×
South Asian Languages:
ইরান, ডিসেম্বর 2010
ইরান নিজের পারমাণবিক কর্মসূচি নিয়ে ইস্তাম্বুলে আসন্ন জানুয়ারীর শেষে ছয়টি আন্তর্জাতিক মধ্যস্থ দেশের (রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচটি স্থায়ী সদস্য দেশ এবং জার্মানির) প্রতিনিধিদের সাথে আলাপ-আলোচনায় সাফল্যের আশা করছে.
মুম্বাই শহরে সফরে এসে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ টেকনলজির ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষকদের সঙ্গে দেখা করেছেন. রাশিয়ার দেশ নেতা অংশতঃ উল্লেখ করেছেন যে, "ন্যাটো জোটের উচিত মস্কোর সঙ্গে রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থা সংক্রান্ত সমস্ত প্রশ্নে সহমত হওয়া.
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইরানের বিরুদ্ধে নতুন নতুন বাধানিষেধ প্রবর্তন করেছে – তার পারমাণবিক ও রকেট কর্মসূচি গুটিয়ে না নেওয়ার জন্য এবং তাছাড়া, লেবাননে ঘাঁটি গেড়ে থাকা চরমপন্থী “হেজবোল্লা” দলকে সমর্থনের জন্য. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ মন্ত্রণালয় ঘোষণা করেছে যে, “কালো তালিকায়” অন্তর্ভুক্ত হয়েছে আরও পাঁচটি ইরানী কোম্পানি – দুটি ব্যাঙ্ক, একটি বীমা কোম্পানি এবং দুটি জাহাজ কোম্পানি.
রাশিয়া ও ভারতের সম্পর্ক বর্তমানে সুবিধাজনক স্ট্র্যাটেজিক সহযোগিতার স্তরে উন্নীত হতে পেরেছে বলে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহ নয়া দিল্লী শহরে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা শেষ হওয়ার পরে এক যৌথ ঘোষণাতে সাংবাদিক সম্মেলনে বলেছেন. রাশিয়া ও ভারতের মধ্যে সহযোগিতার বিষয়ে নূতন সম্ভাবনাময় দিক প্রতি বছরের সাথেই আরও উদ্ভূত হচ্ছে.
রাশিয়া ও ভারত ইরানকে আন্তর্জাতিক পারমাণবিক শক্তি এজেন্সির সাথে সহযোগিতার প্রয়োজনীয় মান সুনিশ্চিত করার আহ্বান জানাচ্ছে, বলা হয়েছে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ও ভারতের প্রধানমন্ত্রীর আলাপ-আলোচনার ফলাফলের ভিত্তিতে গৃহীত মিলিত ঘোষণাপত্রে.
ইরানকে কেন্দ্র করে পরিস্থিতি রাশিয়ার গুরুতর উদ্বেগ জাগায় না. এ সম্বন্ধে “রেডিও রাশিয়াকে” বিশেষ করে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে বলেছেন রাশিয়ার উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই রিয়াবকোভ. তবুও, কূটনীতিজ্ঞের কথায়, ইরানের পারমাণবিক কর্মসূচি সম্পর্কে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে, আর তা এ ক্ষেত্রে গবেষণা যথেষ্ট স্বচ্ছ না থাকার সাথে জড়িত.
ইরানের রাষ্ট্রপতি মাহমুদ আহমাদিনেজাদ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পদ থেকে বরখাস্ত করেছেন গত রাষ্ট্রপতির নির্বাচনে নিজের প্রতিদ্বন্দ্বীর পক্ষসমর্থককে, আর তাঁর বদলে নিযুক্ত করেছেন কঠোর আলাপ-আলোচনাকারীকে, যাঁকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে আলাপ-আলোচনার প্রক্রিয়া প্রলম্বিত করার, যাতে তেহেরানের পারমাণবিক কর্মসূচি গুটিয়ে নিতে না হয়, মনে করেন রাশিয়ার বিজ্ঞান অ্যাকাডেমির প্রাচ্যতত্ত্ব ইনস্টিটিউটের ইরান সংক্রান্ত বিশেষজ্ঞ ভ্লাদিমির সাঝিন.
