×
South Asian Languages:
পারমানবিক, 2010
ঐতিহ্য মেনে প্রতি বারের মত এবারেও ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে সাক্ষাত্কারের সময়ে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পারস্পরিক সম্পর্ক, রুশ মার্কিন সম্পর্ক, রাশিয়ার বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থায় যোগদানের সম্ভাবনা ও জাতীয় মুদ্রা রুবলের আন্তর্জাতিক অবস্থান – এই সমস্ত প্রশ্নই প্রাথমিক ভাবে সরকারি তালিকাভুক্ত সাংবাদিকদের জন্য আগ্রহের বিষয় হয়েছিল.     এই ধরনের সাক্ষাত্কার সাধারণতঃ চায়ের কাপ বা শ্যাম্পেনের গ্লাস নিয়ে হয়ে থাকে.
একবিংশ শতাব্দীর বাস্তব নিরাপত্তার ক্ষেত্রে রুশ রাষ্ট্রের কাজকর্মের দিককেই পরিবর্তিত করে দিয়েছে. এটাই নতুন আইনে খেয়াল করা হয়েছে, যা রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ স্বাক্ষর করেছেন.     ১৯৯২ সাল থেকে চলে আসা আইন বর্তমানের পরিস্থিতির সঙ্গে খাপ খাচ্ছিল না.
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি রাশিয়ার আস্থা “পুরোপুরি সুদৃঢ় হয় নি”, স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত চুক্তি স্বাক্ষর সত্ত্বেও. এ সম্বন্ধে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিন, সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে. তিনি এ চুক্তিকে “বহির্জগতের সাথে সম্পর্ক গড়ে তোলার একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান” বলে অভিহিত করেন.
রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় দুমা (রাশিয়ার পার্লামেন্টের নিম্ন কক্ষ) স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত নতুন চুক্তিতে স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা হ্রাস এবং রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা মোতায়েনের সমন্বয়ের কথা পুনরায় সমর্থন করতে চায়. এ সম্বন্ধে মঙ্গলবার এক ইন্টারভিউতে বলেছেন রাষ্ট্রীয় দুমার আন্তর্জাতিক ব্যাপার সংক্রান্ত কমিটির নেতা কনস্তানতিন কসাচেভ.
ইরান নিজের পারমাণবিক কর্মসূচি নিয়ে ইস্তাম্বুলে আসন্ন জানুয়ারীর শেষে ছয়টি আন্তর্জাতিক মধ্যস্থ দেশের (রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচটি স্থায়ী সদস্য দেশ এবং জার্মানির) প্রতিনিধিদের সাথে আলাপ-আলোচনায় সাফল্যের আশা করছে.
   রাশিয়ার পার্লামেন্টে স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত চুক্তির অনুমোদন বিষয়ক আইনের খসড়া দ্বিতীয় শুনানীতে গ্রহণ সহজ হবে না. পার্লামেন্টের দুটি পার্টি তা অনুমোদনের বিপক্ষে মত প্রকাশ করছে. গণ-প্রতিনিধিদের পছন্দ নয় মার্কিনী সেনেটাররা এ দলিল অনুমোদনের সময় তার যে ব্যাখ্যা দিয়েছেন.    রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় দুমা নতুন চুক্তি আলোচনা করবে তিনটি শুনানীতে.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ রুশ ও আমেরিকার মধ্যে স্বাক্ষরিত স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত চুক্তিকে ২০১০ সালের একটি প্রধান ফলাফল হিসাবে নাম দিয়েছেন.
রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জন্য ঐতিহাসিক হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সেনেটের এই চুক্তি গ্রহণ. এই ধারণা করেছেন রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ ও বারাক ওবামা, গতকাল সন্ধ্যা বেলায় এই নিয়ে দূরভাষে আলাপের সময়ে. এর পর রাশিয়ার দ্যুমার পালা.
