×
South Asian Languages:
সামরিক, 11 ডিসেম্বর 2012
২০৩০ সালের মধ্যে এশিয়া পশ্চিমকে পিছনে ফেলে এগিয়ে যাবে বার্ষিক আভ্যন্তরীণ উত্পাদনে, সামরিক ক্ষেত্রে ব্যয় বরাদ্দে, বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ও নতুন প্রযুক্তির বিষয়ে. এই বিষয়ে বলা হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গুপ্তচর বিভাগের রিপোর্টে. বিশ্বের শক্তি কেন্দ্র সরে যাওয়া নিয়ে লিখেছেন আমাদের সমীক্ষক গিওর্গি ভানেত্সভ.
কয়েকদিন আগে ভারতের হিন্দু সংবাদপত্র এক বড় প্রবন্ধ প্রকাশ করেছে পারমানবিক অস্ত্র বিষয়ে এর বড় ভারতীয় গবেষক ও প্রাক্তন পররাষ্ট্র সচিব শ্যাম শরণ লিখিত, তার নামও খুব ভয়ঙ্কর, “পাকিস্তানের যুদ্ধ সীমানায় অস্থিরতা নিয়ে প্রতিক্রিয়া করা”. এই প্রবন্ধে এক বিশদ বিশ্লেষণ দেওয়া হয়েছে পাকিস্তানের পারমানবিক পরিকল্পনার বিকাশের আধুনিক প্রবণতা নিয়ে, প্রাথমিক ভাবে তার সামরিক অংশ নিয়েই.
  চলতি বছরের মাঝামাঝি সিরিয়ার উত্তরে একসারি এলাকায় নিয়ন্ত্রণ কায়েম করা কুর্দীরা স্বাধীন সৈন্যবাহিনী গঠনের কাজে হাত দিয়েছে. জাতীয় কুর্দীস্তান পরিষদের শীর্ষ পদাধিকারী শিরকো আব্বাসের উদ্ধৃতি দিযে ‘এলাফ’ ইন্টারনেট-পোর্টাল এই তথ্য যুগিয়েছে. আব্বাস ঘোষনা করেছেন, যে গঠনরত সেনাবাহিনীর মুখ্য কর্তব্য হবে সিরিয়ায় কুর্দীস্তানের ভুখন্ডে যেকোনো সশস্ত্র হামলা প্রতিহত করা.
প্রচার মাধ্যমের খবর সত্ত্বেও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সিরিয়ার বিরোধীপক্ষকে অস্ত্রে সজ্জিত করতে চায় না. এ সম্বন্ধে ওয়াশিংটনে এক ব্রিফিংয়ে বলেছেন মার্কিনী পররাষ্ট্র বিভাগের প্রতিনিধি ভিক্টোরিয়া ন্যুল্যান্ড. তাঁর কথায়, ওয়াশিংটনের স্থিতি হল এই যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সিরিয়ার বিরোধীপক্ষকে শুধু অ-সামরিক সাহায্যই দিচ্ছে. আগে বৃটেনের “সানডে টাইমস” পত্রিকা জানিয়েছিল যে.
২০১২ সালকে বিশেষজ্ঞরা বলেছেন সন্ত্রাসবাদের স্থিতিশীলতার বছর.চরমপন্থী সংগঠন গুলির সক্রিয়তা সাধারণের চেয়ে বেশী হয় নি আর বিভিন্ন দেশের বিশেষ প্রতিরক্ষা বিভাগ গুলি জানিয়েছে, যে, তাদের পক্ষে সম্ভব হয়েছে পরিস্থিতিকে নিয়ন্ত্রণের মধ্যে আনার. একটাই কিন্তু খুবই জাজ্বল্যমান ব্যতিক্রম রয়েছে – সিরিয়া. সেখানে অন্তর্ঘাত শান্তিপ্রিয় জনগনের বিরুদ্ধে করা হচ্ছে অহরহ, কিন্তু পশ্চিমে সেটাকে দেখেও না দেখার ভাব করা হচ্ছে.
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ফিলিপাইনসের প্রতিনিধিরা এই সপ্তাহে বেশ কয়েকটি সাক্ষাত্কার করবে, যা করার সময়ে তারা আমেরিকার সেনা বাহিনীর ফিলিপাইনসে থাকা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবে. এই বিষয়ে সোমবারে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সংক্রান্ত ফিলিপাইনসের উপমন্ত্রী কার্লোস সোরেটা. তাঁর কথামতো, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উপ পররাষ্ট্র সচিব ও উপ প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর সঙ্গে ম্যানিলা শহরে মঙ্গল ও বুধবারে বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছে.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
ডিসেম্বর 2012
ঘটনার সূচী
ডিসেম্বর 2012
2
13
16
30
31