×
South Asian Languages:
দুর্ভিক্ষ

২০১৩ সালে বিশ্বে রেকর্ড পরিমাণে দানাশষ্য উত্পাদিত হতে যাচ্ছে. রাষ্ট্রসঙ্ঘের খাদ্যদ্রব্য ও কৃষি সংস্থার অনুমান অনুযায়ী নতুন বছরের আগেই বিশ্বে আড়াইশো কোটি টন বিভিন্ন ধরনের দানাশষ্য তোলা সম্ভব হতে চলেছে. এটা গত বছরের চেয়ে শতকরা আট শতাংশ বেশী. তারই মধ্যে এই সংস্থা সাবধান করে দিচ্ছে যে, খাদ্য নিরাপত্তা নিয়ে পরিস্থিতি এশিয়া ও আফ্রিকার অনেক অংশেই খারাপ হতে চলেছে.

ভারত সঙ্কটের দোড়গোড়ায়. আপাততঃ অর্থনীতিবিদরা বিদেশী মূলধন আকর্ষণ করা নিয়ে যখন ব্যস্ত ও রাজনীতিবিদরা এগিয়ে দিচ্ছেন দেশের জন্য খুবই দামী খাদ্য নিরাপত্তা বিল, তখন ভারতের জাতীয় মুদ্রা রুপিয়ার দাম কমে যাওয়ার কারণে খুবই দ্রুত বেড়ে গিয়েছে যেমন জ্বালানী ও শিল্পজাত দ্রব্যের দাম, তেমনই মূল খাদ্যোপোযোগী জিনিষের দামও: আলু, পিঁয়াজ ও নুনের দাম. পরিস্থিতি একেবারে চরমে পৌঁছেছে যখন বিহারে নুনের দাম এক দিনে পনেরো টাকা থেকে দশগুণ বেড়ে দেড়শো টাকা হয়েছিল প্রতি কিলোগ্রামে.

গতকাল স্কুলের মধ্যাহ্নে বিষাক্ত খাবার খেয়ে ২২ জন শিশু কিশোরের মৃত্যু হয়েছে বিহারে. এই কারণে প্রথম যে ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, সে এক কর্মচারী, যে এই খাবার নিয়ে এসেছিল ও সেই স্কুলের ডিরেক্টর, যিনি তার ছাত্রদের শরীর খারাপের খবর পেয়েই পালানোর মতলব করেছিলেন. প্রায় তিরিশজন স্কুল পড়ুয়া এখনও হাসপাতালে রয়েছে. তাদের মধ্যে অনেকেরই অবস্থা গুরুতর.
এক-শো কুড়ি কোটি মানুষ, অর্থাত্ বিশ্বের সমস্ত জনতার একের পঞ্চমাংশ লোক এমন সব জায়গা থাকেন, যেখানে জলের সংকুলান হয় না. আরও এক-শো পঞ্চাশ কোটি মানুষ বাধ্য হন জলের ব্যবহার কমাতে, কারণ প্রয়োজনীয় পরিকাঠামো নেই. এই সমস্যা বিশ্বের নানা কোণে জানান দিচ্ছে, তার মধ্যে মধ্য এশিয়াতেও. এখানে বিরোধের পক্ষ হিসাবে এগিয়ে রয়েছে উজবেকিস্তান, কিরগিজিয়া ও তাজিকিস্তান.
২০১৫ সালের মধ্যে বিশ্বে অর্ধেক বুভুক্ষু লোক কমানো সম্ভব বলে মনে করেছে রাষ্ট্রসঙ্ঘের বিশেষজ্ঞরা. ১৯৯০ সালে বিশ্বে সমস্ত মানুষের মধ্যে ২৩, ২ ভাগ না খেয়ে থাকতো, ২০১২ সালে তা হয়েছে শতকরা ১৪, ৯ শতাংশ. মহাসচিব বান কী মুন সোমবারে সেই প্রগতিকে অভিনন্দন জানিয়েছেন যা গত ১২ বছরে করা সম্ভব হয়েছে, আর এই পরিকল্পনাকে বিশ্বে দারিদ্রের সঙ্গে সবচেয়ে সফল বলেছেন.
২০শে জুন বিশ্ব উদ্বাস্তু দিবস পালিত হচ্ছে. রাষ্ট্র সঙ্ঘের তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে বর্তমানে নথিভুক্ত রয়েছেন প্রায় ২ কোটি মানুষ, যাঁরা বাধ্য হয়েছেন নিজেদের দেশ ছেড়ে যেতে, আর প্রায় আড়াই কোটি মানুষ নিজেদের দেশের ভিতরেই এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় চলে যেতে বাধ্য হয়েছেন. এটা গত ১৮ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেশী সংখ্যা.
