×
South Asian Languages:
মার্কিন, 12 এপ্রিল 2013
শুক্রবার মার্কিনী বিদেশ দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে, যে আমেরিকার মতে, চীন কোরিয় উপদ্বীপে চলতি সমস্যাবলীর সমাধানের ক্ষেত্রে আরো অনেক বেশি সক্রিয় ভূমিকা নিতে পারে. “চীনের স্থিতিশীলতা অর্জন করার জন্য যথেষ্ট ক্ষমতা রয়েছে, আর পারমানবিক রকেটের পেছনে চলতে থাকা উত্তর কোরিয়ার দৌড় – স্থিতিশীলতার পরম শত্রু” – বলেছেন মার্কিনী বিদেশ দপ্তরের নামোল্লেখ না করা প্রতিনিধি.
  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামা ঘোষণা করেছেন, যে উত্তর কোরিয়ার সময় হয়েছে আঘাত হানার ও যুদ্ধ শুরু করার রাজনীতি বন্ধ করার. বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের সাধারণ সম্পাদক বান কি মুনের সাথে হোয়াইট হাউসে সাক্ষাতের পর ওবামা বলেছেন, যে তারা উভয়েই এই বিষয়ে একমত, যে উত্তর কোরিয়ার যৌধেয় অভিযান বন্ধ করার সময় হয়েছে, যে নীতি তারা অবলম্বন করে চলেছে.
পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতির পদে ১৯৯৯ সাল থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত ক্ষমতাসীন থাকা জেনারেল পারভেজ মুশারফ সি-এন-এনকে প্রদত্ত সাক্ষাত্কারে স্বীকার করেছেন, যে কোনো বিশেষ ক্ষেত্রে চালকবিহীন ড্রোন থেকে পাকিস্তানের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে আঘাত হানার অনুমতি তার অধীনস্থ সরকার দিয়েছিল. এতদিন পর্যন্ত পাকিস্তানের কর্তৃপক্ষ আমেরিকার ড্রোন থেকে আঘাত করার সঙ্গে কোনোরকম ভাবে জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করে আসছিল, যা দেশবাসীর প্রবল অসন্তোষের কারণ হয়েছে.
যদি দক্ষিণ কোরিয়া সংঘাতের রাজনীতি বর্জন না করে, তাহলে উত্তর কোরিয়া ক্যাসোন শিল্প তালুক একেবারেই বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছে. এই ঘোষণা করেছেন বিশেষ তালুক পরিচালন বিভাগের প্রতিনিধি. তিনি যোগ করেছেন, যে নিজের শ্রমিকদের ক্যাসোন থেকে দেশে ফিরিয়ে নেওয়ার বিষয়ে পিয়ংইয়ংয়ের সিদ্ধান্ত হচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্ররোচনাপন্থী কার্যকলাপের প্রত্যুত্তর.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30
এপ্রিল 2013
ঘটনার সূচী
এপ্রিল 2013
27