×
South Asian Languages:
গণ অভ্যুত্থান, আগষ্ট 2013

আধুনিক যুগে সবচেয়ে জনপ্রিয় হচ্ছে তাই, যা পুরনো জিনিষের চর্বিতচর্বন, নতুন কিছু করার আর তা নিয়ে চিন্তা করার সময় নেই, তাই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো জোটের সদস্য দেশগুলোর নীতি সিরিয়া নিয়ে হতে চলেছে পুরো ইরাক ও লিবিয়াতে পশ্চিমের দেশগুলোর কাজ কারবারের মিশ্রণ, অন্তত “রেডিও রাশিয়ার” বিশেষজ্ঞরা তাই মনে করেছেন.

ন্যাটো জোটের সদস্য দেশগুলোর রাষ্ট্রদূতদের ব্রাসেলস শহরে এক জরুরী অধিবেশনে ডেকে পাঠানো হয়েছে. আলোচ্য তালিকায় রয়েছে – সিরিয়া. এর আগে গতকাল সন্ধ্যায় মার্কিন পররাষ্ট্র সচিব রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে এক টেলিফোন আলাপের সময়ে সিরিয়াতে ২১শে আগষ্ট দামাস্কাস শহরের উপকণ্ঠে সম্ভাব্য রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের জন্য দোষ চাপিয়ে দিয়েছেন সিরিয়ার রাষ্ট্রপতি বাশার আসাদের উপরেই. মস্কো এর বিপক্ষে যুক্তি দিয়েছে. জানাই রয়েছে যে, রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করে আক্রমণ যে সিরিয়ার সরকারি ফৌজ করেছে, তার কোন রকমেরই প্রমাণ নেই. কিন্তু পশ্চিম খুব একটা বাস্তব বিষয় নিয়ে আগ্রহী নয়, রয়টার সংস্থার তথ্য অনুযায়ী যে কোন ক্ষেত্রেই এই আঘাত হানা হতে পারে এই বৃহস্পতিবারেই.

রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিদের সিরিয়া নিয়ে গাগ শহরের ২৮শে আগষ্টের সাক্ষাত্কারকে বাতিল করা হয়েছে. মার্কিন গসডেপের সংবাদে বলা হয়েছে যে, প্রথমে আমেরিকার পক্ষ থেকে ঠিক করা হবে নিজেদের তরফ থেকে দামাস্কাসের উপকণ্ঠে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের প্রতিক্রিয়া কি. এই ঘটনার জন্য দায়িত্ব রাষ্ট্রসঙ্ঘের পক্ষ থেকে তদন্তের অপেক্ষা না করেই সিরিয়ার রাষ্ট্রপতি বাশার আসাদের উপরে দেওয়া হয়েছে. অন্যভাবে বলতে হলে, যদি পশ্চিম থেকে সিরিয়াতে সামরিক অপারেশন শুরু করা হয়, তবে শান্তি প্রক্রিয়া নিয়ে কোন রকমের পরামর্শ করাটাই বাড়তি হয়ে যাবে.

রাশিয়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে দামাস্কাসের উপরে শক্তি প্রয়োগ করে চাপ সৃষ্টি করার বিষয়ে বিরত হতে আহ্বান করেছে. মার্কিন পররাষ্ট্র সচিব জন কেরির সঙ্গে এক টেলিফোন আলাপের সময়ে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রী সের্গেই লাভরভ মনে করিয়ে দিয়েছেন যে, সম্ভাব্য নতুন সামরিক অপারেশনের খুবই বিপজ্জনক পরিণামের সম্বন্ধে, যা সমগ্র নিকটপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকার উপরে পড়তে পারে ও যার উদাহরণ হয়েছে ইরাক ও লিবিয়া.

সিরিয়ার বিরুদ্ধে সম্ভাব্য শক্তি প্রয়োগের সম্ভাবনার কথা যারা বলছে, তাদের সকলকেই রাশিয়া শুভবুদ্ধি প্রদর্শণের আহ্বান করেছে ও ট্র্যাজিক ভুল করতে না করেছে. এই বিষয়ে রবিবারে সন্ধ্যায় ঘোষণা করেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্র দপ্তরের সরকারি প্রতিনিধি আলেকজান্ডার লুকাশেভিচ.

সিরিয়ার জঙ্গীরা দামাস্কাস উপকণ্ঠে লড়াইয়ের সময়ে সরকারি ফৌজের বিরুদ্ধে রাসায়নিক অস্ত্র প্রয়োগ করেছে. শনিবারে দামাস্কাসের উপকণ্ঠে সরকারি ফৌজের বিরুদ্ধে জঙ্গীরা রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করেছে বলে সিরিয়ার সরকারি সংবাদ সংস্থা সানা জানিয়েছে

দেশের ভিতরে দমনের জন্য যন্ত্রপাতি এখন আর ইউরোপীয় সঙ্ঘ পাঠাবে না বলে ২৮টি দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকের পরে ইউরোপীয় সঙ্ঘের ব্রাসেলস শহরের অধিবেশনে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে.এই বিষয়ে সাংবাদিকদের পররাষ্ট্র মন্ত্রী পর্যায়ে জরুরী বৈঠকের পরে জানিয়েছেন ইউরোপীয় কূটনীতির প্রধান ক্যাথরিন অ্যাশ্টন.

