×
South Asian Languages:
সের্গেই লাভরভ, মার্চ 2011
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামা লিবিয়াতে গুপ্তচর সংস্থা সি আই এ র গোপন কাজ কারবার করার অনুমতি দিয়েছেন, যাতে মুহম্মর গাদ্দাফির প্রশাসনের সঙ্গে যুদ্ধে রত বিদ্রোহী যোদ্ধাদের সমর্থন করা যায়. এই দলিল দুই তিন সপ্তাহ আগে স্বাক্ষরিত হলেও এই বিষয়ে সদ্য জানা গিয়েছে.
প্যালেস্টাইন ও ইস্রাইলের মাঝে শান্তি প্রক্রিয়ার পুনরারম্ভ নিকট প্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকায় পরিস্থিতির স্থিতিশীলতায় প্রভাব বিস্তার করবে. এ মত প্রকাশ করেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ ইস্রাইলের প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা ইসাআক মোলখো-র সাথে সাক্ষাতে, যিনি প্যালেস্টাইনীদের সাথে আলাপ-আলোচনার দলের নেতৃত্ব করছেন.
রাসিয়া লিবিয়ায় পরিস্থিতির বিকাশে উদ্বিগ্ন এবং এ দেশে সঙ্ঘর্ষে লিপ্ত সব পক্ষকে সংলাপের আহ্বান জানাচ্ছে. এ সম্বন্ধে বুধবার মস্কোয় এক সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ. তিনি জোর দিয়ে বলেন যে, আন্তর্জাতিক জনসমাজের ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত্, যাতে লিবিয়ায় শান্তিপূর্ণ অধিবাসীরা হতাহত না হয়.
মস্কো লিবিয়া নিয়ে লন্ডনে আয়োজিত জোটের সম্মেলনের কাছ থেকে প্রস্তাবিত প্রশ্নগুলির উত্তর আশা করেছে. এই গুলি রাশিয়ার পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রধান সের্গেই লাভরভ স্বয়ং উচ্চারণ করেছেন. পশ্চিমের জোট বর্তমানে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সিদ্ধান্ত লঙ্ঘণ করছে বলে মন্ত্রী ঘোষণা করেছেন. লাভরভ ন্যাটো জোটকে সাবধান করে দিয়ে বলেছেন যে, লিবিয়াতে আফগানিস্তান বা ইরাকের মতো করে ঘটনার পট পরিবর্তন করা যেতে পারে না.
রাশিয়া ইউনেস্কোর কাঠামোতে আন্তঃসাংস্কৃতিক ও আন্তঃধর্মীয় সংলাপ গভীর করার পক্ষে মত প্রকাশ করছে. এ সম্বন্ধে বলেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ ইউনেস্কোর ব্যাপার সংক্রান্ত রাশিয়ার কমিশনের বার্ষিক বৈঠকে. লাভরোভের মতে, রাশিয়ার উদ্যোগ যে উপলব্ধি ও সাড়া জাগাচ্ছে তার প্রমাণ হল এই যে, ইউনেস্কো বিশিষ্ট রুশ বিজ্ঞানী মিখাইল লমোনোসোভের ৩০০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে ২০১১ সালকে রসায়নবিদ্যার আন্তর্জাতিক বর্ষ হিসেবে ঘোষণা করেছে.
রাশিয়া পশ্চিমের দেশ গুলির জোটকে বিনা বিচারে লিবিয়াতে শক্তি প্রয়োগ বন্ধ করতে আহ্বান করেছে. এই বিষয়ে রাশিয়ার পররাষ্ট্র দপ্তরের সরকারি প্রতিনিধি আলেকজান্ডার লুকাশেভিচ ঘোষণা করেছেন. তাঁর কথামতো, লিবিয়াতে আকাশ পথে হানা দেওয়ার সময়ে বেসামরিক জায়গার উপরেও বোমা ফেলা হয়েছে. বহু শান্তিপ্রিয় লোক নিহত হয়েছেন. রাশিয়া মনে করে যে, রাষ্ট্রসংঘের সিদ্ধান্তকে নিজেদের লক্ষ্য পূরণের জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে না.
রাষ্ট্রসংঘ লিবিয়ার উপরে উড়ান বন্ধ বলে ঘোষণা করেছে, এটা গাদ্দাফির সেনা বাহিনীর বিমানের জন্যই করা হয়েছে, নিরাপত্তা পরিষদের ১৫ সদস্য দেশের ৫ প্রতিনিধি দেশ এই সিদ্ধান্তের প্রকল্প নিয়ে ভোটের সময়ে বিরত থেকেছেন. গৃহীত সিদ্ধান্তে লিবিয়ার জমিতে নানা লক্ষ্যে আঘাত হানা যেতে পারে, তার মধ্যে ট্যাঙ্ক ও সাঁজোয়া গাড়ীর বাহিনী, পদাতিক বাহিনীর দলের উপরেও.
মুহম্মর গাদ্দাফির প্রশাসন ও বিরুদ্ধ পক্ষের যোদ্ধাদের মধ্যে লড়াই শুধু যুদ্ধ ক্ষেত্রেই হচ্ছে না, সংবাদ মাধ্যমেও তা চলছে. প্রত্যেক পক্ষই দেশের পরিস্থিতি নিয়ে নিজেদের মত প্রচার করছে: সরকার বলছে একটি মূল শহর এজ জাউইয়া দখল করেছে, আর বিরোধী পক্ষ বলছে যে, গাদ্দাফি মিথ্যা কথা বলছে. আর রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ তৈরী হচ্ছে লিবিয়ার প্রশাসনের বিরুদ্ধে নতুন সিদ্ধান্তের প্রকল্প বিচার করে দেখতে.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
মার্চ 2011
ঘটনার সূচী
মার্চ 2011
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
15
17
19
20
22
23
25
26
27
28