×
South Asian Languages:
নৌবাহিনী, ফেব্রুয়ারী 2011
১২ই ফেব্রুয়ারী প্রধানমন্ত্রী ডঃ মনমোহন সিংহ কেরালা রাজ্যে ব্রামোস এয়ার স্পেস লিমিটেডের কাজ দেখতে এসেছিলেন, যেখানে ডানা ওয়ালা রকেট ব্রামোস তৈরী করা হয়ে থাকে. তিনি আগ্রহের সঙ্গে এই কারখানা দেখেছেন ও উত্পাদনের বিভিন্ন দশা সম্বন্ধে প্রশ্ন করেছেন. ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী এ. কে. অ্যান্টনি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন.
ডুবে যাওয়া আলেকসান্দ্রা জাহাজের সাত নিখোঁজ নাবিকের কোন সন্ধান এখনও মেলে নি, হেলিকপ্টার ও বহু জলযান নিয়ে খোঁজ করা হয়েছে, কিন্তু সবই বিফল হয়েছে.
ভারত মহাসাগরে জলদস্যূদের নিয়ে পরিস্থিতি আরও জটিল হচ্ছে. যদি সমুদ্রের লুঠেরা গুলো এই রকম কাজ কারবার কোন বাধা ছাড়া করে যেতে পারে, তবে তা খনিজ তেল সরবরাহের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পথ গুলির উপরে প্রভাব ফেলবে, এ কথা আন্তর্জাতিক স্বাধীন ট্যাঙ্কার মালিকদের সঙ্ঘ ইন্টারটাঙ্কো সংস্থা ঘোষণা করেছে.
৪০ বছর আগে মস্কো, ওয়াশিংটন ও লন্ডনে স্বাক্ষর করার জন্য এক দলিল খোলা হয়েছিল, যেখানে সমুদ্র ও মহাসাগরের তলদেশ কে বাস্তবে পারমানবিক অস্ত্র মুক্ত অঞ্চল বলে ঘোষণা করা হয়েছিল. এই আন্তর্জাতিক চুক্তি জলের তলায় বা মাটির গভীরে শুধু পারমানবিকই নয়, এমনকি যে কোন ধরনের গণ হত্যার সম্ভাবনা আছে এমন অস্ত্র রাখা নিষিদ্ধ করেছিল.
দক্ষিণ কোরিয়ার কোম্পানী "হোন্ডাই" ৯ই ফেব্রুয়ারী "আলেকসান্দ্রা" জাহাজের নাবিকদের আত্মীয় পরিজনদের কাছে নিজেদের দোষ স্বীকার করে গভীর শোক প্রকাশ করেছে. কন্টেনার বহন কারী নতুন এক জাহাজের গতি বিধি পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছিল উলসান বন্দরের কাছে সমুদ্রে ও আপাততঃ অজ্ঞাত কারণে এটি পাশ দিয়ে যাওয়া "আলেকসান্দ্রা" জাহাজে ধাক্কা মারে.
রাশিয়ার সুদূর পূর্ব্বের বন্দর ভ্লাদিভস্তকে "ভারিয়াগ" যুদ্ধ জাহাজ ও "কোরিয়েত্স" কামান দাগা জাহাজের নাবিকদের স্মৃতির উদ্দেশ্যে এক অনুষ্ঠান করা হয়েছে, এঁরা ১৯০৪ সালে জাপানের যুদ্ধ জাহাজ দলের সঙ্গে অসম যুদ্ধে যোগ দিয়েছিলেন. রাশিয়ার প্রশান্ত মহাসাগরীয় নৌবাহিনী, প্রশাসন, শিশুদের প্রশিক্ষণ কেন্দ্র "ভারিয়াগ" থেকে ও রাশিয়ার ভেটেরান সৈন্যদের তরফ থেকে সকলে এই অনুষ্ঠানে এসেছিলেন বলে "ইন্টারফ্যাক্স" সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে.
আন্তর্জাতিক বাণিজ্য সম্প্রদায়ের অবশেষে ধৈর্য্য চ্যুতি ঘটেছে. সোমালির জলদস্যূরা একেবারে জ্বালিয়ে মারছে. আন্তর্জাতিক বাণিজ্যিক জাহাজ পরিবহন সংস্থা, BIMKO, Intercargo ও Intertanko – আন্তর্জাতিক সমাজের কাছে অভিযোগ করেছে এক খোলা চিঠি দিয়ে, যেখানে খুবই কড়া সমালোচনা করা হয়েছে ও বলা হয়েছে এই জলদস্যূদের সমস্যা সমাধান করতে কড়া হাতে. এই প্রসঙ্গে আমাদের সমীক্ষক গিওর্গি ভানেত্সভ বিশদ করে লিখেছেন.
এই বিষয়ে আজ দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে. এই বৈঠকে ঠিক করা হবে সর্ব্বোচ্চ সামরিক পর্যায়ে কবে, কি বিষয়ে ও কোথায় আগামী বৈঠক বসবে. কিন্তু সিওল এই বৈঠকের শর্ত হিসাবে আগাম জানান দিয়েছে যে, উত্তর কোরিয়াকে গত বছরে দুটি বোমা বর্ষণে দক্ষিণ কোরিয়ার নাগরিকদের মৃত্যুর দায়ভার নিতে হবে.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28
ফেব্রুয়ারী 2011
ঘটনার সূচী
ফেব্রুয়ারী 2011
2
3
4
5
6
7
10
14
15
16
18
19
20
21
22
24
25
26
27
28