×
South Asian Languages:
খরা - দুর্যোগ

রাষ্ট্রসঙ্ঘ আয়োজিত আবহাওয়া সংক্রান্ত সম্মেলন, যা ওয়ারশ শহরে ১১ থেকে ২৩শে নভেম্বর পর্যন্ত হয়েছে, তাতে কোন নতুন উন্নতি দেখতে পাওয়া যায় নি. এই আলোচনার লক্ষ্য ছিল আবহাওয়া নিয়ে নতুন করে চুক্তির বয়ান তৈরী করা, যা ২০২০ সালে কিয়োটো প্রোটোকলের জায়গা নেবে. কিন্তু এই প্রশ্ন নিয়ে প্রতিনিধি দলেরা এমনকি আলোচনার সূত্রপাত পর্যন্ত করেন নি.

এই সম্মেলনে যাঁরা অংশ নিয়েছেন, তাঁরা সহমতে এসেছেন যে, আগামী বছরে এই বিষয়ে আলোচনা চালিয়ে যাবেন. আর এটাই প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে ১৯০টি দেশ থেকে আসা প্রতিনিধি দলের কাজের মূল পরিণাম. তাও একেবারে শেষ মুহূর্তে সর্বসম্মতি ক্রমে সিদ্ধান্ত করা সম্ভব হয়েছে মাত্র কয়েকটি দলিল নিয়েই, এই কথা উল্লেখ করে রাশিয়ার প্রতিনিধি দলের প্রধান আলেকজান্ডার বেদরিত্শকি বলেছেন:

সুইডেনে ১৫-১৬ই জুলাই আবহাওয়ার পরিবর্তন নিয়ে আরও একটি সম্মেলন হতে চলেছে. বহু ডজন বিশেষজ্ঞ মানুষের আবহাওয়ার উপরে প্রভাব নিয়ে আলোচনা করছেন, বিশ্বের উষ্ণায়ন ও এই সমস্যা সমাধানের জন্য খরচ নিয়েও. তারই মধ্যে বিজ্ঞানীরা এই প্রথমবারই উল্লেখ করছেন না: সূর্য বিশ্বের আবহাওয়ার উপরে মানুষের চেয়ে অনেক বেশী গুনেই প্রভাব ফেলে থাকে.
এক-শো কুড়ি কোটি মানুষ, অর্থাত্ বিশ্বের সমস্ত জনতার একের পঞ্চমাংশ লোক এমন সব জায়গা থাকেন, যেখানে জলের সংকুলান হয় না. আরও এক-শো পঞ্চাশ কোটি মানুষ বাধ্য হন জলের ব্যবহার কমাতে, কারণ প্রয়োজনীয় পরিকাঠামো নেই. এই সমস্যা বিশ্বের নানা কোণে জানান দিচ্ছে, তার মধ্যে মধ্য এশিয়াতেও. এখানে বিরোধের পক্ষ হিসাবে এগিয়ে রয়েছে উজবেকিস্তান, কিরগিজিয়া ও তাজিকিস্তান.
বিগত কয়েকদিন ধরে জাপানে চলছে অসহ্য গরম, তাতে আপাততঃ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে ও ২৫৯৪ জন হাসপাতালে ত্রর্তি হয়েছেন, খবর দিয়েছে জাপানের অগ্নি নিরাপত্তা ও প্রাকৃতিক বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তর থেকে আজ. বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে, অসুস্থদের সংখ্যা বাড়বে, কারণ গরমও বাড়বে. রবিবারে দেশের কেন্দ্রীয় এলাকায় থার্মোমিটারের পারা ৩৭ ডিগ্রী অবধি চড়েছিল আর টোকিও শহরে কয়েকদিন ধরেই একটানা ৩৫ ডিগ্রী গরম রয়েছে.
    বছরের এই সময়েত জন্য পরিচিত দাবদাহের আবহে ভারতের বিভিন্ন এলাকায় গত দুই মাসের মধ্যে করাল সূর্যাঘাতে পাঁচশোরও বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছে. রাজধানী দিল্লিতে থার্মোমিটারের পারদ ৪২,৭ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডে চড়েছে. রাজস্থানের থর মরুভূমিতে অবস্থিত চুরু শহরে তাপমান ৪৫,৪ ডিগ্রি ছুঁয়েছে.
ভারত রাশিয়ার অভিজ্ঞতা ও প্রযুক্তি ব্যবহার করবে জাতীয় সঙ্কট পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা বিকাশের জন্য. এই লক্ষ্য নিয়ে রাশিয়াতে বর্তমানে ভারতের এক প্রতিনিধি দল এসেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী সুশীল কুমার শিন্ডের নেতৃত্বে. মন্ত্রী রাশিয়ার রাজধানীতে রাষ্ট্রীয় বিপর্যয় নিরসন মন্ত্রণালয়ের কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ দপ্তরে গিয়েছিলেন.
