×
South Asian Languages:
লিবিয়া ও আরব বিশ্ব, 1 মে 2011
ত্রিপোলি শহরের গাদ্দাফির বাসস্থানের উপরে শনিবার থেকে রবিবারের ভোর রাতে ন্যাটো জোটের বিমান থেকে বোমা ফেলে আক্রমণ করা হয়েছে. বোমার গায়ে মুহম্মর গাদ্দাফির ছোট ছেলে ২৯ বছর বয়সী সৈফ আল- আরব ও তিন নাতির মৃত্যু হয়েছে.    লিবিয়ার নেতা ও তাঁর কাছে থাকা স্ত্রীর কোন ক্ষতি হয় নি.
লিবিয়াতে স্থলপথে প্রবেশের সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার শুধু রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদেরই রয়েছে. এই বিষয়ে ঘোষণা করেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রধান সের্গেই লাভরভ. তাঁর কথামতো, স্থলপতে অনুপ্রবেশের জন্য প্রস্তুতি যে চালু রয়েছে, এই খবর আসছে, প্রসঙ্গতঃ, তিনি উল্লেখ করেছেন যে, এই ধরনের পরিকল্পনা ন্যাটো জোট ও ইউরোপীয় সংঘেও তৈরী করা হচ্ছে.
পয়লা মে ভোর রাত্রে ন্যাটো জোটের বিমান হানার পরে লিবিয়ার নেতা মুহম্মর গাদ্দাফি বেঁচে গিয়েছেন. লিবিয়ার বিপ্লবের নেতার ছোট ছেলে সৈফ আল-আরব গাদ্দাফি নিহত. এই বিমান হানার ফলে লিবিয়ার নেতার তিনজন নাতিও মারা পড়েছে. ন্যাটো জোটের প্রতিনিধি ত্রিপোলি শহরে বোমা বর্ষণের কথা সমর্থন করেছে. একই সঙ্গে জোটের প্রতিনিধি এই ধারণাকে অস্বীকার করেছেন যে, বোমা বর্ষণের উদ্দেশ্য ছিল গাদ্দাফির পরিবার.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
মে 2011
ঘটনার সূচী
মে 2011
2
3
8
9
13
14
15
16
17
18
21
22
23
24
26
28
29
30