তুর্কমেনিস্তান – আফগানিস্তান – পাকিস্তান – ভারত গ্যাস সরবরাহ পাইপ লাইন, যা নিয়ে আজ আশখাবাদ শহরে চুক্তি স্বাক্ষর হতে চলেছে, তা তাত্ত্বিক দিক থেকে এই চারটি দেশের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ. বিশেষ করে আফগানিস্তানের জন্য, যার এলাকার মধ্য দিয়ে এই পাইপ লাইন বসবে. যদি তা এখানে করা সম্ভব হয়, তবে নতুন কর্মক্ষেত্র তৈরী হবে, দেশের শক্তি সংক্রান্ত ব্যবসাতে উন্নতির সম্ভাবনা হবে.
এই ব্যবস্থা অনেক রকমের কাজ করতে পারবে, উইকিলিক্স সাইটে বের হওয়া মার্কিন প্রশাসনের ফাঁস হওয়া দলিল থেকে এই সিদ্ধান্তে এসেছে গার্ডিয়ান. পোল্যান্ড কে পাঠানো ওবামা প্রশাসন থেকে দেওয়া ব্যাখ্যাতে বলা হয়েছে যে, তাদের দেশে রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থা শুধু ইরান বা সিরিয়া থেকে উড়ে আসা রকেট কেই আটকাবে না, প্রয়োজনে তাকে আরও নানা কাজ দেওয়া যেতেই পারে.
আমেরিকার সরকার পুনরাবৃত্তি করতে ক্লান্ত হচ্ছে না যে, স্ক্যাণ্ডাল তৈরী করা বিখ্যাত উইকিলিক্স সাইটে ফাঁস হওয়া খবর নিয়ে তারা উদ্বিগ্ন. এরই মধ্যে সাইটে ফাঁস করা দলিল গুলি দেখলে পরিস্কার হয়ে যাচ্ছে যে, তাতে এমন কিছু নেই, যা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ও স্পর্শকাতর বিষয়.
জেনেভায় আজ ইরানের পারমাণবিক সমস্যা নিয়ে তার সাথে "ছয়টি মধ্যস্থ দেশের" আলাপ-আলোচনা পুনরারম্ভ হচ্ছে. রাষ্ট্রসঙ্ঘের পাঁচটি স্থায়ী সদস্য দেশ ও জার্মানির প্রতিনিধিত্ব রয়েছে উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের পর্যায়ে এবং ইরানের তরফ থেকে জেনেভায় প্রতিনিধিত্ব করবেন ইস্লামিক প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সচিব সইদ জালিলি. রাশিয়ার প্রতিনিধিত্ব করছেন উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই রিয়াবোভ.
রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিন বিখ্যাত মার্কিন সাংবাদিক ল্যারি কিং কে এক সাক্ষাত্কার দিয়েছেন. এই সব প্রশ্ন বর্তমানের প্রধান সমস্যা গুলিকে ঘিরেই ছিল: ইরানের পারমানবিক পরিকল্পনা, উত্তর কোরিয়া ও আফগানিস্থানের পরিস্থিতি, স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত চুক্তি, উইকিলিক্স সাইটে প্রকাশিত তথ্য নিয়ে ইতিহাস, আর তার সঙ্গে আগামী নির্বাচন এবং গুপ্তচর বাহিনীদের কাজ.
রাশিয়া ও পশ্চিমের দেশ গুলি বর্তমানে এক সঙ্কটের সামনে উপস্থিত: হয় রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থা নিয়ে সম্মিলিত ভাবে তৈরী করার চুক্তি করতে হবে, অথবা নূতন অস্ত্র প্রতিযোগিতা শুরু হবে. এই সাবধান বাণী শুনতে পাওয়া গিয়েছে জাতীয় সভার উদ্দেশ্যে দেওয়া রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভের ভাষণে. কিন্তু এই সঙ্কেত প্রাথমিক ভাবে দেওয়া হয়েছে রাশিয়ার সীমান্ত পার করেই.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
ডিসেম্বর 2010
ঘটনার সূচী
ডিসেম্বর 2010
3
4
5
8
9
11
12
13
15
16
18
19
20
23
24
25
26
27
29
30
31