×
South Asian Languages:
অর্থনৈতিক এলাকা, 2012
২০১৩ সাল রাশিয়ার অর্থনীতির পক্ষে নতুন পর্যায়ের সূচনা হয়ে উঠতে পারে. বহু বিশেষজ্ঞদের বিশ্বাস এই, যে জ্বালানীশক্তি পরিবাহী খনিজ পদার্থের বিক্রয়ের উপর নির্ভরতা কমা উচিত, আর অর্থনীতির বাড়বাড়ন্তের মুল চালিকাশক্তি হওয়া উচিত বিনিয়োগের. রাশিয়ার শিল্পপতি ও ব্যবসায়িক সংঘ প্রদত্ত তথ্য অনুযায়ী, মোটামুটি ৭০ শতাংশ বাণিজ্যিক সংস্থা আগামী ২ বছরে তাদের মনোবাসনাগত বিনিয়োগ রূপায়িত করতে চায়.
২০১২ সালে খনিজ তেলের দাম ছিল ব্যারেল প্রতি ৯২ থেকে ১২৫ ডলার. বিশেষজ্ঞদের পূর্বাভাস অনুযায়ী, আগামী বছরে দাম সেই একই রকম অর্থাত্ গড়ে ১০০ ডলারের মতই হবে. কিন্তু যদি নিকট প্রাচ্যে পরিস্থিতির বিস্ফোরণ ঘটে, তবে খনিজ তেলের দাম ২০০ ডলারের উর্ধ্বসীমাও পার হয়ে যেতে পারে.
আলজিরিয়াতে, আফগানিস্তানে, নাইজিরিয়াতে গত কয়েকদিন ধরে নতুন সব সন্ত্রাসবাদী হানা হয়েছে. সিরিয়াতে তা হচ্ছে রোজই. এতদিন ধরেই শান্ত থাকা আরব আমীরশাহীতে ঘোষণা করা হয়েছে যে, সৌদী আরবের থেকে আসা চরমপন্থী দলের সদস্যরা গ্রেপ্তার হয়েছে, যারা দুটি প্রতিবেশী দেশেই সন্ত্রাসের পরিকল্পনা করছিল. সন্ত্রাসবাদ আগের মতই অগ্রসর হচ্ছে, আর তার ভৌগোলিক প্রসার শুধু বেড়েই চলেছে.
চীন ২০১২ সালে পৃথিবীর বৃহত্তম সোনা উত্পাদনকারী থাকবে, জানিয়েছে চীনের সোনা সমিতি. এ সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, জানুয়ারী থেকে অক্টোবর পর্যন্ত চীন ৩২৩ টন সোনা উত্পাদন করেছে, যা ২০১১ সালের অনুরূপ সময়ের তুলনায় ১১ শতাংশ বেশি. চীন পরপর ছয় বছর পৃথিবীতে সোনা উত্পাদকদের তালিকায় প্রথম স্থানে রয়েছে অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়াকে ছাড়িয়ে গিয়ে.
ফিলিপাইন্সের রাজধানী ম্যানিলায় গরীবদের পাড়ায় বড় অগ্নিকান্ডে অন্ততঃ সাতজন মারা গেছে ও হাজার হাজার মানুষ গৃহহারা হয়েছে. শহরের দমকল ব্রিগেডের প্রধান সান্তিয়াগো লাগুনা এই তথ্য যুগিয়েছেন. রাজধানীর উত্তরাঞ্চলে বালের নামক পাড়ায় ৬ জন অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা গেছে, যারা ছিল ঘিঞ্জি ফ্ল্যাটবাড়ির বাসিন্দা. প্রাপ্ত প্রাথমিক খবর অনুযায়ী এটা পূর্বপরিকল্পিত অগ্নিসংযোগ. তাছাড়া দুস্কৃতকারী পাশের একটা গরীবদের বস্তিতে আগুন লাগায়.
ভ্লাদিমির পুতিনের ভারত সফরের সময়ে ও পরে যে সমস্ত মন্তব্য করা হয়েছে, তাতে প্রধান মনোযোগ দেওয়া হয়েছে সামরিক প্রযুক্তি সংক্রান্ত সহযোগিতার ক্ষেত্রে. এই নিয়ে বলার কিছু নেই – এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্র, কিন্তু শুধু সামরিক প্রশ্নেই সহযোগিতা শেষ হয়ে যাচ্ছে না.
