×
South Asian Languages:
ভূমিকম্প, অক্টোবর 2011
গত সপ্তাহের শেষ – এই সপ্তাহের শুরুতে জাপান – ভারত যোগাযোগের ক্ষেত্রে এক বড় মাপের সক্রিয়তা লক্ষ্য করা গিয়েছে. একই সঙ্গে ভারতের দুই মন্ত্রী – পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রধান এস. এম. কৃষ্ণ ও প্রতিরক্ষা দপ্তরের প্রধান এ. কে. অ্যান্টনি – টোকিও গিয়েছেন. পররাষ্ট্র মন্ত্রী সেখানে ছিলেন ২৮ – ২৯শে অক্টোবর, প্রতিরক্ষা মন্ত্রী জাপানে আসছেন ২রা নভেম্বর.
তুরস্কের দক্ষিণ-পুবে ওয়ান প্রদেশে ভূমিকম্পের এক সপ্তাহ পরে নিহতদের সংখ্যা ৬০০ জন ছাড়িয়ে গেছে. আগে রবিবার জানানো হয়েছিল যে, নিহত হয়েছে ৫৯৬ জন, ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে চার হাজারেরও বেশি লোক. ৭.২ মাত্রার ভূমিকম্প ওয়ান প্রদেশে হয়েছিল ২৩শে অক্টোবর. স্থানীয় ভূকম্পবিদরা সেইদিনই জানিয়েছিল যে, এ প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে নিহতদের সংখ্যা হতে পারে ৫০০ থেকে এক হাজার জন.
রাশিয়ার উদ্ধারকর্মীরা বৃহস্পতিবার তুরস্কে ভূমিকম্পের অঞ্চলে ক্ষতিগ্রস্ত বাসিন্দাদের জন্য মানবতাবাদী সাহায্য পাঠিয়েছে. এ সম্বন্ধে "ইন্টারফাক্স" সংবাদ সংস্থা কে জানানো হয়েছে রাশিয়ার বিপর্যয় নিরসন মন্ত্রণালয়ে.মস্কো উপকন্ঠের বিমানবন্দর থেকে বৃহস্পতিবার সকালে রওনা হয়েছে "ইল-৭৬" মার্কা বিমান. তাতে রয়েছে ভূমিকম্পে গৃহহীন হয়ে পড়া লোকেদের জন্য তাঁবু. এ মানবতাবাদী সাহায্যের মালপত্রের মোট ওজন ৩৭ টন.
  তুরস্কের উত্তরাঞ্চলে ভান প্রদেশে ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় একটি কারাগারে বন্দীরা বিদ্রোহ করেছে. তারা ছুরি ও কাঁচি নিয়ে প্রহরীদের ওপর আক্রমণ করে. তাছাড়াও তারা কারাগারে অগ্নিসংযোগোরও চেষ্টা করেছিল. খবর পাওয়া গেছে, যে কারাগারে গুলির আওয়াজও শোনা গেছে. অকূতোস্থলে পুলিশবাহিনী, সেনাবাহিনী ও কয়েকটি এ্যাম্বুলেন্স পাঠানো হয়েছে. বন্দীদের অন্য কোনো নিরাপদ জায়গায় নিয়ে যেতে প্রশাসকেরা অস্বীকার করার পরেই গন্ডগোল বাঁধে.
  তুরস্কের ভান প্রদেশে ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা ৪৫৯ জনে গিয়ে দাঁড়িয়েছে, এক হাজার তিনশোরও বেশি লোক আহত হয়েছে. দুর্যোগের পরিণতি অতিক্রম করার জন্য আঙ্কারা ৩০টি দেশের কাছে আবেদন জানিয়েছে. ঐ সব দেশের মধ্যে আছে রাশিয়া, আমেরিকা, চীন, জাপান, ইউরোপীয় সংঘের দেশগুলি এবং তুরস্কের প্রতিবেশী দেশেরা. ইস্রায়েলের কাছেও আবেদন জানানো হয়েছে, যার সাথে তুরস্কের সম্পর্ক রীতিমতো জটিল.
তুরস্কের দক্ষিণ-পুবে এর্জিশ ও ওয়ান শহরে দু দিন আগে যে ভীষণ ভূমিকম্প হয়েছিল, সেখানে ধ্বংসস্তূপের তলায় বেঁচে থাকা লোকেদের খুঁজে বার করার আশা উদ্ধারকর্মীদের ক্রমেই কমে আসছে. তবুও উদ্ধারকর্মীরা ঠাণ্ডা এবং ক্লান্তি সত্ত্বেও গত রাতে কাজ চালিয়ে গেছে তাদের খুঁজে বার করার আশায়, যারা রবিবারের ৭.২ মাত্রার ভূমিকম্পের পরে বেঁচে রয়েছে.
তুরস্কের দক্ষিণ-পুবে ওয়ান প্রদেশে রবিবার দুটি ধ্বংসাত্মক ভূমিকম্প হয়েছে. দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ইদ্রিস নইম সাহিনের তথ্য অনুযায়ী, ভূমিকম্পে নিহতদের সংখ্যা ২০০ জন ছাড়িয়ে গেছে. আমাদের “রেডিও রাশিয়ার” সংবাদদাতা আনাতোলি কোরিতস্কি জানাচ্ছে, “প্রাথমিক তথ্য অনুযায়ী, ক্ষতিগ্রস্তদের সংখ্যা এক হাজার জনের উপর. উদ্ধার কাজ চালানো হচ্ছে. ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থলে বহুসংখ্যক ভবন ধ্বংস হয়েছে, যাতে আছে অফিস ভবন, বসতবাড়ি এবং ছাত্রাবাস.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
অক্টোবর 2011
ঘটনার সূচী
অক্টোবর 2011
1
2
3
4
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
20
21
22
23
28
29
30