×
South Asian Languages:
রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা, মে 2012
 উত্তর কোরিয়া দেশের সংবিধানে পরিবর্তন এনেছে ও নিজেদের পারমানবিক শক্তি বলে ঘোষণা করেছে, এই খবর টোকিওর কোরিয়া বিশ্লেষণ কেন্দ্রের উত্স থেকে পাওয়া বলে কিওডো সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে.  পিয়ংইয়ং বহু দিন ধরেই যুদ্ধপোযোগী পারমানবিক অস্ত্রের অধিকারী হতে চেয়েছে, প্রায়ই নিজেদের দক্ষিণ দিকের প্রতিবেশী ও তাদের প্রধান অভিভাবক ও রক্ষা কর্তা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হৃদয় বৈকল্যে দিকে পাঠিয়ে দিয়ে.
 অল্পবয়সীদের সঙ্গে সঠিক কাজ আর তার আগে ভাল রকমের পড়াশোনা হল সামরিক প্রযুক্তির উন্নতি ও দেশের প্রতিরক্ষার জন্য প্রধান শর্ত. এই ব্যাপারে দৃঢ় বিশ্বাস পোষণ করেন খুবই বিখ্যাত নির্মাতা সের্গেই নিপবেদিমী, যিনি রকেট ব্যবস্থা “ওকা” ও “ইস্কান্দের- এম” সৃষ্টি করেছেন.  প্রায় সারা জীবন ধরেই সের্গেই নিপবেদিমী ছিলেন সোভিয়েত দেশের একজন অত্যন্ত গোপনীয় ব্যক্তিত্ব.
ন্যাটো দেশগুলির প্রতিনিধিরা চিকাগো শীর্ষ সাক্ষাতে আফগানিস্তানে সামরিক উপস্থিতি হ্রাস এবং কাবুলকে বার্ষিক ৪১০ কোটি ডলারের আর্থিক সাহায্য দেওয়া সম্পর্কে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পরিকল্পনা সমর্থন করেছে. এ সম্বন্ধে “ফ্রান্স প্রেস” সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে চিকাগো-তে ন্যাটো জোটের শীর্ষ সাক্ষাতের শেষ ঘোষণাপত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে. একই সঙ্গে, এ সাহায্যের বাজেট  আফগানিস্তানের পরিস্থিতির উপর নির্ভর করে পুনর্বিবেচিত হবে.
 চিকাগো শহরে ন্যাটো জোটের ২৫তম সম্মেলন শেষ হয়েছে. তার দ্বিতীয় দিন আফগানিস্তানের বিষয় সম্বন্ধে সম্পূর্ণ ভাবে নিবেদিত ছিল, আর তার সঙ্গে জোটের অন্যান্য দেশের সঙ্গেও, যারা এই অপারেশনের জন্য সাহায্য করছে.  উত্তর অতলান্তিক জোটে চিকাগো সম্মেলন সন্তোষ জনক হয়েছে এই কথা গোপন করা হয় নি. জোটের সদস্যরা ইউরোপে প্রথম দফায় রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থা তৈরী হয়েছে বলে ঘোষণা করেছেন.
ন্যাটো জোটের দেশগুলির নেতারা চিকাগো শীর্ষ সাক্ষাতে রাজনৈতিক গ্যারান্টি দিয়েছেন যে, ইউরো-রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা রাশিয়ার বিরুদ্ধে নির্দেশিত নয়. চিকাগো-তে
ন্যাটো জোট ইউরো-রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার ক্ষেত্রে রাশিয়ার সাথে আলোচনা চালিয়ে যাবে, সোমবার বলেছেন ন্যাটো জোটের প্রধান সচিব অ্যান্ডের্স ফগ রাসমুসেন. একটি প্রশ্নের উত্তরে তিনি সম্ভাব্য পারমাণবিক আক্রমণের বিপদের মিলিতভাবে বিশ্লেষণের ধারণা সমর্থন করেছেন, যাতে এ সম্বন্ধে সাধারণ স্থিতিতে আসা যায়. প্রধান সচিব জোর দিয়ে বলেন যে, ন্যাটো জোট ইউরোপে রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা মোতায়েনের পরিকল্পনা ত্যাগ করতে চায় না.
 টোকিও পিয়ংইয়ং ও বেজিংয়ের উপরে নতুন করে তথ্য আক্রমণ শুরু করেছে. নাম গোত্রহীণ উত্স থেকে জাপানী সংবাদ মাধ্যমকে জানানো হয়েছে যে, উত্তর কোরিয়া, সম্ভবতঃ, মুসুদান অন্তরীপে ব্যালিস্টিক রকেট ছোঁড়ার জন্য নতুন উড়ান মঞ্চ তৈরী করছে. একই সঙ্গে চিন সম্ভবতঃ চাইছে উত্তর কোরিয়াকে নতুন করে পারমানবিক অস্ত্র পরীক্ষা বন্ধ করতে রাজী করাতে, যাতে তেজস্ক্রিয় বিকীরণ ছড়িয়ে না পড়ে.
