×
South Asian Languages:
গ্রেট ব্রিটেন

ইরান এবং “ছয় দেশের” (রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য পাঁচটি দেশ এবং জার্মানি) মাঝে বিশেষজ্ঞদের পর্যায়ে আলাপ-আলোচনা রবিবার জেনেভায় শেষ হয়েছে এবং তা ক্রমবিকশিত হবে ক্যাথলিক ক্রিসমাসের (যা পালিত হয় ২৫শে ডিসেম্বর) পরে.

বৃটিশ কর্তৃপক্ষ সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্র ভাণ্ডারের একাংশ প্রয়োজনীয় অন্য বস্তুতে পরিণত করতে সম্মত হয়েছে. 

২০১১ সালের গোড়ায় সিরিয়ায় সঙ্কট দেখা দেওয়ার সময় থেকে পৃথিবীর প্রায় ৭০টি দেশ থেকে ১১ হাজারেরও বেশি জঙ্গী সিরিয়ায় পৌঁছেছে সরকারী বাহিনীর বিরুদ্ধে সামরিক ক্রিয়াকলাপে অংশগ্রহণের জন্য.

ইরানের প্রতিনিধিদল ভিয়েনায় আন্তর্জাতিক মধ্যস্থ “ছয় দেশের” সাথে আলাপ-আলোচনা স্থগিত রেখেছে তেহেরানের সাথে পরামর্শ করার জন্য, জানিয়েছে ইরানের “ইরনা” সংবাদ এজেন্সি আলাপ-আলোচনাকারীদের এক প্রতিনিধির উদ্ধৃতি দিয়ে.

ভিয়েনায় আন্তর্জাতিক পারমাণবিক শক্তি এজেন্সিতে ইরানের স্থায়ী প্রতিনিধি রেজা নাজাফি বলেছেন যে, বিশেষজ্ঞদের পর্যায়ে ইরান, আন্তর্জাতিক পারমাণবিক শক্তি এজেন্সি এবং “ছয় দেশের” মাঝে মঙ্গলবারের পরামর্শ বৈঠকে অগ্রগতি অর্জিত হয়েছে, জানিয়েছে “রয়টার” সংবাদ এজেন্সি.

গ্রেট-বৃটেনের পার্লামেন্ট সদস্যরা এ বিষয়ে অসন্তুষ্ট যে, তাদের বেতন বৃদ্ধি করা হবে. 

এই চলে যাওয়া সপ্তাহে স্পষ্ট হয়েছে যে, সেই সমস্ত সমস্যা, যা রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামার এডওয়ার্ড স্নোডেনের ফাঁস করে দেওয়া খবর থেকে তৈরী হয়েছে – এটা শুধুমাত্র এক ফোঁটা সমুদ্রের জলের মতই, যার সামনে তাঁকে এবারে মুখোমুখি পড়তে হতে চলেছে. “ওয়াশিংটন পোস্ট” আরও এক ডোজ ফাঁস করে দেওয়া খবর প্রকাশ করেছে: বুঝতে পারা গিয়েছে যে, জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থার ডাটা ব্যাঙ্কে প্রত্যেকদিন বিশ্বের পাঁচশো কোটি মোবাইল টেলিফোন থাকা মানুষের অবস্থানের খবর জমা হয়ে থাকে. আর লন্ডনে “দ্য গার্ডিয়ান” পত্রিকার প্রধান সম্পাদক অ্যালান রাসব্রিজার, যাঁর কাগজে প্রথমে স্নোডেনের ফাঁস করে দেওয়া খবর ছাপা হয়েছিল, তিনি বলেছেন যে, আপাততঃ স্নোডেনের দেওয়া খবরের মাত্র এক শতাংশই ছাপা হয়েছে.

বছরের শেষে লন্ডন ও ওয়াশিংটনের জন্য বেশী করেই খারাপ খবর উদয় হচ্ছে, যা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের থেকে পালিয়ে আসা জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থার কর্মী এডওয়ার্ড স্নোডেনের ফাঁস করে দেওয়া ফাইলের সঙ্গেই যুক্ত.

রাষ্ট্রসঙ্ঘের মানবাধিকার রক্ষা ও সন্ত্রাসবাদ সংক্রান্ত বিশেষ প্রবন্ধকার বেন এম্মেরসন ঘোষণা করেছেন যে, এই নিয়ে স্ক্যান্ডাল মোটেও নিভে আসবে না, বরং নতুন সমস্ত বর্ণনা দিয়ে আরও বেশী করেই জ্বলে উঠবে. এম্মেরসন ঠিক করেছেন সারা বিশ্বের ৩৫টা দেশের নাগরিক ও দেশ নেতাদের উপরে নজরদারি করতে গিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও গ্রেট ব্রিটেন রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিয়ম কানুন কতটা ভঙ্গ করেছে, তা উল্লেখ করার. এম্মেরসন আবার তাঁর আগে করা নানা রকমের প্রবন্ধ, যা তিনি সিআইএ সংস্থার ইউরোপের গোপন জেল নিয়ে, পেন্টাগনের গুয়ান্তানামো বন্দী শিবির নিয়ে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের তরফ থেকে বেআইনি ভাবে ড্রোন বিমান ব্যবহার নিয়ে ও তা দিয়ে নিরীহ জনগনকে হত্যা করা নিয়ে লিখেছেন তার জন্যই বিখ্যাত.

গ্রেট-বৃটেনের প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন সোমবার তিন দিনের চীন সফর শুরু করছেন আন্তঃরাষ্ট্রীয় সম্পর্ককে আরও উচ্চ মানে উন্নীত করার উদ্দেশ্যে.