রাষ্ট্রসঙ্ঘের খাদ্য দ্রব্য ও কৃষি কার্য সংস্থা নতুন খাদ্য পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে, যাতে মানুষের ও জীব জন্তুদের খাবারের মধ্যে পোকামাকড় – পিঁপড়ে, ফড়িং, জোনাকি ও অন্যান্য পোকা ব্যবহারের চেষ্টা করা হচ্ছে. সোমবারে প্রকাশিত এক রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, পোকারা সর্বত্র রয়েছে ও খুব দ্রুত বংশ বৃদ্ধি করে. তাছাড়া, পরিবেশের উপরে পোকাদের প্রভাব খুবই কম.
পাঁচ বছর আগে শ্পিত্সবের্গেন সুমেরীয় দ্বীপপূঞ্জের একটি দ্বীপে এক দৈত্যাকার দানাশষ্য তহবিল তৈরী করা হয়েছিল. তার সরকারি নাম – স্ভালবার্ড আন্তর্জাতিক বীজ ভাণ্ডার. পাহাড়ের ভিতরে ১২০ মিটার গভীরে এই ভাণ্ডার পারমানবিক আঘাত সহ্য করতে সক্ষম ও বিশ্বের মহাসমুদ্রের জলের স্তর উপরে উঠলেও এর কোন ক্ষতি হবে না.
জাতিসংঘের সাধারন সম্পাদক বান কি মুন মধ্যআফ্রিকা প্রজাতন্ত্রে জাতীয় ঐক্যের সরকার গড়াকে স্বাগত জানিয়েছেন. এক বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে তিনি এই ঘটনাকে ঐ দেশে শান্তি স্থাপনের পক্ষে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে অভিহিত করেছেন. বান কি মুন সেইসঙ্গেই মধ্যআফ্রিকা প্রজাতন্ত্রের জনগণকে জরুরী ত্রাণসাহায্য দেওয়ার অপরিহার্যতার কথা বলেছেন. গত রবিবার ঐ দেশে বিরোধী নেতা নিকোলা টিয়াংগেইকে অন্তর্ভুক্ত করে নতুন মন্ত্রীসভা গড়া হয়েছে.
রবিবারে এই উত্সব পালন করা হচ্ছে, ১৯৪৪ সালের ২৭শে জানুয়ারী দুই সপ্তাহ ধরে আক্রমণে অগ্রগতির পরে সোভিয়েত সেনা বাহিনী লেনিনগ্রাদ শহরকে ফ্যাসিস্ট অবরোধ থেকে মুক্ত করতে সক্ষম হয়েছিল. লেনিনগ্রাদের বিজয় দিবস অনুষ্ঠান ঐতিহ্য মেনেই শুরু হয়েছে নেভস্কি প্রসপেক্টে এক সমাবেশ দিয়ে.
সকলের জন্যই খাবার পর্যাপ্ত! বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে, মানব সমাজ নিজেদের ভরপেট খাওয়ারই যোগাড় দিতে সমর্থ শুধু নয়, বরং বুভুক্ষা নামক সামাজিক ব্যাপারটাকে একেবারে গোড়া ধরে নির্মূল করে দিতে পারে. এর জন্য শুধু প্রয়োজন যেকোন হিসাবী গৃহকর্ত্রীর মতো নিজে কাজ করা. ব্রিটেনের লোকদের হিসেব মতো, আজকের দিনে মানবসমাজ প্রায় ১০০ থেকে ২০০ কোটি খাদ্য দ্রব্য প্রতি বছরে ফেলে দিচ্ছে জঞ্জালে.
কুয়েতের শাসক কর্তৃপক্ষ সিরিয়ায় ত্রাণসাহায্য পাঠানোর প্রশ্নে আন্তর্জাতিক সম্মেলনের আয়োজন করার অভিপ্রায় ব্যক্ত করেছে. এর আগে জাতিসংঘের সাধারন সম্পাদক বান কি মুন এরকম সম্মেলনের আয়োজন করার অপরিহার্যতার কথা বলেছিলেন. জাতিসংঘ সংগৃহীত তথ্য অনুযায়ী, সিরিয়ায় আজকের দিনে ২৫ লাখ মানুষের প্রয়োজন ত্রাণসাহায্য. পাঁচ লাখেরও বেশি মানুষ বাধ্য হয়েছে নিজেদের ঘরবাড়ি ছেড়ে প্রতিবেশী দেশগুলিতে পালাতে.
যবে থেকে আবহাওয়া পর্যবেক্ষন করা শুরু হয়েছে, সেই ১৬০ বছরের মধ্যে উষ্ণতম হবে ২০১৩ সাল. বৃটেনের আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাস অনুযায়ী দিনের গড় তাপমাত্রা আধডিগ্রি সেন্টিগ্রেডেরও বেশি বাড়বে. যদি এভাবেই চলতে থাকে, তাহলে চলতি বছর শেষ হওয়ার আগেই আমাদের গ্রহে শুরু হবে বিপর্যয়কর পরিবর্তন. অন্যদিকে, কিছু গবেষণাবিদ উল্টো ভয় দেখাচ্ছে.
