×
South Asian Languages:
রুশ- মার্কিন, নভেম্বর 2011
বিশেষজ্ঞ মহলে "ঐক্যবদ্ধ রাশিয়া" দলের সম্মেলনে রাষ্ট্রপতি পদ প্রার্থী হিসাবে ভ্লাদিমির পুতিনকে নির্বাচন নিয়ে ও তাঁর পরিকল্পনা সংক্রান্ত নীতি গুলি নিয়ে জোর আলোচনা চলছে. যে বিষয়ে রাজনীতিবিদেরা একমত হয়েছেন – এটা ক্ষমতার পরম্পরা সংক্রান্ত নীতি ও দেশের জীবনের সমস্ত ক্ষেত্রে আধুনিকীকরণের প্রচেষ্টা.
আমাদের গ্রহের সমগ্র ইতিহাস জুড়েই আবহাওয়ার পরিবর্তন হয়েছে. কিন্তু শুধু গত বিশ বছরে টের পাওয়া গিয়েছে মানুষের প্রভাব. উদ্বেগের কারণ হয়েছে পরিবেশে কার্বন ডাই অক্সাইড গ্যাসের বর্জন. বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে কিয়োটো প্রোটোকল অনুসরণ করে. তারই মধ্যে বিশেষজ্ঞদের মতে সেই দলিলের বিধি নিষেধ এর মধ্যেই পুরনো হয়ে গিয়েছে. প্রয়োজন পড়েছে নতুন করে আন্তর্জাতিক পরিবেশ সংরক্ষণ প্রকল্প নেওয়ার.
ইউরোপে রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা নির্মাণ করার মার্কিনী পরিকল্পনার কড়া সমালোচনা করেছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ. মেদভেদেভ ক্ষমতায় থাকাকালীন এই প্রথম রাশিয়ার সামরিক শক্তি বৃদ্ধি করার সম্প্রসারিত নক্সা প্রদর্শন করা হয়েছে.     প্রথমতঃ প্রতিরক্ষামন্ত্রককে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, যে অনতিবিলম্বে কালিনিনগ্রাদে রেডার ষ্টেশন স্থাপণ করার, যা রকেটের আক্রমণ সম্মন্ধে সতর্ক করে দিতে পারবে.
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হোয়াইট হাউজ এবং পররাষ্ট্র বিভাগ রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা প্রতিরোধের ব্যবস্থা সম্পর্কে রাশিয়ার নেতৃবৃন্দের বিবৃতির উত্তর দিয়েছে আগে ঘোষিত থিসিসের পুনরাবৃত্তি করে. ওয়াশিংটনে ঘোষণা করা হয়েছে যে, রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা গঠনের পরিকল্পনা বদলাচ্ছে না. রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা রাশিয়ার বিরুদ্ধে নির্দেশিত নয়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জন্য প্রধান বিপদ হল ইরান, আর ওয়াশিংটন আগের মতোই রাশিয়ার সাথে সহযোগিতার জন্য প্রস্তুত.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ ইউরোপে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো জোটের রকেট বিরোধী ব্যবস্থা তৈরীর উত্তর হিসাবে যে সমস্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে তার সম্বন্ধে বলেছেন. প্রথম পদক্ষেপ হবে অবিলম্বে কালিনিনগ্রাদের রেডিও নির্ণয় ব্যবস্থায় সামরিক অংশ জোড়া হবে, যা রকেট আঘাত সম্বন্ধে পূর্বাভাস দিতে সক্ষম.
রাশিয়া রকেট বিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সম্পর্কে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে সংলাপ চালিয়ে যেতে প্রস্তুত, এই কথা বুধবার বলেছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ. তবে, মস্কোর পরবর্তী পদক্ষেপ নির্ভর করবে বাস্তব ঘটনা পরম্পরার উপরেই.
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আগের মতোই রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার ক্ষেত্রে রাশিয়ার সাথে সহযোগিতায় আগ্রহী. এ সম্বন্ধে মঙ্গলবার বলেছেন পররাষ্ট্র বিভাগের সরকারী প্রতিনিধি ভিক্টোরিয়া নুল্যান্ড. তিনি জোর দিয়ে বলেন যে, রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার প্রশ্ন এবং ইউরোপে সাধারণ অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত চুক্তি পরস্পরের সাথে জড়িত নয়. আগে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র রাশিয়ার প্রতি ইউরোপে সাধারণ অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত চুক্তির বাধ্যবাধকতা অস্বীকার করার কথা ঘোষণা করেছিল.
ওয়াশিংটন রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সম্পর্কে মস্কোর সাথে সমঝোতায় আসার চেষ্টা ত্যাগ করছে না, রাশিয়াকে বিশ্বস্ত করার জন্য যে ইউরোপে নির্মীয়মান ব্যবস্থা তার বিরুদ্ধে নির্দেশিত নয়. এ সম্বন্ধে জানিয়েছে রাশিয়ার “কমের্সান্ত” পত্রিকা. পত্রিকাটির তথ্য অনুযায়ী, মার্কিনী উপ-পররাষ্ট্র সচিব এলেন টোশারের সাম্প্রতিক মস্কো সফরের সময় তিনি সমুদ্রভিত্তিক “এস.
