×
South Asian Languages:
ফুটবল, 2012
ফিফার সভাপতি জোসেফ ব্লাটার ঘোষনা করেছেন, যে তার পদাসীন থাকা কালে বিশ্বকাপ-২০১৮ র জন্য রুশী আয়োজক কমিটির মতো উঁচুমানের প্রস্তুতি তিনি আগে কখনো দ্যাখেননি. আজ মস্কোর ‘লুঝনিকি’ স্টেডিয়ামকে বিশ্বকাপের ফাইন্যাল ম্যাচের আয়োজনের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে. উদ্বোধনী ম্যাচ ও একটি সেমি-ফাইন্যালও ‘লুঝনিকি’তেই অনুষ্ঠিত হবে. দ্বিতীয় সেমিফাইন্যাল ম্যাচটি হবে সেন্ট-পিটার্লবার্গে.
উয়েফা সংস্থা বর্তমানে চ্যাম্পিয়নস লীগের দলের সংখ্যা দ্বিগুণ বাড়ানোর কথা ভেবে দেখছে. “আমরা এই প্রশ্ন নিয়ে খতিয়ে দেখছি, যে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে ২০১৪ সালে. এখনও কিছুই স্পষ্ট নয়. এই প্রতিযোগিতা কি রকমের হবে, তা নিয়ে আলোচনা চলছে, যা কার্যকরী করা হবে ২০১৫- ২০১৮ সালে”, - ব্রিটেনের বিবিসি সংস্থা মিশেল প্লাতিনির মন্তব্য এই বলে জানিয়েছে.
দুবাইয়ে চলমান আন্তঃমহাদেশীয় বিচ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপে নাইজেরিয়াকে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে রাশিয়া. শুক্রবার সেমিফাইনাল ম্যাচে রাশিয়া ৯-৪ গোলো জয়ী হয়. আজ শনিবার ফাইনাল পর্বে রাশিয়ার মুখোমুখি হবে ব্রাজিল. উল্লেখ্য, ২০১১ সালে বিচ ফুটবল বিশ্বকাপে ব্রাজিলেপ বিপক্ষে জয়ী হওয়ার রেকর্ড রয়েছে রাশিয়ার.
চলতি বছরের গোল্ডেন বয়-২০১২ পদকের জন্য মনোনয়ন পেয়েছে রাশিয়ার চ্যাম্পিয়ন ফুটবল লীগের ৩ জন ফুটবলার. এরা হলেন- স্পার্তাকের ডিপেন্ডার জানো আনানদজে, লোকমাটিব ক্লাবের মাগোমেদ ওজদেওয়েভ ও চেছকার আহমেদ মুসা. চুড়ান্ত পদকের জন্য ৫০ জন মনোনয়ন দেয়া হয়েছে. উল্লেখ্য, সর্বোচ্চ ২১ বছর বয়সী তরুণ উদীয়মান ক্রীড়াবিদদের গোল্ডেন বয় পুরস্কার দেওয়া হয়ে থাকে. ইতালির টিউট্টওস্পোর্ট এ পুরস্কার দিয়ে থাকে.
আজ মস্কোতে অনুষ্ঠিত এই খেলায় রাশিয়া এক গোলে জয় লাভ করেছে. গোলটি খেলার দ্বিতীয়ার্ধে পেনাল্টি থেকে করেছেন রুশ খেলোয়াড় রোমান শিরোকভ. খেলার দুটি অর্ধ জুড়েই রাশিয়ার খেলোয়াড়দের প্রাধান্য বজায় ছিল. অসংখ্য বার গোল পোস্টে লেগে ও সম্পূর্ণ অভাবনীয় ভাবে বল আজারবাইজানের গোল পোস্টের ভেতরে যায় নি. পর্তুগাল, আজারবাইজান ও ইজরায়েল এই গ্রুপে রাশিয়ার পরে রয়েছে.
২০১৪ সালে ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া বিশ্বকাপের কোয়ালিফাইং রাউণ্ডের গ্রুপ ম্যাচে গতকাল পর্তুগালের বিরুদ্ধে জয়ী হওয়ায় রাশিয়ার জাতীয় ফুটবল দলকে অভিনন্দন জানিয়েছেন রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ. টুইটারে রুশ প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, আমাদের জাতীয় দলকে অভিনন্দন!, যোগ্যতা পরিচয় দিয়েছে, এর ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হবে. শুক্রবার মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত খেলায় রাশিয়া পর্তুগালকে ১-০ গোলে পরাজিত করে.
২০১৪ সালে ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া বিশ্বকাপের কোয়ালিফাইং রাউণ্ডে গ্রুপের ম্যাচে রাশিয়ার তাদের সবচেয়ে কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বী দেশ পর্তুগালের সঙ্গে ফুটবল ম্যাচে আজ ১- ০ গোলে জিতেছে. গোলটি করেছেন রাশিয়া দলের ফরোয়ার্ড আলেকজান্ডার কেরঝাকভ. ক্রিস্তিয়ানো রোণাল্ডো, নানি. ব্রুনো আলভিস, পেপের মতো তারকা খচিত পর্তুগাল দল প্রচুর চেষ্টা করলেও আজ রাশিয়াকে হারাতে পারে নি.
