×
South Asian Languages:
ভারত

ভারতের বেশ কয়েকটি মুখ্য রাজ্যে ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল দিল্লীতে ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস দলের খুবই অপমানজনক পরাজয়ের পরে দলের রাজনৈতিক পরিকল্পনা, যা রাহুল গান্ধী ঘোষণা করেছেন, তা হয়েছে প্রথম প্রসারিত ভাবে প্রচার করা প্রতিক্রিয়া.

ডিসেম্বরে হয়ে যাওয়া বিধানসভা নির্বাচন গুলোকে ২০১৪ সালের মে মাসে লোকসভা নির্বাচনের প্রধান মহড়া বলে হিসাবের মধ্যে আনলে, অনেকেই ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস দলের এই ধরনের অতলে তলিয়ে যাওয়াকে সেই বিষয়েরই প্রমাণ বলে মনে করেছেন যে, ভারতের সবচেয়ে পুরনো রাজনৈতিক দলের আরও একটি শাসনকালের শেষ অনিবার্য ও তা এবারে ইতিহাসে পর্যবসিত হতে চলেছে. কিন্তু রাহুল গান্ধী, যিনি জানুয়ারী মাসের মাঝামাঝি ক্ষমতাসীন দলের অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী পদের মুখ্য পদপ্রার্থী বলে নির্বাচিত হতে চলছেন, তিনি বুঝতে দিয়েছেন যে, ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস ইতিমধ্যেই স্বল্পকাল আগের ধাক্কা থেকে সামলে নিয়েছে ও তৈরী হয়েছে এবারে নিজেদের প্রতিদ্বন্দ্বীদের একটা লড়াই দেওয়ার জন্য.

২০১৩ সালের শেষ বঙ্গোপসাগরে ভারতের একসারি সামরিক কাজকর্ম দিয়ে চিহ্নিত করা হয়েছে. “অগ্নি-৩” রকেটের উড়ান আর জাপান – ভারত সম্মিলিত সামুদ্রিক মহড়া – শুধু এই সবেরই কয়েকটা উদাহরণ হতে পারে. এটা কোন দ্ব্যর্থ না রেখেই বলা যেতে পারে যে, ভারত শুধু এখন সমুদ্র তীরে কোন রকমের আক্রমণ প্রতিহত করতেই সক্ষম নয়, বরং অনেক উচ্চাকাঙ্ক্ষাও পোষণ করেছে, যা তাদের সমুদ্র সীমা থেকে অনেক দূরের এলাকায় বর্তমানে তৈরী হয়েছে. বাস্তবে ভারতের সামরিক –সামুদ্রিক ক্ষমতা বৃদ্ধি করা বহু রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের সেই তত্ত্বকেই প্রমাণ করে দেয় যে, ভারত ও প্রশান্ত মহাসাগর ইতিমধ্যেই একটি সম্পূর্ণ মহাসাগরে পরিণত হতে চলেছে – যাকে বলা যেতে পারে ভারত- প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকা.

ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ইস্রাইলের কাছ থেকে "বারাক ১" মার্কা আকাশ প্রতিরক্ষার রকেট সমাহারের জন্য ২৬২টি রকেট কেনা অনুমোদন করেছে.

দুই দেশের ব্যবসায়ী মহলকে চিন্তিত করে তুলেছে ভারত ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কের মধ্যে এক শোরগোল তোলা কূটনৈতিক স্ক্যান্ডাল, যা দিয়ে ২০১৩ সাল শেষ হতে চলেছে. কিছু ব্যবসায়ী ইতিমধ্যেই মনমোহন সিংহের প্রশাসনকে আহ্বান করেছেন ঘুমন্ত সিংহকে না জাগাতে ও সাবধান করে দিয়েছেন যে, এভাবে চললে ভারত আমেরিকার ও পশ্চিমের বিনিয়োগকারীদের হারাতে পারে. ফলে আগে ঘোষণা করা ২০১৭ সালে দেশে এক লক্ষ কোটি বিদেশী ডলার বিনিয়োগ টেনে আনার লক্ষ্য অধরাই থেকে যেতে পারে.

