×
South Asian Languages:
পরিবেশ, 2013

রাষ্ট্রসঙ্ঘ আয়োজিত আবহাওয়া সংক্রান্ত সম্মেলন, যা ওয়ারশ শহরে ১১ থেকে ২৩শে নভেম্বর পর্যন্ত হয়েছে, তাতে কোন নতুন উন্নতি দেখতে পাওয়া যায় নি. এই আলোচনার লক্ষ্য ছিল আবহাওয়া নিয়ে নতুন করে চুক্তির বয়ান তৈরী করা, যা ২০২০ সালে কিয়োটো প্রোটোকলের জায়গা নেবে. কিন্তু এই প্রশ্ন নিয়ে প্রতিনিধি দলেরা এমনকি আলোচনার সূত্রপাত পর্যন্ত করেন নি.

এই সম্মেলনে যাঁরা অংশ নিয়েছেন, তাঁরা সহমতে এসেছেন যে, আগামী বছরে এই বিষয়ে আলোচনা চালিয়ে যাবেন. আর এটাই প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে ১৯০টি দেশ থেকে আসা প্রতিনিধি দলের কাজের মূল পরিণাম. তাও একেবারে শেষ মুহূর্তে সর্বসম্মতি ক্রমে সিদ্ধান্ত করা সম্ভব হয়েছে মাত্র কয়েকটি দলিল নিয়েই, এই কথা উল্লেখ করে রাশিয়ার প্রতিনিধি দলের প্রধান আলেকজান্ডার বেদরিত্শকি বলেছেন:

বন্যাদুর্গত এলাকা সরেজমিনে দেখতে রাশিয়ার দূরপ্রাচ্য সফর করছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। বুধবার দিবাগত রাতে তিনি আমুর অঞ্চলে পৌঁছান।

রাশিয়ার দূরপ্রাচ্যে স্মরণকালের সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ প্রায় ২৫ হাজার মানুষকে ইতিমধ্যে জনপ্রতি ১০ হাজার রুবল (৩০৩ মার্কিন ডলার) সাহায্য প্রদান করা হয়েছে।

বিজ্ঞানীদের খুবই উদ্বিগ্ন করেছে সুদূর প্রাচ্যের চিতা বাঘদের সাদা রঙের থাবা. প্রিমোরস্ক এলাকায় ফোটো ফাঁদের লেন্সে ধরা পড়েছে বেশ কয়েকটি ফোঁটা ওয়ালা চিতা বাঘের সামনের থাবার সাদা রঙ. বিশেষজ্ঞরা উল্লেখ করেছেন যে, এটা প্রমাণ করে দিচ্ছে এই ধরনের বাঘের মধ্যে অধঃপতন ঘটেছে জেনেটিক কারণে, যা হয়েছে অজাচারের কারণে.

