×
South Asian Languages:
পারমানবিক, এপ্রিল 2013
এর আগে ঐস্লামিক প্রজাতন্ত্র ইরানের পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র রহমান মেহমানপারাস্ত ঘোষণা করেছিলেন যে, এই আলোচনার দিন এখনও ঠিক হয় নি. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও আরও কয়েকটি পশ্চিমের দেশে মনে করা হয়েছে যে, ইরানে শান্তিপূর্ণ পারমানবিক পরিকল্পনার আড়ালে পরমাণু অস্ত্র তৈরী করার চেষ্টা করা হচ্ছে.
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ঠিক করেছে ইজরায়েলের সেনা বাহিনীর নিকটপ্রাচ্যে প্রযুক্তিগত প্রাধান্য সমর্থন করার. এই বিষয়ে তেল আভিভে মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী চাক হেগেল নিজের ইজরায়েলের সহকর্মী মোশে ইয়ালনের সঙ্গে বৈঠকের পরে এক সাংবাদিক সম্মেলনে ঘোষণা করেছেন.
উত্তর কোরিয়া তার পারমাণবিক কর্মসূচি গুটিয়ে নেওয়া সম্পর্কে দক্ষিণ কোরিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দাবি প্রত্যাখান করেছে এবং উত্তর কোরিয়াকে পারমাণবিক অস্ত্রাধিকারী দেশ হিসেবে স্বীকার করার উপর জোর দিচ্ছে.
ইরানের পারমানবিক শক্তি সংস্থার প্রধান ফেরেইদুন আব্বাসী দেওয়ানী আরও একবার ঘোষণা করেছেন যে যদি সেই রকমের দরকার পড়ে, যেমন কিছু জাহাজ বা ডুবো জাহাজের জন্য, তবে ইরান ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করতে পারে শতকরা ৫০-৬০ ভাগ পর্যন্ত. তাঁর কথামতো, ইরানের গবেষকদের পারমানবিক ডুবোজাহাজের প্রয়োজন পড়তে পারে আরও বড় ধরনের জলের নীচে কাজ করার জন্যে.
উত্তর কোরিয়া বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিষেধাজ্ঞা বাতিলের দাবি করেছে, যা প্রবর্তিত হয়েছিল তার রকেট ও পারমাণবিক পরীক্ষার পরে. পিয়ংইয়ং তাছাড়া ওয়াশিংটনের কাছ থেকে এ গ্যারান্টি পেতে চায় যে, সে দক্ষিণ কোরিয়ার সাথে মিলে “পারমাণবিক যুদ্ধের প্রস্তুতিতে” অংশগ্রহণ করবে না, যদি মার্কিনীরা সত্যি সত্যিই উত্তর কোরিয়ার সাথে সংলাপের সুযোগ খোঁজে.
মঙ্গলবারে চিনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সরকারি ভাবে প্রথমবার একটি দলিল প্রকাশ করেছে (তথাকথিত শ্বেত পত্র), যাতে দেশের সামরিক বাহিনীর পরিসংখ্যান ও প্রতিরক্ষা খাতে খরচ বিশদ ভাবে দেখানো হয়েছে.
ইরান-পাকিস্তান সীমান্ত অঞ্চলে সিস্তান ও বেলুচিস্তান প্রদেশে বুধবার ৫.৭ মাত্রার ভূমিকম্প হয়েছে, বুধবার জানিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক বিভাগ. মার্কিনী ভূকম্পবিদদের তথ্য অনুযায়ী, ভূমিকম্পের কেন্দ্রবিন্দু ছিল ইরানের জাহেদান শহরের ২০২ কিলোমিটার দক্ষিণ-পুবে, ৬৮.৩ কিলোমিটার গভীরতায়. ভূমিকম্প নথিভুক্ত করা হয় মস্কো সময় অনুযায়ী সকাল ৭টা ১৫ মিনিটে. সম্ভাব্য হতাহত, ধ্বংস ও ক্ষয়-ক্ষতি সম্বন্ধে খবর এখনও পাওয়া যায় নি.
