×
South Asian Languages:
বড় কুড়ি, জুন 2012
আজ সেন্ট-পিটার্সবার্গে শুরু হচ্ছে আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক ফোরাম. বহুদিন ধরেই জনগণ ঐ ফোরামকে ‘রুশী ডাভোস’ বলে অভিহিত করেছে. এবারের সম্মেলন, যেখানে সমবেত হবেন রাজনীতিবিদরা, প্রখ্যাত শিল্পপতিরা ও ব্যাঙ্ক মালিকরা, তার এবারের শ্লোগান – ‘কার্যকরী নেতৃত্ব’. প্রথামতো রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ফোরামের উদ্বোধন করেন.
রুশ ফেডারেশনের রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন সিরিয়ার শাসন ব্যবস্থার রদবদল কেবলমাত্র সাংবিধানিক উপায়েই মেনে নিতে রাজি, এবং উল্লেখ করেছেন, যে যদি ঐ রদবদল সেদেশে স্থিতিশীলতা ফিরিয়ে আনে, তাহলেই শুধু তা মেনে নেওয়া যাবে.
সেই সব সমস্যা, যা জি ২০ গোষ্ঠীর শীর্ষ সম্মেলনে লক্ষ্য করা হয়েছে, তা নিয়ে রাশিয়ার সভাপতিত্বে “বড় কুড়ি” দেশের গোষ্ঠীতেও আলোচনা করা হবে.
মেক্সিকোর লস-কাবোস শহরে অনুষ্ঠিত জি-২০র সদস্য দেশগুলি ইউরোপীয় সংঘের আর্থিক সংকট মোচনের পরিকল্পনা সমর্থন করেছে. বৈঠক শেষ হওয়ার পরে সাংবাদিক সম্মেলনে গতকাল সম্মিলিতভাবে সব সদস্য দেশ এই ঘোষণা করেছে. জি-২০র দেশগুলি উল্লেখ করেছে, যে আবার আন্তর্জাতিক বাজারে যখন উত্তেজনা রয়েছে, তখন ইউরোপের সঙ্ঘের সদস্য দেশগুলির আর্থিক ও বিনিয়োগ বিষয়ে স্থিতিশীলতা অর্জন করার জন্য সব ব্যবস্থা নেওয়া দরকার.
মেক্সিকোর লস- কাবোস শহরে হওয়া “কুড়িটি” দেশের নেতাদের শীর্ষ সম্মেলনের পরে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন বুধবারে (মস্কো সময়) নিজের অংশগ্রহণের মূল্যায়ন করেছেন. রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি তাঁর বিশ্বাস সম্বন্ধে বলেছেন যে, ইউরো অঞ্চলে পরিস্থিতি ভালোর দিকেই যাবে.
আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের সঙ্কটবিরোধী সঙ্গতি পরিপুরণ সম্বন্ধে সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে “জি-২০” বৈঠকের দিনের ফলাফলের ভিত্তিতে. এ সম্বন্ধে লস-কাবোসে, যেখানে “জি-২০” শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে, সাংবাদিকদের জানিয়েছেন রাশিয়ার প্রতিনিধি স্তানিস্লাভ ভস্ক্রেসেনস্কি.
মেক্সিকোর লস-কাবোস স্বাস্থ্য-নগরীতে “জি-২০” দেশগুলির শীর্ষ সম্মেলনের কাজ শুরু হয়েছে. তা ইউরোপীয় অর্থনৈতিক সঙ্কট এবং বিশ্ব অর্থনীতি বিকাশের ব্যবস্থার প্রতি উত্সর্গীত. এ শীর্ষ সম্মেলনে অংশগ্রহণ করছেন রাশিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, চীন, জাপান, জার্মানি, ফ্রান্স, গ্রেট-বৃটেন, ব্রাজিল, ইতালি, ভারত, কানাডা, মেক্সিকো, ইউরোসঙ্ঘ, দক্ষিণ আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া, ইন্দোনেশিয়া, তুরস্ক, আর্জেন্টিনা ও সৌদি আরবের নেতারা.
মেক্সিকোর লস- কাবোস শহরে জি-২০ শীর্ষ সম্মেলন শুরু হওয়ার আগেই বর্তমানে ব্রিকস গোষ্ঠীর সভাপতি ভারতের উদ্যোগে আয়োজিত ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, চিন ও দক্ষিণ আফ্রিকার শীর্ষ পর্যায়ের নেতাদের উপস্থিতিতে আয়োজিত এক মিনি ব্রিকস সম্মেলনে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন অংশ নিয়েছেন.
অর্থনৈতিক ভাবে শক্তিশালী বা “বড় কুড়িটি” দেশের সম্মেলন কোনও নতুন করে আরও একটি উচ্চ কোটির লোকদের ক্লাবে পরিণত হওয়া উচিত্ নয়, যারা খুবই স্বার্থপর ভাবে শুধু নিজেদের সদস্যদের কথাই ভাববে. সম্মিলিত ভাবে কাজ করার অর্থ হল – বিশ্বের অর্থনীতির স্থিতিশীল বিকাশের জন্য ন্যায় সঙ্গত নিয়মাবলী তৈরী করা.
ব্রিক্স দেশগুলির – রাশিয়া, ব্রাজিল, ভারত, চীন ও দক্ষিণ আফ্রিকার নেতারা মেক্সিকোর লস-কাবোসে “জি-২০” শীর্ষ সম্মেলনের কাজ শুরু হওয়ার আগে এক সাক্ষাতে মিলিত হবেন. এ সাক্ষাতে তাঁরা আসন্ন “জি-২০” শীর্ষ সম্মেলনের আলোচ্য সূচির প্রধান প্রধান প্রশ্নে নিজেদের স্থিতি আলোচনা করবেন.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন ১৮-১৯শে জুন মেক্সিকোর লস-কাবোসে “জি-২০” শীর্ষ সাক্ষাতে অংশগ্রহণ করছেন. এই “জি-২০” শীর্ষ সাক্ষাতে অংশগ্রহণের বিশেষ গুরুত্ব আছে, কারণ ১লা ডিসেম্বর থেকে এক বছরের জন্য এই গুরুত্বপূর্ণ বহুপাক্ষিক সম্মেলনে সভাপতিত্বের দায়িত্ব পাবে রাশিয়া. পরবর্তী শীর্ষ সাক্ষাত্ অনুষ্ঠিত হবে ৫-৬ই সেপ্টেম্বর পিতারবুর্গে.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30
জুন 2012
ঘটনার সূচী
জুন 2012
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
22
23
24
25
26
27
28
29
30