মস্কো আমেরিকার সেনেটে স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত নূতন চুক্তি গ্রহণ করাকে অভিনন্দন জানিয়েছে. দিমিত্রি মেদভেদেভ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এই চুক্তি গ্রহণ করায় সন্তুষ্ট হয়েছেন ও আশা করেছেন যে, রাশিয়ার পার্লামেন্টের সদস্যরাও এই প্রশ্নে উপযুক্ত মনোযোগ দেবেন, বলে জানিয়েছে ক্রেমলিনের তথ্য দপ্তর.    এক সপ্তাহ ধরে শুনানী চলার পরে বুধবার সন্ধ্যায় মার্কিন কংগ্রেসের সেনেট এই চুক্তি গ্রহণ করেছে.
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নিজের রকেটবিরোধী ব্যবস্থা এমনভাবে বিকশিত করতে চায় না, যাতে তা রাশিয়ার রকেট ক্ষমতার জন্য বিপজ্জনক হয়ে ওঠে. এ সম্বন্ধে বুধবার ওয়াশিংটনে বলেছেন মার্কিনী পররাষ্ট্র সচিবের সহকারিনী রোজ গ্যোটেমিউলার রাশিয়ার সাংবাদিকদের জন্য টেলিফোন ব্রিফিংয়ে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেনেটের দ্বারা রাশিয়ার সাথে স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত চুক্তি অনুমোদনের সিদ্ধান্ত গ্রহণের পর.
যদি রাশিয়া ও ন্যাটো জোট রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থা বিষয়ে প্রত্যেক পক্ষের উপযুক্ত ভূমিকার বিষয়ে সহমতে আসতে না পারে তবে কয়েক বছর পরেই রাশিয়া ও আমেরিকার রাজনীতিবিদেরা কঠিন সমস্যার সামনে পড়বেন বলে মনে করেছেন দিমিত্রি মেদভেদেভ. ভারতে সরকারি সফরের দ্বিতীয় দিনে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি মুম্বাই শহরে ভারতের প্রযুক্তি ইনস্টিটিউটের ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষকদের সঙ্গে দেখা করেছেন ও বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক ঘোষণা করেছেন.
রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় দুমা ২৪শে ডিসেম্বরই স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত নতুন রুশ-মার্কিন চুক্তি অনুমোদন করতে পারে. এ সম্বন্ধে আজ সাংবাদিকদের বলেছেন রাশিয়ার পার্লামেন্টের নিম্ন কক্ষের স্পীকার বরিস গ্রীজলোভ. তবে দুমা এখনও পর্যন্ত ভোট দানের দিন নির্ধারণ করতে পারে নি. তা ব্যাখ্যা করা হচ্ছে এর দ্বারা যে, এখনও পর্যন্ত চুক্তির অনুমোদন সংক্রান্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেনেটের সিদ্ধান্তের সরকারী বয়ান পাওয়া যায় নি.
মস্কো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেনেটের দ্বারা রাশিয়ার সাথে স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত নতুন চুক্তির অনুমোদন সমর্থন করেছে. রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ এ আশা প্রকাশ করেছেন যে, রাষ্ট্রীয় দুমা এবং ফেডারেশন পরিষদও শিগগিরই এ দলিল অনুমোদন করবে. পার্লামেন্টের বৈঠক নির্ধারিত হয়েছে ২৪শে ডিসেম্বর. এ চুক্তি অনুযায়ী, উভয় পক্ষ সাত বছরের মধ্যে নিজেদের পারমাণবিক অস্ত্র ভান্ডার এক-তৃতীয়াংশ হ্রাস করবে.
মুম্বাই শহরে সফরে এসে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ টেকনলজির ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষকদের সঙ্গে দেখা করেছেন. রাশিয়ার দেশ নেতা অংশতঃ উল্লেখ করেছেন যে, "ন্যাটো জোটের উচিত মস্কোর সঙ্গে রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থা সংক্রান্ত সমস্ত প্রশ্নে সহমত হওয়া.
