×
South Asian Languages:
মাদক, 2012
পররাষ্ট্র নীতির ক্ষেত্রে একটি অন্যতম প্রাথমিক কাজ রাশিয়ার জন্য সাংহাই সহযোগিতা সংস্থায় অংশগ্রহণের মাধ্যমে মিলিত ভাবে কাজ করা. এই বিষয়ে একটি প্রবন্ধ বিশেষ করে “রেডিও রাশিয়ার” জন্য লিখেছেন রুশ রাষ্ট্রপতির এই সংস্থায় বিশেষ প্রতিনিধি কিরিল বারস্কি.
ভ্লাদিমির পুতিনের বড় প্রেস কনফারেনস শুধু রাশিয়াতেই নয়, তার সীমানার বাইরেও বহু অনুরণন তুলেছে. সারা বিশ্বের বিশেষজ্ঞরাই খুব মনোযোগ দিয়ে রাশিয়ার নেতার বক্তব্য শুনেছেন. নিজেদের মনোভাব তাঁরা “রেডিও রাশিয়ার” সঙ্গে ভাগ করে নিয়েছেন. ভ্লাদিমির পুতিনের বড় সাংবাদিক সম্মেলন – একটা বিশ্ব রাজনীতির বিরল ঘটনা.
রাশিয়া, জনপ্রিয় বিষয়, আমাদের সহযোগিতা, আফগানিস্থান, সের্গেই লাভরভ, নৌবাহিনী, পুতিন, আরব, রাশিয়া-সন্ত্রাস, আদমসুমারি- রাশিয়া, ইন্টারনেট, রাশিয়া- সংস্কৃতি, অর্থনৈতিক উন্নয়ন, বিমান, মেদভেদেভ, সন্ত্রাস, রুশ- মার্কিন, পারমানবিক, কোরিয়া, মহাকাশ, ককেশাস, মাদক, ইউরোপীয় সংঘ, ধর্ম, রাষ্ট্রসংঘ, যৌথ নিরাপত্তা, ইরাক, আধুনিকীকরণ, বিজ্ঞান, সম্মেলন, তুরস্ক, স্বাধীন রাষ্ট্র সমূহ, দুর্নীতি, বিতর্কিত অঞ্চল, ন্যাটো জোট, আফ্রিকা, জাপান, দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া, নিকট প্রাচ্য, চিন, ব্রিকস, সামরিক, লিবিয়া, সিরিয়া, ইজরায়েল, রাশিয়ার নির্বাচন, ফ্রান্স, জার্মানী, বড় কুড়ি, নিষেধাজ্ঞা, উত্সব, রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা, সৌদি আরব, সাংহাই সহযোগিতা সংস্থা, গাজা অঞ্চল, রাশিয়া, কুরিল দ্বীপপুঞ্জ, ইসলাম, ইউরো-অঞ্চল, জর্জিয়া
  চেখের সংসদ প্রেসক্রিপশন দেখে ঔষধালয়গুলিকে মারিজুয়ানা বিক্রয় করার অনুমতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে. যেমন খোদ মারিজুয়ানা, তেমনই এমন সব ওষুধ, যার মধ্যে মারিজুয়ানা আছে, তা কেনা যাবে. নতুন বছর থেকে আইন চালু হবে. ২০১৩ সালে কেবলমাত্র বিদেশ থেকে আমদানী করা মারিজুয়ানা বিক্রয়ের অনুমতি দেওয়া হলেও পরবর্তীতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণের ইউরোপীয় সরকারী ইনস্টিটিউটের কাছ খেকে লাইসেন্স পেয়ে দেশেই মারিজুয়ানা উত্পাদন করা যাবে.
মাদকদ্রব্য নিয়নন্ত্রন বিষয়ক রাশিয়ার ফেডারেল সংস্থার প্রধান ভিক্তর ইভানভ বলেছেন, অভ্যন্তরীন মাদক সেবনকারীদের ব্যবহারের জন্য প্রতিবছর প্রায় ৩০ টন আফগান হিরোইন রাশিয়ায় প্রবেশ করছে. তিনি আরও বলেন, ইউরোপে হিরোইন সরবরাহের জন্য রাশিয়ার ভূখন্ডকে ট্রানজিট হিসেবে ব্যবহার করা হয় না. ইভানভ আরও বলেন, উপরন্তু ইউরোপ থেকে সিনথেটিক মাদকদ্রব্য রাশিয়ায় পাচার করা হয়.
এই খবর তুরস্কের আইন শৃঙ্খলা রক্ষী বাহিনীর মুখপাত্র জানিয়েছেন. এই ধরা পড়া গাঁজার দাম ২০ লক্ষ ডলারেরও বেশী. পুলিশ এই ধরা পড়া গাঁজার সঙ্গে কুর্দ শ্রমিক দলের কাজকর্মকেও যুক্ত করেছে, যারা, জোর দিয়ে বলা হয়েছে যে, মাদক দ্রব্যকে নিজেদের আর্থিক প্রয়োজনে ব্যবহার করে থাকে.
