×
South Asian Languages:
সমাজ জীবন 18 জুলাই 2013
নেলসন ম্যান্ডেলা আন্তর্জাতিক দিবস বিশ্বে পালিত হচ্ছে ১৮ই জুলাই. রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সভা ২০০৯ সালে এই দিনটিকে নির্দিষ্ট করেছে ও তা উত্সর্গ করা হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা প্রজাতন্ত্রের প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ রাষ্ট্রপতির জন্মদিনটিতে. এই ভাবেই বিশ্ব সমাজ নেলসন ম্যান্ডেলাকে তাঁর শান্তি ও স্বাধীনতার কার্যকলাপে স্বীকৃতী দিয়েছে. ১৮ই জুলাই নেলসন ম্যান্ডেলার ৯৫ বছর বয়স হল.
মার্কিনী “রোলিং স্টোন” পত্রিকার পরিচালকমন্ডলী পত্রিকার প্রচ্ছদপটে বস্টনে সন্ত্রাস আয়োজনে দোষ দেওয়া জোহার সারনায়েভের ফোটো এবং তার জীবন সম্বন্ধে প্রবন্ধ প্রকাশে নিজের সিদ্ধান্ত ব্যাখ্যা করেছে. এ প্রবন্ধে সম্পাদকালয় চেয়েছিল এ ধরণের ট্র্যাজেডি কিভাবে ঘটে তার পূর্ণ উপলব্ধি গড়ে তুলতে চেয়েছিল, উল্লেখ করা হয়েছে খবরে. সম্পাদকালয়ের প্রতিনিধিরা তাছাড়া বস্টন বিস্ফোরণে হতাহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছে.
নেলসন রোলিহ্লাহ্লা ম্যান্ডেলা (জোজা উচ্চারণ: [xoˈliːɬaɬa manˈdeːla]; জন্ম: জুলাই ১৮, ১৯১৮) ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রথম রাষ্ট্রপতি। তিনি ১৯৯৪ হতে ১৯৯৯ পর্যন্ত রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব পালন করেন। এর আগে ম্যান্ডেলা আফ্রিকান ন্যাশনাল কংগ্রেসের সশস্ত্র সংগঠন উমখন্তো উই সিযওয়ের নেতা হিসাবে বর্ণবাদ বিরোধী আন্দোলনে সক্রিয়ভাবে অংশ নেন। ১৯৬২ সালে তাঁকে দক্ষিণ আফ্রিকার বর্ণবাদী সরকার গ্রেপ্তার করে ও অন্তর্ঘাতসহ নানা অপরাধের দায়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়। ম্যান্ডেলা ২৭ বছর কারাবাস করেন। এর অধিকাংশ সময়ই তিনি ছিলেন রবেন দ্বীপে। ১৯৯০ সালের ১১ই ফেব্রুয়ারি তিনি কারামুক্ত হন। এর পর তিনি তাঁর দলের হয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার শ্বেতাঙ্গ সরকারের সাথে শান্তি আলোচনায় অংশ নেন। এর ফলশ্রুতিতে দক্ষিণ আফ্রিকায় বর্ণবাদের অবসান ঘটে এবং সব বর্ণের মানুষের অংশগ্রহণে ১৯৯৪ সালে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়।দক্ষিণ আফ্রিকায় ম্যান্ডেলা তাঁর গোত্রের দেয়া মাদিবা নামে পরিচিত।গত চার দশকে ম্যান্ডেলা ২৫০টিরও অধিক পুরস্কার পেয়েছেন। এর মধ্যে রয়েছে ১৯৯৩ সালের নোবেল শান্তি পুরস্কার। তাছাড়াও তিনি ১৯৮৮ সালে শাখারভ পুরস্কারের অভিষেক পুরস্কারটি যৌথভাবে অর্জন করেন।
গতকাল স্কুলের মধ্যাহ্নে বিষাক্ত খাবার খেয়ে ২২ জন শিশু কিশোরের মৃত্যু হয়েছে বিহারে. এই কারণে প্রথম যে ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, সে এক কর্মচারী, যে এই খাবার নিয়ে এসেছিল ও সেই স্কুলের ডিরেক্টর, যিনি তার ছাত্রদের শরীর খারাপের খবর পেয়েই পালানোর মতলব করেছিলেন. প্রায় তিরিশজন স্কুল পড়ুয়া এখনও হাসপাতালে রয়েছে. তাদের মধ্যে অনেকেরই অবস্থা গুরুতর.
জুলাই 2013
ঘটনার সূচী
জুলাই 2013