২২শে মার্চ – বিশ্ব জল সম্পদ দিবস. ২০ বছর আগে রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সভা এই দিনটিকে ঘোষণা করেছিল. এই ভাবেই আন্তর্জাতিক ক্যালেণ্ডারে সেই বিশ্ব জোড়া সমস্যার কথা বিশেষ করে উল্লেখ করা হয়েছিল, যা যৌথ প্রয়াসে সমাধান করতে হবে. আধুনিক বিশ্বে এই গ্রহের অন্যান্য রসদের চেয়ে জলের বেশী করেই চাহিদা রয়েছে, কিন্তু আজই তা মেটানো যাচ্ছে না.
রাশিয়ার ক্যালেণ্ডারে – আজ ত্রাণ কর্মী দিবস. সেই সমস্ত লোকদের আজ পেশাগত উত্সবের দিন, যাঁদের পেশাকে একটুও না বাড়িয়ে বলা যেতে পারে বীরের কাজ. যেখানেই মানুষের সহায়তার প্রয়োজন, সেখানেই তাঁরা পৌঁছে যান সবার আগে: ভেঙে পড়া বাড়ীর নীচে, ঝলসানো আগুনের মাঝে, দুমড়ে মুচড়ে যাওয়া গাড়ী বা বাসের ভিতরে, ডুবে যাওয়া এলাকায়.
যবে থেকে আবহাওয়া পর্যবেক্ষন করা শুরু হয়েছে, সেই ১৬০ বছরের মধ্যে উষ্ণতম হবে ২০১৩ সাল. বৃটেনের আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাস অনুযায়ী দিনের গড় তাপমাত্রা আধডিগ্রি সেন্টিগ্রেডেরও বেশি বাড়বে. যদি এভাবেই চলতে থাকে, তাহলে চলতি বছর শেষ হওয়ার আগেই আমাদের গ্রহে শুরু হবে বিপর্যয়কর পরিবর্তন. অন্যদিকে, কিছু গবেষণাবিদ উল্টো ভয় দেখাচ্ছে.
ফিলিপাইনে চলতি বছরে সবচেয়ে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘পাবলো’র আঘাতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাড়িয়েছে ১ হাজার ২ জন. এছাড়া এখনও ৮৪৪ জন নিঁখোজ রয়েছে. স্থানীয় প্রশাসনের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা ফ্রান্স প্রেস এ খবর জানিয়েছে. এর আগে এ সংখ্যা ৯৩২ জন বলে উল্লেখ করা হয়েছিল.
আমাদের জগতের সঙ্গে আজ থেকে একশ বছর পরে কি হতে চলেছে, অথবা হয়তো তারও আগে? বৈজ্ঞানিক ও সাধারন মানুষরা এই প্রশ্নই আজ বেশী করে করতে শুরু করেছেন. সমগ্র দেশ ও মহাদেশের জন্যই আজ বন্যা, ঘূর্ণিঝড়, খরা সত্যিকারের যমদূত হয়ে দাঁড়িয়েছে.
রাশিয়া ভারতকে সাহায্য করবে নদীর দূষণ রোধে. সাইবেরিয়ার তোমস্ক শহরের ব্যবসায়ী নিকোলাই বাদুলিন প্রস্তাব করেছেন যে, ভারতকে তাঁর পক্ষ থেকে দান হিসাবে নিজের পেটেণ্ট করা জল পরিস্কার করার জন্য অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ভারতীয় নদী গুলির দূষণ বন্ধ করার জন্য দেওয়ার কথা. বিষয় নিয়ে বিশদ করে লিখেছেন আমাদের সমীক্ষক গিওর্গি ভানেত্সভ. ভারত খুবই আগ্রহ বোধ করেছে এই ধরনের প্রযুক্তি বিষয়ে.
রাশিয়ার বিজ্ঞানীরা মানুষের শরীরে চরম গরমের প্রভাব নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষার প্রথম পর্ব শেষ করেছে. এই পরীক্ষার উদ্দেশ্য – মানুষের স্বাস্থ্য কিভাবে প্রাকৃতিক বিপর্যয় গুলির প্রতিরোধে সক্ষম হয়, যে রকম ২০১০ সালের অস্বাভাবিক রকমের গরমে হয়েছিল. এই বারে গরম কাল রাশিয়ার লোকরা মনে করছেন দেশের কেন্দ্রীয় অঞ্চলে খুবই বেশী তাপমাত্রা বৃদ্ধি ও অস্বাভাবিক খরার কারণে.
