×
South Asian Languages:
গাজা অঞ্চল, 2012
ভ্লাদিমির পুতিনের বড় প্রেস কনফারেনস শুধু রাশিয়াতেই নয়, তার সীমানার বাইরেও বহু অনুরণন তুলেছে. সারা বিশ্বের বিশেষজ্ঞরাই খুব মনোযোগ দিয়ে রাশিয়ার নেতার বক্তব্য শুনেছেন. নিজেদের মনোভাব তাঁরা “রেডিও রাশিয়ার” সঙ্গে ভাগ করে নিয়েছেন. ভ্লাদিমির পুতিনের বড় সাংবাদিক সম্মেলন – একটা বিশ্ব রাজনীতির বিরল ঘটনা.
রাশিয়া, জনপ্রিয় বিষয়, আমাদের সহযোগিতা, আফগানিস্থান, সের্গেই লাভরভ, নৌবাহিনী, পুতিন, আরব, রাশিয়া-সন্ত্রাস, আদমসুমারি- রাশিয়া, ইন্টারনেট, রাশিয়া- সংস্কৃতি, অর্থনৈতিক উন্নয়ন, বিমান, মেদভেদেভ, সন্ত্রাস, রুশ- মার্কিন, পারমানবিক, কোরিয়া, মহাকাশ, ককেশাস, মাদক, ইউরোপীয় সংঘ, ধর্ম, রাষ্ট্রসংঘ, যৌথ নিরাপত্তা, ইরাক, আধুনিকীকরণ, বিজ্ঞান, সম্মেলন, তুরস্ক, স্বাধীন রাষ্ট্র সমূহ, দুর্নীতি, বিতর্কিত অঞ্চল, ন্যাটো জোট, আফ্রিকা, জাপান, দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া, নিকট প্রাচ্য, চিন, ব্রিকস, সামরিক, লিবিয়া, সিরিয়া, ইজরায়েল, রাশিয়ার নির্বাচন, ফ্রান্স, জার্মানী, বড় কুড়ি, নিষেধাজ্ঞা, উত্সব, রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা, সৌদি আরব, সাংহাই সহযোগিতা সংস্থা, গাজা অঞ্চল, রাশিয়া, কুরিল দ্বীপপুঞ্জ, ইসলাম, ইউরো-অঞ্চল, জর্জিয়া
চরমপন্থী ঐস্লামিক গোষ্ঠী হামাজের শীর্ষনেতারা প্যালেস্টাইনের অন্য গোষ্ঠী পি.এল.ও.র সাথে মতদ্বন্দের অবসান ঘটানোর জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করবে. হামাজের পলিটব্যুরোর শীর্ষনেতা খালেদ মাশাল এই কথা ঘোষনা করেছেন. তিনি বিশেষ করে উল্লেখ করেছেন, যে গাজা সেক্টর ও জর্ডান নদীর পশ্চিম উপকূল প্যালেস্টাইনের ঐতিহাসিক ভুমি ও একের অপরকে প্রয়োজন.
গাজা সেক্টরে ফিলিস্তিনের ইসলামি সংগঠন হামাস আজ ২৫তম বর্ষপূর্তি উদযাপন করছে. দিবসটি পালন উপলক্ষে সেখানে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হচ্ছে. কয়েক হাজার জনতা ওই সমাবেশে জড়ো হয়েছে. শহরের সড়কগুলোতে হামাস ও ফিলিস্তিনি পতাকা শোভা পাচ্ছে. সমাবেশে বক্তৃতা দিয়েছেন হামাস নেতা খালেদ মেশাল, যিনি ৪৫ বছর পর প্রথমবারের মত গাজায় এসেছেন. উল্লেখ্য, গাজা ভূখন্ড নিয়ন্ত্রণকারী হামাস দল ইসরাইল কর্তৃক অবরুদ্ধ রয়েছে.
ইজিপ্টে বহু লোকের মিছিল ও সমাবেশে উপস্থিত লোকের সঙ্গে পুলিশের সঙ্ঘর্ষ আবারও নিত্য নৈমিত্তিক বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে, যেমন ছিল এক বছরের কিছু আগে. এই কয়েকদিন আগেও মনে হয়েছিল যে, ইজিপ্টের জন্য পরীক্ষার সময় বুঝি বাস্তবে পিছনেই রয়ে গিয়েছে, কিন্তু এখন এমন একটা ধারণা হচ্ছে যে, দেশ আবার এক বিপজ্জনক গণ্ডীর কাছে পৌঁছচ্ছে. পিরামিডের দেশে কি হচ্ছে?
রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারন সভার সংখ্যা গরিষ্ঠ সদস্য দেশ প্যালেস্টাইনের স্বয়ং শাসিত এলাকাকে পর্যবেক্ষক দেশের মর্যাদা দিতে স্বীকৃতি দিয়েছে. এই সিদ্ধান্তের পক্ষে সায় দিয়েছে রাষ্ট্রসঙ্ঘের ১৯৩টি সদস্য দেশের মধ্যে ১৩৮টি দেশ, বিরুদ্ধে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইজরায়েল সহ নয়টি দেশ এবং ভোট দিতে চায় নি ৪১টি দেশ, ৫টি দেশ ছিল অনুপস্থিত.
