×
South Asian Languages:
লিবিয়া

২০১০ সালের ২৪শে ডিসেম্বর টিউনিশিয়ার সিদি-বুজিদে প্রথম বেন আলির প্রশাসনের বিরুদ্ধে গণ অভ্যুত্থান ঘটেছিল, যা “আরব বসন্তের” শুরু করেছিল. হাতে গোনা কয়েক সপ্তাহের মধ্যে উত্তর আফ্রিকায় দুটি প্রশাসনকে জনতার ঝড় ধুয়ে দিয়েছিল, যে দুটিই বহুদিন ধরে পশ্চিমের খুবই ভরসার জোটসঙ্গী হয়ে ছিল.

তারপরে ঘটনাচক্র দিক পরিবর্তন করেছে, আর ছড়িয়ে পড়েছে সেই সমস্ত দেশের উপরে, যাদের বেন আলির টিউনিশিয়া বা হোসনি মুবারকের ইজিপ্টের সঙ্গে খুব কমই অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক দিক থেকে মিল ছিল. “আরব বসন্ত” তারপরে ১৮০ ডিগ্রী দিক পরিবর্তন করেছে.

২০১১ সালের গোড়ায় সিরিয়ায় সঙ্কট দেখা দেওয়ার সময় থেকে পৃথিবীর প্রায় ৭০টি দেশ থেকে ১১ হাজারেরও বেশি জঙ্গী সিরিয়ায় পৌঁছেছে সরকারী বাহিনীর বিরুদ্ধে সামরিক ক্রিয়াকলাপে অংশগ্রহণের জন্য.

ঠিক দুই বছর আগে বাগদাদে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক পতাকা নামিয়ে নেওয়া হয়েছিল. এটা ছিল একটা প্রতীকী ব্যাপার, যা করা হয়েছিল, স্রেফ দেখানোর জন্যই যে, ইরাক থেকে মার্কিন সেনাবাহিনী চলে যাচ্ছে. আগামী বছরে, সব দেখে শুনে মনে হয়েছে যে, আমেরিকার সেনাবাহিনীর মূল অংশ আফগানিস্তান থেকেও নিয়ে যাওয়া হতে চলেছে.

কিছু লোক মনে করেছেন যে, ওয়াশিংটন রাজনৈতিক দিক থেকেও মধ্য ও নিকট প্রাচ্য থেকে নিজেদের প্রভাব কম করছে – আর এটা বিগত সময়েই বেশী করে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে.

রাশিয়া লিবিয়ার সমস্যা থেকে শিক্ষা পেয়েছে ও আর কোন দিনও রাষ্ট্রসঙ্ঘে নিরাপত্তা পরিষদে অনুমতি দেবে না বিরোধ পরিস্থিতিতে শক্তি প্রয়োগের জন্য, যতক্ষণ না এই শক্তি প্রয়োগ সম্বন্ধে সম্পূর্ণ ভাবে কতখানি ও কিভাবে তা করা হবে জানতে পারবে. এই বিষয়ে “রিয়া নোভস্তি” সংস্থাকে এক সাক্ষাত্কারে রুশ প্রজাতন্ত্রের উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী গেন্নাদি গাতিলভ বলেছেন.

ইরানের বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের সম্ভাবনা বিশেষজ্ঞদের খনিজ তেলের বাজারে একেবারেই নানা রকমের ভবিষ্যত সম্ভাবনা ব্যক্ত করতে আগ্রহী করেছে. বিশ্বের বাজারে বৃহত্ পরিমানে ইরানের খনিজ জেল উপস্থিত হলে তা এই কালো সোনার দামের ক্ষেত্রে অনেকটাই প্রভাব ফেলতে পারে.

