×
South Asian Languages:
অর্থনৈতিক উন্নয়ন, জুন 2012
রাশিয়ার বাজেট জ্বালানীর মূল্যে তীক্ষ্ণ ওঠা নামার থেকে নিরাপদ করা দরকার, ঘোষণা করেছেন রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন. তিনি আজ বাত্সরিক বাজেট বক্তৃতা দিয়েছেন. দেশের নেতা বিশেষ করে উল্লেখ করেছেন যে, খনিজ তেল ও গ্যাসের ঘাটতি কমানোর জন্য অর্থনৈতিক বিকাশের প্রয়োজন রয়েছে. তার মধ্যে কাঁচামালের সঙ্গে সম্পর্ক নেই, এমন শিল্প ক্ষেত্রের উপরে করের ভার নিশ্চিত করেই তা করা উচিত্.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন সরকার এবং পার্লামেন্টের কাছে ২০১৩-২০১৫ সালের বাজেট বার্তা স্বাক্ষর করেছেন, যা আগামী তিন বছরে দেশের বাজেট তৈরি করার ভিত্তি হবে. ক্রেমলিনে এ দলিলের উপস্থাপনা করে রাষ্ট্রপ্রধান ম্যাক্রো-ইকোনোমিক্সে শুধু ভিত্তিমূলক কাজগুলি বজায় রাখতেই নয়, অন্যান্য প্রাধান্যমূলক কর্তব্যগুলি মীমাংসার জন্য সক্রিয় প্রচেষ্টা চালানোরও আহ্বান জানান.
প্রিয় বন্ধুরা, আদাব! শুভ অপরাহ্ন! স্টুডিও থেকে আপনাদের স্বাগত জানাচ্ছে ভাষ্যকার কৌশিক দাস. আজ আপনারা শুনবেন--- হালাল খাদ্য – বিমান যাত্রীদের জন্য. রাশিয়ায় এই প্রথম বিমান যাত্রীদের জন্য হালাল খাদ্যের ব্যবস্থা করা হয়েছে. কাজানে তৃতীয়বার তাতারদের ধর্মীয় কর্মীদের সর্বরাশিয় সম্মেলন হয়ে গেল. মস্কো বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্গত এশিয়া ও আফ্রিকার দেশসমূহের উচ্চ শিক্ষায়তনের সম্পর্কে বলবেন রাশিয়ায় সৌদী আরবের রাষ্ট্রদূত.
মস্কো নগরীর শহরতলীতে প্রযুক্তি ও ভারীশিল্প-২০১২ নামক দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী শুরু হচ্ছে আজ. প্রদর্শনীতে ১১টি দেশের কোম্পানীরা যোগ দেবে. প্রদর্শনীটিতে রাশিয়ার বিশ্ব বাণিজ্যিক সংস্থায় যোগ দেওয়ার প্রেক্ষাপটে ভারী শিল্পের উন্নয়নের স্ট্র্যাটেজির পন্থা দর্শকরা বুঝতে পারবে. রুশ ফেডারেশনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় স্বদেশী সামরিক শিল্প কমপ্লেক্সের বিভিন্ন প্রযুক্তি প্রদর্শন করবে. প্রদর্শনীতে বলশোয় থিয়েটারের কোরিওগ্রাফ আন্দ্রেই মেলানিনের নির্দেশনায় ট্যাঙ্কের অভূতপূর্ব প্রদর্শনী হবে.
ইউনেস্কোর সারাবিশ্বের প্রাকৃতিক ও সাংস্কৃতিক উত্তরাধিকারের তালিকা দীর্ঘতর হবে. সেন্ট-পিটার্সবার্গে ২৪শে জুন থেকে ৬ই জুলাই পর্যন্ত অনুষ্ঠিতব্য ইউনেস্কোর ৩৬তম অধিবেশনে, যা রাশিয়ায় এই প্রথমবার অনুষ্ঠিত হতে চলেছে, সেখানে সাধারন নাগরিকরাও ইন্টারনেট-সম্প্রচারে যোগ দিতে পারে. ইউনেস্কোয় রাশিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি এলিয়ানোরা মিত্রফানোভার মতে অধিবেশন আয়োজনের জায়গা সঙ্কেতজনক. এটা খুব ভালো, যে সেন্ট-পিটার্সবার্গে ইউনেস্কোর অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে. পিটার্সবার্গ নিজেই ইউনেস্কোর উত্তরাধিকারের তালিকার অন্তর্ভুক্ত.
ব্রিকস দেশ গুলির মধ্যে জাতীয় মুদ্রা পাল্টে নেওয়ার বিষয়ে সমঝোতা তৈরী হলেই তা এক অতিরিক্ত আর্থিক ব্যবস্থার সৃষ্টি করবে. এই রকমই মূল্যায়ণ করেছেন বিশেষজ্ঞদের “রেডিও রাশিয়ার” তরফ থেকে তাদের মন্তব্য করতে বলা হলে, প্রসঙ্গ হয়েছিল সদ্য স্বাক্ষরিত ব্রাজিল ও চিনের মধ্যে জাতীয় মুদ্রা পাল্টানোর বিষয়ে সমঝোতা – যা দুই দেশের পক্ষ থেকেই নির্দিষ্ট দরে জাতীয় মুদ্রার বিনিময় সংক্রান্ত.