ন্যাটো জোট নিজের রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা গঠন চালিয়ে যেতে বদ্ধপরিকর. এ সম্বন্ধে জোটের প্রধান সচিব অ্যান্ডের্স ফগ রাসমুসেন মার্কিনী “ওয়াল-স্ট্রীট জার্নাল” পত্রিকায় প্রকাশিত প্রবন্ধে লিখেছেন. তাঁর কথায়, জোট ইতিমধ্যে অধিনায়কত্ব ও নিয়ন্ত্রণের প্রাথমিক ব্যবস্থা তৈরি করেছে, যাতে ইউরোপ থেকে ন্যাটো জোটের মিত্রদেশগুলির দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রকল্পগুলি অনুসন্ধান ও ইন্টারসেপশন ব্যবস্থা ব্যবহারের সুযোগ পায়.
    রাশিয়া যে ইউরোপীয় রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থা ধ্বংস করার জন্য ইস্কান্দের নামের আক্রমণাত্মক কৌশল প্রযুক্তি ব্যবস্থার রকেট ব্যবহার করতে পারে, তার সম্বন্ধে আজ সোচী শহরের এক সাংবাদিক সম্মেলনে বর্তমানে প্রতিরক্ষা মন্ত্রী হিসাবে দায়ভার প্রাপ্ত আনাতোলি সেরদ্যুকোভ ঘোষণা করেছেন.
    এপ্রিল মাসের শেষে সাফল্যের সঙ্গে পরীক্ষিত “অগ্নি – ৫” ও নতুন সংযোজন করা হবে বলে বৃহস্পতিবারে “প্রেস ট্রাস্ট অফ ইন্ডিয়া” থেকে জানানো হয়েছে. ভারতীয় সামরিক মন্ত্রণালয়ের গবেষণা প্রতিষ্ঠান “ডিআরডিও” থেকে এক প্রতিনিধি জানিয়েছেন যে, শুধু রকেটের মাথার অংশেই পরিবর্তন করা হবে.
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনী নতুন রকেট পরীক্ষা করেছে, যা ইউরোপীয় রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার জন্য নির্দেশিত, বৃহস্পতিবার জানানো হয়েছে পেন্টাগনে. রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষার “এইজিস” ব্যবস্থার দ্বিতীয় প্রজন্মের “স্ট্যান্ডার্ড মিসাইল-৩” (এস.এম-৩) রকেট মার্কিনী যুদ্ধজাহাজ থেকে হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জের এলাকায় ক্ষেপণ করা হয়েছিল, তা স্বল্প পাল্লার অনুশীলনী ব্যালিস্টিক রকেটকে ধ্বংস করেছে.
    মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থা চিন ও ভারতের সঙ্গে রাশিয়ার সামরিক সহযোগিতাকে মজবুত করতে সাহায্য করতে পারে. রাশিয়া যদি এই পরিকল্পনাতে অংশ নেয়, তবে মস্কো ও বেজিং সমঝোতায় আসতে পারে যে, এই মার্কিন ব্যবস্থা চিনের বিরুদ্ধে লক্ষ্য করে করা হবে না.
রাশিয়া রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে অনেক দেশের সাথেই আলোচনা করছে, সেই সঙ্গে চীন এবং ভারতের সাথেও, কিন্তু কোনো নির্দিষ্ট চুক্তি সম্বন্ধে বলার সময় এখনও আসে নি. এ সম্বন্ধে সাংবাদিকদের বলেছেন রাশিয়ার উপ-প্রতিরক্ষামন্ত্রী আনাতোলি আন্তোনভ. তিনি ব্যাখ্যা করে বলেন যে, মস্কো চীন ও ভারতের সাথে নিরাপত্তার সমস্ত প্রশ্নে সংলাপ চালাচ্ছে, কিন্তু এ দেশগুলির সাথে রাশিয়ার কোনো নির্দিষ্ট চুক্তি নেই.
রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষার ক্ষেত্রে সহযোগিতা না করা রাশিয়া এবং ন্যাটো জোটের জন্য ভুল হবে, তবে এ ক্ষেত্রে পারস্পরিক ক্রিয়াকলাপের জন্য রাজনৈতিক ভিত্তি প্রয়োজন. এ সম্বন্ধে বৃহস্পতিবার মস্কোয় রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে বলেছেন ন্যাটো জোটের সহকারী প্রধান সচিব আলেক্সান্দর ভের্শবোউ. তিনি এ আশা প্রকাশ করেন যে, রাশিয়া ও ন্যাটো রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষার ক্ষেত্রে পূর্ণপরিসরের শরিকে পরিণত হবে.
মস্কোয় আজ রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার সমস্যা বিষয়ে আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু হচ্ছে. এর কাজে অংশগ্রহণ করবেন ৫০টি দেশের ২০০ জনেরও বেশি বিশেষজ্ঞ. প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সরকারী সাইটে অন-লাইন ব্যবস্থায় সম্মেলনের প্রত্যক্ষ সম্প্রচার করা হবে. রাশিয়ার সীমানার কাছে ইউরোপে রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার উপাদান মোতায়েন উপলক্ষে মস্কো আবার নিজের উদ্বেগের কথা শরিকদের জানাতে চায়.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
মে 2012
ঘটনার সূচী
মে 2012
1
2
6
7
8
9
13
15
16
18
19
20
23
24
25
26
27
28
29