×
South Asian Languages:
সমাজ জীবন 30 জুলাই 2010
রাশিয়ার দূরপ্রাচ্যে খাবারোভস্ক অঞ্চলে প্রতিষেধক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে, প্রতিবেশী চীনে রাসায়নিক কারখানায় দুর্ঘটনার পরে সুঙ্গারী নদীর জল আমুর নদীতে পড়ার সম্ভাবনার ক্ষেত্রে. সাংবাদিকদের এ সম্বন্ধে বলেছেন অঞ্চলের গভর্নর ভিয়াচেস্লাভ শ্পোর্ত. তাঁর কথায়, একোলজিক্যাল সার্ভিসকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে মনিটরিং বাড়ানোর. প্রতিষেধক ব্যবস্থাবলি আলোচিত হবে আমুর নদীর এলাকায় অবস্থিত শহর ও েলাকাগুলির নেতাদের বৈঠকে.
ভারতের আসামে চরমপন্থীদের বোমা বিস্ফোরণে অন্ততপক্ষে চারজন সৈনিক নিহত এবং ৩০ জন আহত হয়েছে.পুলিশের প্রতিনিধি জানিয়েছে যে বিস্ফোরক ব্যবস্থা চালু করা হয় দুটি মোটর-বাসে সৈনিকদের যাত্রার পথে. প্রাথমিক তথ্য অনুযায়ী, এ অন্তর্ঘাত চালিয়েছে “ বোদোল্যান্ড জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট ” নামে দলের জঙ্গীরা, যারা ১৯৮৬ সাল থেকে ভারতীয় শাসন ব্যাবস্থার বিরুদ্ধে চরমপন্থী কার্যকলাপ চালিয়ে আসছে.
রাশিয়ার ইউরোপীয় অংশ দাবানলে আক্রান্ত. আগুনে পাঁচ জন নিহত, তাঁদের মধ্যে একজন দমকল কর্মী. এই বছরে হাস্য কৌতুকের উর্দ্ধে ওঠা আগুনের বহ্নি শিখাতে ক্ষতির এটিই প্রাথমিক তথ্য.     প্রাকৃতিক অগ্নিকাণ্ড, বিশেষ করে শুকনো পচা পাতার মন্ড ও দাবানলে ধ্বংস হওয়ার বিষয়টি রাশিয়ার জন্য সত্যিকারের একটা বিপর্যয়ে পরিনত হয়েছে.
৫৬০ মিটার ব্যাসের এক অ্যাস্টেরয়েড পৃথিবীর সঙ্গে ধাক্কা খেতে পারে. অদূর ভবিষ্যতে সেই রকম সম্ভাবনা খুব একটা বেশী নয়, কিন্তু তা খুবই বেড়ে যেতে পারে ২১৮২ সালে. স্পেনের ভালিয়াদোলিদা বিশ্ববিদ্যালয়ের জ্যোতির্বিদদের হিসেব মতো সেই সময়েই এই মহাকাশের বস্তু আমাদের দুনিয়াতে আসতে পারে. ১৯৯৯ সালে এই অ্যাস্টেরয়েড টিকে খুঁজে পাওয়া গিয়েছে, নাম দেওয়া হয়েছে RQ36.
ভ্লাদিমির পুতিন নিঝেগোরদ প্রদেশে (ভোলগা অঞ্চলে) পৌঁছেছেন, যেখানে দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে. এ অঞ্চলে পরিস্থিতি গুরুতর উদ্বেগ জাগাচ্ছে, এবং প্রধানমন্ত্রী স্থানীয় নেতৃবৃন্দের জরুরী বৈঠক আহ্বান করেছেন. অগ্নিকান্ডের কারণ হল আসাধারণ গরম, যা প্রায় একমাস ধরে পড়েছে কেন্দ্রীয় রাশিয়ায় এবং ভোলগা অঞ্চলে. নিঝেগোরদ প্রদেশে বিগত একদিনে আগুন ধ্বংস করেছে দুটি বসতিকেন্দ্র, প্রায় ৫৫০টি বাড়ি পুড়ে গেছে.
রাশিয়ার ইউরোপীয় অংশে দাবানল দেখা দিচ্ছে.ভরোনেঝ প্রদেশে অগ্নিকান্ডের ফলে ৫ জন মারা গিয়েছে, তাদের মধ্যে একজন ফায়ার ব্রিগেডের কর্মী. ভরোনেঝ শহরের উপকন্ঠে ধ্বংস হয়েছে তিনটি পর্যটন ঘাঁটি, তিনটি হাসপাতালের রোগীদের অপসারণ করা হয়েছে এবং শহরের উপকন্ঠে অবস্থিত বহুসংখ্যক বিশ্রাম-শিবির থেকে শিশুদের অপসারণ করা হয়েছে.
জুলাই 2010
ঘটনার সূচী
জুলাই 2010