×
South Asian Languages:
আমেরিকা – হিন্দুস্থান: সম্পর্ক ও সমস্যা সম্বন্ধে রাশিয়ার অবস্থান, 2012
কয়েকদিন আগে ভারতের হিন্দু সংবাদপত্র এক বড় প্রবন্ধ প্রকাশ করেছে পারমানবিক অস্ত্র বিষয়ে এর বড় ভারতীয় গবেষক ও প্রাক্তন পররাষ্ট্র সচিব শ্যাম শরণ লিখিত, তার নামও খুব ভয়ঙ্কর, “পাকিস্তানের যুদ্ধ সীমানায় অস্থিরতা নিয়ে প্রতিক্রিয়া করা”. এই প্রবন্ধে এক বিশদ বিশ্লেষণ দেওয়া হয়েছে পাকিস্তানের পারমানবিক পরিকল্পনার বিকাশের আধুনিক প্রবণতা নিয়ে, প্রাথমিক ভাবে তার সামরিক অংশ নিয়েই.
গুজরাটের প্রথম দফায় (শুরু হবে তেরই ডিসেম্বর থেকে) বিধানসভা নির্বাচনের কয়েক দিন আগে এই রাজ্য সর্ব ভারতীয় রাজনীতির ভারী রাজনীতিবিদদের তরফ থেকে প্রবল “কামান দাগানো” প্রচারের প্রস্তুতিতে আক্রান্ত হয়েছে. ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের সমস্ত বৃহত্তম চরিত্ররাই এই রাজ্যে প্রচারের কাজে নেমেছেন.
সেই দিনের পরে কুড়ি বছর কেটে গেছে, যখন হিন্দু চরমপন্থীদের উস্কানিতে ক্ষিপ্ত জনতা অযোধ্যা শহরে বাবরী মসজিদ ধ্বংস করেছিল. এর পরে হওয়া আন্তর্সামাজিক সংঘর্ষে কম করে হলেও দুই হাজার লোক নিহত হয়েছিলেন – তাতে যেমন মুসলিম, তেমনই হিন্দুরাও ছিল. এই দিনটি, ৬ই ডিসেম্বর ১৯৯২, ভারতে পালন করা হয় আধুনিক ইতিহাসের এক সবচেয়ে শোকভারাচ্ছন্ন ঘটনার দিন বলেই.
ভোপালের ইউনিয়ন কারবাইডের রাসায়নিক কারখানায়, যেখানে ১৯৮৪ সালের তেসরা ডিসেম্বর ভারতের সবচেয়ে বড় প্রযুক্তিও মানবকৃত বিপর্যয় ঘটেছিল, সেখানে এখনও পড়ে রয়েছে সাড়ে তিনশ টন বিষাক্ত বর্জ্য পদার্থ. ভারতের প্রেস ট্রাস্ট অফ ইন্ডিয়া সংস্থা এই খবর প্রকাশ করেছে. বিষয় নিয়ে বিশদ করে লিখেছেন আমাদের সমীক্ষক গিওর্গি ভানেত্সভ. এটা বিশ্বের একটা বৃহত্তম প্রযুক্তি ও মানুষের হাতে করা বিপর্যয়.
ভারত দেশেই তৈরী রকেট ধাওয়া করে ধরতে যাওয়ার রকেট “এএডি” পরীক্ষা করে দেখেছে. বঙ্গোপসাগরের উপরে ১৫ কিলোমিটার উচ্চতায় ওড়া একটি লক্ষ্য রকেট ধ্বংস করা সম্ভব হয়েছে বলে খবর দিয়েছে ভারতেরই সংবাদপত্র “হিন্দু”. বিষয় নিয়ে বিশদ করে লিখেছেন আমাদের সমীক্ষক গিওর্গি ভানেত্সভ ভারত আজ প্রথম বছর জাতীয় রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থা সৃষ্টি করা নিয়ে কাজ করছে না.
ভারতে গ্রেট ব্রিটেনের রাষ্ট্রদূত জেমস বিভান গুজরাট রাজ্যের রাজধানী আমেদাবাদে মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দেখা করেছেন. এই খবরে কিছুই আশ্চর্য হওয়ার মতো ছিল না – শেষমেষ স্থানীয় সরকারি কর্মীদের সঙ্গে দেখা করাটাই রাষ্ট্রদূতের কাজ, - যদি না একটা ব্যাপার থাকতো. শ্রী মোদীকে পশ্চিমের দেশ গুলিতে আসতে দেওয়ার অযোগ্য বলেই মনে করা হয়ে থাকে.