আত্মরক্ষার খাতিরে উত্তর কোরিয়া আগের মতই সামরিক প্রতিরোধ করার ব্যবস্থা নেবে, যদি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র পারমানবিক অস্ত্র দিয়ে ভয় দেখানো ও শত্রুতা মূলক রাজনীতি বন্ধ না করে. এই বিষয়ে বলা হয়েছে উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্র দপ্তর থেকে করা এক ঘোষণায়, জানিয়েছে শীটাক সংবাদ সংস্থা.
জন গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র কোরিয়াকে ঘিরে সঙ্কট নিয়ন্ত্রণের জন্য মস্কো ও ওয়াশিংটন সম্মিলিত ভাবে কূটনৈতিক শক্তি বৃদ্ধি করছে. এই বিষয়ে সোমবারে ক্রেমলিনে রাশিয়ার সরকারি মুখপাত্রদের সঙ্গে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা বিষয়ে রাষ্ট্রপতির সহকারী টমাস ডনিলনের সঙ্গে সাক্ষাত্কারের সময়ে আলোচনা করা হয়েছে. তাতে কিছু সময়ের জন্যে যোগ দিয়েছিলেন রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভ্লাদিমির পুতিন.
ইরানের প্রয়োজন পারমাণবিক বোমা নয়, বরং পারমাণবিক শক্তি, সস্তা বিদ্যুত্শক্তি পাওয়ার জন্য, সোমবার বলেছেন দেশের রাষ্ট্রপতি মাহমুদ আহমাদিনেজাদ. সোমবার বেনিন সফরের সময় তিনি বলেন, আমাদের পারমাণবিক বোমার প্রয়োজন নেই. তাছাড়া, বর্তমানে পৃথিবীর জন্য সবচেয়ে বড় বিপদ পারমাণবিক বোমা নয়, বরং পাশ্চাত্যের অবনতিশীল নৈতিক ও সাংস্কৃতিক মূল্যবোধ.
মার্কিনী পররাষ্ট্র সচিব জন কেরি সোমবার টোকিও-তে বলেছেন যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র উত্তর কোরিয়ার সাথে আলাপ-আলোচনা চালাতে প্রস্তুত পিয়ংইয়ংয়ের তরফ থেকে শান্তির দিকে “গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপের” ক্ষেত্রে. কেরির কথায়, ওয়াশিংটন উত্তর কোরিয়ার অ-পারমাণবিকীকরণ নিয়ে আলাপ-আলোচনা চালাতে প্রস্তুত, তবে পিয়ংইয়ংকে আগে গৃহীত বাধ্যবাধকতা পালন করতে হবে.
উত্তর কোরিয়ায় সোমবার ১৫ই এপ্রিল সুর্যের দিন উদযাপন করা হচ্ছে. ‘জাতির সূর্য’ নামে অভিহিত করা হয় রাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠাতা কিম ইর সেনকে, যিনি জন্মগ্রহণ করেছিলেন ঠিক ১০১ বছর আগে. সারা দেশ জুড়ে উত্সব, জলসা, শোভাযাত্রা হচ্ছে, আর পিয়ংইয়ংয়ে আজ সামরিক প্যারেড হচ্ছে, যেখানে প্রদর্শন করা হচ্ছে অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্রের নমুনা.
উত্তর কোরিয়াকে নিয়ে যখন টানটান উত্তেজনা চলছে তখন এ সংকট নিরসণে সংলাপ শুরুর একটা সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে। আলোচনার ধরণ
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র উত্তর কোরিয়াকে ত্রাণ সাহায্য দেওয়া আবার শুরু করার ব্যাপার বিবেচনা করতে প্রস্তুত, যদি উত্তর কোরিয়া তার পারমানবিক প্রকল্প বর্জন করার ব্যাপারে বড়সড় পদক্ষেপ নেয়. মার্কিনী বিদেশ সচিব জন কেরির সেওল সফরের শেষে স্বাক্ষরিত দক্ষিণ কোরিয়ার সাথে যৌথ দলিলে এই কথা বলা হয়েছে. শনিবার মার্কিনী বিদেশ দপ্তর এই দলিল প্রকাশ করেছে.