রাশিয়ার পক্ষ থেকে “বড় কুড়িটি” দেশের জোটের সভাপতিত্বের সময়ে বিশ্বের আর্থিক ব্যবস্থার কাঠামো পাল্টানোর কাজই হবে মূল উদ্দেশ্য. এই সম্বন্ধে “রেডিও রাশিয়াকে” বলেছেন “বড় কুড়ি” দেশের বিষয়ে রাশিয়ার অর্থ মন্ত্রকের পক্ষ থেকে কাজকর্মের প্রধান ভারপ্রাপ্ত সের্গেই স্তরচাক. ২০১৩ সালের সমস্ত সময় ধরেই রাশিয়া অর্থনৈতিক ভাবে “বড় কুড়িটি” দেশের জোটের সভাপতিত্ব করবে.
নয়াদিল্লী শহরে সরকারি সফরের সময়ে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন যে, ভারত ও রাশিয়ার সম্পর্ক বিশেষ সুবিধা প্রাপ্ত সহকর্মী হওয়ার চরিত্র বহন করে. এই বছর দুই দেশের সম্পর্কের ক্ষেত্রে এক বিশেষ বছর: কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের পঁয়ষট্টিতম জয়ন্তী বর্ষ. আর বর্তমানের শীর্ষবৈঠক পারস্পরিক ভাবে লাভজনক সহযোগিতার আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় হয়েছে. আলোচনার সময়ে প্রধান বিষয় হয়েছে দ্বিপাক্ষিক আর্থ-বাণিজ্যিক সহযোগিতার প্রসার.
পররাষ্ট্র নীতির ক্ষেত্রে একটি অন্যতম প্রাথমিক কাজ রাশিয়ার জন্য সাংহাই সহযোগিতা সংস্থায় অংশগ্রহণের মাধ্যমে মিলিত ভাবে কাজ করা. এই বিষয়ে একটি প্রবন্ধ বিশেষ করে “রেডিও রাশিয়ার” জন্য লিখেছেন রুশ রাষ্ট্রপতির এই সংস্থায় বিশেষ প্রতিনিধি কিরিল বারস্কি.
ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী ডঃ মনমোহন সিংহ একটি নতুন রাজনৈতিক পরিভাষা বিশ্বের রাজনীতিতে অন্তর্ভুক্ত করেছেন, এটা “ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকা”. এই পরিভাষা তিনি ব্যবহার করেছেন দিল্লী শহরে হওয়া ভারত- আসিয়ান শীর্ষ বৈঠকে. এই পরিভাষা ভারত- প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকার ধারণাকে প্রসারিত করে ও বিশেষ করে ভারতের এই এলাকা নিয়ে নিজেদের আগ্রহ বৃদ্ধির কথাই বলে. এই শীর্ষ বৈঠক বহু কারণেই ছিল খুবই সংজ্ঞাবহ.
রাশিয়া নিজেদের পূর্ব সাইবেরিয়া- প্রশান্ত মহাসাগর ধরনের খনিজ তেলকে নতুন বিশ্ব ব্র্যান্ডের মর্যাদা পাওয়ার উপযুক্ত করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে. এই বিষয়ে ঘোষণা করেছেন জ্বালানী ও বিনিয়োগ ইনস্টিটিউটের জেনারেল ডিরেক্টর ভ্লাদিমির ফেইগিন পূর্ব সাইবেরিয়া থেকে প্রশান্ত মহাসাগরীয় সমুদ্র উপকূল পর্যন্ত খনিজ তেল সরবরাহের জন্য পাইপ লাইনের দ্বিতীয় পর্যায়ের উদ্বোধনের প্রাক্কালে. এটা হতে চলেছে ডিসেম্বর মাসের শেষ দশ দিনের মধ্যেই.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন ২৪শে ডিসেম্বর সরকারি সফরে ভারত যাচ্ছেন. এই বিষয়ে ক্রেমলিনের তথ্য সম্প্রচার মন্ত্রণালয় থেকে খবর দেওয়া হয়েছে. বিষয় নিয়ে কিছু বিশদ মন্তব্য করেছেন আমাদের সমীক্ষক গিওর্গি ভানেত্সভ.
সেন্সরের ভয় দেখিয়ে ইন্টারনেটের উপরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র রাশিয়া ও চিনকে নিজেদের একচেটিয়া অধিকার খর্ব করতে দেয় নি. আন্তর্জাতিক বৈদ্যুতিন যোগাযোগ জোটের দুবাই শহরের সম্মেলনে বিশ্ব জোড়া ইন্টারনেট জালের উপরে এই জোট সদস্যদের অধিকারের প্রশ্নে চুক্তি করাই শেষ অবধি সম্ভব হয় নি.
