×
South Asian Languages:
লিবিয়া ও আরব বিশ্ব, নভেম্বর 2012
গ্রেট ব্রিটেনের প্রশাসন লিবিয়ার কাছ থেকে মুহম্মর গাদ্দাফির প্রশাসনকে ধ্বংস করার জন্য ব্রিটিশ বোমারু বিমান ও অস্ত্র দিয়ে আঘাত করার জন্য ক্ষতিপূরণ দাবী করবে না. এই বিষয়ে ঘোষণা করেছেন দেশের উপ প্রতিরক্ষা মন্ত্রী অ্যান্ড্রু ম্যারিসন দেশের লোক সভার এক সদস্যের এই ধরনের এক প্রস্তাবের প্রত্যুত্তর হিসাবে.
রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারন সভার সংখ্যা গরিষ্ঠ সদস্য দেশ প্যালেস্টাইনের স্বয়ং শাসিত এলাকাকে পর্যবেক্ষক দেশের মর্যাদা দিতে স্বীকৃতি দিয়েছে. এই সিদ্ধান্তের পক্ষে সায় দিয়েছে রাষ্ট্রসঙ্ঘের ১৯৩টি সদস্য দেশের মধ্যে ১৩৮টি দেশ, বিরুদ্ধে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইজরায়েল সহ নয়টি দেশ এবং ভোট দিতে চায় নি ৪১টি দেশ, ৫টি দেশ ছিল অনুপস্থিত.
মঙ্গলবারে জর্ডন নদীর পশ্চিম পারে রামাল্লা শহরে প্যালেস্টাইনের প্রাক্তন নেতা ইয়াসার আরাফাতের মরদেহ কবর খুঁড়ে তোলা হচ্ছে. এই প্রক্রিয়া করতে হচ্ছে, কারণ যাতে আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞরা, তার মধ্যে রাশিয়ার বিজ্ঞানীরাও রয়েছেন, তারা দেহ থেকে মাংসের নমুনা সংগ্রহ করতে পারেন.
রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে সিরিয়ার প্রতিনিধি এই দেশে নিহত হওয়া ১৪৩ জন বিদেশীর তালিকা দিয়েছে, যারা বিরোধী পক্ষের হয়ে লড়াই করছিল. তালিকায় রয়েছে – কাতার, সৌদি আরব, লিবিয়া, আফগানিস্তান, তুরস্ক ও অন্যান্য রাষ্ট্রের নাগরিক. গত মাসে সিরিয়া নিরাপত্তা পরিষদকে ১০৮ জন নিহত হওয়া ভাড়াটে সেনার তালিকা দিয়েছিল, যারা বিরোধী পক্ষের হয়ে যুদ্ধ করছিল.
ইজরায়েল ও প্যালেস্টাইনের হামাস আন্দোলনের মধ্যে এক ভঙ্গুর আপাতঃ শান্তি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে. তা দিয়ে ইজরায়েলের “ধূম স্তম্ভ” অপারেশন, যা ১৪ই নভেম্বর থেকে ইজরায়েলের এলাকায় গাজা সেক্টরের ছোঁড়া রকেটের উত্তরে শুরু হয়েছিল, তা থামিয়েছে. বুধবার সন্ধ্যাবেলায় এই শান্তির বিষয়ে ইজিপ্ট ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্থতার ফলে সমঝোতা হয়েছে.
ইজরায়েল ও প্যালেস্টাইনের হামাস গোষ্ঠীর লোকরা এখনও শান্তি স্থাপন নিয়ে কোনও চুক্তিতে আসতে পারছে না. আরও বেশী করেই তারা বাইরের খেলোয়াড় দলে টানছে. প্যালেস্টাইনের লোকদের স্বার্থ দেখছে ইজরায়েল ও টিউনিশিয়া. আর কাতারের আমীর ঘোষণা করেছে যে, আরব বসন্তের পরে জোট বদ্ধ মুসলিম বিশ্বের উচিত্ এবারে ইজরায়েলকে কড়া জবাব দেওয়া. কিন্তু গাজা সেক্টরে বিরোধের থেকে প্রধানতঃ লাভবান হতে চলেছে ইরান.
ইজরায়েল ও প্যালেস্টাইনের হামাস গোষ্ঠীর লোকরা এখনও শান্তি স্থাপন নিয়ে কোনও চুক্তিতে আসতে পারছে না. ইজিপ্টের কায়রো শহরে ইজিপ্টের মধ্যস্থতার মাধ্যমে বকলমে যে আলোচনা করা হচ্ছে, তা চলছে গাজা সেক্টরে বোমা বর্ষণ ও ইজরায়েলের এলাকায় রকেট ছোঁড়ার মধ্যেই.
ইজিপ্টের প্রধানমন্ত্রী হিশাম কান্দিল গাজা সেক্টর সফর করার পরেও বোঝা গেল না যে, কি করে বর্তমানের ইজরায়েল ও হামাসের মারাত্মক বিরোধের অবসান হতে পারে. ইজরায়েলে তিন ঘন্টা সফরের সময়ে ইজরায়েল আকাশ পথে গাজা সেক্টরে বোমা বর্ষণ ও গুলি করা বন্ধ করার আশ্বাস দিয়েছিল.
