×
South Asian Languages:
ন্যাটো জোট, 2010
ঐতিহ্য মেনে প্রতি বারের মত এবারেও ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে সাক্ষাত্কারের সময়ে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পারস্পরিক সম্পর্ক, রুশ মার্কিন সম্পর্ক, রাশিয়ার বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থায় যোগদানের সম্ভাবনা ও জাতীয় মুদ্রা রুবলের আন্তর্জাতিক অবস্থান – এই সমস্ত প্রশ্নই প্রাথমিক ভাবে সরকারি তালিকাভুক্ত সাংবাদিকদের জন্য আগ্রহের বিষয় হয়েছিল.     এই ধরনের সাক্ষাত্কার সাধারণতঃ চায়ের কাপ বা শ্যাম্পেনের গ্লাস নিয়ে হয়ে থাকে.
একবিংশ শতাব্দীর বাস্তব নিরাপত্তার ক্ষেত্রে রুশ রাষ্ট্রের কাজকর্মের দিককেই পরিবর্তিত করে দিয়েছে. এটাই নতুন আইনে খেয়াল করা হয়েছে, যা রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ স্বাক্ষর করেছেন.     ১৯৯২ সাল থেকে চলে আসা আইন বর্তমানের পরিস্থিতির সঙ্গে খাপ খাচ্ছিল না.
২০১০ সালে রাশিয়া ও ন্যাটো জোটের মধ্যে ২০০৮ সালের সঙ্কটের পরে সম্পর্ক স্থিতিশীল হতে শুরু করেছে, যা খারাপ হয়েছিল জর্জ্জিয়ার দক্ষিণ অসেতিয়া আক্রমণের পরে, এই বিষয়ে বিশ্বাস করেন রাশিয়ার ন্যাটো জোটে স্থায়ী প্রতিনিধি দিমিত্রি রগোজিন. ২০০৯ সালের শেষে বর্তমানে নূতন সম্পর্কের ভিত্তি স্থাপিত হয়েছিল. পরবর্তী বছরে এই ভিত্তি আরও শক্ত হতে পেরেছে.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ রুশ ও আমেরিকার মধ্যে স্বাক্ষরিত স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত চুক্তিকে ২০১০ সালের একটি প্রধান ফলাফল হিসাবে নাম দিয়েছেন.
রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জন্য ঐতিহাসিক হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সেনেটের এই চুক্তি গ্রহণ. এই ধারণা করেছেন রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ ও বারাক ওবামা, গতকাল সন্ধ্যা বেলায় এই নিয়ে দূরভাষে আলাপের সময়ে. এর পর রাশিয়ার দ্যুমার পালা.
মস্কো আমেরিকার সেনেটে স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত নূতন চুক্তি গ্রহণ করাকে অভিনন্দন জানিয়েছে. দিমিত্রি মেদভেদেভ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এই চুক্তি গ্রহণ করায় সন্তুষ্ট হয়েছেন ও আশা করেছেন যে, রাশিয়ার পার্লামেন্টের সদস্যরাও এই প্রশ্নে উপযুক্ত মনোযোগ দেবেন, বলে জানিয়েছে ক্রেমলিনের তথ্য দপ্তর.    এক সপ্তাহ ধরে শুনানী চলার পরে বুধবার সন্ধ্যায় মার্কিন কংগ্রেসের সেনেট এই চুক্তি গ্রহণ করেছে.
যদি রাশিয়া ও ন্যাটো জোট রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থা বিষয়ে প্রত্যেক পক্ষের উপযুক্ত ভূমিকার বিষয়ে সহমতে আসতে না পারে তবে কয়েক বছর পরেই রাশিয়া ও আমেরিকার রাজনীতিবিদেরা কঠিন সমস্যার সামনে পড়বেন বলে মনে করেছেন দিমিত্রি মেদভেদেভ. ভারতে সরকারি সফরের দ্বিতীয় দিনে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি মুম্বাই শহরে ভারতের প্রযুক্তি ইনস্টিটিউটের ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষকদের সঙ্গে দেখা করেছেন ও বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক ঘোষণা করেছেন.
মুম্বাই শহরে সফরে এসে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ টেকনলজির ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষকদের সঙ্গে দেখা করেছেন. রাশিয়ার দেশ নেতা অংশতঃ উল্লেখ করেছেন যে, "ন্যাটো জোটের উচিত মস্কোর সঙ্গে রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থা সংক্রান্ত সমস্ত প্রশ্নে সহমত হওয়া.