যদি ইউরোপ ও চীন অতিমাত্রায় অর্থনৈতিক মন্দার কবলে পরে তাহলে এর মোকাবিলায় রুশ সরকার একসারি প্রকল্প গ্রহণ করবে. গত ২১ থেকে ২৩ জুন পর্যন্ত সেন্ট পিটার্সবার্গে অনুষ্ঠিত অর্থনৈতিক ফোরামে এ তথ্য জানানো হয়. ঐতিহ্যগত দিক দিয়ে অনুষ্ঠিত হওয়া এবারের ১৬তম ফোরামে বিশ্বের ৩০টি দেশের রাজনীতিবিদ ও ব্যবসায়ী প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করেছেন.
রাশিয়ার সাবেক অর্থমন্ত্রী আলেক্সেই কুদরিন বলেছেন, আগামী ২০ বছর পর এশিয় প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল বিশ্ব অর্থনীতির অন্যতম কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হবে. রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গে আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক ফোরামে নিজের দেয়া এক বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন. কুদরিন উল্লেখ করে বলেন, চীনের অবদানের কারণেই মূলত তা ঘটবে. তিনি আরও বলেন, এশিয় প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল মূলত বিনিয়োগের জন্য ইতিবাচক একটি প্রকল্প.
রাশিয়ার অর্থমন্ত্রী আনতোন সিলুয়ানোভ বলেছেন, দ্বিতীয় আরও একটি অর্থনৈতিক মন্দা মোকাবিলা করার জন্য রাষ্ট্রের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করার মত রাশিয়ায় পর্যাপ্ত অর্থ মজুদ রয়েছে. আজ শনিবার সেন্ট পিটার্সবার্গে আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক ফোরামে দেয়া এক বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন. তিনি স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, প্রথম অর্থনৈতিক মন্দার সময় রাষ্ট্রের পক্ষ থেকে বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠান ও বাংকগুলোকে সাহায্য করা হয়েছিল.
সেন্ট পিটার্সবার্গে ষোড়শ আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক সম্মেলনের কাঠামোর মধ্যে এক নিরপেক্ষ পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান হয়েছিল নাম বিশ্বজোড়া শক্তি. এই পুরস্কারকে মনে করা হয় একটি সবচেয়ে মর্যাদাময় আন্তর্জাতিক পুরস্কার. এই পুরস্কারকে এমনকি শক্তি ক্ষেত্রে নোবেল প্রাইজও বলা হয়ে থাকে. ঐতিহ্য মেনেই এই পুরস্কার দেওয়া হয়ে থাকে শক্তি ক্ষেত্রে খুবই অসাধারণ বৈজ্ঞানিক সাফল্যের জন্য, যা সমস্ত মানব সমাজের জন্য উপকারী হয়েছে.
চলতি বছরের প্রথম ৪ মাসে ভারত ও রাশিয়ার মধ্যে পণ্যআবর্তন দ্বিগুণ বেড়েছে. এই সংখ্যা দিয়েছেন রাশিয়ার অন্যতম উপ-প্রধানমন্ত্রী দমিত্রি রগোজিন সেন্ট-পিটার্সবার্গে আন্তর্জাতিক ফোরামে আয়োজিত ভারত-রাশিয়া গোল টেবিল বৈঠকে. দমিত্রি রগোজিন অন্য উত্কর্ষমান সহযোগিতার স্বপক্ষে মতপ্রকাশ করেছেন. বাণিজ্যিক সম্পর্কের উন্নয়ন দরকার যৌথ শিল্পসংস্থা ও হাইটেকনোলজির বিকাশের মাধ্যমে.
সেন্ট-পিটার্সবার্গে অর্থনৈতিক ফোরামে ভারত ও রাশিয়ার গোল টেবিল বৈঠক হয়েছে, যেখানে অর্থনৈতিক ও বিজ্ঞান-প্রযুক্তিগত পারস্পরিক সহযোগিতার নতুন নতুন সব অভিমুখ নিয়ে আলোচনা হয়েছে. রাশিয়ার অন্যতম উপ-প্রধানমন্ত্রী দমিত্রি রগোজিন বলেছেন, যে সহযোগিতার ক্ষেত্র হবে ইনফরমেশন প্রযুক্তি, টেলি কম্যুনিকেশন, ফার্মাসিউটিকালস, ও অন্যান্য বড় সব প্রকল্প, যা পরিকাঠামোর সাথে যুক্ত.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন ঘোষণা করেছেন যে, নিজের প্রধান কাজ হিসাবে তিনি রাশিয়াতে প্রসারিত ভাবে পুনর্গঠনকেই মনে করেন. সেন্ট পিটার্সবার্গে আয়োজিত আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক সম্মেলনে বক্তৃতা দিতে গিয়ে তিনি বলেছেন যে, রাশিয়ার মন্ত্রীসভা দেশে সুদূর প্রসারিত ভাবে পুনর্গঠনের জন্য একটি সম্পূর্ণ মাপের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে. এই পরিকল্পনা দেশে সামাজিক ভাবে সমর্থন পেয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেছেন.
