×
South Asian Languages:
কিরগিজিয়া, 2010
কির্গিজিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী আলমাজবেক আতামবায়েভ রাশিয়ায় কর্মসফরে আসছেন ২৬-২৭শে ডিসেম্বর রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিনের আমন্ত্রণে. রাশিয়ার সরকারের প্রেস সার্ভিসে জানানো হয়েছে, “২৭শে ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য দুই প্রধানমন্ত্রীর আলাপ-আলোচনার গতিতে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার সমস্ত ক্ষেত্রের জরুরী প্রশ্নাবলি আলোচনার পরিকল্পনা আছে”. নিজের প্রথম সফর রাশিয়াতে করার অভিপ্রায় সম্পর্কে আতামবায়েভ বলেছিলেন গত সপ্তাহে পার্লামেন্টে তাঁর নাম আলোচনার সময়.
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সরকারি পরিসংখ্যান অনুযায়ী বর্তমানে ২৩ কোটি ৫০ লক্ষ মাদকাসক্ত লোক রয়েছে. বেসরকারি হিসাবে  - আরও অনেক বেশী. তাদের মধ্যে বহু সহস্র প্রতি বছর প্রাণ হারাচ্ছে মাদকের ব্যবহারের ফলে. রাশিয়ার জাতীয় মাদক নিয়ন্ত্রণ পরিষদের প্রধান ভিক্তর ইভানভের তথ্য অনুযায়ী বিশ্বের বাত্সরিক মাদক কারবারের পরিমান ৫০ হাজার কোটি ডলার.
সারা মধ্য এশিয়া জুড়ে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি শুরু হতে পারে তাজিকিস্থানের পরিস্থিতির জন্য. এই ভাবেই বিশেষজ্ঞরা সেই দেশে ঘটে যাওয়া পরপর অনেকগুলি সন্ত্রাসবাদী ঘটনাকে ব্যাখ্যা করছেন. শেষ অংশ হল সামরিক বাহিনীর উপরে রাস্তায় হামলা. এই ঘটনাতে ক্ষতিগ্রস্থ দের সংখ্যা সম্বন্ধে পরস্পর বিরোধী খবর পাওয়া যাচ্ছে – বিভিন্ন মতে ২০ থেকে ৪০ জন মারা গিয়েছে.
কিরগিজিয়া প্রজাতন্ত্রের নেতা রোজা ওতুনবায়েভা ঘোষণা করেছেন যে, দেশে বিভাজনের আশংকা রয়ে গেছে. " এই বিষয়ে সহায়তা করছে কিছু রাজনৈতিক দলও, যারা আঞ্চলিক বিভাজনের নীতিকে নিজেদের স্বার্থে ব্যবহার করতে চাইছে " – এই কথা তিনি এক সাংবাদিক সম্মেলনে উল্লেখ করেছেন. প্রাক্তন প্রশাসনের প্রতি সহানুভূতিশীল শক্তিও এই পরিস্থিতিকে নড়বড়ে করে দিতে চাইছে.
আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদকে কাঁধে কাঁধ লাগিয়ে মোকাবিলা করার জন্য প্রস্তুত হতে চলেছে সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার সদস্য দেশ গুলির সামরিক বাহিনী. কাজাখস্থানের এলাকায় এর মধ্যেই সপ্তমবার শুরু হয়েছে " শান্তির মিশন " নামে যৌথ মহড়া. আয়োজকেরা যেমন ঘোষণা করেছেন যে, এই মহড়া শান্তিপূর্ণ ভাবে করা হচ্ছে ও তা অন্য কোন দেশের বিরুদ্ধে লক্ষ্য করে নয়. সকলের শত্রু আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ এর লক্ষ্য.
রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিন বৃহস্পতিবার কিরগিজিয়ার সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টির নেতা আলমাজবেক আতামবায়েভের সঙ্গে দেখা করেছেন. প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও জনসংযোগ দপ্তরের প্রধান দিমিত্রি পেসকোভ জানিয়েছেন যে পুতিন আতামবায়েভকে রাশিয়ার সরকারের তরফ থেকে কিরগিজিয়াকে ১০ মিলিয়ন ডলার সাহায্য দেওয়ার কথা বলেছেন.
কির্গিজিয়ার দক্ষিণে জুন মাসের আন্তঃসাম্প্রদায়িক সঙ্ঘর্ষ পরিকল্পিত ছিল. এ সম্বন্ধে বলেছেন সঙ্ঘর্ষের কারণ তদন্ত সংক্রান্ত জাতীয় কমিশনের নেতা আব্দীগানী এর্কেবায়েভ. তাঁর নিশ্চয়োক্তি অনুযায়ী, এ প্রমাণ আছে যে, সঙ্ঘর্ষ প্ররোচিত করেছিল উজবেক সম্প্রদায়ের নেতারা এবং কির্গিজিয়ার প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি কুর্মানবেক বাকিয়েভ. এর্কেবায়েভ আরও বলেন যে, সঙ্ঘর্ষে অংশগ্রহণ করেছে বিদেশী ভাড়াটেরা, বিশেষ করে ওশে ধরা পড়েছে ছয়জন বিদেশী.
