×
South Asian Languages:
ব্রিকস, জুন 2012
ভারতের বিমান বাহিনী রাশিয়া- ভারতের যৌথ উদ্যোগে নির্মিত শব্দাতীত রকেট ব্রামোস ২০১৪ সালে নিজেদের অস্ত্র সম্ভারে যোগ করবে. এই বিষয়ে জানিয়েছেন মস্কো উপকণ্ঠের ঝুকোভস্কি শহরে আয়োজিত “যন্ত্র নির্মাণে প্রযুক্তি – ২০১২” ফোরামে ব্রামোস কোম্পানীর জেনারেল ডিরেক্টর শিবথানু পিল্লাই.
ব্রিকস দেশ গুলির মধ্যে জাতীয় মুদ্রা পাল্টে নেওয়ার বিষয়ে সমঝোতা তৈরী হলেই তা এক অতিরিক্ত আর্থিক ব্যবস্থার সৃষ্টি করবে. এই রকমই মূল্যায়ণ করেছেন বিশেষজ্ঞদের “রেডিও রাশিয়ার” তরফ থেকে তাদের মন্তব্য করতে বলা হলে, প্রসঙ্গ হয়েছিল সদ্য স্বাক্ষরিত ব্রাজিল ও চিনের মধ্যে জাতীয় মুদ্রা পাল্টানোর বিষয়ে সমঝোতা – যা দুই দেশের পক্ষ থেকেই নির্দিষ্ট দরে জাতীয় মুদ্রার বিনিময় সংক্রান্ত.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন ঘোষণা করেছেন যে, নিজের প্রধান কাজ হিসাবে তিনি রাশিয়াতে প্রসারিত ভাবে পুনর্গঠনকেই মনে করেন. সেন্ট পিটার্সবার্গে আয়োজিত আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক সম্মেলনে বক্তৃতা দিতে গিয়ে তিনি বলেছেন যে, রাশিয়ার মন্ত্রীসভা দেশে সুদূর প্রসারিত ভাবে পুনর্গঠনের জন্য একটি সম্পূর্ণ মাপের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে. এই পরিকল্পনা দেশে সামাজিক ভাবে সমর্থন পেয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেছেন.
মেক্সিকোর লস- কাবোস শহরে হওয়া “কুড়িটি” দেশের নেতাদের শীর্ষ সম্মেলনের পরে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন বুধবারে (মস্কো সময়) নিজের অংশগ্রহণের মূল্যায়ন করেছেন. রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি তাঁর বিশ্বাস সম্বন্ধে বলেছেন যে, ইউরো অঞ্চলে পরিস্থিতি ভালোর দিকেই যাবে.
ব্রিকস দেশ গুলির নেতারা ঘোষণা করেছেন যে, ভারত, চিন, ব্রাজিল, রাশিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকা আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের সঞ্চয়ে আরও সাত হাজার পাঁচশো কোটি ডলার দিতে তৈরী. এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে মেক্সিকোতে অনুষ্ঠিত “বড় কুড়িটি” অর্থনৈতিক ভাবে উন্নত দেশের শীর্ষ সম্মেলনে.
ষোড়শ আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক সম্মেলন এই বৃহস্পতিবারে রাশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর সেন্ট পিটার্সবার্গে শুরু হতে চলেছে. এই সম্মেলনের অর্থাত্ “রাশিয়ার দাভোস” বলে আরও যাকে বলা হয়ে থাকে, তার অনুষ্ঠান সূচী এবারে অনেক বেশী করেই সংপৃক্ত.
মেক্সিকোর লস- কাবোস শহরে জি-২০ শীর্ষ সম্মেলন শুরু হওয়ার আগেই বর্তমানে ব্রিকস গোষ্ঠীর সভাপতি ভারতের উদ্যোগে আয়োজিত ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, চিন ও দক্ষিণ আফ্রিকার শীর্ষ পর্যায়ের নেতাদের উপস্থিতিতে আয়োজিত এক মিনি ব্রিকস সম্মেলনে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন অংশ নিয়েছেন.
অর্থনৈতিক ভাবে শক্তিশালী বা “বড় কুড়িটি” দেশের সম্মেলন কোনও নতুন করে আরও একটি উচ্চ কোটির লোকদের ক্লাবে পরিণত হওয়া উচিত্ নয়, যারা খুবই স্বার্থপর ভাবে শুধু নিজেদের সদস্যদের কথাই ভাববে. সম্মিলিত ভাবে কাজ করার অর্থ হল – বিশ্বের অর্থনীতির স্থিতিশীল বিকাশের জন্য ন্যায় সঙ্গত নিয়মাবলী তৈরী করা.
আজকের দিনের দুনিয়ায় একেবারেই সমস্ত কিছু ভাল নয়. বিশ্বের অর্থনীতির ব্যবস্থা স্থিতিশীল নয়, সশস্ত্র বিরোধ চলছে, রাষ্ট্র গুলির মধ্যে রাজনৈতিক মত পার্থক্য পার হওয়া থেকে অনেক দূরে. এখনকার সবচেয়ে বেদনা দায়ক প্রশ্ন গুলির উত্তর খুঁজতে বিশ্বের বড় কুড়িটি দেশের নেতারা ১৮- ১৯শে জুন মেক্সিকোর লস- কাবোস জি ২০ শীর্ষবৈঠকে কাজ করবেন. এটা জি ২০ কাঠামোর মধ্যে সর্ব্বোচ্চ পর্যায়ে সপ্তম বৈঠক.
সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার শীর্ষবৈঠকে, যা কয়েকদিন আগে বেজিং শহরে হয়েছে, সেখানে ভারতের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করতে এসেছিলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী সোমানাহল্লি কৃষ্ণ, প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহ নয়. এটা বোঝাই গিয়েছিল আপাততঃ যখন ভারতের অবস্থান এই সংস্থায় পর্যবেক্ষকের থেকে সদস্য করা হয় নি, তখন ভারত থেকে তো মনে হয় না শীর্ষবৈঠকে সর্বোচ্চ পর্যায়ের কাউকে পাঠানো হবে.
 আঞ্চলিক নিরাপত্তা বজায় রাখা – বেজিংয়ে সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার শীর্ষবৈঠকের প্রধান আলোচ্য বিষয়. এই সমস্যা ৬ই জুন রাশিয়া, চিন ও চারটি মধ্য এশিয়ার দেশের প্রধানরা তাঁদের নিজস্ব অধিবেশনে আলাদা করে আলোচনা করেছেন. বৃহস্পতিবারে এই আলোচনায় যোগ দিতে চলেছেন পর্যবেক্ষক দেশ গুলির নেতারা – মঙ্গোলিয়া, ভারত, পাকিস্তান ও ইরানের থেকে.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30
জুন 2012
ঘটনার সূচী
জুন 2012
1
2
3
4
5
7
8
10
11
12
13
14
15
16
17
22
23
24
25
27
29
30