রাশিয়ার সংবাদ মাধ্যমের এক্তিয়ারে “রাশিয়ার বৈদেশিক নীতি সংক্রান্ত ধারণা” নামে একটি প্রকল্প এসেছে, যা প্রস্তুত করা হয়েছে রাষ্ট্রপতি পুতিনের নির্দেশে. বাস্তবে এই দলিল – দেশের বৈদেশিক রাজনীতির একটি সোপান, যার উপরে নির্ভর করে ২০১৮ সালের আগামী রাষ্ট্রপতি নির্বাচন পর্যন্ত দেশে কাজকর্ম করা হবে.
আগামী বছর গুলি রাশিয়া ও সারা বিশ্বের জন্যই আমূল পরিবর্তনের সময় হতে চলেছে – ভ্লাদিমির পুতিন ঘোষণা করেছেন, তিনি জাতীয় সভার উদ্দেশ্যে নিজের বক্তৃতা দিয়েছেন. রাশিয়ার রাষ্ট্রপতির কথামতো, বিশ্ব এখন এমন একটা দ্রুত পরিবর্তনের যুগের সামনে উপস্থিত হতে চলেছে, যখন এমনকি অভিঘাত হওয়াও সম্ভব. এই প্রসঙ্গে রাষ্ট্র গুলির মধ্যেও প্রতিযোগিতা অনিবার্য.
২০৩০ সালের মধ্যে এশিয়া পশ্চিমকে পিছনে ফেলে এগিয়ে যাবে বার্ষিক আভ্যন্তরীণ উত্পাদনে, সামরিক ক্ষেত্রে ব্যয় বরাদ্দে, বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ও নতুন প্রযুক্তির বিষয়ে. এই বিষয়ে বলা হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গুপ্তচর বিভাগের রিপোর্টে. বিশ্বের শক্তি কেন্দ্র সরে যাওয়া নিয়ে লিখেছেন আমাদের সমীক্ষক গিওর্গি ভানেত্সভ.
কিওটো প্রোটোকল তার সময় পার করেছে, আর এই প্রোটোকলের পরবর্তী সময়ে টিকে থাকা – একটা আনুষ্ঠানিক ব্যাপার. এই ধরনের সিদ্ধান্তেই বিশেষজ্ঞরা পৌঁছেছেন রাষ্ট্রসঙ্ঘের আবহাওয়ার পরিবর্তন নিয়ে কাঠামো সংক্রান্ত কনভেনশনের পক্ষ গুলির অষ্টাদশ সম্মেলনের শেষে.
২০১২ সালের নোবেল শান্তি পুরস্কার প্রদান নিয়ে স্ক্যান্ডাল তৈরী হয়েছে. ইউরোপীয় সঙ্ঘ এই পুরস্কার পেয়েছে “ইউরোপের ঐক্য সাধন ও এক যুদ্ধের মহাদেশ থেকে শান্তির মহাদেশে পরিণত করার কাজের” জন্য. বিশেষজ্ঞরা এই অদ্ভুত সিদ্ধান্তে চমকে উঠেছেন.
বিশকেকে গত ৫ই ডিসেম্বর শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার শীর্ষবৈঠকে সংস্থার কর্মকান্ডের আর্থিক বুনিয়াদ গড়া হয়েছে. সংস্থাটির উন্নয়ন তহবিল ও বিকাশ ব্যাঙ্ক সম্পর্কিত দলিল স্বাক্ষর করেছেন সদস্য দেশগুলির প্রধানমন্ত্রীরা. বিশেষজ্ঞেরা বিশেষ করে উল্লেখ করছেনঃ সদস্য রাষ্ট্রগুলির এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে পারস্পরিক সহযোগিতা মজবুত করতে চাওয়া কাকতালীয় নয়. বিশ্বব্যাপী আর্থিক সংকটের প্রেক্ষাপটে এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকায় নতুন অর্থনৈতিক সম্ভাবনা তৈরি হচ্ছে.
বিশ্বের বাজারের বিষয়ে লড়াইতে পৃথিবীর কামারশালা দুনিয়ার সর্বশক্তিমান রাষ্ট্রকে অতিক্রম করেছে. চিন বিশ্বের ১২৭টি দেশের প্রধান বাণিজ্য সহকর্মী দেশে পরিণত হয়েছে. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভাগে বাণিজ্যের ক্ষেত্রে প্রধান দেশের জায়গা বজায় রাখতে পারা গেছে ৭৬টি দেশের সঙ্গে. এই রেটিংয়ে চিন ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র জায়গা বদল করে ফেলেছে মাত্র ছয় বছরের মধ্যে.
আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
জানুয়ারী 2012
ঘটনার সূচী
জানুয়ারী 2012
1
3
4
5
7
8
9
11
15
17
19
25
29
31