×
South Asian Languages:
সামরিক, 15 সেপ্টেম্বর 2013

গত শনিবারে রাশিয়ার পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রধান সের্গেই লাভরভ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র সচিব জন কেরি সিরিয়ার প্রশ্নে সমঝোতায় পৌঁছেছেন. এই ঘটনার কল্যাণে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আরও একটি যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ার হাত থেকে রেহাই পেয়েছে. মনে হতে পারে যে, আমেরিকার এবারে স্বস্তির নিশ্বাস ফেলার সময় হয়েছে. তার ওপরে আবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বেশীর ভাগ জনগন, আর সেনেট সদস্যদের বেশীরভাগ, এমনকি স্বয়ং বারাক ওবামা, নিজের যুযুধান মন্তব্য স্বত্ত্বেও সিরিয়ার বিরোধে অংশ নেওয়ার ব্যাপারে বিরোধী ছিলেন. কিন্তু এমন লোকও খুঁজে পাওয়া গিয়েছে, যাদের জেনেভার সমঝোতা পছন্দ হয় নি. তাদের মধ্যে দেখা গিয়েছে মস্কোর বহুদিনের সমালোচক ও রিপাব্লিকান দলের সেনেট সদস্য জন ম্যাককেইন রয়েছেন. তাঁর দৃষ্টিকোণ থেকে “কেরি-লাভরভের পরিকল্পনা” আমেরিকার দুর্বলতাকেই প্রদর্শন করেছে ও শুধু সেই দিকেই নিয়ে যাচ্ছে যে, বাশার আসাদ “শ্বাস ফেলার সময় পাবেন ও তারই সঙ্গে পরবর্তী কালে নিজের দেশের লোককে মেরে ফেলার সময় পাবেন”.

শনিবার জেনেভা আলোচনায় সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্রের ওপর আন্তর্জাতিক নিয়ন্ত্রণের ব্যাপারে রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র মতৈক্যে পৌঁছেছে। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরির সাথে বৈঠক শেষে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সেরগেই ল্যাভরোভ সাংবাদিকদের এ কথা জানিয়েছেন। গত কয়েকদিন ধরে সিরিয়ার ওপর মার্কিন সামরিক হামলা নিয়ে যে আশংকা করা হয়েছিল আশাকরা হচ্ছে এখন আর সেই হামলা হচ্ছে না।

রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সেরগেই ল্যাভরোভ বলেছেন, সিরিয়ার বিরোধী জোটকে জেনেভা-২ শান্তি সম্মেলনে অংশ নিতে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবে বলে আশ্বস্ত করেছে রাশিয়াকে।

সিরিায়াকে রাসায়নিক অস্ত্র নষ্ট করার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সব ধরণের কাগজপত্র রাষ্ট্রসঙ্ঘের সদর দপ্তরে পৌঁছেছে। চলতি বছরের ১৪ অক্টোবর থেকে রাসায়নিক অস্ত্র কনভেনশন দেশটির ওপর জারি হবে।রাষ্ট্রসঙ্ঘের মহাসচিব বান কি মুনের তথ্যসম্প্রচার দপ্তর এ খবর জানিয়েছে।

সিরিয়ার রাসায়নিক অস্ত্র ধ্বংসের ব্যাপারে জেনেভায় শনিবার রুশ এবং মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ ও জন কেরি যে সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন, তাকে স্বাগত জানিয়েছেন ন্যাটোর মহাসচিব অ্যান্ডার্স ফগ রাসমুস্সেন। গতকাল দেওয়া এক বিবৃতিতে তিনি এই কারণে পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের ধন্যবাদ জানান।

সেপ্টেম্বর 2013
ঘটনার সূচী
সেপ্টেম্বর 2013