×
South Asian Languages:
থাইল্যান্ড, ডিসেম্বর 2013

বিরোধী পক্ষের তরফ থেকে ব্যাঙ্ককে থাই-জাপান মৈত্রী ষ্টেডিয়াম দখল করার আরও একটা প্রচেষ্টা বন্ধ করতে গিয়ে এই দেশের পুলিশ বাহিনী বাধ্য হয়ে টিয়ার গ্যাস ও রবারের গুলি ব্যবহার করেছে. ষ্টেডিয়ামে দেশের নির্বাচন কমিশনের তরফ থেকে দেশের পার্লামেন্ট নির্বাচনে যাঁরা অংশ নিতে চান, তাঁদের তরফ থেকে দলিল পত্র গ্রহণ করছে.

থাইল্যান্ডে পার্লামেন্টারী নির্বাচন বাতিলের দাবি করা বিরোধীপক্ষ বুধবার নির্বাচনী কমিশনের কাজ বন্দ করেছে. 

থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাঙ্ককে বিরোধীপক্ষ মঙ্গলবার নির্বাচনী কমিশনের অবরোধ পুনরারম্ভ করেছে, ২রা ফেব্রুয়ারীর জন্য নির্ধারিত জাতীয় সভার (পার্লামেন্ট) নির্বাচন বানচাল করার আশায়. 

থাইল্যান্ডে সোমবার নির্বাচনী কমিশন ২রা ফেব্রুয়ারী জাতীয় সভার (পার্লামেন্ট) নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য পৃথক পৃথক প্রার্থী ও পার্টির কাছ থেকে আবেদন-পত্র গ্রহণ শুরু হয়েছে.

প্রশাসন বিরোধী মিছিল ব্যাঙ্ককের সমস্ত রাস্তা গাড়ী চলাচলের জন্য বন্ধ করে দেবে আর একদিন শুধু পায়ে হেঁটেই যাওয়া যাবে. “গণতান্ত্রিক সংস্কারের জন্য জনতা সভা” নামের স্বঘোষিত দলের সাধারন সম্পাদক ও নেতা সুথেপ থীয়াকসুবান আজ অনেকদিন ধরেই থাইল্যান্ডে সরকার বিরোধী সমাবেশ ও মিছিল চালিয়ে যাচ্ছেন, তিনি বলেছেন যে, তাঁর দলের “তিরিশ লক্ষ কর্মী পাঁচটি বড় ও দশটি ছোট স্কোয়ারে সমাবেশ করতে আসবে ও মিছিল করে শহরের সমস্ত রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ করে দেবে”, তিনি উল্লেখ করেছেন যে, “আগে ভাবা হয়েছিল যে, এই সমস্ত মিটিং ও মিছিল রবিবারে স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ছটার মধ্যেই শেষ হবে, তবে এখন মনে হচ্ছে যে, তা চলবে সোমবার সকাল পর্যন্ত”.

থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালনকারিণী ইইঙ্গলাক চিনাওয়াত মঙ্গলবার আবার বলেছেন যে, ২রা ফেব্রুয়ারী নতুন মন্ত্রী-পরিষদ নির্বাচিত হওয়া পর্যন্ত নিজের পদে অধিষ্ঠিত থাকবেন.

থাইল্যান্ডের সেনাবাহিনীর এবং জাতীয় পুলিশের অধিনায়কমন্ডলী বিরোধীপক্ষের নেতা সুতেপ তাউগসুবানের সাথে সাক্ষাত্ করতে অস্বীকার করেছে, যিনি সৈন্যবাহিনীর তরফ থেকে সমর্থন পাওয়ার চেষ্টা করেন রাষ্ট্রীয় কুদেতা সাধনের প্রচেষ্টায়.

থাইল্যান্ডের অর্থ মন্ত্রণালয়, যার ভবন দু সপ্তাহ ধরে দখল করে রেখেছিল সরকারের বিরোধীপক্ষ, বুধবার আবার স্বাভাবিক ভাবে কাজ শুরু করেছে.

থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ইইঙ্গলাক চিনাওয়াত আন্দোলনে অংশগ্রহণকারীদের পার্লামেন্টারী নির্বাচনে অংশগ্রহণের আহ্বান জানিয়েছেন.

থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ইইঙ্গলাক চিনাওয়াত পার্লামেন্ট ভেঙ্গে দেওয়া এবং প্রাকমেয়াদী নির্বাচন নির্ধারণের কথা ঘোষণা করেছেন, যা দেশের সংবিধান অনুযায়ী, পার্লামেন্ট ভেঙ্গে দেওয়ার ৬০ দিন পরে হওয়ার কথা.

থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী ঈঙ্গলাক চিনাভাত দেশে প্রশাসনের পরিবর্তন নিয়ে জনমত গ্রহণের ধারণার কথা তাঁর বক্তৃতায় উল্লেখ করেছেন. থাইল্যান্ডের টেলিভিশনে তিনি বলেছেন যে, তিনি পদত্যাগ করতেই পারেন, যদি এটা থাইল্যান্ডের বেশীরভাগ লোক চান. এই দেশে প্রশাসন বিরোধী কাজ কারবার দু’সপ্তাহের বেশী সময় ধরে চলছে. দেশের মিছিলের লোকরা, যা ঈঙ্গলাক চিনাভাত নেতৃত্ব দিচ্ছেন সেই প্রশাসনের বিরুদ্ধে, আন্দোলন করছে, কারণ তিনি প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী তাক্সিম চিনাভাতের ভগ্নী, যাঁকে ২০০৬ সালে দেশে সামরিক অভ্যুত্থানের পরে দেশ ছাড়তে হয়েছিল.

থাইল্যান্ডের সরকার প্রধান বিরোধী নেতা সুতেপ তাউগসুবানের সমর্থকদের ও ব্লু-স্কাই টেলিভিশন চ্যানেলের কর্তা ও কর্মীদের গ্রেপ্তার করতে চায়, কারণ তারা প্রশাসন বিরোধী গোলমালকে সমর্থন করেছে আর ব্যাঙ্কক শহরের মেয়র দপ্তরের কর্মীরাও ছাড়া পাবেন না.

থাইল্যান্ডে বিরোধীপক্ষ মঙ্গলবার কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে নিজেদের বিজয়ের কথা ঘোষণা করেছে.

থাইল্যান্ডে সরকার পতনের দাবি চূড়ান্ত আন্দোলনে রুপ নিয়েছে। বিরোধী দলের নেতা-কর্মীরা দাবী করছে যে, আজ রোববার রাতের মধ্যেই পতন ঘটবে থাই সরকারের। আন্দোলকারীরা রাষ্ট্রীয় ও গণমাধ্যমের কার্যালয় অবরুদ্ধ করার পরিকল্পনা করছে।

1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
ডিসেম্বর 2013
ঘটনার সূচী
ডিসেম্বর 2013
2
4
5
7
13
14
15
16
18
19
20
21
27
28
29
30
31