অনেকদিন শান্ত থাকার পরে ইউরোপে আবার সন্ত্রাসের বিপদ সম্বন্ধে সরব হয়েছে. এই বারে সন্ত্রাসের লক্ষ্য হয়েছিল স্টকহোম.     ব্রিটেন থেকে আসা প্রাক্তন ইরাকের নাগরিক তাইমুর আবদেল ভাহাব দুটো বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে. শেষটি করতে গিয়ে সে নিজেই মারা পড়েছে. সংবাদ মাধ্যমে আবদেল ভাহাব কে চরমপন্থী বলে দেখানো হয়েছে, যে আগে ইংল্যান্ডে চরমপন্থী প্রচার করেছিল.
২০১০ সালে ন্যাটো জোটের আফগানিস্থানে সামরিক যুদ্ধে রত সেনাবাহিনীর ৭০০ তম বিদেশী সৈন্য রবিবারে মৃত. আফগানিস্থানে নিরাপত্তা রক্ষার কাজে রত আন্তর্জাতিক শক্তি পরিষদের তথ্য দপ্তরের উত্স উল্লেখ করে রয়টার সংস্থা এই খবর দিয়েছে.
রবিবারে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের জরুরী বৈঠকে কোরিয়া উপদ্বীপ অঞ্চলের পরিস্থিতি নিয়ে রাশিয়ার প্রস্তাবিত খসড়া ঘোষণাকে গ্রহণ করা হবে বলে মস্কোতে আশা প্রকাশ করা হয়েছে. এই বিষয়ে রিয়া নোভস্তি সংস্থাকে ঘোষণা করেছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রসংঘের স্থায়ী প্রতিনিধি ভিতালি চুরকিন.
রাশিয়া নিজের সীমানার কাছে বিদেশী সৈন্যবাহিনীর কোনো রকম মোতায়েনের উত্তরে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে. প্রতিরক্ষামন্ত্রী আনাতোলি সের্দিউকোভ এভাবে মন্তব্য করেছেন “উইকিলিক্সের” সাইটে প্রকাশিত এ খবরের যে, ন্যাটো জোট আগের মতোই রাশিয়াকে সম্ভাব্য শত্রু ও প্রতিপক্ষ বলে বিবেচনা করে. মস্কোয় আশা করা হচ্ছে যে, এ সব প্রকাশনা বাস্তবতার সাথে সুসঙ্গত নয়.
তুর্কমেনিস্তান – আফগানিস্তান – পাকিস্তান – ভারত গ্যাস সরবরাহ পাইপ লাইন, যা নিয়ে আজ আশখাবাদ শহরে চুক্তি স্বাক্ষর হতে চলেছে, তা তাত্ত্বিক দিক থেকে এই চারটি দেশের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ. বিশেষ করে আফগানিস্তানের জন্য, যার এলাকার মধ্য দিয়ে এই পাইপ লাইন বসবে. যদি তা এখানে করা সম্ভব হয়, তবে নতুন কর্মক্ষেত্র তৈরী হবে, দেশের শক্তি সংক্রান্ত ব্যবসাতে উন্নতির সম্ভাবনা হবে.
ন্যাটো জোট ও রাশিয়া পরস্পরকে বিপন্ন করছে না, বলেছেন ন্যাটো জোটের প্রধান সচিব আন্দের্স ফগ রাসমুসেন. ইউরোসঙ্ঘের দেশগুলির প্রতিরক্ষামন্ত্রীদের সাথে বেসরকারী সাক্ষাতের পরে ব্রাসেলসে এক বক্তৃতায় তিনি মস্কোর সাথে বাস্তব স্ট্র্যাটেজিক শরিকানা বিকাশে ন্যাটো জোটের প্রস্তুতির কথা আবার জোর দিয়ে বলেন. রাসমুসেন উল্লেখ করেন, এ কথা আমাদের নতুন স্ট্র্যটেজিক ধারণাতে এবং লিসবনে সাম্প্রতিক রাশিয়া-ন্যাটো শীর্ষ সাক্ষাতের ঘোষণাপত্রে সূত্রবদ্ধ.
