×
South Asian Languages:
পাকিস্থান-চিন

২০১৩ সালের শেষ বঙ্গোপসাগরে ভারতের একসারি সামরিক কাজকর্ম দিয়ে চিহ্নিত করা হয়েছে. “অগ্নি-৩” রকেটের উড়ান আর জাপান – ভারত সম্মিলিত সামুদ্রিক মহড়া – শুধু এই সবেরই কয়েকটা উদাহরণ হতে পারে. এটা কোন দ্ব্যর্থ না রেখেই বলা যেতে পারে যে, ভারত শুধু এখন সমুদ্র তীরে কোন রকমের আক্রমণ প্রতিহত করতেই সক্ষম নয়, বরং অনেক উচ্চাকাঙ্ক্ষাও পোষণ করেছে, যা তাদের সমুদ্র সীমা থেকে অনেক দূরের এলাকায় বর্তমানে তৈরী হয়েছে. বাস্তবে ভারতের সামরিক –সামুদ্রিক ক্ষমতা বৃদ্ধি করা বহু রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের সেই তত্ত্বকেই প্রমাণ করে দেয় যে, ভারত ও প্রশান্ত মহাসাগর ইতিমধ্যেই একটি সম্পূর্ণ মহাসাগরে পরিণত হতে চলেছে – যাকে বলা যেতে পারে ভারত- প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকা.

বিগত দিনগুলোতে ভারতের জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্য আবার করে ভারতীয় ও বিশ্বের সংবাদ মাধ্যমের মনোযোগের কেন্দ্রে এসেছে. সংবাদ মাধ্যমে শোনা যাচ্ছে যেমন ভারতের তেমনই পাকিস্তানের তরফে করা নানা রকমের ঘোষণা. এর মধ্যে দুই পুরনো প্রতিদ্বন্দ্বীর মধ্যে কোন অংশ করা হয়েছে নির্বাচনের আগে জনপ্রিয় হওয়ার জন্য ও কোন অংশ দীর্ঘকালীণ রাজনীতির লক্ষ্য হবে, তা খুব একটা স্পষ্ট নয়. কিন্তু একটা ব্যাপারই স্পষ্ট দেখতে পাওয়া যাচ্ছে: দুটি পারমাণবিক রাষ্ট্রের যুদ্ধে কোন বিজয়ী অথবা বিজিত থাকার সম্ভাবনা নেই, শুধু দু পক্ষেরই বহু কোটি ক্ষয় ক্ষতি আর সম্পূর্ণভাবে যেমন পাকিস্তানে তেমনই ভারতেও অর্থনীতির বিপর্যয় ও রাষ্ট্র কাঠামো ধ্বংসের অনিবার্য সম্ভাবনা রয়েছে.

রবিবারে ভারতের রাজধানী দিল্লী শহরে ভারত ও পাকিস্তানের সম্মিলিত ভাবে তৈরী স্থায়ী সিন্ধু নদ পরিষদের চার দিন ব্যাপী অধিবেশনের শুরু হয়েছে. মূল প্রশ্ন, যা এখানে ভারত ও পাকিস্তানের প্রতিনিধিরা আলোচনা করতে চলেছেন, তা হল যে, ভারতের তরফ থেকে চিনাব নদীর অববাহিকা এলাকায় চারটি নতুন বাঁধ দেওয়া নিয়ে পরিকল্পনা. কিন্তু জটিলতা হল যে বর্তমানে সীমান্ত পার হয়ে যাওয়া নদীর জলসম্পদ ব্যবহার নিয়ে সমস্যা অনেকদিন হল দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের কাঠামো পার হয়ে গিয়েছে ও তার আন্তর্জাতিক পর্যায়েই সমাধানের প্রয়োজন রয়েছে. জলের সমস্যা – আন্তর্জাতিক সব সমস্যার মধ্যে একটি সবচেয়ে তীক্ষ্ণ সমস্যায় পরিণত হয়েছে ও একবিংশ শতকে বিশ্লেষকদের মতে জলের জন্য লড়াই খনিজ তেল ও গ্যাসের জন্য লড়াইয়ের জায়গা নিতে চলেছে. আবহাওয়া পরিবর্তন হওয়ার সঙ্গেই পাহাড়ে হিমবাহ গলে যাওয়া শুরু হয়েছে, তারই সঙ্গে জনসংখ্যার প্রচুর বৃদ্ধি ও শিল্পায়ন সংক্রান্ত ধূম লাগার কারণেই উন্নতিশীল দেশগুলোতে এই সমস্যা খালি তীক্ষ্ণ থেকে তীক্ষ্ণতর হতে শুরু করেছে. মনে হয়, বিশ্বে আর কোথাও এই সমস্যা এত তীক্ষ্ণ হয়ে নেই, যা এই এলাকার এক বিস্তীর্ণ অঞ্চল জুড়ে হয়েছে, যা মধ্য, দক্ষিণ, দক্ষিণ-পূর্ব ও পূর্ব এশিয়াতে হয়েছে, এই কথা উল্লেখ করে রাশিয়ার স্ট্র্যাটেজিক গবেষণা ইনস্টিটিউটের বিশেষজ্ঞ বরিস ভলখোনস্কি বলেছেন:

