×
South Asian Languages:
সামরিক, 5 সেপ্টেম্বর 2013

রুশ প্রেসিডেন্টের প্রেস সচিব দিমিত্রি পেশকোভ বলেছেন, সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার প্রসঙ্গে জাতিসংঘ বিশেষজ্ঞদের আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত মেনে নেওয়ার আহবান জানিয়েছে রাশিয়া ।

রুশ প্রেসিডেন্টের প্রেস সচিব দিমিত্রি পেশকোভ বলেছেন, সেন্ট পিটার্সবার্গে আজ শুরু হওয়া জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে সিরিয়া প্রসঙ্গে নিজস্ব মতামত জানাবেন ভ্লাদিমির পুতিন ও বারাক ওবামা।

সিরিয়াকে ঘিরে পরিস্থিতি উত্তেজিত করা তোলা হচ্ছে মিথ্যা তথ্য প্রচার করে আর বাস্তব ঘটনাকে বিকৃত করে. তথ্য ক্ষেত্রে এই “নোংরা খেলা” হচ্ছে রাশিয়ার বিরুদ্ধেও. এই প্রসঙ্গে ইচ্ছা করেই মস্কোর রাজনীতিকে বিকৃত করা হচ্ছে ও সিরিয়ার সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্কের ইতিহাসকেও. রাশিয়ার পররাষ্ট্র দপ্তর খুবই কড়া সমালোচনা করেছে এই ধরনের প্রচারের ও তথ্য ক্ষেত্রে এই ধরনের কাজকে অভিহিত করেছে “গণ হারে অপপ্রচার” বলেই.

রুশ প্রেসিডেন্টের প্রেস সচিব দিমিত্রি পেসকোভ বলেছেন, সিরিয়া ইস্যু নিয়ে জি-২০ সম্মেলনে আলাদা করে কোন অধিবেশন আপাতত রাখা হয়নি। তবে সবকিছু নির্ভর করবে শীর্ষ নেতাদের ওপরই। রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তাসংস্থা রিয়া নোবাসতিকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি আজ এসব কথা বলেন।

 

সিরিয়া ছেড়ে পাশ্ববর্তী দেশে তুরষ্কে আশ্রয় নেওয়া শরনার্থীদের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। তুরষ্কে গড়ে ওঠা অস্থায়ী শরনার্থী শিবিরে আশ্রায় নিয়েছে ২ লাখ সিরিয়ার নাগরিক। তবে শরনার্থী শিবিরে আশ্রয় নেয় নি তাদের সংখ্যা ৫০ লাখে ছাড়িয়ে গেছে।

সিরিয়ায় সামরিক অভিযান শুরু করলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাজেট থেকে কয়েক মিলিয়ন ডলার খরচ হবে। মার্কিন কংগ্রেসে সিনেট ভোটগ্রহণের অধিবেশনে দেওয়া বক্তব্যে এ তথ্য জানান মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী চাক হেগেল।

বৃহস্পতিবার সেন্ট-পিটার্সবার্গে শুরু হতে যাওয়া জি-২০’র শীর্ষ সম্মেলন, যেটাকে বরাবর অর্থনৈতিক ফোরাম বলেই গণ্য করা হয়, এবার সিরিয়াকে কেন্দ্র করে উদ্ভূত পরিস্থিতির কারণে রাজনৈতিক রঙ পাবে.

বুধবার মার্কিনী সেনেটরদের পররাষ্ট্র বিষয়ক কমিটিতে জবাবদিহি করার সময় বিদেশসচিব জন কেরি বলেছেন, যে সিরিয়ার উপর সামরিক আঘাত হানার জোরালো প্রত্যুত্তর রাশিয়া দেবে এমন আশঙ্কা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নেই. তিনি স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন ইতিপূর্বে রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভের বিবৃতি এই প্রসঙ্গে.

মস্কো উপকণ্ঠের ঝুকোভস্কি শহরে সদ্য শেষ হওয়া আন্তর্জাতিক বিমান মহাকাশ প্রদর্শনী ম্যাক্স সুযোগ করে দিয়েছে আমাদের দেশের বিমান নির্মাণ শিল্প ও তার সঙ্গে জড়িত শিল্প ক্ষেত্রের কিছু প্রবণতা লক্ষ্য করার. বিমানবাহিনী ও আকাশ প্রতিরক্ষা বিষয়ে রাশিয়ার বিকাশ আগামী দশ বছরে এই সব বাহিনীর বাইরের চেহারায় যেমন পরিবর্তন এনে দেবে, তেমনই রাশিয়া সামরিক শক্তিতেও. এই সময়ের মধ্যে প্রধান কাজের দিক হবে উচ্চ রকমের লক্ষ্যভেদে সক্ষম অস্ত্রের ভাগ বাড়ানো ও বিমানবাহিনীকে নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থাকে আরও উন্নত করে তোলা.

সেপ্টেম্বর 2013
ঘটনার সূচী
সেপ্টেম্বর 2013