১৯৮৮ সালের ২০শে আগষ্ট, আজ থেকে ২৫ বছর আগে ইরান ও ইরাকের মধ্যে শান্তি চুক্তি বহাল হয়েছিল. আট বছর ধরে চলা রক্তক্ষয়ী এক ভীষণ যুদ্ধের ইতি হয়েছিল, যাকে ইরানে বলা হত “পবিত্র প্রতিরক্ষা” আর ইরাকে “সাদ্দামের কাদিসিয়া” (এল- কাদিসিয়া নামক জায়গায় খ্রীষ্টীয় ষষ্ঠ শতকে ইরাকের মুসলিম বাহিনী পারস্যের সাসানিদদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে জয়লাভ করেছিল) বলে. কিন্তু বিশেষজ্ঞদের মতে, কোন একটি যুদ্ধে রত পক্ষই বিতর্কের উর্দ্ধে থাকার মতো বিজয় এই যুদ্ধে অর্জন করতে পারে নি.

জন্মের পর থেকে বছর সত্তরের একেবারেই ভঙ্গুর চেহারা, একেবারেই ন্যাড়ামাথা আর খুবই লম্বা নাক ও একেবারে পুঁতির মতই জ্বলজ্বলে চোখ. মহম্মদ মোসাদ্দীক অথবা বুড়ো মোস্সি, এই নামেই তাকে ডাকত ব্রিটেন আর আমেরিকার লোকরা, তিনিই ছিলেন ইরানে ১৯৫১-১৯৫৩ সালে হয়ে যাওয়া এক নাটকীয় পরিস্থিতির মুখ্য পরিচালক. “তিনি নিজের আঙ্গুলের ইশারায় সকলকে ঘোল খাইয়ে ছেড়েছিলেন: সেটা যেমন বিদেশী খনিজ তেলের কোম্পানীগুলোকে, তেমনই আমেরিকা ও ব্রিটেনের প্রশাসনকেও, যেমন শাহকে, তেমনই দেশের ভেতরে নিজের প্রতিপক্ষকেও”, - এই ভাবেই ডক্টর মোসাদ্দীককে নিয়ে “নিষ্কাশণ, খনিজ তেলের জন্য লড়াইয়ের বিশ্ব ইতিহাস” নামের এক বইয়ের লেখক ড্যানিয়েল এর্গিন বর্ণনা করেছেন. বিশ্ব ইতিহাসে ইরানের প্রধানমন্ত্রী মহম্মদ মোসাদ্দীক প্রবেশ করেছেন এক প্রথম নিকটপ্রাচ্যের রাজনীতিবিদ হিসাবে, যিনি নিজের দেশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রাকৃতিক সম্পদ – খনিজ তেলকে জাতীয় সম্পদে পরিণত করেছিলেন.

আরব লীগের রাষ্ট্রগুলো ইজিপ্টের পরিস্থিতি নিয়ে এক জরুরী অধিবেশন আহ্বানের বন্দোবস্ত করছে. সেটা এই সপ্তাহেই হওয়ার কথা. আরব লীগ কার পক্ষ নেবে তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই. আন্তর্আরবীয় মনোভাব এখন ইজিপ্টের নতুন প্রশাসনের দিকেই ঢলেছে. তাদের সমর্থনে বাস্তবে প্রায় সমস্ত আরব রাষ্ট্রগুলোই বক্তব্য রেখেছে, তার মধ্যে সৌদী আরব, কুয়েইত, সংযুক্ত আরব আমীরশাহীও রয়েছে.

ইজিপ্টে গোলমালের শিকার শুধু মানুষই হচ্ছে না, বরং সাংস্কৃতিক ভাবে মূল্যবান জায়গাগুলোও. গোলমালের মধ্যে সুযোগ বুঝে ভাঙচুর করা লোকরা খ্রীষ্টান গির্জা জ্বালিয়ে দিতে শুরু করেছে ও চেষ্টা করেছে আলেকজান্দ্রিয়াতে জাতীয় যাদুঘর লুঠ করার.

ইজিপ্টের সমস্ত জায়গা জুড়ে এক মাসের জন্য জরুরী অবস্থা জারী করা হয়েছে. এই ধরনের একটা নির্দেশ স্বাক্ষর করেছেন অন্তর্বর্তী কালীণ রাষ্ট্রপতি আদলি মনসুর, মন্ত্রীসভার পক্ষ থেকে এই ব্যবস্থাকে সমর্থন করার পরে. এই দলিলে যেমন উল্লেখ করা হয়েছে যে, এই ব্যবস্থা “নেওয়া হয়েছে সন্ত্রাসের সঙ্গে লড়াই করার জন্য”. এছাড়াও দেশের বিভিন্ন অংশে, তার মধ্যে কায়রোতেও কার্ফ্যু জারী করা হয়েছে.

অস্থায়ী উপরাষ্ট্রপতি মুহাম্মেদ আল-বরাদেই ইস্তফা দিয়েছেন বলে বৃহস্পতিবারে আন্তর্আরব্য টেলিভিশন চ্যানেল “আল- আরাবিয়া” জানিয়েছে. ইস্তফার কারণ হয়েছে দেশে হিংসার ঢেউ, উল্লেখ করা হয়েছে খবরে.

1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
আগষ্ট 2013
ঘটনার সূচী
আগষ্ট 2013
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
17
18
21
23
30
31