×
South Asian Languages:
সামরিক, 18 জানুয়ারী 2012
চিনের পরে ভারত এশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম দেশ, যারা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইরানের খনিজ তেলের বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা মানতে অস্বীকার করেছে. এই দেশের পররাষ্ট্র দপ্তর থেকে প্রতিনিধিরা ঘোষণা করেছেন যে, ইরানের কাছ থেকে খনিজ তেল কেনা অব্যাহত থাকবে. নিউ দিল্লী তাদের মত সমর্থন করেছে এই যুক্তিতে যে, "রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের ইরান সংক্রান্ত নিষেধাজ্ঞা ভারতবর্ষ মানবে.
রাশিয়া মনে করে “লিবিয়ার চিত্রনাট্য” অন্যান্য দেশে অনুরূপ সঙ্ঘর্ষের মীমাংসায় প্রসার করা অগ্রহণীয়. এ সম্বন্ধে বুধবার মস্কোয় সাংবাদিক সম্মেলনে বলেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ. তাঁর কথায়, এটা “একেবারেই গ্রহণযোগ্য নয়”. রাশিয়ার কূটনীতির প্রধান তাছাড়া জোর দিয়ে বলেন যে, রাশিয়া বেসামরিক অধিবাসীদের বিরুদ্ধে যেকোনো ধরণের হিংসার বিরুদ্ধে মত প্রকাশ করে.
ইরান যদি পারমানবিক অস্ত্র হাতে পায়, তাহলে তেহরান লেবানন ও গাজা সেক্টরে তাদের জোটের লোকদের ইজরায়েলের হাত থেকে রক্ষা করতে পারবে বলে ঘোষণা করেছেন ইজরায়েলের সামরিক বাহিনীর প্রতিরক্ষা পরিকল্পনা দপ্তরের প্রধান জেনেরাল আমির এশেল.
ইরানের ওপরে আঘাত হানতে দেওয়া যেতে পারে না বলে ঘোষণা করেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপপ্রধান গেন্নাদি গাতিলভ. এর অন্যথা হলে এই দেশের চারপাশে পরিস্থিতি আরও বেশী করে জটিল হবে. কূটনীতিবিদ উল্লেখ করেছেন যে, ইরানের পারমানবিক পরিকল্পনার মধ্যে সামরিক কোন অংশ আছে বলে প্রমাণিত হয় নি, আর এই দেশের সম্বন্ধে নিষেধাজ্ঞার ভাণ্ডার শেষ হয়ে গিয়েছে.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
জানুয়ারী 2012
ঘটনার সূচী
জানুয়ারী 2012
1
2
3