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেনেটে আজ (মস্কো সময় বিকেল ৫টায়) স্ট্র্যটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা হ্রাস সংক্রান্ত রাশিয়ার সাথে নতুন চুক্তি নিয়ে চূড়ান্ত ভোট দান হবে. সেনেটাররা মঙ্গলবার এ চুক্তি নিয়ে বিতর্ক শেষ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন. ডেমোক্র্যাটরা নিঃশর্তভাবে তা সমর্থন করছেন, তবে রিপাবলিকানরা তাতে একসারি সংশোধন আনার নিষ্ফল চেষ্টা করেন. এ দলিল অনুমোদনের জন্য দুই তৃতীয়াংশ ভোট প্রয়োজন.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রী মনমোহন সিংয়ের আলাপ-আলোচনার ভিত্তিতে গৃহীত মিলিত ঘোষণাপত্রে বলা হয়েছে, রাশিয়ার পক্ষ পারমাণবিক সরবরাহকারী দেশের গ্রুপে ভারতের যোগদানে সহায়তা করতে প্রস্তুত. বিশেষ করে, দলিলে উল্লেখ করা হয়েছে যে, রাশিয়া ও ভারত বিশ্বব্যাপী পারমাণবিক অস্ত্র প্রসার নিরোধের ব্যবস্থার গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হিসেবে পারমাণবিক রপ্তানির নিয়ন্ত্রণের বহুপাক্ষিক ব্যবস্থা সুদৃঢ়করণে আগ্রহী.
রাশিয়া ও ভারত বিদ্যুত্শক্তির ক্ষেত্রে সহযোগিতা প্রসার করতে চায়, বলা হয়েছে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী স্রী মনমোহন সিংয়ের আলাপ-আলোচনার ফলাফলের ভিত্তিতে গৃহীত মিলিত ঘোষণাপত্রে. তাছাড়া, আলাপ-আলোচনায় “কুদানকুলাম” পারমাণবিক বিদ্যুত্শক্তি কেন্দ্রের প্রথম ও দ্বিতীয় ব্লক চালু করার সফল প্রস্তুতির বিষয় এবং অতিরিক্ত ব্লক নির্মাণ সংক্রান্ত আলাপ-আলোচনার গতি আলোচিত হয়েছে.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ সোমবার রাত্রে নয়া দিল্লীতে সরকারি সফরে এসে পৌঁছেছেন. মঙ্গলবার থেকেই রুশ দেশের প্রধান নয়া দিল্লী, আগ্রা, মুম্বাই ইত্যাদি জায়গায় সফর করবেন, যেখানে তিনি শুধু আলোচনাই নয়, বরং বিশ্বের একটি অন্যতম আশ্চর্য “তাজমহল” ও “ফিল্ম স্টুডিও বলিউড” দেখতেও যাবেন.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ ভারতে তিন দিনের সফরে চলেছেন. সূচীতে রয়েছে ভারতের রাষ্ট্রপতি শ্রীমতী প্রতিভা পাতিলের সঙ্গে আলোচনা ও সাক্ষাত্কার, প্রধানমন্ত্রী ও এমনকি বিরোধী পক্ষের নেতার সঙ্গেও সাক্ষাত্কার. এছাড়া রাশিয়ার দেশ নেতা আগ্রা শহরে একাধারে কবর স্থান ও মসজিদ "তাজ মহল" দেখবেন, মুম্বাই শহরে তাঁর কথা রয়েছে সেখানকার ছাত্রদের সঙ্গে দেখা করার ও ভারতের বিখ্যাত সিনেমা স্টুডিও এলাকা "বলিউড" যাওয়ার.
রবিবারে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের জরুরী বৈঠকে কোরিয়া উপদ্বীপ অঞ্চলের পরিস্থিতি নিয়ে রাশিয়ার প্রস্তাবিত খসড়া ঘোষণাকে গ্রহণ করা হবে বলে মস্কোতে আশা প্রকাশ করা হয়েছে. এই বিষয়ে রিয়া নোভস্তি সংস্থাকে ঘোষণা করেছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রসংঘের স্থায়ী প্রতিনিধি ভিতালি চুরকিন.
আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
জানুয়ারী 2010
ঘটনার সূচী
জানুয়ারী 2010
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
20
21
22
23
24
25
26
27
28
29
30
31