×
South Asian Languages:
ইন্টারনেট, জানুয়ারী 2012
    ভারতে সরকারের কয়েকটি বড় সামাজিক সাইট ও ইন্টারনেট কোম্পানীকে আদালতে টেনে আনার ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিতর্কের শেষ হচ্ছে না. এর মধ্যে গোগোল ফেসবুক রয়েছে, আর সরকার চাইছে ব্লগ সেন্সর করতে, যা প্রায়ই খুব অসভ্য ও অপমানজনক লেখায় ভর্তি হচ্ছে. এই মামলা শুরু হতে চলেছে ১৩ই মার্চ আদালতে.
গণ হারে গণ্ডগোল ও মিটিং বিগত সময়ে আয়োজিত হচ্ছে ইন্টারনেটের মাধ্যমে, তাই বিভিন্ন দেশের পুলিশ বাহিনী নিজেদের কাজে ওস্তাদি বাড়াচ্ছে সামাজিক সাইটের মাধ্যমে. গ্রেট ব্রিটেনে এর মধ্যেই ২৫০০ পুলিশ ফেসবুক ও টুইটার সাইটে "ক্ষোভ নিয়ন্ত্রণের" বিষয়ে নানা রকমের কৌশল নিয়ে পড়াশোনা করছেন.
ইন্টারনেটে ধর্মঘট আশানুরূপ ফল দিয়েছে. আমেরিকার কংগ্রেস স্টপ অনলাইন পাইরেসী অ্যাক্ট অথবা ইন্টারনেট চালু থাকা অবস্থায় বিনা অনুমতিতে অন্যের বুদ্ধিজাত সম্পত্তি কেড়ে নেওয়ার বিরুদ্ধে আইন, যাকে সোপা (SOPA) বলে নাম দেওয়া হয়েছে, তা গ্রহণ করার সময় অনির্দিষ্ট কালের জন্য পেছিয়ে দিয়েছে. বিশেষজ্ঞরা মনে করেছেন যে, বর্তমানের ভাষ্যে এই দলিল গৃহীত হবে না.
রাশিয়া নির্বোধ মুক্ত হতে চলেছে. আর এই ব্যাপারে সাহায্য করবে নতুন ইন্টারনেট প্রকল্প, যা রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভের নির্দেশে জানুয়ারী মাসের শেষে চালু হবে. এই সাইটের নামও এই রকমই থাকবে "রাশিয়া নির্বোধ লোকদের বাদ দিয়ে". এই ধারণা তৈরীর কারণ হল যে, এখানে দেশের নাগরিকেরা সরকারি কর্মচারীদের বুদ্ধি রহিত কাজকর্ম নিয়ে লিখতে পারবেন.
বিজ্ঞানীরা মনে করেন যেসব লোকেদের সামাজিক নেটওয়ার্ক সাইট ও অনলাইন- চ্যাট ছাড়া জীবন বেকার মনে হয়, তাদের মগজে মদ্যপ ও নেশাখোরদের মতই প্রক্রিয়া চলে. সবচেয়ে কঠিন ধরনের নির্ভরতা বা নেশা স্মার্টফোনের মালিকদের – তাদের ভুতুড়ে কম্পণের অনুভূতি হয়ে থাকে. ব্রিটেনের বিজ্ঞানীরা বলেছেন যে, আপনি একটানা টেনশন করছেন অনেক ফোন কল আর এসএমএস আপনার টেলিফোনে আসছে বলে?
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
জানুয়ারী 2012
ঘটনার সূচী
জানুয়ারী 2012
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
18
19
20
22
23
24
25
27
28
30
31