×
South Asian Languages:
বিশ্ব অর্থনীতি ও রাশিয়ার অবস্থান

২০১৩ সালে বিশ্বে রেকর্ড পরিমাণে দানাশষ্য উত্পাদিত হতে যাচ্ছে. রাষ্ট্রসঙ্ঘের খাদ্যদ্রব্য ও কৃষি সংস্থার অনুমান অনুযায়ী নতুন বছরের আগেই বিশ্বে আড়াইশো কোটি টন বিভিন্ন ধরনের দানাশষ্য তোলা সম্ভব হতে চলেছে. এটা গত বছরের চেয়ে শতকরা আট শতাংশ বেশী. তারই মধ্যে এই সংস্থা সাবধান করে দিচ্ছে যে, খাদ্য নিরাপত্তা নিয়ে পরিস্থিতি এশিয়া ও আফ্রিকার অনেক অংশেই খারাপ হতে চলেছে.

২০১৪ সালে ব্রিকস দেশগুলো অর্থনৈতিক সহযোগিতা বিষয়ে উন্নয়নের স্ট্র্যাটেজি গ্রহণ করতে চলেছে, যা নির্দেশ করবে যে, কোন দিকে এর পরে চলা হবে. ব্রিকস সংস্থার ভূ-রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরা সবসময়েই চেষ্টা করে চলেছে এই জোটকে “কবর দিতে” ও সব সময়েই বলে চলেছে যে, এই জোট আভ্যন্তরীণ বিবাদের কারণে অবশ্যম্ভাবী ভাবেই বিচ্ছিন্ন হতে চলেছে. কিন্তু যারা এই জোটে রয়েছেন, তাঁরা বরং উল্টো দেখতে পাচ্ছেন যে, সহযোগিতার এক বৃহত্ ভবিষ্যতই রয়েছে.

বিশ্বের অর্থনীতি বর্তমানে বৈদ্যুতিন বিদেশী মুদ্রা সংক্রান্ত নতুন এক লড়াইয়ের অধ্যায়ের সামনে পড়েছে. এই ধরনের সিদ্ধান্ত করেছেন বিশ্বের রিজার্ভ ব্যাঙ্কগুলোর থেকে শেষ খবর পাওয়ার পরে বিশ্লেষকরা. দেশগুলো কৃত্রিম ভাবে নিজেদের জাতীয় মুদ্রার বিনিময় মূল্য কমাতে শুরু করেছে, যাতে অর্থনৈতিক উন্নতিতে গতিবেগ দেওয়া যেতে পারে.

আমেরিকার রাষ্ট্রীয় ঋণ নিয়ে শেষ হয়ে যাওয়া যুদ্ধ ও আরও একবার রাষ্ট্রীয় ঋণের সর্ব্বোচ্চ সীমা বৃদ্ধি করাটা দেখিয়ে দিয়েছে যে, সারা বিশ্বের অর্থনৈতিক ব্যবস্থা আমেরিকার অর্থনীতি ও ডলারের কাছে কতখানি বাঁধা পড়ে গিয়েছে. এখন এটাই একমাত্র সঞ্চয়ের মুদ্রা, যার উপরে সব সময়েই চাহিদা রয়েছে. বাস্তবে সারা বিশ্বই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ঋণদাতা হয়ে দাঁড়িয়েছে, কিন্তু অনন্তকাল ধরে এটা চলতে পারে না, বিশেষ করে যদি কয়েকদিন আগে হওয়া সেই দেশের বাজেট সঙ্কটের থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়.

১৩ই সেপ্টেম্বর বিশকেকে সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার (সাসস) রাষ্ট্র নেতাদের শীর্ষ সম্মেলন হতে চলেছে. এই বিশকেক শীর্ষ সম্মেলনের আলোচ্য তালিকায় যেমন এই সংস্থার বিকাশ নিয়ে ভিত্তি সংক্রান্ত বিষয় রয়েছে, তেমনই রয়েছে বর্তমানের আন্তর্জাতিক পরিস্থিতি নিয়ে বিষয়ও, প্রাথমিক ভাবে সিরিয়ার সঙ্কটের তীক্ষ্ণ হওয়া, এই রকমই মনে করেছেন রুশ বিজ্ঞান একাডেমীর সুদূর প্রাচ্য ইনস্টিটিউটের ডিরেক্টর সের্গেই লুজিয়ানিন.

বিশ্বের বিনিয়োগ বাজারে নতুন করে দ্রুত ওঠানামার বিরুদ্ধে ব্রিকস দেশগুলো সম্মিলিত ভাবে একটা প্রতিরক্ষা করার ব্যবস্থা করছে. ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, চিন ও দক্ষিণ আফ্রিকার নেতারা জি২০ সম্মেলনের সময়ে দশ হাজার কোটি ডলারের সমান অর্থের এক সঞ্চয় তহবিলের কথা ঘোষণা করতে পারেন.