প্রাথমিক মতভেদ থাকা সত্বেও জি-৮এর দেশগুলির পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা মুখ্য আন্তর্জাতিক সমস্যাবলীর বিষয়ে সহমতে পৌঁছাতে সমর্থ হয়েছেন. লন্ডনে সাক্ষাত্কারের ফলাফল বিশ্লেষণ করে এই উক্তি করেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ. আমরা সমর্থ হয়েছি ইরানের পারমানবিক প্রকল্প, কোরিয় উপদ্বীপে পারমানবিক সমস্যা, সিরিয়ায় সংকট, আফ্রিকায় চলতি সব সংঘাতের প্রশ্নে একইধরনের পদক্ষেপ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিতে.
শুক্রবার মার্কিনী বিদেশ দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে, যে আমেরিকার মতে, চীন কোরিয় উপদ্বীপে চলতি সমস্যাবলীর সমাধানের ক্ষেত্রে আরো অনেক বেশি সক্রিয় ভূমিকা নিতে পারে. “চীনের স্থিতিশীলতা অর্জন করার জন্য যথেষ্ট ক্ষমতা রয়েছে, আর পারমানবিক রকেটের পেছনে চলতে থাকা উত্তর কোরিয়ার দৌড় – স্থিতিশীলতার পরম শত্রু” – বলেছেন মার্কিনী বিদেশ দপ্তরের নামোল্লেখ না করা প্রতিনিধি.
  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামা ঘোষণা করেছেন, যে উত্তর কোরিয়ার সময় হয়েছে আঘাত হানার ও যুদ্ধ শুরু করার রাজনীতি বন্ধ করার. বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের সাধারণ সম্পাদক বান কি মুনের সাথে হোয়াইট হাউসে সাক্ষাতের পর ওবামা বলেছেন, যে তারা উভয়েই এই বিষয়ে একমত, যে উত্তর কোরিয়ার যৌধেয় অভিযান বন্ধ করার সময় হয়েছে, যে নীতি তারা অবলম্বন করে চলেছে.
আঞ্চলিক বিরোধ গুলি রাজনৈতিক- কূটনৈতিক পথেই মীমাংসা করা প্রয়োজন. অর্থনৈতিক ভাবে বৃহত্ অষ্ট দেশের পররাষ্ট্র প্রধানদের পক্ষে সম্ভব হয়েছে আন্তর্জাতিক সমস্যা গুলির সমাধান নিয়ে সম্মিলিত অবস্থান গ্রহণ করার. লন্ডনে এই জি৮ পররাষ্ট্র মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক শেষ হয়েছে. ইরানের পারমানবিক পরিকল্পনা, কোরিয়া উপদ্বীপ এলাকায় পরিস্থিতি ও সিরিয়া – বৈঠকের আলোচ্য তালিকায় সবচেয়ে তীক্ষ্ণ বিষয় ছিল.
রকেট পরিবাহক ‘আর-৭’ অর্ধশতাব্দীরও বেশিকাল ধরে রাশিয়ার মহাকাশশিল্পের সেবায় নিয়োজিত. ঐগুলো ১৯৫৭ সালে পৃথিবীর প্রথম কৃত্রিম উপগ্রহকে মহাকাশে পৌঁছে দিয়েছিল এবং প্রথম মহাকাশচারী ইউরি গাগারিনকেও. প্রথমে ‘আর-৭’ নির্মাণ করা হয়েছিল ব্যালিস্টিক হিসাবে, যা পৃথিবীর যেকোনো বিন্দুতে পারমানবিক আঘাত হানতে সক্ষম ছিল.
রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র উত্তর কোরিয়ার কাছে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের ঘোষণাপত্র মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছে. লন্ডনে রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ এবং মার্কিনী বিদেশ সচিব জন কেরির সাক্ষাত্কারে মুখ্য আলোচ্য বিষয়ই ছিল কোরিয় উপদ্বীপে উদ্ভূত উত্তপ্ত পরিস্থিতি. লাভরোভ কেরিকে বলেছেন, যে উত্তর কোরিয়াকে ঘিরে পরিস্থিতি শান্ত হওয়ার সম্ভাবনা এখনো আছে. জি-৮এর সদস্য দেশগুলির পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সাক্ষাত্কারের মঞ্চে তাদের বৈঠক হয়েছে.
আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30
এপ্রিল 2013
ঘটনার সূচী
এপ্রিল 2013
19
20
21
22
25
26
27
28
29
30