×
South Asian Languages:
সৌদি আরব, জুন 2013
সিরিয়ার দক্ষিণে দেরা প্রদেশে কারাক শহরে হামলার ফলে চার শিশু সহ কম করে হলেও আটজন নিহত বলে খবর দিয়েছে মানবাধিকার রক্ষা কর্মীরা. এরই মধ্যে সিরিয়ার সরকারি সংবাদসংস্থা খবর দিয়েছে যে, ১৮ জন জঙ্গী নিহত হয়েছে, আর তাদের মধ্যে লেবানন, সৌদী আরব ও চিচনিয়ার লোক রয়েছে. এই খবরে শান্তিপ্রিয় মানুষদের বিষয়ে কিছু বলা হয় নি.
সিরিয়ার সঙ্ঘর্ষে তেহেরানের হস্তক্ষেপ সম্বন্ধে সৌদি আরবের বিবৃতির উত্তরে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এর-রিয়াদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছে সিরিয়ার তত্পর সন্ত্রাসবাদকে সাহায্য করার. এ সম্বন্ধে বলেছেন ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সরকারী প্রতিনিধি আব্বাস আরাগচি.
মস্কো সৌদি আরব সহ একসারি দেশকে আহ্বান জানাচ্ছে সিরিয়ায় আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদীদের অর্থ ও অস্ত্র জোগানো বন্ধ করতে. এ সম্বন্ধে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বলেছেন রাশিয়ার পররা্ষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি আলেক্সান্দর লুকাশেভিচ. তিনি এ সব দেশকে আহ্বান জানিয়েছেন আলাপ-আলোচনার প্রক্রিয়ার কাঠামোতে সিরিয়াবাসীদের নিজেদেরই নিজেদের ভবিষ্যত্ নির্ধারণের সুযোগ দেওয়ার.
শুধু ভারতেই নয়, বরং সমগ্র দক্ষিণ এশিয়াতেই, মার্কিন পররাষ্ট্র সচিব জন কেরির তিনদিন ব্যাপী সফর যত না উত্তর দিয়েছে, তার চেয়ে অনেক বেশী প্রশ্নই খালি রেখে গেল. তাহলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এই এলাকার সঙ্গে নিজেদের সম্পর্ক ঠিক কি ভাবে দাঁড় করাতে চাইছে? এই প্রশ্ন বিশেষ রকমের সংজ্ঞা নিয়েই উপস্থিত হয়েছে, যখন প্রতিবেশী আফগানিস্তানে ক্ষমতার প্রশ্নে শূণ্যতা দৃষ্টিগোচর হচ্ছে.
কাতার রাষ্ট্রে হওয়া আরও একটি তথাকথিত “সিরিয়ার মিত্র” দেশের বৈঠক, আর ঠিক করে বলা হলে – সিরিয়ার জঙ্গীদের বৈঠক, সিরিয়া ও কাতার রাষ্ট্র থেকে অনেক দূরের দেশ গুলির পুলিশ, গোয়েন্দা ও নানা রকমের সামরিক বাহিনীর স্নায়ু বৈকল্যের কারণ হয়েছে.
অস্ত্র - রসদ –অর্থ দিয়ে জঙ্গী সন্ত্রাসবাদী পাঠিয়ে আজ দুই বছর ধরে সিরিয়ার প্রশাসনের কোন দেখবার মতো ক্ষতি করতে না পেরে, সারা বিশ্ব সমাজকে নিষেধাজ্ঞার মাধ্যমে সিরিয়াকে একঘরে করতে বাধ্য করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, গ্রেট ব্রিটেন, ফ্রান্স ও সৌদী আরব এবারে বলেছে সিরিয়ার প্রশাসনকে বেআইনি ঘোষণা করার জন্যে. তারা বলেছে, সিরিয়ার প্রশাসনের সঙ্গে কোন রকমের আলোচনাতেই বসতে রাজী নয়.
পশ্চিম ও আরব রাষ্ট্র গুলি সকলে মিলে সাহায্য করলেও বাশার আসাদের সেনাবাহিনীর সঙ্গে আগামী কয়েক বছর ধরে পেরে উঠবে না বিরোধী পক্ষের জঙ্গীরা, এই রকমের ঘোষণা করেছেন সিরিয়ার পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রধান দামাস্কাসে. তাঁর মতে পশ্চিমের তরফ থেকে অস্ত্র সরবরাহ খালি এই দেশে রক্তক্ষয় বৃদ্ধি করবে.