প্রথম থেকে শেষ অবধিই অসম্ভব ঠেকেছে নিউইয়র্ক শহরে ভারতের ডেপুটি কনসাল জেনারেল দেবযানী খোবরাগাদে আচমকা গ্রেপ্তার হওয়া আর তারপরে জেলবন্দী থাকার ঘটনা. উচ্চপদস্থ এই কূটনীতিবিদকে অপমানজনক ভাবে খানাতল্লাশী করা হয়েছে ও তারপরে নানারকমের অপরাধী ও মাদকাসক্তদের সাথে একত্রে কারাবাসে বাধ্য করা হয়েছে. এই কাজ দিয়েই খুব নোংরা ভাবে বিদেশে রাষ্ট্রের প্রতিনিধি সংক্রান্ত ১৯৬৩ সালের ভিয়েনা কনভেনশন ভঙ্গ করা হয়েছে, যে দলিলে স্পষ্ট করেই লেখা রয়েছে কূটনীতিবিদদের অনাক্রম্যতা নিয়ে.

ভারত শনিবার ঘোষণা করেছে যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে কেলেঙ্কারীর কেন্দ্রস্থলে পড়া কূটনীতিজ্ঞকে রাষ্ট্রসঙ্ঘে বদলী করেছে.

ওয়াশিংটন ও দিল্লীর মধ্যে কূটনৈতিক স্ক্যান্ডাল এবারে আরও বেশী করেই জ্বলে উঠেছে, যদিও সেটা যুক্তিসঙ্গত দেখাচ্ছে না কারণ গত দশক পূর্ব ও পশ্চিমের দুই গণতন্ত্রের ঐতিহাসিক ভাবে কাছাকাছি আসা নিয়ে কেটে গিয়েছে. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ভারতের সঙ্গে পারমাণবিক ক্ষেত্রে সহযোগিতার প্রশ্নে এগিয়ে এসেছে বাধা নিষেধ পার হয়ে আর ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহকে এমন ভাবে নিজেদের দেশে সফরের সময়ে আপ্যায়ন করেছে, যা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বহু জোটসঙ্গী দেশের প্রধানদের দেওয়া হয় না. বাণিজ্য ও বিনিয়োগও বহু গুণে বেড়ে গিয়েছিল. মনে হয়েছিল যে, ভারত আবার করে যেন নিজেদের জন্য আমেরিকা আবিষ্কার করেছে, আর আমেরিকা – ভারতকে.

মার্কিনী পররাষ্ট্র সচিব জন কেরি ভারতের প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় নিরাপত্তা সংক্রান্ত উপদেষ্টা শিবশঙ্কর মেননের সাথে টেলিফোন আলাপে নিউ-ইয়র্কে ভারতের ডেপুটি কনস্যুল দেবযানী খোবরাগাদে-র গ্রেপ্তার উপলক্ষে দুঃখ প্রকাশ করেছেন.

ভারতের ডেপুটি কনসাল জেনারেল দেবযানী খোবরাগাদে কে নিউইয়র্কে গত সপ্তাহে গ্রেপ্তার নিয়ে স্ক্যান্ডাল জ্বলে উঠেছে. ভারতের পার্লামেন্টের সদস্যরা ও প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্মচারীরা মার্কিন কংগ্রেসের প্রতিনিধিদলের সঙ্গে সাক্ষাত্কার করতে অস্বীকার করেছেন ও মঙ্গলবারে ভারতীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে দিল্লী শহরে মার্কিন দূতাবাসের সামনে থেকে কংক্রীটের পথ রোধ করার ব্লক হঠিয়ে নেওয়া হয়েছে আর বিরোধী জনতা দলের নেতা যশবন্ত সিনহা আমেরিকার কূটনীতি দপ্তরের কর্মচারীদের সমকামী সহকর্মীদের ভারতে কয়েকদিন আগে নতুন করে প্রবর্তিত ভারতীয় অপরাধ আইনের ৩৭৭ ধারার ভিত্তিতে আদালতে বিচার করতে বলেছেন. কারণ এই স্ক্যান্ডাল শুরু করানো হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে আর ধারণা করা যেতে পারে যে, ওয়াশিংটন ঠিক করেছে ভারতের সর্বজনীন নির্বাচন অবধি অপেক্ষা না করেই আমেরিকা- ভারত সম্পর্ক খারাপ করার ভার নিজেদের হাতেই তুলে নিতে, কারণ খুবই সম্ভাব্য যে, ভারতে ক্ষমতায় আসতে চলেছে আমেরিকা বিরোধী শক্তি.