মস্কো শহরে আফগানিস্তান, পাকিস্তান, তাজিকিস্থান ও রাশিয়ার মাদক নিয়ন্ত্রণ সংস্থা গুলির মধ্যে এক বৈঠকের পরে “চার দেশের সম্মিলিত মাদক প্রসার বিরোধ সংঘ” তৈরী করার বিষয়ে সমঝোতায় পৌঁছনো সম্ভব হয়েছে. নূতন এই দলকে এখনও “একসাথে কাজ করার” অভিজ্ঞতা অর্জন করতে হবে, কিন্তু সেই বিষয়ে সহমত রয়েছে.
রাশিয়া ও ন্যাটো জোট ১৬ই ডিসেম্বর রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সম্পর্কে বিশেষজ্ঞদের সাক্ষাত্ আয়োজন করবে. এ সম্বন্ধে বুধবার রাতে জানিয়েছেন ন্যাটো জোটে রাশিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি দমিত্রি রগোজিন, রাষ্ট্রদূতদের পর্যায়ে এ বছরে রাশিয়া-ন্যাটো পরিষদের শেষ বৈঠকের ফলাফল সম্পর্কে. তিনি বলেন, “আমরা সমঝোতায় এসেছি যে, ১৬ই ডিসেম্বর ব্রাসেলসে রাজধানী থেকে আসা বিশেষজ্ঞদের অংশগ্রহণে রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সংক্রান্ত কর্মীদলের বৈঠক হবে.
এই ব্যবস্থা অনেক রকমের কাজ করতে পারবে, উইকিলিক্স সাইটে বের হওয়া মার্কিন প্রশাসনের ফাঁস হওয়া দলিল থেকে এই সিদ্ধান্তে এসেছে গার্ডিয়ান. পোল্যান্ড কে পাঠানো ওবামা প্রশাসন থেকে দেওয়া ব্যাখ্যাতে বলা হয়েছে যে, তাদের দেশে রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থা শুধু ইরান বা সিরিয়া থেকে উড়ে আসা রকেট কেই আটকাবে না, প্রয়োজনে তাকে আরও নানা কাজ দেওয়া যেতেই পারে.
২০১০ সালের নোবেল শান্তি পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে ১০ই ডিসেম্বর নরওয়ে দেশের রাজধানী অসলো শহরে ১৯টি দেশের প্রতিনিধিরা আসছেন না, কারণ পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে চিনের দেশদ্রোহী লিউ সিয়াব ওকে, যিনি ১৯৮৯ সালে তিয়েন আন মেন স্কোয়ারে বিদ্রোহ মিছিলে অংশ নিয়েছিলেন, দেশের প্রশাসনকে উল্টে দিতে. বেইজিং মনে করেছে যে, লিউ কে নোবেল পুরস্কার দেওয়া এই পুরস্কারের প্রধান নীতির বিরুদ্ধে.
জুলিয়ান আসাঞ্জ আজ ব্রিটেনের পুলিশের হাতে আত্ম সমর্পণ করে লন্ডনের আদালতে হাজির হবেন. গার্ডিয়ান কাগজে এই সংবাদ বেরিয়েছে. আদালতে তাঁকে সুইডেনের হাতে তুলে দেওয়া নিয়ে বিচার হবে, সেখানে তাঁকে বলাত্কারের অভিযোগে সন্দেহ করা হয়েছে. আসাঞ্জ অর্থ জামিনে গ্রেপ্তার হওয়া থেকে রেহাই পাওয়ার চেষ্টা করবেন.
মূল আলোচ্য বিষয় ভিসা ব্যবস্থা প্রত্যাহার, রাশিয়ার বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থায় যোগদান ও শক্তি সংক্রান্ত বিষয়ে নিরাপত্তা. আজ পোল্যান্ড সফর শেষে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ব্রাসেলস যাচ্ছেন ও রুশ প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবেন. ইতার-তাস সংবাদ সংস্থা এই খবর দিয়েছে. ইউরোপীয় সংঘের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবেন সংঘের প্রেসিডেন্ট হেরমান ভন রমপেই এবং ইউরোপীয় পরিষদের সভাপতি জুজে মানুয়েল বারোজু.
আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
জানুয়ারী 2010
ঘটনার সূচী
জানুয়ারী 2010
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
20
21
22
23
24
25
26
27
28
29
30
31