জাপানের পারমানবিক বিদ্যুত কেন্দ্র “ফুকুসিমা” বিপর্যয়ের পরে হতাশা বাদী লোকদের পূর্বাভাস মেলে নি. বিশ্বে পারমানবিক শক্তি থেকে নিরত হওয়ার ঘটনা ঘটে নি. বরং উল্টো হয়েছে, অনেক দেশের সংখ্যা বেড়েছে, যেখানে নতুন করে পারমানবিক বিদ্যুত কেন্দ্র গড়তে চাওয়া হয়েছে.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন মনে করেন যে, বিশ্ব আর্থিক সঙ্কটের মীমাংসায় বিশ্ব জনসমাজের চূড়ান্ত ক্রিয়াকলাপের অভাব রয়েছে, আর অসম্পূর্ণ ব্যবস্থা অবস্থাকে শুধু গভীরই করে তুলতে পারে. সাঙ্কত-পিতারবুর্গে আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক সম্মেলনে প্রদত্ত বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন.
একশোরও বেশি দেশের রাষ্ট্রপ্রধান ও প্রধানমন্ত্রীদের আগামী ২ দিনে রিও-দে-জেনেরোয় অনুষ্ঠিতব্য জাতিসংঘের সম্মেলনে তথাকথিত ‘সবুজ অর্থনীতি’ তৈরি করার জন্য ঐক্যমতে পৌঁছাতে হবে. রুশী প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী দমিত্রি মেদভেদেভ. তিনি আজ পূর্ণাঙ্গ বৈঠকে ভাষন দেবেন. সম্মেলন চলাকালীন মেদভেদেভ ৫-৬টি দ্বিপাক্ষিক সাক্ষাত্কারে মিলিত হবেন, যার মধ্যে আছে বান কি মুন ও নরওয়ের প্রধানমন্ত্রী ইয়েন্স স্টলটেনবার্গের সাথে সাক্ষাত্কার.
রাশিয়ার সরকারকে দেশের অর্থনৈতিক বৃদ্ধি সুনিশ্চিত করার জন্য নতুন নতুন উত্স ও পথ খুঁজতে হবে, কারণ তেল রপ্তানির দ্বারা তা অর্জন করা যাবে না. এ সম্বন্ধে বৃহস্পতিবার সাঙ্কত-পিতারবুর্গে আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক সম্মেলনে বক্তৃতা দিয়ে বলেছেন রাশিয়ার অর্থনৈতিক বিকাশ সংক্রান্ত মন্ত্রী আন্দ্রেই বেলৌসোভ. তাঁর কথায়, রাশিয়া এমন যুগে প্রবেশ করছে, যখন তেলের নিষ্কাশন বাড়বে না.
আজ সেন্ট-পিটার্সবার্গে শুরু হচ্ছে আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক ফোরাম. বহুদিন ধরেই জনগণ ঐ ফোরামকে ‘রুশী ডাভোস’ বলে অভিহিত করেছে. এবারের সম্মেলন, যেখানে সমবেত হবেন রাজনীতিবিদরা, প্রখ্যাত শিল্পপতিরা ও ব্যাঙ্ক মালিকরা, তার এবারের শ্লোগান – ‘কার্যকরী নেতৃত্ব’. প্রথামতো রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ফোরামের উদ্বোধন করেন.
বিশ্বের নেতারা আলোচনা করছেন “সবুজ অর্থনীতি” নিয়ে. ব্রাজিলের রিও-দে-জেনেইরো শহরে রাষ্ট্রসঙ্ঘের পরিবেশ ও স্থিতিশীল উন্নয়ন “রিও+২০” শিখর সম্মেলন ২০ থেকে ২২শে জুন হবে. রাশিয়ার পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ অংশ নেবেন এখানে.
বুধবার “রিও প্লাস ২০” নামে রাষ্ট্রসঙ্ঘের যে শীর্ষ সম্মেলন শুরু হচ্ছে তার মনোযোগের কেন্দ্রস্থলে থাকবে অর্থনৈতিক বৃদ্ধির সাথে সঙ্গতি রেখে স্থিতিশীল বিকাশের সমস্যা, সামাজিক সমস্যার মীমাংসা এবং প্রতিবেশ সংরক্ষণের সমস্যা.রিও-দে-জেনিরো সম্মেলনে অংশগ্রহণ করবেন শতাধিক দেশের রাষ্ট্র ও সরকারের নেতা, রাশিয়ার প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব করবেন প্রধানমন্ত্রী দমিত্রি মেদভেদেভ.
আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30
জুন 2012
ঘটনার সূচী
জুন 2012
1
2
3
9
11
14
25
29
30