ভারতের ডেপুটি-কনস্যুল দেবযানী খোব্রাগাডে-কে গত সপ্তাহে গ্রেপ্তার করার পরে তাঁর খানাতল্লাসী নেওয়া হয়েছিল, এ কথা সমর্থন করেছে মার্কিনী আদালতের বেলিফ বিভাগ.

রাশিয়ার সঙ্গে মৈত্রী ও সহযোগিতার ক্ষেত্রে বিশাল অবদান রাখার জন্য ও বিজ্ঞান, সংস্কৃতি ও সক্রিয় ভাবে সমাজসেবা করার জন্য তিন প্রখ্যাত ভারতীয় নাগরিককে মৈত্রী পদক দিয়ে সম্মানিত করেছে রাশিয়া. এই সংক্রান্ত নির্দেশ রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন ৬ই ডিসেম্বর স্বাক্ষর করেছেন. মৈত্রী পদক প্রাপ্ত ব্যক্তিরা হলেন ভারতীয় লোকসভার সদস্য মুরলী মনোহর যোশী, যৌথ রুশ-ভারত সংস্থা ব্রামোস এয়ারো স্পেসের কর্তা এ. এস. পিল্লাই ও পুশকিন পদক দিয়ে সম্মানিত করা হয়েছে আন্তর্জাতিক ভারতীয় সংস্কৃতি কেন্দ্রের ডিরেক্টর লোকেশ চন্দ্রকে.

সোমবার দিল্লী শহরে ২৩ বছরের ছাত্রীকে ভয়ঙ্কর গণ ধর্ষণের এক বছর পূর্ণ হল, যা মনে হয়েছিল যে, সারা দেশকেই উত্তাল করেছিল প্রতিবাদে. দোষীদের খুঁজে পাওয়া গিয়েছে ও তাদের মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে. কিন্তু এর অর্থ কি ভারতের সামাজিক মানসে মূলগত কোন পরিবর্তন হয়েছে আর এখন কি মহিলারা নিজেদের নিরাপদ বোধ করতে পারবেন? বাস্তব তথ্য কিন্তু বলছে যে, সংবাদ মাধ্যমের প্রবল প্রচার সমাজের বেশীর ভাগ লোকের এই সমস্যা সম্বন্ধে মানসিকতায় খুব কমই পরিবর্তন আনতে সক্ষম হয়েছে.

আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি হামিদ কারজাই ভারত সফরে গিয়েছিলেন. আসন্ন সময়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো জোটের পক্ষ থেকে আফগানিস্তানের মূল সেনাবাহিনী প্রত্যাহার, কাবুল ও দিল্লীর সামনে খুবই কঠিন প্রশ্ন উপস্থিত করেছে, যেগুলোর সমাধানের উপরে নির্ভর করছে শুধু আফগানিস্তানের ভবিষ্যতই নয়, বরং সমগ্র মধ্য ও দক্ষিণ এশিয়ার নিরাপত্তাও.

আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি হামিদ কারজাই – ভারতীয় রাজধানীর এক নিয়মিত অতিথি, কিন্তু তাঁর এই বিগত চার দিনের সফরকে বিশেষ বলে উল্লেখ করা সম্ভব, এই রকম মনে করে আমাদের সমীক্ষক সের্গেই তোমিন বলেছেন:

ভারতে মুম্বাই শহরের দক্ষিণে এক বহুতল ভবনের ১২ তলায় আগুন লেগেছিল শুক্রবার রাতে. ২৬ তলার এই বাড়ীতে আগুনে পুড়ে মারা গিয়েছেন সাতজন, তাদের মধ্যে কয়েকজনকে শনাক্ত করা সম্ভব হয়েছে, বাকীরা খুবই বাজে ভাবে পুড়ে গিয়েছেন. আগুন নেভানোর সময়ে কয়েকজন দমকল কর্মীও আহত হয়েছেন, তারা আহত হয়েছেন এই তলার কিছু ফ্ল্যাটে গ্যাসের সিলিন্ডার ফেটে যাওয়াতে.

শুক্রবারে আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি হামিদ কারজাই ঘোষণা করেছেন যে, রাশিয়া ও ভারত কাবুলের কাছে অস্ত্র মেরামতের কারখানা পুনরায় তৈরী করে দেবে. এই বিষয়ে জানিয়েছে টেলিভিশন চ্যানেল “এনডিটিভি”. এর আগে এই ধরনের এক পরিকল্পনার কথা ভারতের ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস কাগজকে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে বলেছিলেন ভারতে আফগানিস্তানের রাষ্ট্রদূত শাইদা আবদালি.

ভারতে তৈরী “তেজাস মার্ক ১” মার্কা প্রথম ৪০টি হালকা ফাইটার বিমান ভারতের বিমানবাহিনীতে যুক্ত হবে ২০১৪ সাল শেষ হওয়ার আগে.

ভারত আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি হামিদ কার্জাই-কে নিরাপত্তা সম্পর্কে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে চুক্তি স্বাক্ষরে বোঝাতে পারে, যে চুক্তিতে ২০১৪ সালের পরে আফগান ভূভাগে মার্কিনী সৈনিকদের উপস্থিতি অনুমিত.

রাশিয়ার সহায়তায় ভারতের তামিলনাডু রাজ্যে নির্মীয়মাণ “কুদানকুলাম” পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্রের প্রথম এনার্জি-ব্লকের ক্ষমতা সফলভাবে ৫০ শতাংশ ক্ষমতায় আনা হয়েছে. 

গত রবিবার – ৮ই ডিসেম্বর ভারতের সবচেয়ে পুরনো রাজনৈতিক দল ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের জন্য তাদের ইতিহাসের সবচেয়ে “কালো তারিখ” হয়ে রইল. দেশের কয়েকটি মুখ্য রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে এই দলের একেবারে প্রবল ভাবে পরাজয় হয়েছে. বিশেষ করে লজ্জাজনক হয়েছে বর্তমানের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহ ও দল নেত্রী সোনিয়া গান্ধীর জন্য দিল্লী শহরে দলের পরাজয়. সেখানে ভারতীয় কংগ্রেস দল এমনকি দ্বিতীয় হয়েও নির্বাচন শেষ করে নি, হয়েছে তৃতীয়, দ্বিতীয় স্থান নতুন এক শক্তিকে ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়েছে - দুর্নীতি বিরোধী “আম আদমী দল”. তার ওপরে আবার এই দলের নেতা অরবিন্দ কেজরিওয়াল দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী শীলা দীক্ষিতকে তাঁরই কেন্দ্র থেকে হারিয়ে দিয়েছেন.

জার্কাতা পোস্ট সংবাদপত্রে খবর দেওয়া হয়েছে যে, ইন্দোনেশিয়ার বালিতে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার নবম মন্ত্রী পর্যায়ের অধিবেশনে ১৫৯টি দেশের এই সংগঠন প্রস্তাবিত দশটির মধ্যে আটটি দলিলে সম্ভবতঃ সকলেই স্বাক্ষর করবেন.

আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
ডিসেম্বর 2017
ঘটনার সূচী
ডিসেম্বর 2017
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
20
21
22
23
24
25
26
27
28
29
30
31