রাশিয়ার কালিনিনগ্রাদে এই নতুন ধরনের ষ্টেডিয়াম বানানো হবে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন এই এলাকার রাজ্যপাল নিকোলাই শ্যুকানভ. তাঁর কথামতো, সেখানে
২০১৮ সালের ফিফা বিশ্বকাপ রাশিয়ার যে ১১টি শহরে অনুষ্ঠিত হবে সেগুলোর নাম ঘোষণা করা হয়েছে. যে শহরগুলোর নাম ফিফা ঘোষণা করেছে তার মধ্যে রয়েছে সেন্ট পিটার্সবার্গ, ইকিতিরিনবুর্গ, সোচি, কাজান, নিঝনি নভোগোরাদ, সামারা, রুস্তব-না-দানু, কালিনিনগ্রাদ, ভলগাগ্রাদ, সারাঙস্ক ও মস্কো. ইয়ারোস্লাভাল ও ক্রাসনাদার তালিকা থেকে বাদ পরেছে.
লন্ডনে শেষ হয়েছে ২০১২ সালের প্যারাঅলিম্পিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা. এই প্রথম বার রাশিয়ার জাতীয় দল পেয়েছে সমস্ত দলগুলির মধ্য পদক প্রাপ্তির তালিকায় দ্বিতীয় স্থান: ৩৬টি স্বর্ণ পদক, ৩৮টি রৌপ্য পদক ও ২৮ টি ব্রোঞ্জ পদক. প্রথম স্থানে রয়েছেন চিনের ক্রীড়াবিদরা, তারা জয় করেছেন ৯৫টি স্বর্ণ পদক. প্যারা-অলিম্পিকের খেলোয়াড়দের কাছ থেকে যা শেখার, তা হল জয়ের জন্য আকাঙ্ক্ষা ও মনের জোর.
স্পেনের জাতীয় ফুটবল দল ইউরোপীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়ানশিপের ফাইনালে ইতালির দলকে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ান হয়েছে. ইউক্রেনের কিয়েভ শহরে অনুষ্ঠিত এ ম্যাচের ফলাফল ছিল ৪-০ স্পেনের পক্ষে. গোল দিয়েছেন ডেভিড সিলভা, জোর্ডি আলবা, ফের্নান্ডো টোরেস এবং হুয়ান মাটা. স্পেনের জাতীয় ফুটবল দল ২০০৮ সালে আগের ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়ানশিপেও জয়লাভ করেছিল এবং এভাবে এক ঐতিহাসিক সাফল্য অর্জন করেছে.
ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে আজ ইউরোপীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপের ফাইন্যাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে – স্পেন বনাম ইতালি. ফাইন্যালে মোকাবিলা হবে গত দুই বিশ্বকাপের বিজয়ীদের – ইতালি ২০০৬ সালে আর স্পেন ২০১০ সালে বিশ্বকাপ জিতেছিল. গত ৪ বছর ইউরো কাপ ছিল স্পেনে. তবে স্পেন ইতিহাসে কখনো ৯০ মিনিটে ইতালিকে হারাতে পারেনি.
ইতালির জাতীয় ফুটবল দল বৃহস্পতিবার জার্মানির দলকে পরাজিত করে ২০১২ সালের ইউরোপীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়ানশিপের ফাইনালে উঠেছে.ওয়ারশ শহরের জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত এ ম্যাচ শেষ হয় ২-১ ফলাফলে. জার্মানির দলের বিরুদ্ধে দুটি গোলই করেছেন ফরোয়ার্ড মারিও বোলোতেল্লি. জার্মানির তরফ থেকে, রেফারির দ্বারা নির্ধারিত অতিরিক্ত সময়ে, পেনাল্টিতে গোল দিয়েছেন মেসুত ওজিল.
ইতালির দল ইউরোপীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়ানশিপের সেমিফাইনালে উঠেছে, রবিবার ইংল্যান্ডের দলকে হারিয়ে. কিয়েভে অনুষ্ঠিত কোয়ার্টার-ফাইনালের খেলা শেষ হয় ০-০ ফলাফলে. তারপরে পেনাল্টির সিরিজে ইতালি ৪-২ ফলাফলে জয়লাভ করে. সেমিফাইনালে ইতালি খেলবে জার্মানির বিরুদ্ধে, যা ওয়ারশয়ে অনুষ্ঠিত হবে ২৮শে জুন.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
জানুয়ারী 2012
ঘটনার সূচী
জানুয়ারী 2012
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
20
21
22
23
24
25
26
27
28
29
30
31