মঙ্গলবারে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর পররাষ্ট্র বিষয়ক পরামর্শদাতা সরতাজ আজিজ ঘোষণা করেছেন যে, এই মাসেই আফগানিস্তানের তালিবান আন্দোলনের সবচেয়ে উচ্চপদস্থ নেতারা, যারা পাকিস্তানের জেলে বন্দী রয়েছে, তাদের মুক্তি দেওয়া হবে, - যেমন, মুল্লা আবদুল গনি বারাদার. কয়েকদিন আগে জানানো হয়েছিল যে, পাকিস্তানের জেল থেকে স্বাধীন হয়েছে আরও সাতজন খ্যাতনামা তালিব. এই সবই স্পষ্ট করেই সাক্ষ্য দিচ্ছে যে, পাকিস্তান এবারে বিদেশী সেনাবাহিনী প্রত্যাহারের পরে আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ প্রশ্নে সবার আগে এগিয়ে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত হচ্ছে, আর এই বিষয়ে নিজেরা বাজী ধরেছে তাদের অনেক দিনের জোটের লোক ও বলা যেতে পারে “মুখ্য শিষ্য” সেই তালিবদের উপরেই.

পাকিস্তান চিনের নিকটপ্রাচ্যের বাজারে পৌঁছনোর জন্য আর স্থল পথেই খনিজ তেল আনার জন্য সবচেয়ে কম দূরত্বের করিডর খুলে দিতে চলেছে. ২৬শে আগষ্ট চিনের প্রতিনিধি দল এই কাশগার থেকে গোয়াদার করিডরের প্রকল্প নিয়ে আলোচনার জন্য পাকিস্তানে এসে পৌঁছেছে. ইসলামাবাদে রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত ইতিমধ্যেই নেওয়া হয়ে গিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ ঘোষণা করেছেন যে, চিনের সঙ্গে এই মঞ্চে সহযোগিতা দেশে কর্ম সংস্থান ও উন্নতি নিয়ে আসবে.

এই বছর শেষ হওয়ার আগেই ভারতবর্ষ ও গণ প্রজাতান্ত্রিক চিন স্থির করেছে বাস্তব নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর চলতে থাকা “স্নায়ু যুদ্ধের” অবসান করার জন্য. এই বিষয়ে জানিয়েছে দেশের সামরিক বিভাগকে উত্স হিসাবে উল্লেখ করে ভারতের অগ্রণী সংবাদ সংস্থাগুলো.

কাশ্মীরে তথাকথিত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর বিগত দশকের মধ্যে একটি সবচেয়ে গুরুতর ঘটনা ঘটে গিয়েছে, পাঁচজন ভারতীয় জওয়ান প্রাণ হারিয়েছেন আর এই ঘটনা ছিল খুবই ভালো করে ভেবে করা একটা প্ররোচনার মতই, যা অনেক প্রশ্ন রেখে গিয়েছে.