দক্ষিণ কোরিয়া ঠিক করেছে, যে পিয়ং-ইয়ং দূরপাল্লার রকেট নিক্ষেপ করার পরে অন্তঃকোরিয় আদানপ্রদানের ক্ষেত্রে তারা সংযমী হবে. দেশের উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে মিলন বিষয়ক মন্ত্রীসভার এক প্রতিনিধি এই কথা ঘোষনা করেছেন. তিনি আরও বলেছেন, যে রকেট নিক্ষেপ বড়সড় সমস্যার সৃষ্টি করেছে, যাকে এড়িয়ে চলা সম্ভব নয়.
কৃষিবিজ্ঞানীরা ক্ষুধার সাথে সংগ্রাম করার স্কিম তৈরি করছেন. মুল আলোচ্যবিষয় হচ্ছে অমীমাংসিত প্রশ্নঃ পৃথিবীর ক্রমবর্ধমান জনগোষ্ঠীর ক্ষুধা নিবৃত্ত করার জন্য কি শুধুমাত্র জেনেটিক্যালি পরিবর্তিত খাদ্যের উত্পাদন করতে হবে, নাকি শুদ্ধ প্রাকৃতিক খাদ্য দিয়েই চাহিদা পূরন করা যাবে? ৩০ বছর পরে আমাদের গ্রহের জনসংখ্যা আরও ২০০ কোটি বাড়বে. ইত্যবসরে বিশ্ব খাদ্য সংস্থার পূর্বাভাস অনুযায়ী খাদ্যদ্রব্যের সংস্থান ৭০ শতাংশ বাড়ানো অপরিহার্য.
দুই সন্তানের জননী এক নারী ফ্রান্সের দক্ষিণের এক শহরে স্থানীয় মেয়রের দপ্তরে নিজের গায়ে আগুন লাগিয়ে একই সাথে মেয়রকে নিয়ে আত্মঘাতী হতে গিয়েছিলেন. জানানো হয়েছে যে, তিনি এর আগেও মেয়রের ভবনের সাথে নিজেকে শৃঙ্খল দিয়ে বেঁধে রেখে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করেছিলেন. এই নারীর সংসার চলে সামাজিক অনুদানের উপরে নির্ভর করে.
জর্ডনের উত্তরে কিছু অসন্তুষ্ট সিরিয়া থেকে আসা উদ্বাস্তু এই কাজ করেছে. মঙ্গলবারে ফ্রান্স প্রেস সংবাদ সংস্থা থেকে এই খবর দেওয়া হয়েছে জর্ডনের দাতব্য প্রতিষ্ঠান কেতাব ই সুন্না থেকে পাওয়া খবর বলে, যারা জর্ডনে সিরিয়া উদ্বাস্তুদের ত্রাণের কার্যে ব্যবস্থা রয়েছে. জাতারি নামের উদ্বাস্তু ত্রাণ শিবিরে কিছু সিরিয়া থেকে আসা উদ্বাস্তু কুড়িটি তাঁবু জ্বালিয়ে দিয়েছে.
খাবার জিনিষের অভাব ও খাদ্য দ্রব্যের সঙ্কট বিশ্বের বহু কোটি মানুষের জন্য আজ বাস্তবে পরিণত হয়েছে. ১৬ই অক্টোবর বিশ্ব খাদ্য দিবস পালন করা হয়ে থাকে. এটা সেই সমস্যাকেই মনে করিয়ে দেওয়া: রাষ্ট্রসঙ্ঘের বিশ্ব খাদ্য কৃষি সংস্থার মূল্যায়ণ অনুযায়ী প্রত্যেক অষ্টম বিশ্ব বাসীই নিয়মিত অনাহারী রয়েছেন.
দানাশষ্য উত্পাদক মূল দেশ গুলিতেই এই বছরের খরার ফলে বিশ্বের বাজারে গমের দাম বাড়ছে. সবচেয়ে কঠিন পরিস্থিতি হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে, যেখানে বিরল রকমের গ্রীষ্মের দাবদাহে অধিকাংশ ফসলই জ্বলে গিয়েছে. রাশিয়াও এই বছরে খরার ফলে কম শষ্য উত্পাদন করতে পেরেছে. তা স্বত্ত্বেও সরকার বিদেশে রপ্তানীর বিষয়ে কোন রকমের বাধা নিষেধ আরোপ করে নি.
আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
অক্টোবর 2017
ঘটনার সূচী
অক্টোবর 2017
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
20
21
22
23
24
25
26
27
28
29
30
31