ইরানের বিরুদ্ধে নতুন মার্কিন নিষেধাজ্ঞাকে রাশিয়া বলেছে গ্রহণযোগ্য নয় ও আন্তর্জাতিক আইন বিরুদ্ধ. রুশ প্রজাতন্ত্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের ঘোষণাতে বলা হয়েছে যে, তেহরানের উপরে এই ভাবে চাপ বাড়িয়ে অস্ত্র প্রসার রোধের সমস্যা সমাধানের কাঠামোর বাইরেই যাওয়া হচ্ছে.      সোমবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এই প্রথম ইরানের খনিজ তেল ও রসায়ন শিল্পের বিরুদ্ধে একতরফা নিষেধাজ্ঞা জারী করেছে.
পররাষ্ট্র মন্ত্রী সের্গেই লাভরভ পূর্ব এশিয়ার সমিতির ষষ্ঠ শীর্ষ সম্মেলনে অংশ নেবেন, যা ১৯শে নভেম্বর ইন্দোনেশিয়ার বালি দ্বীপে হবে. গত বছরে এই মর্মে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল যে, রাশিয়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে পূর্ব এশিয়া সমিতির সম্পূর্ণ শরিক হবে.     ২০০৫ সালে পূর্ব এশিয়া সমিতি ব্যবস্থা তৈরী করা হয়েছিল দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার দেশ গুলির সংগঠনের উদ্যোগে.
১৭ – ১৮ই নভেম্বর ভিয়েনাতে আন্তর্জাতিক পারমানবিক শক্তি সংস্থার পরিচালকদের সভা বসছে. এই সভার আলোচ্য বিষয়ে মধ্যে – ইরান থেকে উদ্ভূত পারমানবিক বিপদ সম্পর্কে সংস্থার প্রধান ইউকিও আমানো প্রকাশিত রিপোর্ট, যাতে জোর দিয়ে বলা হয়েছে যে, ইরান গণহত্যার উপযুক্ত অস্ত্র তৈরী করছে.
রাশিয়ার সামরিক বিশেষজ্ঞরা ইউরোপীয় রকেটবিরোধী প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা যে রাশিয়ার দিকে নির্দেসিত নয় সে সম্পর্কে বিস্বস্ত হতে পারেন, তবে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বিধানিক গ্যারান্টি দিতে পারে না. এ সম্বন্ধে বলেছেন রাজনৈতিক প্রশ্নে মার্কিনী পররাষ্ট্র সচিবের নতুন সহকারিনী ওয়েন্ডি শেরমান রাশিয়ার “কমেরসান্ত” পত্রিকাকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে.
রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সমুদ্রে টেকনোজেনিক দুর্ঘটনার কুপরিণতি দূর করায় সহযোগিতা প্রসার সংক্রান্ত স্মারকলিপি স্বাক্ষর করেছে. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উপকূল রক্ষী বাহিনীর প্রেস সার্ভিসে জানানো হয়েছে যে, এ দলিল ইতিমধ্যে বিদ্যমান চুক্তি অনুযায়ী পারস্পরিক ক্রিয়াকলাপের কাঠামো আরও প্রসারিত করে. তাছাড়া, এখন তাদের কার্যকলাপ দু দেশের সমস্ত সীমান্ত জল-এলাকাতেও প্রসারিত হবে. পরিকল্পনা নবীকৃত করা হয়েছে মেক্সিকো উপসাগরে "বি.
রাশিয়া বিশ্ব সমাজের কাছে প্রস্তাব করেছে বিশ্ব তথ্য নিরাপত্তা রীতিনীতি গ্রহণ করার. মস্কো নিজের উদ্যোগ সাইবার এলাকা নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্মেলনে প্রস্তাব করতে যাচ্ছে. এই ধরনের প্রথম আলোচনা সভা হতে চলেছে লন্ডনে. বিশ্বের ৬০টি দেশ থেকে গ্রেট ব্রিটেনের রাজধানীতে এসেছেন সাতশোরও বেশী প্রতিনিধি.     এই সম্মেলনের উদ্যোক্তা গ্রেট ব্রিটেনের পররাষ্ট্র দপ্তর.
রাশিয়া ও চিন সাংহাই সহযোগিতা সংস্থা বেশী করে মজবুত করার পক্ষে, তবে তা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সংযোগে নয়. মস্কো ও বেইজিং চেয়েছে ভারত ও পাকিস্তানকে এই সংস্থার সম্পূর্ণ সদস্য হিসাবে দেখতে, আফগানিস্তানকে – পর্যবেক্ষক দেশ হিসাবে ও তুরস্ককে আলোচনায় সহকর্মী দেশ হিসাবে দেখতে. এই বিষয়ে রাজনৈতিক পরামর্শের পরে ঘোষণা করা হয়েছে.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30
নভেম্বর 2011
ঘটনার সূচী
নভেম্বর 2011
3
4
5
6
8
9
10
11
12
13
14
15
19
20
21
25
26
27
29
30