×
South Asian Languages:
আফগানিস্তানের সমস্যা ও রাশিয়ার অবস্থান, অক্টোবর 2012
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক পরিবহন বাহিনীর প্রধান জেনারেল উইলিয়াম ফ্রেজারের আফগানিস্তানের সঙ্গে সীমান্তবর্তী মধ্য এশিয়ার প্রজাতন্ত্র – তুর্কমেনিস্থান, উজবেকিস্তান, তাজিকিস্তানে সফর, অবশ্যই বিশেষজ্ঞদের দৃষ্টি এড়াতে পারে নি. পিওতর গনচারভের এই প্রসঙ্গে মন্তব্য. ন্যাটো জোট ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী সম্পূর্ণ ভাবে আফগানিস্তান থেকে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার আগে পর্যন্ত শেষ দুই বছর – এটা খুব একটা বেশী সময়ের অপেক্ষা নয়.
আফগানিস্তানের অর্থনৈতিক উন্নতি – সমস্ত এলাকার জন্যই স্থিতিশীলতার শর্ত. কিন্তু আপাততঃ এই দেশ অর্থনৈতিক স্বাবলম্বীতার চেয়ে অনেক দূরে. ন্যাটো জোটের সেনা বাহিনীকে আফগানিস্তান থেকে আসন্ন ফিরিয়ে আনা নিয়ে অনেকেই নিজেদের মতো করে তৈরী হচ্ছে. এই বিষয়ে “রেডিও রাশিয়াকে” দেওয়া একান্ত সাক্ষাত্কারে ইউরোপীয় নিরাপত্তা ও সহযোগিতা সংস্থার সাধারন সম্পাদক লামবের্তো জানিয়ের মন্তব্য করেছেন.
পেন্টাগন থেকে সমর্থন করা হয়েছে যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আগে থেকে ঠিক করা সময়সীমা অনুযায়ী ২০১৪ সালের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে সৈন্য প্রত্যাহার করবে, আর সেখানে শুধু রেখে দেবে খুবই কম উল্লেখ্য উপস্থিতি. এই বিষয়ে সাংবাদিকদের জন্য এক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের সময়ে ঘোষণা করেছেন আমেরিকার সেনাবাহিনীর দপ্তরের প্রধান লিওন প্যানেত্তা. কতটা কম উল্লেখযোগ্য হবে এই উপস্থিতি, তা নিয়ে এখনও কোন রকমের তথ্য নেই.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
অক্টোবর 2012
ঘটনার সূচী
অক্টোবর 2012
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
20
21
22
23
26
27
28
29
30
31