বৃহস্পতিবারে হামাস, ঐস্লামিক জেহাদ সহ আরও অনেক প্যালেস্টাইনের সংগঠন গাজা এলাকায় সম্মিলিত ভাবে মিছিল করবে প্যালেস্টাইন লিবারেশন অর্গানাইজেশনের নেতা ও প্যালেস্টাইন ন্যাশনাল অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের প্রধান মাখমুদ আব্বাসের সমর্থনে. এই বিষয়ে বুধবারে আন্তর্আরবীয় টেলিভিশন চ্যানেল আল- জাজিরা জানিয়েছে.
রুশ মন্ত্রীসভার নির্দেশ অনুযায়ী এই প্রকল্পে ২০১২ সালে দেওয়া হবে তিরিশ লক্ষ ও ২০১৩ ও ২০১৪ সালে দেওয়া হবে ষাট লক্ষ ডলার করে. এই অর্থ দিয়ে দোভিল সহযোগিতা চুক্তির দেশ গুলিতে স্কুলে খাবার দেওয়ার বিষয়ে স্থিতিশীল ব্যবস্থা তৈরী ও তা প্রয়োগ করার জন্য খরচ দেওয়া হবে.
গাজা অঞ্চলে ক্ষমতাসীন “হামাস” আন্দোলন “ফাথ” আন্দোলনের সমস্ত বন্দীর প্রতি ক্ষমা ঘোষণা করেছে. “হামাসের” প্রতিনিধিরা উল্লেখ করেছে যে, গাজা অঞ্চলের সরকারে বিশেষ কমিটি গঠন করা হবে, যা “ফাথ” আন্দোলনের সদস্যদের বিরুদ্ধে মামলা এবং তাদের মুক্তির বিষয় নিয়ে কাজ করবে. মুক্তি লাভ করবে মোট ২২ জন.
ফিলিস্তিনের গাজা সেক্টর ও ইসরাইলের দক্ষিণাঞ্চলে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ফিরে আসছে। সংঘাতে জড়ানো উভয় পক্ষই যুদ্ধবিরতিতে সম্মতি হয়েছে।
প্যালেস্টাইন ও ইস্রাইলের মাঝে অগ্নি সংবরণ নিকট প্রাচ্যে বিরোধের মীমাংসা করে না, এখন অর্জন করা দরকার সঙ্ঘর্ষের পক্ষগুলির মাঝে প্রত্যক্ষ আলাপ-আলোচনা পুনরারম্ভ করা. এ সম্বন্ধে শুক্রবার মস্কোয় এক সাংবাদিক সম্মেলনে বলেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ. তিনি উল্লেখ করেছেন যে, শুরু করা দরকার প্যালেস্টাইন ও ইস্রাইলের মাঝে প্রত্যক্ষ আলাপ-আলোচনা শুরু করা থেকে.
রাশিয়া ও তুরস্ক সিরিয়ায় সঙ্কটজনক পরিস্থিতির রাজনৈতিক মীমাংসার অনুসন্ধানে যৌথ প্রচেষ্টার সঙ্গতি সাধনের পক্ষে মত প্রকাশ করেছে, জানানো হয়েছে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে. আঙ্কারায় এক পরামর্শ বৈঠকে সিরিয়ার পরিস্থিতি আলোচনা করেছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রপতির নিকট প্রাচ্য সংক্রান্ত বিশেষ প্রতিনিধি মিখাইল বগদানোভ এবং তুরস্কের প্রথম উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফেরিদুন সিনিরলিওগলু.
প্যালেস্টাইনীরা গাজা অঞ্চলে পরিস্থিতির মীমাংসা অর্জনে রাশিয়ার প্রচেষ্টার উচ্চ মূল্যায়ন করছে. এ সম্বন্ধে বলা হয়েছে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিনের কাছে প্যালেস্টাইনী জাতীয় প্রশাসনের প্রধান মাহমুদ আব্বাসের বার্তায়. এ বার্তা মস্কোয় পৌঁছে দিয়েছেন আব্বাসের বিশেষ প্রতিনিধি সালেহ রাফাত. “রেডিও রাশিয়াকে” প্রদত্ত ইন্টারভিউতে তিনি রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে মস্কোর সক্রিয় প্রচেষ্টার জন্য প্যালেস্টাইনী নেতৃবৃন্দের কৃতজ্ঞতা আবার জানিয়েছেন.
