×
South Asian Languages:
জি-২০

সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করায় দেশটির প্রেসিডেন্ট বাশার আসাদকে দায়ি করেছে জি-২০ ভুক্ত ১১টি মিত্রদেশ। সিরিয়ার ওপর সম্ভাব্য মার্কিন সামরিক হস্তক্ষেপকেও সমর্থন করেছে ওই ১১টি দেশ।

রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনের শেষে সাংবাদিক সম্মেলনে এক প্রশ্নের উত্তরে বলেছেন যে, রাশিয়া সিরিয়াকে সামরিক ও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে সহায়তা করে চলেছে ও তা আরও করা চালিয়ে যাবে, বিশেষত বাইরের থেকে সামরিক হস্তক্ষেপ করা হলে আর মানবিক সাহায্যের পরিমাণও বাড়িয়ে দেওয়া হবে, সেই সমস্ত মানুষদেরই জন্য যারা এই পরিস্থিতিতে সিরিয়াতে কষ্ট পাচ্ছেন.

অর্থনীতির উন্নয়নে রাষ্ট্র, ব্যবসা ও ট্রেড ইউনিয়নের মধ্যে বহুমুখী সম্পর্ক থাকা দরকার বলে মনে করছেন অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির দেশগুলোর জোট জি-২০ ভুক্ত দেশগুলোর নেতারা।

সেন্ট পিটার্সবুর্গে শুক্রবার ব্যবসায়িক ওট্রেড ইউনিয়নের প্রতিনিধিদের সাথে সাক্ষাতকালে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এ কথা বলেছেন।

“বড় কুড়িটি” অর্থনৈতিক ভাবে উন্নত দেশের ডিনারের সময়ে প্রধান আলোচনার বিষয় হয়েছিল সিরিয়া. স্ত্রেলনা প্রাসাদে এই আলোচনা প্রাথমিক ভাবে পরিকল্পিত সময়ের চেয়ে ঘন্টা দুয়েক সময় বেশীই চলেছিল. কিন্তু কোন একটা ঐক্যমতে পৌঁছতে “জি-২০” দেশের নেতারা তাও পারেন নি. প্রায় মধ্য রাত্রের সময়ে রুশ রাষ্ট্রপতির তথ্য সচিব দিমিত্রি পেসকভ জানিয়েছেন যে, এখানে মতামত প্রায় আধাআধি ভাবেই ভাগ হয়ে গিয়েছে. ইতালির প্রধানমন্ত্রী এনরিকো লেত্তা যেরকম মন্তব্য করেছেন যে, “অর্থনৈতিক” থেকে এই শীর্ষ সম্মেলন এবারে “সিরিয়ার” শীর্ষ সম্মেলনে পরিণত হয়েছে.

রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবুর্গে বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনের আজ দ্বিতীয় দিন। রুশ রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন আজ দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রপচি পাক কিন খেই ও স্প্যানিস প্রধানমন্ত্রী মারিয়ানো রাহোয়েমের সাথে পার্শ্ব বৈঠকে মিলিত হবেন।

সেন্ট পিটার্সবুর্গে বৃহস্পতিবার জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী দেশগুলোর নেতারা সিরিয়া পরিস্থিতি নিয়ে নিজ নিজ মতামত তুলে ধরেছেন। গতকাল নৈশভোজের পূর্বে বিশ্ব নেতারা সিরিয়া বিষয়ে মতামত ব্যক্ত করেন।

রুশ প্রেসিডেন্টের প্রেস সচিব দিমিত্রি পেশকোভ সাংবদিকদের এ কথা জানিয়েছেন।

পরিকল্পনা থেকে নির্দিষ্ট কাজের তালিকা তৈরী করা হয়েছে. ব্রিকস দেশগুলি পারস্পরিক ভাবে বিনিয়োগ সহযোগিতা নিয়ে সমঝোতা করেছে. বৃহস্পতিবারে জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনের নেপথ্যে ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা ও চিনের নেতারা সাক্ষাত্কার করেছেন. অংশগ্রহণকারীরা সম্মিলিত ভাবে পাঁচ হাজার কোটি ডলার সনদ মূলধন অনুমোদন করে উন্নয়ন ব্যাঙ্ক সৃষ্টির কথা ঘোষণা করেছেন. এই অর্থ উন্নতিশীল দেশ গুলির পরিকাঠামো সংক্রান্ত প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য বিনিয়োগ করা হবে. আর ব্রিকস গোষ্ঠীর ম্যাক্রো ইকনমিক সূচক ভাল করার জন্য তৈরী করা হচ্ছে বিনিময় যোগ্য মুদ্রার একটি তহবিল, যাতে দশ হাজার কোটি ডলার রাখা হবে.

রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গে বৃহস্পতিবার থেকে দুইদিনব্যাপী উন্নত দেশগুলোর জোট জি-২০ শীর্ষ সম্মেলন শুরু হয়েছে। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সম্মেলনের উদ্বোধন করেন।

রুশ প্রেসিডেন্টের প্রেস সচিব দিমিত্রি পেশকোভ বলেছেন, সেন্ট পিটার্সবার্গে আজ শুরু হওয়া জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে সিরিয়া প্রসঙ্গে নিজস্ব মতামত জানাবেন ভ্লাদিমির পুতিন ও বারাক ওবামা।

কয়েক মিনিট আগে রাশিয়ার সেন্ট পিটাসর্বার্গে জি-২০ দেশের সমস্ত শীর্ষ নেতারা, ইউরোপীয় সঙ্ঘের নেতারা ও অন্যান্য প্রধানদের উপস্থিতিতে শুরু হয়েছে সম্মেলন. মার্কিন রাষ্টরপতি গাড়ী থেকে নেমে রুশ রাষ্ট্রপতির সঙ্গে করমর্দন করে এই সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন.

রুশ প্রেসিডেন্টের প্রেস সচিব দিমিত্রি পেসকোভ বলেছেন, সিরিয়া ইস্যু নিয়ে জি-২০ সম্মেলনে আলাদা করে কোন অধিবেশন আপাতত রাখা হয়নি। তবে সবকিছু নির্ভর করবে শীর্ষ নেতাদের ওপরই। রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তাসংস্থা রিয়া নোবাসতিকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি আজ এসব কথা বলেন।

 

বিশ্বের অর্থনীতির উন্নয়ন, যা সম্প্রতিকাল পর্যন্ত দ্রুত উন্নয়নশীল দেশগুলোর উপর নির্ভর করছিল, অদুর ভবিষ্যতে নির্ভর করবে উন্নত দেশগুলির উপর, বিশেষতঃ আমেরিকার অর্থনীতির উপর।

বৃহস্পতিবার সেন্ট-পিটার্সবার্গে শুরু হতে যাওয়া জি-২০’র শীর্ষ সম্মেলন, যেটাকে বরাবর অর্থনৈতিক ফোরাম বলেই গণ্য করা হয়, এবার সিরিয়াকে কেন্দ্র করে উদ্ভূত পরিস্থিতির কারণে রাজনৈতিক রঙ পাবে.

সেন্ট পিটার্সবার্গে বড় কুড়িটি অর্থনৈতিক ভাবে উন্নত দেশের সেপ্টেম্বর মাসের শীর্ষ সম্মেলন ২০১২ সালের ডিসেম্বর মাসে শুরু হওয়া এই গোষ্ঠীতে রাশিয়ার সভাপতিত্বের একটা চূড়ান্ত মুহূর্ত হতে চলেছে. বিশেষজ্ঞরা উল্লেখ করেছেন যে, এই সময়ের মধ্যে মস্কোর পক্ষে সম্ভব হয়েছে জি২০ গোষ্ঠীর কাঠামো পুনর্নবীকরণের – নাগরিক সমাজ ও ব্যবসায়ের মধ্যে আলোচনার ব্যবস্থা করার, আলোচনায় প্রসঙ্গ উত্থাপন করার ও বহু বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার.

আসন্ন জি২০-র সামিটে অন্যতম প্রধান চত্বর হবে কনস্তানতিনোভ প্রাসাদ বা যার এখন নাম দেওয়া হয়েছে কংগ্রেস প্যালেস. প্রাসাদটি সেন্ট-পিটার্সবার্গ নগরী থেকে ১৯ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত. নগরী থেকে দূরত্ব, চোখজুড়ানো স্থাপত্য, মনমাতানো প্রাকৃতিক পরিবেশ – এই সব কিছুই উচ্চ পর্যায়ে মত বিনিময় করার জন্য আদর্শ প্রেক্ষাপট.

বিশ্বের বিনিয়োগ বাজারে নতুন করে দ্রুত ওঠানামার বিরুদ্ধে ব্রিকস দেশগুলো সম্মিলিত ভাবে একটা প্রতিরক্ষা করার ব্যবস্থা করছে. ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, চিন ও দক্ষিণ আফ্রিকার নেতারা জি২০ সম্মেলনের সময়ে দশ হাজার কোটি ডলারের সমান অর্থের এক সঞ্চয় তহবিলের কথা ঘোষণা করতে পারেন.

1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
আগষ্ট 2017
ঘটনার সূচী
আগষ্ট 2017
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
20
21
22
23
24
25
26
27
28
29
30
31