×
South Asian Languages:
ঘটনা প্রসঙ্গ, 20 ডিসেম্বর 2010
রাশিয়ার বৈদেশিক গোয়েন্দা বিভাগ আজ তার জয়ন্তী উত্সব- প্রতিষ্ঠার ৯০ বছর উদযাপন করছে. ১৯২০ সালে এই দিন সর্বরুশ জরুরী কমিশনে গঠিত হয় নতুন শাখা- বিদেশী বিভাগ, এবং তার উপর দায়িত্ব দেওয়া হয় বিদেশে রাজনৈতিক গোয়েন্দাবৃত্তির কাজ পরিচালনা করার.
ভারত ও রাশিয়ার বিদ্যুত্শক্তি ও জ্বালানী সংক্রান্ত নিরাপত্তার স্বার্থের মিল আছে, বলেছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শ্রী এস.এম.কৃষ্ণ. নয়া-দিল্লিতে রাশিয়ার সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ভারত – ক্রমবর্ধমান তেল ও গ্যাসের পরিভোগী, আর রাশিয়া – তেল ও গ্যাসের কাঁচামালে পৃথিবীর অন্যতম বৃহত্ উত্পাদনকারী এবং সে এ ক্ষেত্রে নির্ভরযোগ্য শরিক খুঁজছে.
মস্কোয় এ ব্যাপারে দুঃখ প্রকাশিত হয়েছে যে, রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদ সোমবার রাতের বৈঠকে কোরিয়া উপদ্বীপের পরিস্থিতি সম্পর্কে বিবৃতি গ্রহণ করতে পারে নি, বলেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক উত্স.
ইস্রাইলী ও প্যালেস্টাইনী নেতারা নিকট প্রাচ্য সঙ্ঘর্ষ মীমাংসা নিয়ে আলাপ-আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার পক্ষে মত প্রকাশ করেছেন. ইস্রাইলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন
রাশিয়ার অন্যতম বৃহত্ একটি ব্যাঙ্ক- "গাজপ্রোমব্যাঙ্ক" আজ ভারতে নিজের প্রতিনিধি দপ্তর খুলেছে. এর উপস্থাপনার সমারোহ অনুষ্ঠিত হয় বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সংক্রান্ত চতুর্থ রুশ-ভারত সম্মেলনের কাঠামোতে, যাতে অংশগ্রহণ করেন রাশিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রী সের্গেই ইভানোভ, রাশিয়া এবং ভারতের বড় বড় কোম্পানি ও ব্যাঙ্কের পরিচালকেরা. এ প্রতিনিধি দপ্তরের প্রধান কর্তব্য হবে "গাজপ্রোমব্যাঙ্কের" স্বার্থের প্রতিনিধিত্ব করা এবং ভারতের আর্থিক বাজারে তার উত্পন্ন দ্রব্য প্রচার করা.
    উচ্চ প্রকৌশল, বিদ্যুত্শক্তি ও মহাকাশের আত্তীকরণ. দমিত্রি মেদভেদেভের কথায় এ সব ক্ষেত্রে সহযোগিতার প্রতি  মস্কো ও নয়া-দিল্লির মনোযোগ আজ বিশেষ করে নিবদ্ধ. রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি নিজের ভারত সফরের প্রাক্কালে ভারতের “টাইমস অফ ইন্ডিয়া” পত্রিকাকে ইন্টারভিউ দিয়েছেন.    অর্থনৈতিক, বৈজ্ঞানিক ও সাংস্কৃতিক পারস্পরিক ক্রিয়াকলাপ ফলপ্রসূভাবে বিকশিত হয় শুধু স্থিতিশীল পরিবেশেই.
ভারতে সরকারী সফরের প্রাক্কালে ভারতের "টাইমস অফ ইন্ডিয়া" পত্রিকাকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ বলেন, ভারতের সামরিক-প্রযুক্তিগত পণ্যের বাজারে রাশিয়া প্রতিদ্বন্দ্বিতার ভয় করে না. মেদভেদেভ মনে করেন যে, “মোটামুটিভাবে রুশ-ভারত সামরিক-প্রযুক্তিগত সহযোগিতা ইতিবাচকভাবে বিকশিত হচ্ছে”. রাশিয়ার নেতা আশ্বাস দেন যে, “এ ক্ষেত্রে আমাদের দীর্ঘকালীন সম্পর্ক বাস্তবায়িত হচ্ছে উভয় দেশের আন্তর্জাতিক বাধ্যবাধকতা কঠোরভাবে পালন করে.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভের ভারত সফরের সময় আন্তর্জাতিক প্রশ্নাবলি আলোচনার সময় একটি বিষয় হবে “ব্রিক” (ব্রেজিল, রাশিয়া, ভারত ও চীন) সঙ্ঘের তৃতীয় শীর্ষ সাক্ষাতের প্রস্তুতি এবং এ সঙ্ঘ প্রসারের সম্ভাবনা. এ সঙ্ঘের প্রথম পূর্ণপরিসরের শীর্ষ সাক্ষাত্ হয়েছিল ২০০৯ সালের ১৬ই জুন রাশিয়ার ইয়েকাতেরিনবুর্গে.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ আজ ভারতে রওনা হচ্ছেন. দু দিনে তিনি সফর করবেন নয়া-দিল্লি, আগ্রা ও মুম্বাই, যেখানে তিনি একসারি কারবারী আলাপ-আলোচনাই চালাবেন না, বিশ্ববিখ্যাত তাজমহল দেখবেন এবং চলচ্চিত্র নির্মাণ ক্ষেত্র "বলিউড" পরিদর্শন করবেন. এটি মেদভেদেভের ভারতে দ্বিতীয় সরকারী সফর, আগে তিনি ভারত সফর করেন ২০০৮ সালের ডিসেম্বরে. মস্কো ও নয়া-দিল্লির মাঝে প্রতি বছর সফর বিনিময়ের পরম্পরা গড়ে উঠেছে.
রাশিয়া ও ভারত মিলিত প্রতিষ্ঠান গঠন করতে চায় "গ্লোনাস" ব্যবস্থার ব্যবহারকারীদের জন্য সরঞ্জাম উত্পাদন করবে, যা পৃথিবীতে লোকে ব্যবহার করতে পারবে. এ সম্বন্ধে জানিয়েছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ নিজের ভারত সফরের প্রাক্কালে "টাইমস অফ ইন্ডিয়া" পত্রিকাকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে. এ সফর শুরু হচ্ছে সোমবার.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
ডিসেম্বর 2010
ঘটনার সূচী
ডিসেম্বর 2010
5
11
12
18