×
South Asian Languages:
সন্ত্রাস, নভেম্বর 2010
পাঁচটি বিশ্ব বিখ্যাত সংবাদ মাধ্যম – মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক টাইমস, ফ্রান্সের লে মণ্ডে, স্পেনের এল পাইস, জার্মনির স্পীগেল ও গ্রেট ব্রিটেনের দ্য গার্ডিয়ান তাঁদের সাইটে উইকিলিক্স সংস্থা থেকে পাওয়া তথ্য প্রকাশ করেছে.
রাশিয়া আন্তর্জাতিক ভাবে ফেরারী বলে ঘোষিত অপরাধীদের ধরার বিষয়ে ইন্টারপোল সংস্থার কাঠামোর মধ্যে সহযোগিতা সক্রিয় করেছে. গত বছরে ইন্টারপোল রাশিয়ার আইন সংরক্ষণ বিভাগের পাঠানো হুলিয়া অনুযায়ী ১৩০০ জনকে ধরেছে, আর এ বছরে হুলিয়া জারী করা হয়েছে – ১৫০০ জনের বেশী লোকের নামে.
ভারতে আজ মুম্বাইয়ে সন্ত্রাসবাদীদের আক্রমণের দ্বিতীয় বার্ষিকী পালিত হচ্ছে, যার ফলে নিহত হয়েছিল ১৬৬ জন এবং প্রায় ২০০ জন আহত হয়েছিল. দু বছর আগে পাকিস্তানে ঘাঁটি গেড়ে থাকা “লশ্কর-এ-তাইবা” নামে চরমপন্থী দলের ১০ জন জঙ্গী মুম্বাইয়ের দুটি বড় হোটেল, ইহুদী ধর্মীয় কেন্দ্র, রেল স্টেশন, কাফে এবং পুলিশ থানার উপর আক্রমণ চালায়.
রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্থানে একসাথে মাদক বিরোধী কাজকর্ম চালিয়ে যাবে. এই বিষয়ে রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় মাদক নিয়ন্ত্রণ পরিষদের প্রধান ভিক্তর ইভানভ জানিয়েছেন. তিনি মস্কো শহরে যৌথ নিরাপত্তা সংস্থার বেআইনি মাদক কারবার সংক্রান্ত যোগাযোগ সভার বৈঠকে বক্তৃতা দিয়েছেন.    গত মাসের শেষে রাশিয়া এবং আমেরিকার বিশেষ বিভাগ এই প্রথমবার গত মাসে একসাথে মাদক তৈরীর ল্যাবরেটরী ধ্বংস করার কাজ করেছে.
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি জর্জ বুশ জুনিয়র কে তাঁর শাসন কালে বন্দী নির্যাতন ও বর্তমানেও সেই বিষয়ে খোলাখুলি সমর্থন করার জন্য কাঠগড়ায় দাঁড় করানোর জন্য বিশ্বের ৭৩টি দেশ থেকে ১৪৬টি নির্যাতিত ব্যক্তিদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরানোর কেন্দ্র থেকে একটি লিখিত আবেদনে বর্তমান রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামাকে আহ্বান করা হয়েছে.
সন্ত্রাসবাদী বিপদের সর্বোচ্চ মানের দেশগুলির রেটিংয়ে প্রথম স্থান অধিকার করেছে সোমালি. বৃটেনের “মেপলক্রফ্ট”  কনসাল্টিং কোম্পানি উল্লেখ করেছে যে, “আল-কাইদার” সাথে জড়িত স্থানীয় রাডিক্যাল দলগুলির ক্রিয়াকলাপ সক্রিয় হওয়ার সাথে তা জড়িত. ২০০৯ সালের জুন থেকে ২০১০ সালের জুন মাস পর্যন্ত সময়ে সোমালিতে ৫৫০টিরও বেশি সন্ত্রাস সাধিত হয়েছে, যার ফলে নিহত হয়েছে ১৪০০ জনেরও বেশি লোক.
পাকিস্থানের বৃহত্তম শহর করাচীতে নতুন সন্ত্রাসবাদী হানা, যার দায়িত্ব পাকিস্থানের তালিবেরা নিয়েছে, নিষ্ঠুরতা ও পরিব্যপ্তির দিক থেকে সকলকেই চমকে দিয়েছে. এক বিশাল বিস্ফোরণে পুলিশের দুই তলা বাড়ী সম্পূর্ণ ভাবে ভিত পর্যন্ত ধ্বংস হয়ে গিয়েছে, দুই কিলোমিটার ব্যাসার্দ্ধের মধ্যে থাকা সব কটি বাড়ী ঘরই কমবেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে. মৃতদের সংখ্যা প্রায় ২০.     আরও একটি বিষয় আশংকার কারণ হয়েছে.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30
নভেম্বর 2010
ঘটনার সূচী
নভেম্বর 2010
4
5
6
7
9
10
11
14
17
18
19
20
21
22
24
25
27
28
30