২০১২ সাল পর্যন্ত তেহরান ওপেক সংস্থার সদস্য দেশগুলোর মধ্যে উত্পাদনের বিষয়ে দ্বিতীয় স্থানে ছিল. প্রতিদিনে তারা ৩৫ লক্ষ ব্যারেল খনিজ তেল উত্পাদন করত, যা ২৩টি দেশে সরবরাহ করত. পশ্চিমের দেশগুলো থেকে নিষেধাজ্ঞা বহালের পরে বিশ্বের বাজারে তেহরানের জায়গা ভাগ করে নিয়েছিল ওপেক সংস্থার অন্যান্য অংশীদার দেশরা, প্রাথমিক ভাবে ইরাক. বিগত সময়ে ইরান দিনে মাত্র সাত লক্ষ ব্যারেল তেল উত্পাদন করত, যা চিনে যেত, আর তারই সঙ্গে তাইওয়ান, ভারত, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান ও তুরস্কে যেত.

লিবিয়ার দক্ষিণ-পশ্চিমে সাভা শহরে অস্ত্রের গুদামে বিস্ফোরণের ফলে ৪০ জনেরও বেশি লোক নিহত হয়েছে, শুক্রবার জানিয়েছে “বি.বি.সি”.

যখন হোয়াইট হাউসের থেকে পাঠানো দূতেরা ও আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি খুবই কড়া ভাষায় একে অপরের সঙ্গে আফগানিস্তানের প্রতিরক্ষা নিয়ে চুক্তির বিষয়ে সময় ও শর্ত নিয়ে আলোচনায় মত্ত, তখনই বিশেষজ্ঞরা অনুমান করতে বসেছেন যে, কি করে এই দরাদরি আফগানিস্তানের অন্যান্য জীবন যাপনের ক্ষেত্রে প্রভাব ফেলবে.

কাবুলে কিছু বিশেষজ্ঞ ইতিমধ্যেই ঘোষণা করেছেন যে, আফগানিস্তানের লোকদের এই চুক্তির একেবারেই কোন দরকার নেই, কারণ দেখাই যাচ্ছে যে, আমেরিকার লোকরা আফগানিস্তানকে কিছুই দেয় নি, শুধুমাত্র সেই দেশে মাদক দ্রব্য উত্পাদনের বিষয়ে তুমুল পরিমাণে অগ্রগতি ছাড়া. আরও একদল মনে করেছেন যে, এই চুক্তির আবার কিছু ইতিবাচক দিকও রয়েছে, যা ব্যবহার করা দরকার.

লিবিয়াতে মুহম্মর গাদ্দাফি প্রশাসনের পতনের পরে সেই দেশ এখন খণ্ডিত হয়ে যাওয়ার মুখে. পশ্চিমের থেকে সক্রিয়ভাবে সহায়তা দেওয়া “আরব বসন্তের” এখানে এখন এটাই বাস্তব পরিণাম. বিভিন্ন ধরনের গোষ্ঠী ও প্রজাতি এখানে নৃশংস ভাবে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে, ঐতিহাসিক ভাবে সব থেকে নীচু হয়েছে খনিজ তেল উত্পাদনের মাত্রা, দেশের জনগনের জন্য অপেক্ষা করে রয়েছে দুর্ভিক্ষ: এখনই এখানে খাবার জিনিষ কম পড়েছে. লিবিয়াকে খণ্ডিত হয়ে যাওয়া থেকে বাঁচানোর কোন প্রেসক্রিপশন পশ্চিম সেই লিবিয়াকে আর দিল না.

লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলি-তে বৃহস্পতিবার প্রাক্তন বিদ্রোহী দলগুলির জঙ্গীদের মাঝে কঠোর সশস্ত্র সঙ্ঘর্ষ পুনরারম্ভ হয় এবং প্রায় সারা রাত চলে.

লিবিয়ার বেনগাজি শহরে অবস্থিত সুইডিস কনসূলেট অফিসের কাছে শুক্রবার বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। তবে এতে কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায় নি। নিরাপত্তা বাহিনীর বরাত দিয়ে বার্তাসংস্থা ফ্রান্স প্রেস এ খবর জানিয়েছে।

ত্রিপোলি-তে সশস্ত্র ব্যক্তিরা বৃহস্পতিবার সকালে লিবিয়ার প্রধানমন্ত্রী আলি জাইদানকে অপহরণ করেছে, জানিয়েছে “সি.এন.এন” টেলি-চ্যানেল.