সোমবারে শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রপতি মাহিন্দা রাজপক্ষে কলম্বো শহরে নতুন তৈরী কন্টেনার পোর্টের প্রথম পর্বের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন. এই বন্দর, যা নিকটপ্রাচ্যের এলাকা ও পূর্ব আফ্রিকার দেশ গুলি থেকে দক্ষিণ পূর্ব এশিয়াতে যাওয়ার মাঝামাঝি পথে পড়ে, তা ভবিষ্যত সম্ভাবনায় সামুদ্রিক পথে বাণিজ্যের ক্ষেত্রে এক মুখ্য এন্ট্রেপট হতে চলেছে.

ভারত সিদ্ধান্ত নিয়েছে এক নতুন আঘাত হানার উপযুক্ত পার্বত্য বাহিনী তৈরী করার, যাতে ৫০ হাজার সৈন্য থাকবে. এই বাহিনীকে রাখা হতে চলেছে চিনের সঙ্গে বিরোধ হওয়া সীমান্ত এলাকাতেই. সেখানেই সামরিক পরিবহনের উপযুক্ত সি-১৩০জে সুপার হারকিউলিস বিমান গুলির ঘাঁটি গড়া হতে চলেছে. এই ধরনের সিদ্ধান্ত বুধবারে ভারতের মন্ত্রীসভার নিরাপত্তা পরিষদ নিয়েছে.
মস্কো শহরে নিজের কর্মসূচী অনুযায়ী সফরে রয়েছেন ভারতের জর্জ্জিয়া ও আর্মেনিয়া দেশে রাষ্ট্রদূত ও “দিল্লী পলিসি গ্রুপ” নামের কেন্দ্রের পরিকল্পনা ও গবেষণা বিভাগের ডিরেক্টর অচল কুমার মলহোত্র.
বুধবারে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ পাঁচ দিনের চিন সফর শুরু করেছেন – নতুন পদে এটা নিজের প্রথম বিদেশ সফর. চিনা ও পাকিস্তানী সংবাদ মাধ্যমের শীর্ষে এই সফরের সংজ্ঞাকে দুই দেশের অর্থনৈতিক সহযোগিতা বলেই মূলতঃ বিশেষ করে উল্লেখ করা হচ্ছে. কিন্তু স্ট্র্যাটেজিক লক্ষ্য, যা স্পষ্টই অর্থনৈতিক প্রকল্প গুলির ভিতরে রয়েছে, তা অনেক সুদূর প্রসারী.
বিগত কিছু দিনের ঘটনা ভারত-পাকিস্তান সম্পর্ক উন্নতির বিষয়ে কিছুটা আশা জুগিয়েছে. গত সপ্তাহের শেষে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ, ইসলামাবাদে ভারতীয় ব্যবসায়ীদের এক দলকে, যারা পাকিস্তানে এসেছেন বাত্সরিক পাক-ভারত যৌথ ব্যবসায়িক পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে, সম্ভাষণ করে ঘোষণা করেছেন যে, তাঁর মন্ত্রীসভা এই অঞ্চলে শান্তি ও সমৃদ্ধির বিকাশের জন্য মৈত্রী ও সহযোগিতার রাজনীতি করার মানসিকতা রাখে.
জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্য মিছিলের উপরে ভারতীয় সেনারা গুলি চালাতে বাধ্য হয়েছে. এই ঘটনার ফলে এক মিছিলের লোক মারা গিয়েছে.এর আগে সামরিক অপারেশন চলার সময়ে এক কিশোরের মৃত্যুকে ঘিরে বিক্ষোভ শুরু হওয়ার পরে এই ঘটনা ঘটেছে. এই বিষয়ে স্থানীয় পুলিশের উত্সকে উল্লেখ করে জানিয়েছে ফ্রান্স প্রেস সংস্থা. পরিস্থিতি নিয়ে মন্তব্য করেছেন কাশ্মীর রাজ্যের পুলিশের প্রধান আবদুল গনি মীর.
বুধবারে বাংলাদেশে সর্বজনীন হরতাল হয়ে গেল, যা ডেকেছিল আঠারো বিরোধী দলের জোট. এই সব হরতাল আবার হিংসার ফুলকির সঙ্গে হয়েছে: ভাঙচুর, বাস ও গাড়ী ভাঙা, হাত বোমা ফাটানো, পুলিশের সঙ্গে খণ্ড যুদ্ধ এই সব কিছু দিয়েই.