ভারতের জাতীয় মুদ্রার বিনিময় মূল্য খুবই দ্রুত কমে যেতে শুরু করেছে ও একের পরে ঐতিহাসিক ভাবে অধঃপতনের রেকর্ড ভাঙতে শুরু করেছে. কেন এই সবই সেই সময়ে হচ্ছে, যখন দেশের নেতৃত্বে ভারতীয় অর্থনীতির আধুনিকীকরণের জনক মনমোহন সিংহ রয়েছেন, এই প্রশ্নের অবতরণ করেছেন আমাদের সমীক্ষক সের্গেই তোমিন. তিনি এই প্রসঙ্গে বলেছেন:

ভারতীয় টাকার বিনিময় মূল্যের দ্রুত পতন, যা তার ঐতিহাসিক ভাবেই সবচেয়ে কম দামের ক্ষেত্রে হয়েছে, তা ভারতীয় অর্থনীতির বেহাল অবস্থা নিয়ে বিচারের শুরু করেছে, যেটাকে মনে করা হয়েছে, মনমোহন সিংহের মন্ত্রীসভার হিসাবের ভুলের কারণে হয়েছে বলে. কিন্তু ভারতীয় জাতীয় মুদ্রার জন্য কালো আগষ্ট মাস - এটা শুধু মন্ত্রীসভার ভুলের ফলই নয়, বরং একটা সর্বজনীন প্রবণতার পরিচয়, এই রকম মনে করে আমাদের সমীক্ষক সের্গেই তোমিন বলেছেন:

রাশিয়া যে দুটি প্রাথমিক ধারণা নিয়ে “জি২০” গোষ্ঠীর সভাপতিত্বের সময়ে কাজ করেছে তা হল উপযোগিতা ও সময়মতো জানানি দেওয়া. রাশিয়ার থেকে শেরপা বা প্রতিনিধি যিনি এই জি২০তে প্রতিনিধিত্ব করেছেন, সেই ক্সেনিয়া ইউদায়েভা ব্যাখ্যা করে বলেছেন যে, রাশিয়া কি ধরনের লক্ষ্য নিজেদের সামনে রেখেছে ও “বৃহত্ কুড়ি” অর্থনৈতিক দেশের নেতাদের শীর্ষ সম্মেলনের প্রাক্কালে কি ধরনের ফলাফল পাওয়া সম্ভব হয়েছে. এই শীর্ষ সম্মেলন হবে ৫-৬ সেপ্টেম্বর সেন্ট পিটার্সবার্গে.