লিবিয়ায় অবস্থিত রুশ দূতাবাসে বন্দুকধারীদের হামলার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ। এক বিবৃতি সংস্থার পক্ষ থেকে লিবিয়ায় অবস্তিত কূটনৈতিক মিশনগুলোতে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে লিবিয়ার সরকারের প্রতি আহবান জানানো হয়।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র লিবিয়ায় রাশিয়ার দূতাবাসে আক্রমণের নিন্দা করছে, বলা হয়েছে মস্কোয় মার্কিনী কূটনৈতিক প্রতিনিধি দপ্তরের টুইটারের মাইক্রো ব্লগে.

অজানা ব্যক্তিরা দূতাবাসের ভবনের উপর গুলিবর্ষণ করেছে, আর তারপর সেখান থেকে রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় পতাকা ছিঁড়ে নিয়ে গেছে.

২০১১ সালে মুহাম্মদ গদ্দাফিকে উচ্ছেদ করার পরে অন্তত ২৭ জনকে লিবিয়ার কারাগারগুলিতে খুন করা হয়েছে. জাতিসংঘের লিবিয়া বিষয়ক কমিশন ও মানবাধিকার রক্ষা কমিটি কর্তৃক প্রস্তুত যৌথ রিপোর্টে এই তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে.

রাসায়নিক অস্ত্র নিষিদ্ধ করণ সংস্থার কার্যকরী পরিষদ নিজেদের সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্র সংক্রান্ত সমস্যা নিয়ে প্রথম বৈঠক ২২শে সেপ্টেম্বর করতে চলেছে. এই বিষয়ে জানিয়েছে গাগ শহরে এই সংস্থার তথ্য দপ্তর. সিরিয়া সবচেয়ে কম সময়ে নিজেদের রাসায়নিক অস্ত্রের ও তা তৈরীর যন্ত্রপাতি নিয়ে সম্পূর্ণ রকমের হিসাব দিতে বাধ্য ও এই তথ্য সংস্থার কাছেই দিতে বাধ্য. ২৩শে সেপ্টেম্বর সোমবার এই সংস্থার বৈঠকের পরিণাম সংস্থার বৈঠকেই জানানো হতে চলেছে.

সিরিয়ার সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধরত গোঁড়া ধর্মাবলম্বীদের হাতে রাসায়নিক অস্ত্র এসেছে লিবিয়া থেকে – ২০১১ সালে মুয়ম্মার গদ্দাফির সরকারের পতনের পরে.

রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও আন্তর্জাতিক জনসমাজকে আহ্বান জানিয়েছেন নিজের রাসায়নিক অস্ত্র আন্তর্জাতিক নিয়ন্ত্রণে হস্তান্তর করায় সিরিয়ার কর্তৃপক্ষের প্রস্তুতি ব্যবহার করার.

গ্রেট-বৃটেন নিকট প্রাচ্যে যুদ্ধে নিজেকে জড়াতে চায় না. এ সম্বন্ধে রবিবার বি.বি.সি-কে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে বলেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী উইলিয়াম হেগ. তাঁর কথায়, “লন্ডন বিবেচনায় রেখেছে ২০০৩ সালে ইরাকে মার্কিনী অনুপ্রবেশে অংশগ্রহণের অভিজ্ঞতা এবং এ অঞ্চলে নতুন সামরিক অভিযান সম্পর্কে প্রসন্নতা অনুভব করছে না”. গ্রেট-বৃটেনের জনসমাজ নতুন সঙ্ঘর্ষে দেশের জড়িয়ে পড়ার পরিপ্রেক্ষিতে উদ্বিগ্ন এ কথা স্বীকার করে হেগ বলেন যে, সরকার সিরিয়ার বিরুদ্ধে সামরিক ক্রিয়াকলাপে অংশগ্রহণের প্রশ্ন আর তুলবে না. গত সপ্তাহে হাউজ অফ কমনস (পার্লামেন্টের নিম্ন কক্ষ) সিরিয়ায় হস্তক্ষেপের অনুমোদন সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত প্রত্যাখান করেছিল.

আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
অক্টোবর 2017
ঘটনার সূচী
অক্টোবর 2017
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
20
21
22
23
24
25
26
27
28
29
30
31