বৃহস্পতিবারে শেষ হওয়া চিনের প্রধানমন্ত্রী লি কেকিয়াংয়ের পাকিস্তান সফর যেমন প্রতিবেশী ভারতে, তেমনই পাকিস্তানেও একই সংজ্ঞাবহ প্রতিক্রিয়া উদ্ভব করে নি. ভারতে পাকিস্তানের গোয়াদার বন্দর ও চিনের সিনঝিয়ান উইগুর স্বয়ংশাসিত এলাকার মধ্যে পরিবহন করিডর তৈরীর পরিকল্পনায় দেখতে পাওয়া গিয়েছে চিনের উপস্থিতি বৃদ্ধির বিপদ আর তার ফলে, বর্তমানের কাশ্মীরের সঙ্গে বিভক্ত স্ট্যাটাস মজবুত হওয়া.
চিন ও পাকিস্তান ঘোষণা করেছে যে, তারা চিনের দক্ষিণ পশ্চিমের সীমান্ত এলাকা থেকে পাকিস্তানের উত্তর পূর্ব এলাকা পর্যন্ত এক পরিবহন ও অর্থনৈতিক করিডর তৈরী করবে. বেজিং ও ইসলামাবাদে আশা করা হয়েছে যে, এই ধরনের করিডর এক বিশাল এলাকার চেহারাই পাল্টে দেবে, সেই এলাকাকে এশিয়াতে বহু পাক্ষিক সহযোগিতার ও নিরাপত্তার এলাকায় পরিণত করবে.
মঙ্গলবারে আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি হামিদ কারজাই দুই দিনের ভারত সফরে এসে ভারতের নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাত্কার করেছেন – রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জ্জী ও প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহের সাথে. এখানে অন্যান্য বিষয়ে মধ্যে কথা হয়েছে ভারতের পক্ষ থেকে আফগানিস্তানে সামরিক সহায়তা বৃদ্ধির – বিশেষ করে সেখান থেকে ন্যাটো জোটের সেনা বাহিনী চলে যাওয়ার পরে.
গত সপ্তাহের শেষে আমেরিকার ওয়াশিংটন “ফ্রি বেকন” সাইটে প্রকাশিত এক প্রবন্ধ খুবই গুরুতর প্রতিধ্বনি তুলেছে ভারতীয় ও আমেরিকার সংবাদ মাধ্যমে. এই প্রবন্ধে, যার নাম দেওয়া হয়েছে “চিন ও পাকিস্তান পারমানবিক চুক্তি করেছে”, তাতে কথা রয়েছে চিনের রাষ্ট্রীয় পারমানবিক কর্পোরেশন পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের চাশমা পারমানবিক বিদ্যুত কেন্দ্রে ১০০ মেগাওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন নতুন রিয়্যাক্টর বসাবে.
বিশ্বের বাজারে চিনের ড্রাগন নতুন ঝাঁপ দিয়েছে. বিশ্বের বৃহত্তম সমরাস্ত্র সরবরাহকারী প্রথম পাঁচটি দেশের তালিকায় এবারে প্রথম চিনকে দেখতে পাওয়া গিয়েছে. ২০১২ সালের সমরাস্ত্র বাণিজ্য নিয়ে বিশ্ব সমস্যা সম্বন্ধে এক গবেষণার পরিনাম হিসাবে স্টকহোম ইনস্টিটিউট থেকে প্রকাশিত এক প্রবন্ধে বলা হয়েছে. ঠাণ্ডা যুদ্ধ শেষ হওয়ার পর থেকে এটা প্রথম পাঁচের তালিকায় প্রথমবার পরিবর্তন হয়েছে.
ভারতে মাঝারি পাল্লার সাবসোনিক ব্যালিস্টিক মিসাইল নির্ভয় পরীক্ষা করা হয়েছে. এই রকেট তার গতিপথ থেকে সরে যাওয়ার কারণে ভারতের সামরিক বাহিনীর লোকরা বাধ্য হয়ে নিরাপত্তার কারণে এটিকে মাঝ পথেই ধ্বংস করে দিতে বাধ্য হয়েছেন.
আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30
জুন 2017
ঘটনার সূচী
জুন 2017
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
20
21
22
23
24
25
26
27
28
29
30