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও তালিবান আন্দোলনের মধ্যে সরাসরি আলোচনা বাকী রাখা হয়েছে. এই পিছিয়ে দেওয়ার কারণ হয়েছে আফগানিস্তানের সরকারি পক্ষের উল্টো পথে চলার জন্য, যারা শান্তি প্রক্রিয়াতে নাম ভূমিকায় থাকতে চেয়েছে. আফগানিস্তানের শান্তি প্রক্রিয়াতে আরও একটি তৃতীয় পক্ষ রয়েছে, যারা নিজেদের এইখানে প্রচার না করা ভূমিকাকেই মনে করে থাকে মুখ্য বলে. তা হল পাকিস্তান.
এশিয়াতে সন্ত্রাসের মোকাবিলায় স্ট্র্যাটেজিক সহযোগিতার মর্যাদা এবারে হারাতে বসেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও পাকিস্তানের সম্পর্ক. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র সচিব জন কেরির ইসলামাবাদ সফর জুলাই মাস পর্যন্ত পিছিয়ে দেওয়া এর একটা নতুন সমর্থন বলেই মনে হয়েছে.
২০শে জুন বিশ্ব উদ্বাস্তু দিবস পালিত হচ্ছে. রাষ্ট্র সঙ্ঘের তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে বর্তমানে নথিভুক্ত রয়েছেন প্রায় ২ কোটি মানুষ, যাঁরা বাধ্য হয়েছেন নিজেদের দেশ ছেড়ে যেতে, আর প্রায় আড়াই কোটি মানুষ নিজেদের দেশের ভিতরেই এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় চলে যেতে বাধ্য হয়েছেন. এটা গত ১৮ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেশী সংখ্যা.
পশ্চিমের রাজনীতিবিদরা ও আফগান সরকার খুবই আশাবাদী আফগানিস্তান থেকে আসন্ন বিদেশী সৈন্য প্রত্যাহার নিয়ে. এঁরা আর ওঁরা নিজেদের পক্ষ থেকে সবচেয়ে আনন্দময় পূর্বাভাস দিচ্ছেন, যা স্থানীয় শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর হাতে দেশের নিরাপত্তার ভার তুলে দেওয়া নিয়ে ন্যাটো জোটের নেতৃত্ব ও আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি ঘোষণা করেছেন ১৮ই জুন. কিন্তু পরিস্থিতি কি এতই মেঘ শূণ্য?
সিরিয়ার পরিস্থিতিকে আলোচ্যের কেন্দ্রীয় বিষয়ে রেখে উত্তর আয়ারল্যান্ডে “বৃহত্ অষ্টদেশের” শীর্ষ সম্মেলনকে সফল বলা যেতে পারে. অন্তত পক্ষে মস্কোর মতে, বিশ্বের নেতৃস্থানীয় রাষ্ট্র গুলির এই দেশের সঙ্কট অবসান নিয়ে দৃষ্টিকোণ এবারে অনেকটাই কাছাকাছি হয়েছে.
ইরানে - নতুন রাষ্ট্রপতি এসেছেন. ১৪ই জুনে নির্বাচনে জয়লাভ করেছেন জনগনের কাছ থেকে শতকরা ৫০ ভাগেরও বেশী ভোট পেয়ে হাসান রোহানি. হাসান রোহানিকে মনে করা হয়ে থাকে একজন লিবারেল ও সংশোধনকারী হিসাবে, যদিও আধুনিক ইরানে এই সব ধারণা গুলি খুবই তুলনামূলক. সমস্ত প্রার্থীদেরই এখনও নির্বাচনের আগে দেশের সর্ব্বোচ্চ ধর্মীয় কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে কড়া ফিল্টার পার হয়ে আসতে হয়ে থাকে.
ব্রিটেনের সংবাদপত্র দ্য ইনডিপেন্ডেন্ট নিজস্ব উত্স থেকে পাওয়া খবর হিসাবে এই সংবাদ প্রকাশ করেছে. বলা হয়েছে যে, সিরিয়া যাবে চার হাজার ইরানী সেনা. সংবাদপত্রের তথ্য অনুযায়ী, সেনাবাহিনী পাঠানোর সিদ্ধান্ত রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের গেই নেওয়া হয়েছিল. এই নির্বাচনে জিতেছেন মধ্যপন্থী হাসান রোহানি.