ইজিপ্টের রাষ্ট্রপতির নির্দেশে আজ গাজা সেক্টরে এসেছেন ইজিপ্টের প্রধানমন্ত্রী হিশাম কান্দিল. তার সফরের সময়ে ইজরায়েলের সামরিক বাহিনী গাজা সেক্টরে আঘাত হানা অব্যাহত রেখেছে. ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেছেন যে, কান্দিল যখন গাজা সেক্টরে যাবেন, তখন ইজরায়েল তৈরী আছে সমস্ত রকমের আঘাত হানা বন্ধ করতে, তবে তার একমাত্র শর্ত হল যে, হামাস একই কাজ করবে. ফলে আঘাত ও প্রত্যাঘাত চলতেই থেকেছে.
ইজরায়েলের সেনা বাহিনী আজ আবার আক্রমণ করেছে, গাজা সেক্টরে হামলার দ্বিতীয় দিনে তারা প্রায় একশোটি জায়গায় বোমা বর্ষণ করেছে. একই সঙ্গে তারা গাজা সেক্টরের সীমানা বরাবর সেনা বাহিনী দিয়ে ঘিরে দিয়েছে ও বিস্তৃত রকমের সামরিক অপারেশনের সম্ভাবনাও বাদ দেয় নি. একই সময়ের মধ্যে ১৭ই নভেম্বরে কায়রো শহরে আরব লীগের রাষ্ট্র গুলি জরুরী অধিবেশন ঘোষণা করেছে.
সিরিয়ার আভ্যন্তরীণ বিরোধী পক্ষের মত হিসাবের মধ্যে না এনে সারা সিরিয়ার জোট সম্বন্ধে বলা যেতে পারে না, এই কথা রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ এর- রিয়াদে বৈঠকের শেষে ঘোষণা করেছেন. সৌদি আরবের রাজধানীতে রাশিয়া- পারস্য উপসাগরীয় রাষ্ট্র গুলির স্ট্র্যাটেজিক সহযোগিতা আলোচনা সভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে.
কাতার রাষ্ট্রের রাজধানী দোহা শহরে সিরিয়ার শান্তি প্রস্তাবে অনিচ্ছুক বিরোধীদের তথাকথিত একজোট হওয়ার সম্মেলন হয়ে গেল. পশ্চিমের ও আরব রাজতন্ত্র গুলির খুবই কড়া চাপ দেওয়াতে শেষ অবধি ঘোষণা করা হয়েছে যে, মতবিভেদ দূর হয়েছে ও একটি ঐক্যবদ্ধ জোট সংগঠন তৈরী করা গিয়েছে.
রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে জেনেভাতে গৃহীত কম্যুনিকে গৃহীত হওয়ার কথা. এই বিষয়ে ঘোষণা করেছেন আরব লীগ ও রাষ্ট্রসঙ্ঘের বিশেষ প্রতিনিধি লাখদার ব্রাহিমি. নিজের পক্ষ থেকে রাশিয়ার পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রধান সের্গেই লাভরভ কয়েকটি দেশের পক্ষ থেকে জেনেভা প্রস্তাব গ্রহণ না করতে চাওয়ার মধ্যে যেন তেন প্রকারেণ সিরিয়াতে প্রশাসন বদলে দেওয়া আদায় করতে চাওয়াই দেখতে পেয়েছেন.
সমস্ত রকমের সম্ভাব্য সামরিক গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ, রক্তপাত ও নাগরিকদের হত্যা, যুদ্ধের নিয়মও ভঙ্গ করা ও আন্তর্জাতিক মানবাধিকার লঙ্ঘণ – এই সবই গত দেড় বছর ধরে লিবিয়াতে চলছে. গণতন্ত্রের প্রতীক, যেটির জন্য মুহম্মর গাদ্দাফিকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল, বর্তমানে তা হয়েছে মুখে দাড়ি ও হাতে স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র সমেত লোক, যে যথেচ্ছ চারদিকে গুলি বর্ষণ করছে.
ন্যাটো জোটের সামরিক অপারেশনের পরিনাম এই জন্যই উল্লেখ যোগ্য যে, লিবিয়ার ১৫ হাজার কোটি ডলার, যা বিদেশী ব্যাঙ্ক গুলিতে আটক রাখা হয়েছিল, তা হারিয়ে গিয়েছে. ন্যাটো জোটের বোমা বর্ষণের ফলে এই দেশের যা ক্ষতি হয়েছে, তা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়ে হিটলারের বিমান বাহিনী বোমা ফেলায় যত ক্ষতি হয়েছিল তার থেকে সাত গুণ বেশী হয়েছে.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30
নভেম্বর 2012
ঘটনার সূচী
নভেম্বর 2012
3
4
5
7
8
9
10
11
13
14
17
18
21
24
25
26
28
29