ইরান নিজের পারমাণবিক কর্মসূচির পুরণ স্থগিত রাখবে ডিসেম্বরের শেষ দিকে অথবা ২০১৪ সালের জানুয়ারীর একেবারে গোড়ায়.

যখন হোয়াইট হাউসের থেকে পাঠানো দূতেরা ও আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি খুবই কড়া ভাষায় একে অপরের সঙ্গে আফগানিস্তানের প্রতিরক্ষা নিয়ে চুক্তির বিষয়ে সময় ও শর্ত নিয়ে আলোচনায় মত্ত, তখনই বিশেষজ্ঞরা অনুমান করতে বসেছেন যে, কি করে এই দরাদরি আফগানিস্তানের অন্যান্য জীবন যাপনের ক্ষেত্রে প্রভাব ফেলবে.

কাবুলে কিছু বিশেষজ্ঞ ইতিমধ্যেই ঘোষণা করেছেন যে, আফগানিস্তানের লোকদের এই চুক্তির একেবারেই কোন দরকার নেই, কারণ দেখাই যাচ্ছে যে, আমেরিকার লোকরা আফগানিস্তানকে কিছুই দেয় নি, শুধুমাত্র সেই দেশে মাদক দ্রব্য উত্পাদনের বিষয়ে তুমুল পরিমাণে অগ্রগতি ছাড়া. আরও একদল মনে করেছেন যে, এই চুক্তির আবার কিছু ইতিবাচক দিকও রয়েছে, যা ব্যবহার করা দরকার.

ইরানের পারমাণবিক কর্মসূচির বিন্যাস ও সাংগঠনিক নক্সা “স্পর্শ করা হয় নি অন্তর্বর্তী সমঝোতায়”, যা জেনেভায় অর্জিত হয়েছে তেহেরান এবং ছয় দেশের (রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য পাঁচটি দেশ ও জার্মানি) মাঝে, অন্যদিকে, “পশ্চিমী নিষেধাজ্ঞার বিন্যাসে ফাটল দেখা দিয়েছে”.

ইউরোসঙ্ঘ ডিসেম্বরেই ইরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা লাঘবের প্রক্রিয়া ডিসেম্বরেই শুরু করবে আন্তর্জাতিক মধ্যস্থ “ছয় দেশ” ও তেহেরানের মাঝে অর্জিত সমঝোতার কাঠামোতে. 

ইরান মনে করে যে, তার পারমাণবিক কর্মসূচি নিয়ে জেনেভায় আন্তর্জাতিক মধ্যস্থ “ছয় দেশের” সাথে আলাপ-আলোচনায় আপাতত অগ্রগতি হয় নি.

তেহেরানের পারমাণবিক কর্মসূচি নিয়ে জেনেভায় আজ ইরান এবং মধ্যস্থ “ছয় দেশের” আলাপ-আলোচনা ক্রমানুবর্তিত হবে.

ইরান নিজের পারমাণবিক কর্মসূচি নিয়ে আন্তর্জাতিক মধ্যস্থ “ছয় দেশের” সাথে আলাপ-আলোচনার টেবিল ছেড়ে চলে যাবে, যদি মার্কিনী কংগ্রেস ইরানের বিরুদ্ধে বাড়তি নিষেধাজ্ঞা গ্রহণ করে.

শুক্রবারে শ্রীলঙ্কার বৃহত্তম শহর কলম্বোতে শুরু হয়েছে কমনওয়েলথ প্রশাসন প্রধানদের অধিবেশন (CHOGM). এই বৈঠকে অনুপস্থিত রয়েছেন তিনজন মন্ত্রীসভার প্রধান, তাঁদের মধ্যে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহও রয়েছেন. তাঁর দেশের ভিতরের তামিল গোষ্ঠীদের ও রাজনৈতিক দলগুলোর চাপে পড়ে এই ভাবে পিছিয়ে আসা, মনে তো হয় না যে, শ্রীলঙ্কায় তামিল সংখ্যালঘুদের অবস্থানকে কোন ভাবে ভাল করবে আর তার ওপরে - ভারতের সঙ্গে সেই দেশের সম্পর্কে বেশী করেই জটিলতা সৃষ্টি হবে, যারা বর্তমানে ভারত মহাসাগরের রাজনীতিতে বেশী করেই ভূমিকা পালন করতে শুরু করেছে বলে “রেডিও রাশিয়াকে” জানিয়েছেন রাশিয়ার স্ট্র্যাটেজিক গবেষণা ইনস্টিটিউটের বিশেষজ্ঞ বরিস ভলখোনস্কি.

রাশিয়ার উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী মিখাইল বগদানোভ এবং গ্রেট-বৃটেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের রাজনীতি বিষয়ক ডিরেক্টর সাইমন হাস শুক্রবার টেলিফোনে সিরিয়ার পরিস্থিতি আলোচনা করেছেন, “জেনেভা-২” শান্তি সম্মেলনের প্রস্তুতির উপর জোর দিয়ে.

তেহেরানের প্রতিনিধিদের সাথে ইরানের পারমাণবিক সমস্যার মীমাংসা নিয়ে আন্তর্জাতিক মধ্যস্থ “ছয় দেশের” আলাপ-আলোচনা, খুব সম্ভবত, অনুষ্ঠিত হবে ২১-২২শে নভেম্বর.

আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
আগষ্ট 2017
ঘটনার সূচী
আগষ্ট 2017
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
20
21
22
23
24
25
26
27
28
29
30
31