সৌদী আরবের প্রশাসন পরিকল্পনা করেছে সিরিয়ার জঙ্গীদের জন্য ইউরোপীয় সঙ্ঘে বানানো জেনিথ রকেট ব্যবস্থা পাঠানোর. এই বিষয়ে রবিবারে সংবাদ প্রকাশ করেছে জার্মানীর সাপ্তাহিক পত্রিকা স্পীগেল, তারা উত্স হিসাবে উল্লেখ করেছে জার্মানীর গুপ্তচর বিভাগের এক গোপনীয় দলিলের. প্রকাশনা উল্লেখ করেছে যে মাটি থেকে আকাশে ছোঁড়ার উপযুক্ত রকেট ব্যবস্থা ম্যানপ্যাড নীচু দিয়ে ওড়া বিমান ধ্বংস করতে পারে.
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সিরিয়ার যোদ্ধাদের অস্ত্র সরবরাহ শুরু করছে. রাষ্ট্রপতির জাতীয় নিরাপত্তা সংক্রান্ত সহকারীর ডেপুটি বেন রোডস যেমন ঘোষণা করেছেন যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামা এই ধরনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাশার আসাদের প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিরোধীদের উপরে রাসায়নিক অস্ত্র প্রয়োগ করার উত্তরে. আসাদের সামরিক বাহিনী এই বছরের মার্চ মাসে জারিন গ্যাস ব্যবহার করেছেন, তার প্রমাণ নাকি সিআইএ সংস্থার প্রতিনিধিরা পেশ করেছে.
সৌদী আরবের প্রশাসন মদিনায় একটি আলাদা শহর বানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন হজ যাত্রীদের সুবিধার জন্য. এই বিষয়ে সোমবারে খবর দেওয়া হয়েছে সৌদী আল- কিসসাদিয়া খবরের কাগজের ইন্টারনেট সাইটে. এই শহরে প্রায় বিশ লক্ষ স্কোয়ার মিটার এলাকা জুড়ে মদিনা যাওয়ার পথেই বানানো হবে, যেখান দিয়ে প্রতি বছরে বহু লক্ষ যাত্রী যাতায়াত করেন. সেখানে একই সঙ্গে দুই লক্ষ লোক থাকতে পারবেন.
কুয়েইতের আদালত এক মহিলাকে আমির সাবাহ আস-সাবাহের প্রতি টুইটারে অসম্মান জনক মন্তব্য করার জন্য ১১ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে. এই মহিলা প্রশাসনকে উত্খাত করা ও ধর্ম বিষয়েও অপমান জনক কথাবার্তা লিখেছিলেন. স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমে এই খবর দেওয়া হয়েছে সোমবার. ৩৭ বছরের খুদা আল- আজমি টুইটারে এই সব মন্তব্য লিখেছিলেন.
ইরানে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের আগে মাত্র চার দিন বাকী. রাষ্ট্রপতি পদ প্রার্থীরা সক্রিয়ভাবে টেলিভিশনে বিতর্কে অংশ নিচ্ছেন ও ভোটারদের সঙ্গে দেখা করছেন. তাঁদের বক্তৃতার প্রধান বিষয় হচ্ছে দেশের আভ্যন্তরীণ নীতির সমস্যা ও অর্থনৈতিক সঙ্কট থেকে বের হওয়ার পথ খোঁজা.
সিরিয়ার সশস্ত্র বিরোধী পক্ষ লেবাননে যুদ্ধ ছড়িয়ে দেবে, যদি হেজবোল্লা সিরিয়া ছেড়ে চলে না যায়, হুমকি দিয়েছে সিরিয়ার স্বাধীন সেনাবাহিনীর অধ্যক্ষ সলিম ইদ্রিস. বিরোধী এই নেতা বলেছে যে, যদি লেবাননের সরকার হেজবোল্লা গোষ্ঠীর সিরিয়াতে যুদ্ধ বিগ্রহে হস্তক্ষেপ করা শেষ করতে না পারে, তাহলে সিরিয়ার বিরোধী পক্ষ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবে.
আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30
জুন 2013
ঘটনার সূচী
জুন 2013
1
2
6
8
9
12
13
15
16
18
22
23
24
30