“ঐস্লামিক জেহাদ” হুমকি দিয়েছে, বৃহস্পতিবারে এই কথা লেখা হয়েছে ইজরায়েলের “গারেত্স” সংবাদপত্রে, উত্স অনামী এক সূত্র. “ঐস্লামিক জেহাদ” গোষ্ঠীর প্রতিনিধি দাবী করেছে যে, তারা ১৪ ই নভেম্বর থেকে গত কাল পর্যন্ত ইজরায়েল লক্ষ্য করে গাজা সেক্টর থেকে কম করে হলেও ৬০০ রকেট ছুঁড়েছে.
গাজা সেক্টর ও সিরিয়া – সবচেয়ে টাটকা উদাহরণ, যেখানে নিয়মিত বাহিনীকে প্রতিরোধ করছে কালো বাজারে অস্ত্র যোগাড় করতে পারা গোষ্ঠীরা, এই ধরনের আঞ্চলিক যুদ্ধ বন্ধ করা অথবা অন্তত তা উদ্ভব হওয়া কিছুটা কম করতে পারা অংশতঃ বোধহয় সম্ভব হত, যদি আন্তর্জাতিক ভাবে অস্ত্র ব্যবসায় সংক্রান্ত একটা চুক্তি করতে পারা যেত.
ইরানের রাষ্ট্রপতি মাহমুদ আহমাদিনেজাদ ইস্রাইল এবং “হামাস” আন্দোলনের মাঝে অগ্নি সংবরণের চুক্তি প্রতি সদর্থক মত প্রকাশ করেন. এ সম্বন্ধে জানিয়েছে পাকিস্তানের টেলিভিশন, যাকে ইস্লামিক প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রপতি বৃহস্পতিবার ইন্টারভিউ দিয়েছেন. ইন্টারভিউতে সেই সঙ্গে আহমাদিনেজাদ এ চুক্তির ফলপ্রসূতা সম্বন্ধে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন.
ইজরায়েল ও প্যালেস্টাইনের হামাস আন্দোলনের মধ্যে এক ভঙ্গুর আপাতঃ শান্তি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে. তা দিয়ে ইজরায়েলের “ধূম স্তম্ভ” অপারেশন, যা ১৪ই নভেম্বর থেকে ইজরায়েলের এলাকায় গাজা সেক্টরের ছোঁড়া রকেটের উত্তরে শুরু হয়েছিল, তা থামিয়েছে. বুধবার সন্ধ্যাবেলায় এই শান্তির বিষয়ে ইজিপ্ট ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতার ফলে সমঝোতা হয়েছে.
প্যালেস্টাইনী “হামাস” আন্দোলনের নেতা খালেদ মাশাল ইস্রাইলের সাথে বুধবার অর্জিত সাময়িক অগ্নি সংবরণের চুক্তিকে প্যালেস্টাইনের মুক্তির দিকে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ বলে অভিহিত করেছেন. আপোষের শর্ত দেখিয়েছে যে, “প্রতিরোধ ছিল সঠিক নির্বাচন”, বলেন তিনি কায়রো-তে এক সাংবাদিক সম্মেলনে, মাশাল বলেন, “এটা গাজা অঞ্চলের অবরোধ দূর করার ব্যাপক সূচনা.
প্যালেস্টাইনীরা ইস্রাইলের সাথে অগ্নি সংবরণের চুক্তি লঙ্ঘন করেছে. অগ্নি সংবরণের চুক্তি বলবত্ হওয়ার পরে জঙ্গীরা গাজা অঞ্চল থেকে ইস্রাইলের ভূভাগে পাঁচটি রকেট বর্ষণ করেছে. এ সম্বন্ধে জানিয়েছে ইস্রাইলী সামরিক কর্মীরা. আর ইস্রাইলী পুলিশের প্রেস-সার্ভিস ১২টি রকেট বর্ষণের কথা ঘোষণা করেছে.
গাজা অঞ্চলে ক্ষমতাসীন “হামাস” আন্দোলন তেল-আভিভে বিস্ফোরণ সমর্থন করেছে, এবং তাকে গাজা অঞ্চলে ইস্রাইলী অভিযানের “একমাত্র উত্তর” বলে অভিহিত করেছে. এ আন্দোলনের প্রেস-সেক্রেটারি সামি আবু জুখরি “রিয়া নোভস্তি” সংবাদ এজেন্সিকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে বলেছেন যে, তেল-আভিভে যাত্রীবাহী বাসে বিস্ফোরণের পেছনে কে আছে তা তাঁর জানা নেই.
ইস্রাইল ও “হামাস” আন্দোলনের মাঝে অগ্নি সংবরণের প্রশ্নের মীমাংসা স্থগিত রাখা হয়েছে. এ সম্বন্ধে “আল-আরাবিয়া” টেলি-চ্যানেল জানিয়েছে “হামাস” আন্দোলনের নেতৃবৃন্দের প্রতিনিধির উদ্ধৃতি দিয়ে. ইস্রাইলও অগ্নি সংবরণ সম্বন্ধে চুক্তির কথা সমর্থন করে নি.
আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
জানুয়ারী 2012
ঘটনার সূচী
জানুয়ারী 2012
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
20
21
22
23
24
25
26
27
28
29
30
31