কিরগিজিয়ার রাষ্ট্রপতি রোজা ওতুনবায়েভা আগামী পার্লামেন্ট নির্বাচনের জন্য ১০ই অক্টোবর দিনটিকে সমর্থন করে স্বাক্ষর করেছেন. ২৭ শে জুন দেশে গণ ভোটে গৃহীত সংবিধান অনুযায়ী এবারের নির্বাচন হবে, নতুন আইন অনুযায়ী দেশে পার্লামেন্ট ও রাষ্ট্রপতির সম্মিলিত শাসন চালু হবে. কিরগিজিয়ার নতুন পার্লামেন্টের আসন সংখ্যা ১৩০ ও বিজয়ী দল সর্বমোট ৬৫টি আসনের দাবীদার হতে পারে বলে রেডিও স্টেশন এখো মস্কভা জানিয়েছে.
বিশকেকে অধিবেশনের পরে রাশিয়ার উপ পররাষ্ট্র মন্ত্রী গিওর্গি কারাসিন ঘোষণা করেছেন যে, রাশিয়া বিভিন্ন ক্ষেত্রে কিরগিজিয়া দেশকে সাহায্য করা অব্যাহত রাখবে. তিনি উল্লেখ করেছেন যে, এক্ষেত্রে শুধু অর্থনৈতিক বা মানবিক সাহায্যের কথাই হচ্ছে না, বরং নিরাপত্তার ক্ষেত্রে সাহায্যের কথাও হচ্ছে.
কুরমানবেক বাকিয়েভের ভাই আখমেদ বাকিয়েভ মে মাসে দেশের দক্ষিণে গণ্ডগোলের আয়োজন করেছিল বলে তাকে জালালাবাদ শহরে গ্রেপ্তার করা হয়েছে. সাময়িক সরকারের প্রতিনিধি এই খবর রিয়া নোভস্তি সংস্থাকে দিয়েছে. মে মাসে জালালাবাদ শহরে উজবেক ও কিরগিজ প্রজাতির লোকেদের মধ্যে এক বিশাল দাঙ্গায় বহু লোক নিহত ও আহত হয়েছিল, এই দাঙ্গায় উসকানি দিয়েছিল প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি কুরমানবেক বাকিয়েভের সমর্থকেরা.
কিরগিজিয়ার জাতীয় নিরাপত্তা পরিষেবার প্রধান কেনেশবেক দুশেবায়েভ শনিবারে রাজধানী বিশকেক শহরে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এই ঘোষণা করেছেন, তিনি বলেছেন
কিরগিজিয়াতে তথাকথিত কার্যকরী মন্ত্রীসভা গঠন শুরু হয়েছে. ইন্টারফ্যাক্স সংবাদ সংস্থাকে সাময়িক প্রশাসনের তথ্য ও জনসংযোগ বিভাগ থেকে দেওয়া খবর অনুযায়ী দেশের প্রধান   - অন্তর্বর্তী কালের রাষ্ট্রপতি রোজা ওতুনবায়েভা – নতুন প্রাথমিক পদাধিকার নির্দেশে স্বাক্ষর করেছেন.   এমিল বেক কাপতাগায়েভ রাষ্ট্রপতির প্রশাসনের প্রধান হিসাবে মনোনীত হয়েছেন. এ ছাড়া ওতুনবায়েভার নির্দেশে সরকারের কাঠামো নির্ধারিত হয়েছে.
কির্গিজিয়ার সাময়িক সরকারের নেত্রী রোজা ওতুনবায়েভাকে ২০১১ সালের শেষ পর্যন্ত অন্তর্বর্তীকালীন রাষ্ট্রপতির পদে সরকারীভাবে অনুমোদন করা হয়েছে, আর প্রজাতন্ত্রে নতুন সংবিধান গৃহীত হয়েছে. এ সম্বন্ধে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় নির্বাচনী কমিশনের সভাপতি আকীলবেক সারিয়েভ, আজ বিশকেকে দেশের মুখ্য আইনের খসড়া নিয়ে গণভোটের সরকারী ফলাফল ঘোষণা করে. ২৭শে জুন ভোটদানের সময় তা সমর্থন করেছে ৯০ শতাংশেরও বেশি নাগরিক.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
জানুয়ারী 2010
ঘটনার সূচী
জানুয়ারী 2010
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
20
21
22
23
24
25
26
27
28
29
30
31