১৯৯৮ সাল থেকে তার সমস্ত ফলাফল হিসাবের বাইরে করে দেওয়া ও সমস্ত উপাধি কেড়ে নেওয়া হয়েছে. এই ভাবেই ডোপিংয়ের
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে আইন সংরক্ষণ সংক্রান্ত সমস্যা হল – সামাজিক অধিকার কেড়ে নেওয়া, রাজনৈতিক ক্ষেত্রে দুর্নীতি ও আইন রক্ষী বাহিনীর অপব্যবহার. এই ধরনের তথ্য রাশিয়ার গণতন্ত্র ও সহযোগিতা ইনস্টিটিউট থেকে তৈরী করা রিপোর্টে বলা হয়েছে. তাদের গবেষণা অনুযায়ী এই ধরনের আইন ভাঙা হচ্ছে নিয়মিত ভাবেই ও তাদের তীক্ষ্ণতা কম হচ্ছে না.
রাশিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও আফগানিস্তানের নার্কোটিক-পুলিশ বাহিনীর মিলিত বিশেষ অভিযানের সময় আফগানিস্তানের ভূভাগে ছয়টি নার্কোটিক ল্যাবরেটারি ধ্বংস করা হয়েছে এবং বেআইনী পাচারের জন্য তৈরি প্রায় ৫.৬ টন বিভিন্ন ধরণের নার্কোটিক বজেয়াপ্ত করেছে. এ সম্বন্ধে বুধবার জানানো হয়েছে রাশিয়ার ফেডারেল নার্কোটিক নিয়ন্ত্রণ বিভাগের প্রেস-সার্ভিসে.
বিশ্ব সমাজ বর্তমানে মাদকের সঙ্গে পৃথিবী জোড়া যুদ্ধে আপাততঃ হারছে: বিশ্বে ২ লক্ষের বেশী লোক প্রতি বছরে মারা যাচ্ছে হেরোইন ও কোকেইন সংক্রান্ত অসুখ থেকে. বিশ্বের নেতৃস্থানীয় দেশ গুলির উচিত সম্মিলিত ভাবে মাদক বিরোধী লড়াই শুরু করার, এই রকম বিশ্বাস নিয়ে রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় মাদক নিয়ন্ত্রণ পরিষেবার প্রধান ভিক্টর ইভানভ ঘোষণা করেছেন.
হংকংয়ের বিমান বন্দরে পুলিশ একজন ৬৩-বছর বয়সী ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে, যে মোটামুটি ২ কিলো কোকেইন ব্রাজিল থেকে চোরাচালান করে আনছিল. স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমগুলি এই খবর দিয়েছে, তবে ব্যক্তিটির নাম জানানো হয়নি. চোরা চালানকারী কোকেইন বিশেষভাবে বানানো জাঙ্গিয়ায় ও জুতোয় লুকিয়ে রেখেছিল. বাজেয়াপ্ত করা মাদক দ্রব্যের দাম ২৮৪ হাজার ডলার.
এক অনন্য যন্ত্র, যা মাদক দ্রব্য, বিস্ফোরক ও বেআইনি জিনিষ মোড়কের মধ্যে থাকা অবস্থাতেই নির্ণয় করতে সক্ষম, তা নির্মাণ করেছেন রুশ বিজ্ঞানীরা. এই যন্ত্র ইতিমধ্যেই বিক্রীর জন্য এসেছে. এই লেসার রশ্মি দিয়ে নির্ণয়ের যন্ত্র স্কোলকোভোতে উচ্চ প্রযুক্তি নির্মাণ ক্ষেত্রের রামমিক্স নামের পারমানবিক প্রযুক্তি বিভাগের স্থানীয় কোম্পানী তৈরী করেছে.
আফগানিস্তানে বিশেষ অভিযান চালানোর সময় ৩৭ জন জঙ্গী নিহত হয়েছে, ১৪ জন আহত হয়েছে এবং আরও তিন জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বিগত এক দিনে. এ সম্বন্ধে বুধবার জানিয়েছে দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়. আফগানিস্তানে নিরাপত্তায় সহায়তা করা আন্তর্জাতিক বাহিনীর সাথে একত্রে আফগান বাহিনী ১২টি সামরিক অভিযান চালিয়েছে ১০টি প্রদেশে, বিশেষ করে কাবুলে, কান্দাহারে, গেলমেন্দে এবং জাবুলে.
রাশিয়া, চিন ও মধ্য এশিয়ার দেশ গুলি (কাজাখস্থান, কিরগিজিয়া, তাজিকিস্তান) পাহাড়ী জায়গায় সম্মিলিত ভাবে সামরিক অপারেশনের কৌশল তৈরী করেছে. সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার "শান্তি মিশন – ২০১২" নামের প্রশিক্ষণ (৮ থেকে ১৪ই জুন) তাজিকিস্তানে শেষ হয়েছে. এর সক্রিয় কাজ কর্মের সময়ে যোগ দিয়েছে দুই হাজারেরও বেশী সামরিক কর্মী ও ৫০০ টি যুদ্ধের গাড়ী.