ভারতের হিমাচল প্রদেশ ও গুজরাত রাজ্যে লোকসভা নির্বাচনের দিন নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে নির্দিষ্ট করে ঘোষণা করা হয়েছে. হিমাচল প্রদেশে নির্বাচন হবে ৪ঠা নভেম্বর, গুজরাতে – ১৩ ও ১৭ই ডিসেম্বর. ২০শে ডিসেম্বর হবে ভোট গণনা ও ফল প্রকাশের দিন. এই আঞ্চলিক নির্বাচন গুলির দিকে খুবই মনোযোগ দিয়ে দেখা হচ্ছে.
বিগত সপ্তাহের শেষে সারা ভারত জুড়ে হওয়া প্রতিবাদের ঢেউ প্রতিবেশী পাকিস্তান বা ঐস্লামিক বিশ্বের মতো রাগী ও হিংসাশ্রয়ী না হলেও আর কোন রকমের মানবিক ক্ষতি না করালেও, বেশ জোরদারই হয়েছে. প্রসঙ্গতঃ, বৃহত্ রাজনীতির জন্য এই প্রতিবাদের প্রভাব কিন্তু কিছু কম সংজ্ঞাবহ না হতেও পারে, যেমন স্ক্যান্ডাল সৃষ্টি করা সিনেমার কারণে মুসলমান দেশ গুলিতে ক্ষোভের ঢেউ তৈরী করেছে.
ভারতের পরিবহন কর্মীদের সবচেয়ে বড় ট্রেড ইউনিয়ন এআইএমটিসি আজ এক দিনের ভারত বন্ধের ডাক দিয়েছে, যেখানে বাস ও ট্রাক চালকেরা দেশে ডিজেল জ্বালানীর মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে দেশের সরকারের প্রতি সাবধান করে দেওয়ার জন্য হরতাল করছে. একই সঙ্গে বিরোধী দক্ষিণ ও বাম পন্থী দল গুলি একজোট হয়ে দাবী করেছে সরকারের অর্থনৈতিক সংশোধন নীতি প্রত্যাহারের.
গত শুক্রবারে ভারতের মন্ত্রীসভা সম্ভবতঃ একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ আর নিজেদের এই বারের প্রশাসনিক সময়ে সবচেয়ে ঝুঁকি পূর্ণ এক সিদ্ধান্ত নিয়েছে. তারা বিদেশের বৃহত্ খুচরো পণ্য বিপণন নেটওয়ার্ক গুলিকে – যেমন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওয়ালমার্ট অথবা ব্রিটেনের টেসকো ইত্যাদি সংস্থা গুলিকে দেশে নিজেদের হাইপার মার্কেট খোলার ব্যবস্থা করার সম্ভাবনা দিয়েছে.
“টাইমস অফ ইন্ডিয়া” সংবাদপত্র জানিয়েছে যে, ভারতের হরিয়ানা রাজ্যে এক আইকন শু কোম্পানী নামে আমেরিকার কোম্পানীর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করা হয়েছে, তার কারণ এই কোম্পানী এক ধরনের জুতোয় বুদ্ধের প্রতিকৃতি দিয়ে বের করেছে.
জোট নিরপেক্ষ রাষ্ট্র গুলির শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দেওয়ার জন্য আগষ্ট মাসের শেষে ভারতের প্রধান মন্ত্রী ডঃ মনমোহন সিংহ ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন ইরান যাওয়ার. এই বিষয়ে গত সপ্তাহের শেষে খবর দিয়েছে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল সংবাদপত্র.
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আদালত আমেরিকা- ভারতের যৌথ উদ্যোগ ইউনিয়ন কারবাইড ইন্ডিয়া লিমিটেডের প্রধান ওয়ারেন অ্যান্ডারসনকে ১৯৮৪ সালের ডিসেম্বরে ভারতের ভোপাল শহরে ঘটা বিপর্যয়ের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়েছে. আদালতের রায়ে বলা হয়েছে যে, ডো কেমিক্যালস ও তাদের মালিকানাধীন ইউনিয়ন কারবাইড ভোপালের কারখানার মালিক ছিল না এবং এমনকি তা চালাতো না, তারা এই কারখানা কিনেছে মাত্র ২০০০ সালে.