১৫ই জুলাই নিউইয়র্কে মহাদেশীয় সমুদ্র উপকূল সীমান্ত নির্ণয় করা নিয়ে রাষ্ট্রসঙ্ঘের পরিষদের ৩২তম অধিবেশন শুরু হতে চলেছে. এখনও অবধি একটি দেশও নিজেদের আবেদন পত্রের সন্তোষজনক উত্তর, বলা যাক যেমন, সুমেরু বৃত্তে নিজেদের দেশের বাইরের দিকের সমুদ্র উপকূলের ভাগ নিয়ে পায় নি. রাশিয়া প্রথম দেশ, যারা এই রকমের আবেদন পত্র সেই ২০০১ সালেই জমা দিয়েছিল.
যাতে আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক সঙ্কট এড়ানো সম্ভব হয়, তার জন্য প্রয়োজন বিশ্বের ব্যাঙ্ক ব্যবস্থাকেই বদলে দেওয়ার. এই বিষয়ে “রেডিও রাশিয়াকে” দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে ঘোষণা করেছেন, বাংলাদেশের বিখ্যাত অর্থনীতিবিদ মুহম্মদ ইউনুস. তিনি ২০০৬ সালে নোবেল শান্তি পুরস্কার পেয়েছিলেন বহু সংখ্যক জনগনের জন্য অর্থনৈতিক ও সামাজিক ভাবে উন্নয়নের পরিস্থিতি সৃষ্টি করার প্রচেষ্টার জন্য.
   দুর্যোগ বীমা কোম্পানীগুলির রোজগারে রীতিমতো ভাগ বসিয়েছে. ‘জেনেভা এ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্সিওরেন্স রিসার্চ’ সতর্ক করে দিচ্ছে – পৃথিবীতে ক্রমশঃই সেই সব অঞ্চলের উদ্ভব হবে, যেখানে প্রাকৃতিক ও পরিবেশগত দুর্যোগ বা দুর্ঘটনার ঝুঁকি নিজেদের কাঁধে নিতে অপারগ হবে বীমা কোম্পানীগুলি.
বিগত সপ্তাহে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন আন্তর্জাতিক পারমানবিক শক্তি নিয়ন্ত্রণ সংস্থার প্রধান ইউকিও আমানোর সঙ্গে দেখা করেছেন. এই সংস্থার সঙ্গে রাশিয়ার সহযোগিতার ভবিষ্যত নিয়ে আলোচনা করেছেন, আর তারই সঙ্গে তথাকথিত সমস্যা সঙ্কুল দেশ গুলির পরিস্থিতি নিয়েও আলোচনা হয়েছে, যাদের পারমানবিক পরিকল্পনা বিশ্বে উদ্বেগের কারণ হয়েছে.
বিশ্বের অর্থনৈতিক সঙ্কটের পরে যে সমস্ত হুমকি রয়েছে, বিশ্ব অর্থনীতির অস্থিতিশীল পুনর্প্রতিষ্ঠা, উদ্ভাবনী সঙ্কট ও সঞ্চয় মুদ্রার লড়াই – এই সবই বিশ্বের রাজনৈতিক ও ব্যবসায়িক মহলের প্রধানরা সেন্ট পিটার্সবার্গের অর্থনৈতিক সম্মেলনের প্রথম দিনে আলোচনা করেছেন. রাশিয়ার উত্তরের রাজধানীতে শুরু হয়েছে ১৭তম পিটার্সবার্গ আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক সম্মেলন.
কুড়ি থেকে বাইশে জুন রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গ শহরে আন্তর্জাতিক অর্থনীতি সম্মেলন হতে চলেছে, যেখানে অংশ নিতে যাচ্ছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন. এই বৃহত্তম আলোচনার মঞ্চে বিশ্বের নেতৃস্থানীয় বিশেষজ্ঞরা, রাজনীতিবিদেরা ও ব্যবসায়ীরা আলোচনা করবেন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন গুলিকে নিয়ে, যা আজ বিশ্বের অর্থনীতির সামনে রয়েছে.
    রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন ও মার্কিনী রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামা ৩রা-৪ঠা সেপ্টেম্বর মস্কোয় পরবর্তী শীর্ষ বৈঠকে মিলিত হওয়া মনস্থ করেছেন. উত্তর আয়ার্ল্যান্ডে 'জি-৮'-এর চত্বরে তাদের দ্বিপাক্ষিক সাক্ষাতের পরে প্রকাশিত প্রচারবার্তায় এই খবর পরিবেশন করা হয়েছে. আগামী শীর্ষ বৈঠকে দুই দেশের পারস্পরিক সম্পর্কের গঠণমুলক দিকগুলির ভিত মজবুত করা হবে বলে ঘোষণা করা হয়েছে.
ব্রিকস গোষ্ঠী এবারে BRIICS হতে পারে. আগামী ১৫ বছরের মধ্যে এই দেশ গুলির অনানুষ্ঠানিক ক্লাবে সম্ভবতঃ যোগ দিতে পারে ইন্দোনেশিয়া. এই বিষয়ে সোমবারে আন্তর্জাতিক বিষয়ে রাশিয়ার লোকসভার আন্তর্জাতিক কাজকর্ম পরিষদের প্রধান আলেক্সেই পুশকভ ঘোষণা করেছেন.
বিগত সময়ে পর্যবেক্ষকরা বেশী করেই দক্ষিণ অতলান্তিক মহাসমুদ্র এলাকাকে বিশ্বের নতুন রাজনৈতিক মানচিত্রের কেন্দ্র বলে উল্লেখ করেছেন. সেখানে বিশ্বের নেতৃস্থানীয় রাষ্ট্র গুলি ও সদ্য শক্তি অর্জনকারী দেশ গুলির স্বার্থের এক কঠিন গ্রন্থি বাঁধা হতে চলেছে, যারা চাইছে নিজেদের প্রভাবের এলাকাকে প্রসারিত ও মজবুত করে তুলতে.
ভয়ঙ্কর ট্র্যাজেডি, যা বুধবারে বাংলাদেশে হয়ে গিয়েছে ও কয়েক শো লোকের জীবন হানীর কারণ হয়েছে, তা একই সারিতে প্রশ্ন গুলিকে বসিয়ে দিয়েছে: কে দোষী? কে দায়ী যে এই রকম বাড়ী তৈরী করা হয়েছে কোন রকমের প্রযুক্তিগত নিয়মই না মেনে? কারা দোষী যে প্রয়োজন মত নিরাপত্তার ব্যবস্থা না নিয়ে কাজের আয়োজন করা হয়েছে বলে?
উন্নতিশীল দেশ গুলিকে সহায়তা নিয়ে ডেভিড ক্যামেরনের মন্ত্রীসভার পরিকল্পনা ঘিরে গ্রেট ব্রিটেনে এক স্ক্যান্ডালের আগুন জ্বলে উঠতে শুরু করেছে. বোমা ফাটার মতো প্রভাব ফেলেছে একটা খবর, যে ২০১৪ সালে ব্রিটেনের অর্থ সাহায্যের বৃহত্তম প্রাপক হতে চলেছে পাকিস্তান.
আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
ডিসেম্বর 2017
ঘটনার সূচী
ডিসেম্বর 2017
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
20
21
22
23
24
25
26
27
28
29
30
31