আমেরিকার বিশেষ বাহিনী বিশ্বে আবহাওয়ার উপরে নিয়ন্ত্রণ নিয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছে. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিজ্ঞান একাডেমীকে একই রকমের গবেষণা করার জন্য বায়না দেওয়া হয়েছে সিআইএ সংস্থার পক্ষ থেকে. এটা একটা ভয়ের সৃষ্টি করেছে যে, এবারে আমেরিকা হাতে পাবে আক্রমণাত্মক আবহাওয়া বিষয়ক অস্ত্র. বিজ্ঞানীরা দুই বছরের মধ্যে মানুষের উপরে আবহাওয়া পরিস্থিতির প্রভাব নিয়ে গবেষণা করে দেখবেন.
২৩শে জুলাই বিশ্ব তিমি ও ডলফিন দিবস পালিত হচ্ছে, এই দিন প্রায় পঁচিশ বছরেরও বেশী আগে নির্দিষ্ট করা হয়েছিল, যখন থেকে তিমি শিকার নিষিদ্ধ করা হয়েছে. কয়েক শতক ধরে তিমি মাছ নিষ্ঠুর ভাবে ধ্বংস করা হয়েছিল. তাদের মারা হত, প্রধানতঃ খুবই মূল্যবান চর্বির জন্য, যা জ্বালানী হিসাবে ব্যবহার করা হত.
সুইডেনে ১৫-১৬ই জুলাই আবহাওয়ার পরিবর্তন নিয়ে আরও একটি সম্মেলন হতে চলেছে. বহু ডজন বিশেষজ্ঞ মানুষের আবহাওয়ার উপরে প্রভাব নিয়ে আলোচনা করছেন, বিশ্বের উষ্ণায়ন ও এই সমস্যা সমাধানের জন্য খরচ নিয়েও. তারই মধ্যে বিজ্ঞানীরা এই প্রথমবারই উল্লেখ করছেন না: সূর্য বিশ্বের আবহাওয়ার উপরে মানুষের চেয়ে অনেক বেশী গুনেই প্রভাব ফেলে থাকে.
আজ ৫ই জুন সারা বিশ্ব জুড়েই পরিবেশ সংরক্ষণ দিবস পালন করা হচ্ছে. রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারন সভা ১৯৭২ সালে এই দিনটিকে ঠিক করেছিল. কারণ হয়েছিল ২৩টি দেশ থেকে ২২০০ জন বিজ্ঞান ও সংস্কৃতির কর্ণধারদের রাষ্ট্রসঙ্ঘের কাছে এই বিষয়ে আবেদন. তাঁরা অভূতপূর্ব বিপদের সম্ভাবনা নিয়ে সাবধান করে দিয়েছিলেন, যা মানব সমাজকে বর্তমানে পরিবেশ দূষণের জন্য সম্মুখীণ হতে হচ্ছে.
২৬শে এপ্রিল আন্তর্জাতিক তেজস্ক্রিয় বিকীরণ সংক্রান্ত দুর্ঘটনা ও বিপর্যয় দিবস পালন করা হচ্ছে. এই দিনে ১৯৮৬ সালে চেরনোবিল পারমানবিক বিদ্যুত কেন্দ্রে এক ভয়ঙ্কর দুর্ঘটনা ঘটেছিল, যা মানবসমাজকে পারমানবিক বিদ্যুত শক্তির নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত হতে বাধ্য করেছিল. মানব সমাজের জীবনে শান্তিপূর্ণ পরমাণু শক্তি উদ্ভব হয়েছে পঞ্চাশ বছরেরও আগে.
বিশ্বজোড়া তাপমাত্রা বৃদ্ধি, যা নিয়ে বিগত বছর ধরে এত কথা চালাচালি হচ্ছে, তা এবারে বিশ্বজোড়া ঠাণ্ডায় বদলে যেতে পারে. সেন্ট পিটার্সবার্গের পুলকভ পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের বিজ্ঞানীরা বলেছেন যে, সৌর সক্রিয়তা এবারে কমার দিকে যাচ্ছে ও আমাদের গ্রহে তাপমাত্রা কমার দিকে যাচ্ছে. সারা বিশ্ব জোড়া ঠাণ্ডা হওয়া নিয়ে পূর্বাভাস মোটেও ভিত্তিহীন নয়.
রাষ্ট্রসঙ্ঘের ক্যালেণ্ডারে ২২শে এপ্রিল দিনটিকে আন্তর্জাতিক ভূমি মাতা দিবস বল চিহ্নিত করা হয়েছে. ২০০৯ সালে রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সভার ৬৩তম অধিবেশনে এই উত্সবের ঘোষণা করা হয়েছিল. এর সিদ্ধান্তে বলা হয়েছে যে, ভূমি মাতা সংজ্ঞা বিশ্বের বহু দেশেই রয়েছে আর তা আমাদের গ্রহ ও মানুষের মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্কে একে অপরের প্রতি নির্ভরশীলতাকেই প্রতিফলিত করে.
“জীবনের জন্য জৈব রসায়ন” – ইউনেস্কো ও বিশ্বের এক নেতৃস্থানীয় রাসায়নিক সার প্রস্তুতকারক সংস্থা রাশিয়ার “ফস-অ্যাগ্রোর” যৌথ উদ্যোগে নতুন প্রকল্প এই নামেই প্রকাশ করা হয়েছে. বিভিন্ন দেশের যুব বিজ্ঞানীদের বৈজ্ঞানিক ও আর্থিক সহায়তা করবে এই প্রকল্প. বিশ্বের ইতিহাসে এই প্রথম ইউনেস্কো সংস্থার এত বিশাল প্রকল্প সম্পূর্ণভাবে রাশিয়ার কোম্পানী আর্থিক সহায়তা দিচ্ছে.
রাশিয়ার অর্থনীতিতে পরিবেশের খারাপ পরিস্থিতির জন্য ক্ষতি বছরে বার্ষিক জাতীয় উত্পাদনের শতকরা ৬ ভাগ পেরিয়ে যাচ্ছে. এই বিষয়ে জানিয়েছেন প্রাকৃতিক সম্পদ ও পরিবেশ বিজ্ঞান মন্ত্রণালয়ের প্রধান সের্গেই দনস্কোই. মন্ত্রী ও সাংসদরা রাষ্ট্রীয় দ্যুমার এক বিশেষ বিতর্ক সভায় এই জানা সমস্যা – প্রকৃতি সংরক্ষণ ও পরিবেশ বিজ্ঞান নিয়ে কথা বলেছেন.
২২শে মার্চ – বিশ্ব জল সম্পদ দিবস. ২০ বছর আগে রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সভা এই দিনটিকে ঘোষণা করেছিল. এই ভাবেই আন্তর্জাতিক ক্যালেণ্ডারে সেই বিশ্ব জোড়া সমস্যার কথা বিশেষ করে উল্লেখ করা হয়েছিল, যা যৌথ প্রয়াসে সমাধান করতে হবে. আধুনিক বিশ্বে এই গ্রহের অন্যান্য রসদের চেয়ে জলের বেশী করেই চাহিদা রয়েছে, কিন্তু আজই তা মেটানো যাচ্ছে না.
রাশিয়ার সরকার বৈকাল হ্রদের ধারে বৈকাল কাগজ মণ্ড কারখানা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে. সমস্ত পরিবেশ বিশেষজ্ঞদের জন্য এই আনন্দের খবর দিয়েছেন রাশিয়ার মন্ত্রীসভার উপ প্রধানমন্ত্রী আর্কাদি দ্ভরকোভিচ. “আমরা স্থির করেছি যে, কয়েকটি ধাপে বৈকালের এই কাগজের মণ্ড কারখানা বন্ধ করে দেবো ও প্রয়োজনীয় জিনিষ উত্পাদনের ব্যাপার গুলি অন্যান্য কারখানায় সরিয়ে নিয়ে যাবো.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
জানুয়ারী 2013
ঘটনার সূচী
জানুয়ারী 2013
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
20
21
22
23
24
25
26
27
28
29
30
31