এই সপ্তাহে ওয়াশিংটনে তৃতীয় বাত্সরিক ভারত – মার্কিন স্ট্র্যাটেজিক আলোচনা স্পষ্ট করেই দেখিয়ে দিয়েছে যেমন আংশিক ভাবে দুই দেশের স্বার্থের বিষয়ে সম্মতি, তেমনই অবস্থানের বিষয়ে দুই দেশের যথেষ্ট পার্থক্য, এই কথা মনে করে রাশিয়ার স্ট্র্যাটেজিক গবেষণা কেন্দ্রের বিশেষজ্ঞ বরিস ভলখোনস্কি তাঁর মত ব্যক্ত করেছেন. অর্থনৈতিক দিকে দুই পক্ষেরই প্রশংসনীয় সাফল্য রয়েছে বলে রুশ বিশেষজ্ঞ উল্লেখ করেছেন.
বৃহস্পতিবারে কাবুল শহরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী লিওন প্যানেত্তা বিগত সময়ের মধ্যে পাকিস্তানের উদ্দেশ্যে যত ঘোষণা করা হয়েছে, তার মধ্যে সবচেয়ে তীক্ষ্ণ ঘোষণা করেছেন.
 এই সপ্তাহে দিল্লীতে তিন দিন ব্যাপী এক সেমিনার হয়েছে, যাতে ১৬টি দেশের বিশেষজ্ঞরা অংশ নিয়েছিলেন – যাঁরা আন্তর্জাতিক “উত্তর দক্ষিণ” করিডর নামের পরিবহন পথ সংক্রান্ত প্রকল্পের অংশীদার. বিশেষজ্ঞরা যেমন উল্লেখ করেছেন, এখনই আগামী বছরে এই করিডর দিয়ে প্রথম পরীক্ষা মূলক ভাবে মাল বহনের প্রচেষ্টা করা যেতে পারে – ভারত থেকে ইরান হয়ে রাশিয়া অবধি.
 মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইরানের থেকে খনিজ তেল আমদানী করার বিষয়ে ভারতের নেওয়া ব্যবস্থায় সন্তুষ্ট নয়. এই বিষয়ে ঘোষণা করেছেন মার্কিন রাষ্ট্রপতির বিশেষ প্রতিনিধি কার্লোস পাস্কুয়াল. যদি ভারত ইরান থেকে খনিজ তেল আমদানী করার বিষয়ে কড়াকড়ি না করে, তবে তারাও পশ্চিমের নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়তে পারে, যা এই বছরের গরমেই শুরু হতে চলেছে.
    ভারত নিজেদের পাঁচ হাজার কিলোমিটারের চেয়ে বেশী উড়ে যেতে সক্ষম ব্যালিস্টিক রকেট “অগ্নি – ৫” একই সঙ্গে অনেক গুলি বিভিন্ন লক্ষ্যে আঘাত হানতে পারে এমন পারমানবিক অস্ত্র সহযোগে তৈরী করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে. এই বিষয়ে বৃহস্পতিবারে ভারতের সামরিক গবেষণা ও নির্মাণ সংস্থার প্রধান বিজয় কুমার ঘোষণা করেছেন.
    মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ভারতকে ইরানের খনিজ তেলের বিষয়ে নির্ভরতা কম করার বিষয়ে সাহায্য করবে. এই বিষয়ে ঘোষণা করেছেন পররাষ্ট্র সচিব হিলারি ক্লিন্টন. তাঁর কথামতো, ওয়াশিংটন খুব শীঘ্রই ভারতে রাষ্ট্র দপ্তরের জ্বালানী নিয়ন্ত্রণ দপ্তরের প্রধান কার্লোস পাস্কুয়ালের নেতৃত্বে এক দল বিশেষজ্ঞ পাঠাবে, যারা এই সমস্যা সমাধানের বিষয়ে সাহায্য করবে. বিষয়ের সম্বন্ধে বিশদ করে জানিয়েছেন আমাদের সমীক্ষক গিওর্গি ভানেত্সভ.
    সময়ের আগেই জন্ম হওয়া ও সময়ের আগেই জন্মের সময়েই মৃত্যু হওয়া শিশুদের পরিসংখ্যানে ভারত বিশ্বের সবচেয়ে প্রথমে রয়েছে. বিশ্বে প্রতি বছরে সময়ের আগে জন্ম নেওয়া শিশুদের সমগ্র পরিসংখ্যান অনুযায়ী এক কোটি পনেরো লক্ষের মধ্যে ভারতের ভাগ ৩৫ লক্ষ. আর এদের মধ্যে তিন লক্ষের বেশী মারা যায় একেবারেই জন্ম কালে.
আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
জানুয়ারী 2012
ঘটনার সূচী
জানুয়ারী 2012
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
21
22
23
24
25
27
28
29
30
31