 “আরব বসন্তের” ঘটনা, আফগান সমস্যার জটিলতা বৃদ্ধি, কোরিয়া উপদ্বীপ এলাকায় কঠিন পরিস্থিতি প্রাথমিক ক্ষেত্রে ইউরো- এশিয়া অঞ্চলের নিরাপত্তা সংক্রান্ত প্রশ্নকে সামনে এগিয়ে দিয়েছে. সাংহাই সহযোগিতা সংস্থা, তার বর্তমানের অবস্থানে, যেখানে সামরিক জোট তৈরী করা বাদ দেওয়া হয়েছে, তখন ক্রমবর্ধমান আশঙ্কা গুলির প্রতি সফল ভাবে প্রতিক্রিয়া করতে পারে কি?
 ভিক্তর ইভানভ এই প্রস্তাব করেছেন. স্টকহোম শহরে তৃতীয় বিশ্ব মাদক বিরোধী সম্মেলনে যোগ দিতে গিয়ে তিনি দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন এই বিষয়ে যে, বর্তমানে এক সঙ্কট জনক পরিস্থিতির উদয় হয়েছে ও নতুন করে মাদক বিরোধী জোট সৃষ্টির প্রয়োজন পড়েছে.
     বেজিং শহরে সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার পররাষ্ট্র মন্ত্রী পর্যায়ে বৈঠক হয়েছে. এই বৈঠকের একটি প্রধান বিষয় ছিল আফগানিস্তানের পরিস্থিতি. সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার সদস্য দেশ গুলি উল্লেখ করেছে: আফগানিস্তান যত দ্রুত স্বাধীন ও শান্তিপ্রিয় দেশে পরিণত হবে, ততই দ্রুত এই সমগ্র এলাকা স্থিতিশীল হবে.
    ব্রাসেলস শহরে বিগত রাশিয়া- ন্যাটো জোটের সম্মেলনে আবারও আফগানিস্তানের পরিস্থিতি নিয়ে নিয়মিত ভাবে রাশিয়া ও জোটের বিশেষজ্ঞ পর্যায়ের সাক্ষাত্কার নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় নি.     রাশিয়ার পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রধান সের্গেই লাভরভ এই ধরনের পরিস্থিতিকে রাশিয়ার প্রতি “অন্যায় ও অসত্” বলে উল্লেখ করেছেন.
নিকট প্রাচ্যে সংকট, ইরানের পারমানবিক সমস্যা ও আফগানিস্তানের পরিস্থিতি – আজ মস্কোয় চলতি রাশিয়া, ভারত ও চীনের বিদেশমন্ত্রী যথাক্রমে সের্গেই লাভরোভ, এস.এম.কৃষ্ণ ও ইয়ান জেচির সাক্ষাত্কারে মুখ্য আলোচ্য বিষয়.    আলোচ্যসূচীতে আরও আছে এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকায় নিরাপত্তা রক্ষা করা, বিশেষতঃ সন্ত্রাসবাদের বিরূদ্ধে সংগ্রামে ঐক্যবদ্ধ সহযোগিতা. মন্ত্রীরা আফগানিস্তান থেকে চালান মাদকদ্রব্যের কারবার বন্ধ করার পন্থা নিয়েও আলোচনা করবেন.
রাশিয়া, পাকিস্তান ও চিন আফগানিস্তান থেকে মাদক পাচারের বিরুদ্ধে এক ত্রি মুখী জোট তৈরী করা নিয়ে আলোচনা করছে. এই বিষয়ে ঘোষণা করেছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় মাদক নিয়ন্ত্রণ দপ্তরের প্রধান ভিক্টর ইভানভ, যিনি বর্তমানে বেজিং সফরে রয়েছেন.
দুশানবেতে আফগানিস্তান কেন্দ্রীক পঞ্চম আঞ্চলিক অর্থনৈতিক সম্মেলনে ভাষন দিয়ে ইরানের রাষ্ট্রপতি মাহমুদ আহমাদনেজাদ আমেরিকা ও ন্যাটো জোটের কড়া সমালোচনা করেছেন. তিনি তাদের আফগানিস্তানে পুণরায় কলোনি স্থাপণ করার অভিসন্ধিতে অভিযুক্ত করেছেন.     মাহমুদ আহমাদিনেজাদের মতে, আফগানিস্তানের স্থিতিশীলতা নির্ভর করে আছে, কত দ্রুত আমেরিকা সহ ন্যাটো জোট সেই দেশ পরিত্যাগ করবে – তার উপর.
আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
জানুয়ারী 2012
ঘটনার সূচী
জানুয়ারী 2012
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
20
22
23
24
26
27
28
29
30
31