×
South Asian Languages:
রুশ- মার্কিন, মার্চ 2011
মস্কো লিবিয়া নিয়ে লন্ডনে আয়োজিত জোটের সম্মেলনের কাছ থেকে প্রস্তাবিত প্রশ্নগুলির উত্তর আশা করেছে. এই গুলি রাশিয়ার পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রধান সের্গেই লাভরভ স্বয়ং উচ্চারণ করেছেন. পশ্চিমের জোট বর্তমানে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সিদ্ধান্ত লঙ্ঘণ করছে বলে মন্ত্রী ঘোষণা করেছেন. লাভরভ ন্যাটো জোটকে সাবধান করে দিয়ে বলেছেন যে, লিবিয়াতে আফগানিস্তান বা ইরাকের মতো করে ঘটনার পট পরিবর্তন করা যেতে পারে না.
মস্কো ও ওয়াশিংটন আফগান সরকারকে শাসন ক্ষমতা অর্পণ করার প্রশ্ন আলোচনা করেছে, আর তাছাড়া এ প্রজাতন্ত্রে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক উপস্থিতির পরিকল্পনাও. রাশিয়ার উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলেক্সেই বরোদাভকিন ও আফগানিস্তান সম্পর্কে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতির বিশেষ প্রতিনিধি জামির কাবুলোবের সাথে আফগানিস্তান ও পাকিস্তান সম্পর্কে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ প্রতিনিধি মার্ক গ্রসমানের পরামর্শ বৈঠকের ফলাফলের ভিত্তিতে এ সম্বন্ধে জানানো হয়েছে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে.
স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জার চুক্তি পালন সংক্রান্ত রুশ-মার্কিন কমিশনের প্রথম বৈঠক অনুষ্ঠিত হচ্ছে জেনেভায়. আলোচ্য সূচিতে আছে – প্রযুক্তিগত সব বিষয়. ২২শে মার্চ মস্কো ও ওয়াশিংটন স্ট্র্যাটেজিক শক্তি সম্পর্কে তথ্য বিনিময় শুরু করে. পক্ষদ্বয়, বিশেষ করে, নিজেদের বোমারু বিমান বিষয়ক তথ্যাবলি পেশ করে.
মুয়াম্মার গাদ্দাফির শাসনের বিরুদ্ধে সামরিক ক্রিয়াকলাপের শিকার হবে লিবিয়ার শান্তিপূর্ণ নাগরিকরা, এমনটি ঘটতে দেওয়া উচিত নয়. এ সম্বন্ধে বলেছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামার সাথে টেলিফোন আলাপে. তাঁরা লিবিয়া এবং তাকে কেন্দ্র করে পরিস্থিতি আলোচনা করেছেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জানিয়েছে ক্রেমলিনের প্রেস-সার্ভিস. মেদভেদেভের কথায়, লিবিয়ায় প্রাধান্যে থাকছে রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের সিদ্ধান্তে নির্ধারিত লক্ষ্যগুলি.
পশ্চিমের দেশ গুলির লিবিয়াতে সামরিক শক্তি প্রয়োগ হঠাত্ করেই অনিয়ন্ত্রিত ভাবে করা হচ্ছে বলে দেখা যাচ্ছে. যদিও আজ এক সপ্তাহ হতে চলল নির্বিচারে বোমা ফেলার, তবুও কোন একক নিয়ন্ত্রণ অথবা লক্ষ্যের বিষয়ে স্ট্র্যাটেজিক বোধ বর্তমানের কাজের ক্ষেত্রে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে না, শুধু রাজনৈতিক মঞ্চ থেকে মুহম্মর গাদ্দাফি যাতে সরে যায়, তার ইচ্ছাই প্রকট.
রাশিয়ার “রসআতোমের” নিয়ন্ত্রাধীন “তেখস্নাবএক্সপোর্ত” কোম্পানি এবং মার্কিনী “ইউ.এস.ই.সি” কর্পোরেশন ইউরেনিয়াম পরিশোধনের ১০ বছরব্যাপী চুক্তি স্বাক্ষর করেছে. কারখানা নির্মিত হবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে, আর নিম্ন পরিশোধিত জ্বালানী সেখানে ২০১৩ সাল থেকে সরবরাহ করবে রাশিয়া. “রসআতোম” সংস্থার নেতা সের্গেই কিরিয়েনকো বলেন, স্বাক্ষরিত চুক্তি সারা পৃথিবীতে পারমাণবিক ক্ষেত্রের জন্য বৈশিষ্ট্যপূর্ণ.
মঙ্গলবারে রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তৃতীয় স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত চুক্তি র বাস্তবায়ন করার জন্য তথ্য বিনিময় করবে. এই বিষয়ে চুক্তির একটি বিশেষ বাধ্যতামূলক দলিলে আগে থেকেই উল্লেখ করা হয়েছে.     তথ্য বিনিময় সম্বন্ধে নিয়ম দুই চুক্তিবদ্ধ দেশের কাছেই আগের চুক্তি অনুযায়ী খুব ভাল করেই করা রয়েছে, যার নাম ছিল প্রথম স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা নিয়ন্ত্রণ চুক্তি.
রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা হ্রাস সংক্রান্ত চুক্তিতে অনুমিত পারমাণবিক ক্ষমতা সম্পর্কে তথ্য বিনিময় শুরু করেছে. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পারমাণবিক বিপদ হ্রাস সংক্রান্ত কেন্দ্র নিজের তথ্যাবলি বিগত ছুটির দিনগুলিতে রাশিয়াকে হস্তান্তর করেছে. এ সব তথ্যের মধ্যে আছে রকেট, ক্ষেপণ সরঞ্জাম, ভারী বোমারু বিমান এবং ওয়ারহেড সংক্রান্ত তথ্যাবলি.
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ সামরিক বাহিনী ক্ষমতা পেয়েছে মধ্য এশিয়ার দেশ গুলিতে সন্ত্রাস বিরোধী অপারেশনের সময়ে ঢুকে পড়তে. আমেরিকার এই বাহিনীর লোকেরা কিরগিজিয়া, তাজিকিস্থান, তুর্কমেনিয়া ও উজবেকিস্তানে আফগানিস্থান থেকে সন্ত্রাসবাদীদের তাড়া করে ঢুকে তাদের মারতে পারে. এই খবর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের কেন্দ্রীয় দপ্তর থেকে এক উত্স জানিয়েছেন.
রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে বিগত কয়েক বছরে সম্পর্কে খুবই উন্নতি হয়েছে. রাশিয়াতে সফরের প্রাক্কালে মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী উল্লেখ করেছেন যে, রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের  মধ্যে বর্তমানে সম্পর্ক তৈরী হতে চলেছে ব্যক্তি নিরপেক্ষ ভাবে.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
মার্চ 2011
ঘটনার সূচী
মার্চ 2011
1
2
3
4
5
6
7
8
12
13
16
17
18
19
20
23
26
27
30
31