গত সপ্তাহে ভারতের মন্ত্রীসভা ঘোষণা করেছে যে, ব্রহ্মপুত্র বোর্ড নামের পরিষদকে ব্রহ্মপুত্র নদী উপত্যকা কার্যকরী পরিষদে নতুন করে ঢেলে সাজানো হবে. আর এই নব নির্মিত পরিষদের কাছে জল সম্পদ নিয়ন্ত্রণ ও বন্যার ফলে উত্পন্ন হওয়া বিপর্যয় পরিস্থিতি মোকাবিলার কাজ দেওয়া হবে. সেই ধরনের বন্যা, যার জন্য কয়েকদিন আগেই ভারতের উত্তর পূর্বের রাজ্য গুলি এখনও পরিত্রাণ পায় নি.
দানাশষ্য উত্পাদক মূল দেশ গুলিতেই এই বছরের খরার ফলে বিশ্বের বাজারে গমের দাম বাড়ছে. সবচেয়ে কঠিন পরিস্থিতি হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে, যেখানে বিরল রকমের গ্রীষ্মের দাবদাহে অধিকাংশ ফসলই জ্বলে গিয়েছে. রাশিয়াও এই বছরে খরার ফলে কম শষ্য উত্পাদন করতে পেরেছে. তা স্বত্ত্বেও সরকার বিদেশে রপ্তানীর বিষয়ে কোন রকমের বাধা নিষেধ আরোপ করে নি.
বিশ্বের খাদ্য বস্তুর বাজারে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে জিনিষের দাম খুব বেড়েছে ব্রাজিলে প্রবল বর্ষণ, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের খরা ও ইন্দোনেশিয়া ও অস্ট্রেলিয়াতেও খরার জন্য. রাষ্ট্রসঙ্ঘের খাদ্য সম্ভার পরিষদের বিশেষজ্ঞরা খুবই উদ্বিগ্ন হয়েছেন বর্তমানের পরিস্থিতি নিয়ে আর তার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন যে, জিনিষের দাম ২০০৭- ২০০৮ সালের খাবার জিনিষের সঙ্কটের পুনরাবৃত্তি করতে পারে.
জুলাইয়ে বিশ্বে খাদ্যদ্রব্যের মুল্য ৬% বেড়েছে, যদিও এর আগের তিনমাসে – এপ্রিল থেকে জুন মাসে দাম কমছিল. জাতিসংঘের অন্তর্গত খাদ্যদ্রব্য ও কৃষিসামগ্রী বিভাগ এই তথ্য জানিয়েছে. ঐ সংস্থার বিশেষজ্ঞদের মতে, গত কয়েক সপ্তাহ ধরে কৃষিপণ্যের, বিশেষতঃ দানাশস্যের ও রেপসীডের দাম খুব বাড়ছে. আমেরিকায় খরার কারণে ভুট্টার দাম ২৩% বেড়েছে আর রাশিয়ায় স্বল্প গমের ফসলের পরিপ্রেক্ষিতে তার দাম বিশ্বে বেড়েছে ১৯
‘শিশুদের রক্ষা করো’ নামক আন্তর্জাতিক মানবতাবাদী সংস্থা এই বলে সতর্ক করে দিচ্ছে, যে আফ্রিকান দেশ নাইজেরে খাদ্যদ্রব্যের অভাবের সমস্যায় অবিলম্বে হস্তক্ষেপ করা দরকার. মানবতাবাদী সংস্থাগুলি খরা ও দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির দরুন দুর্ভিক্ষের সম্ভাবনার বিষয়ে একাধিকবার সতর্ক করেছে. নাইজেরের ৬০ লক্ষেরও বেশি বাসিন্দার সাহায্য প্রয়োজন. বি.বি.সি. জানাচ্ছে, যে আফ্রিকার অন্যান্য দেশেও দুর্ভিক্ষ ক্রমশ্ঃ ছড়িয়ে পড়ছে.
প্রায় এক বছর আন্তর্জাতিক শস্যের বাজারে অনুপস্থিত থাকার পরে রাশিয়া তার অবস্থান পুণরুদ্ধায় করতে সমর্থ হয়েছে, এমনকি নতুন ঐতিহাসিক রেকর্ড সৃষ্টি করেছে. ১লা এপ্রিল পর্যন্ত ১,৮৫ কোটি টন গম বিদেশে রপ্তানী করা হয়েছে. আগামী বছরের জন্য পূর্বাভাস আরও বেশি আশাব্যাঞ্জক. তবে বিশেষজ্ঞদের মতে, বাজারের প্রথম সারির বিক্রেতাদের সাথে প্রতিদ্বন্দিতা করতে হলে পরিমান থেকে উত্কর্ষতার দিকে ঝোঁকা দরকার.
আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
মে 2018
ঘটনার সূচী
মে 2018
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
20
21
22
23
24
25
26
27
28
29
30
31