুমোদন করেছেন, যা গঠিত হয়েছে নাগরিকদের আবেদনে তত্পর প্রতিক্রিয়ার জন্য. তা দূর প্রাচ্যের বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে নাগরিকদের আবেদন সংগ্রহ করবে, সেই সঙ্গে পদাধিকারী আমলাদের নিষ্ক্রয়তা সংক্রান্ত নালিশও.
প্যালেস্টাইনের প্রধান দুটি আন্দোলন “ফাথ” ও “হামাসের” প্রতিনিধিদল কায়রোতে জাতীয় ঐক্যের অন্তর্বর্তী সরকার গঠন নিয়ে আলাপ-আলোচনা শুরু করেছে. এ সরকার পার্লামেন্ট ও রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের প্রস্তুতি, বিভাজনের কুপরিণতি দূর করা, অন্যান্য দেশের সাথে সম্পর্ক গড়ে তোলা নিয়ে কাজ করবে. কোয়ালিশন সরকারের আরও একটি কর্তব্য হবে প্যালেস্টাইনী স্বায়ত্তশাসনের স্বাধীন গোয়েন্দা বিভাগ গঠনের জন্য প্রস্তুতি চালানো.
রাশিয়া এ নিশ্চয়োক্তিকে “কালোচিত নয় ও ভিত্তিহীন” বলে মনে করে যে, তালিব এবং “আল-কাইদার” মাঝে সম্পর্ক দুর্বল হয়ে উঠছে এবং “নমনীয়” বাধানিষেধ আপোষহীন তালিব অথবা “আল-কাইদার” পক্ষ-সমর্থকদের পৃথক করার সুযোগ দেবে, বলেছেন রাষ্ট্রসঙ্ঘে রাশিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি ভিতালি চুরকিন সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম সংক্রান্ত রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের সহায়ক কমিটিগুলির নেতাদের মিলিত ব্রিফিংয়ে.
উজবেকিস্তান মধ্য এশিয়ার উচ্চ পর্বতাঞ্চলে জলবিদ্যুত্ কেন্দ্র নির্মাণে স্বাধীন আন্তর্জাতিক মূল্যায়নের দাবি করছে. স্থানীয় আবহবিদরা উদ্বিগ্ন যে, বড় বড় বাঁধ নির্মিত হচ্ছে ভূকম্প-কাতর অঞ্চলে, যার দরুণ অবশেষে জলবিদ্যুত্ কেন্দ্র ও বাঁধ ধ্বংস হতে পারে. প্রচার মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, আগে তাজিকিস্তানের ভূভাগে রোগুন জলবিদ্যুত্ কেন্দ্র নির্মাণের পরিকল্পনা নিয়ে উজবেকিস্তান ও তাজিকিস্তানের কর্তৃপক্ষের মাঝে মতভেদ দেখা দেয়.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ রাষ্ট্রীয় দুমার অনুমোদনের জন্য শুল্ক-সঙ্ঘের দেশগুলির সর্বসম্মত ম্যাক্রো-ইকোনোমিক নীতি সংক্রান্ত চুক্তি পেশ করেছেন. এ দলিলটি মস্কোয় স্বাক্ষরিত হয়েছিল ২০১০ সালের ৯ই ডিসেম্বর. তাতে ম্যাক্রো-ইকোনোমিক নীতির লক্ষ্য, মূলনীতি এবং প্রধান প্রধান ধারা নিরূপণ করা হয়েছে.
দক্ষিণ কুরিল দ্বীপপুঞ্জের উপর রাশিয়ার সার্বভৌমত্বের বিতর্কাতীত আন্তর্জাতিক বিধানিক ভিত্তি আছে, ঘোষণা করা হয়েছে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে. মন্ত্রণালয়ের প্রকাশিত
১৭ই থেকে ২০শে মে মস্কোয় “সমাহারিক নিরাপত্তা-২০১১” নামে যে আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী হচ্ছে তাতে “রসআবারোনএক্সপোর্ত” সামরিক প্রযুক্তির শ্রেষ্ঠ সব নমুনা প্রদর্শন করছে. বিশেষ করে, কারখানার প্রদর্শনীতে ম্যাকেটের রূপে দেখানো হবে বুলেট-প্রুফ মোটরগাড়ি. হেলিকপ্টার প্রযুক্তির মাঝে রয়েছে – “মি-১৭১ইয়ে” মার্কা পরিবহণ হেলিকপ্টার, সামরিক ও বিশেষ কর্তব্য সাধনের জন্য “মি-১৭১শে” মার্কা সামরিক পরিবহণ হেলিকপ্টার.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
মে 2011
ঘটনার সূচী
মে 2011
2
7
14
15
22
28