×
South Asian Languages:
রাশিয়ার মুখ, এপ্রিল 2011
রুশ দেশে বুধবারে এক উল্লেখ যোগ্য দিন পালন করা হচ্ছে. আজ থেকে একশ পাঁচ বছর আগে দেশে প্রথম প্রতিনিধিত্ব মূলক আইন প্রণেতাদের সভা সৃষ্টি হয়েছিল. এই দিনে রুশ সাম্রাজ্যের রাজধানী সেন্ট পিটার্সবার্গের তাভরিদ রাজ প্রাসাদে প্রথম রাষ্ট্রীয় পার্লামেন্ট – রাষ্ট্রীয় দ্যুমার অধিবেশন বসেছিল.
২০২০ সালের মধ্যে বার্ষিক জাতীয় আয়ের সূচকে রাশিয়া বিশ্বের পাঁচটি উন্নততম দেশের মধ্যে থাকবে, ফ্রান্স ও ইতালির মত দেশ গুলিকে পার হয়ে. রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিন এই ঘোষণা করেছেন. তিনি রাশিয়ার লোকসভায় প্রশাসনের বার্ষিক কাজকর্মের ফলাফল নিয়ে বক্তৃতা দিতে গিয়ে এই কথা বলেছেন. লোকসভার সামনে মন্ত্রীসভার কাজের বিবরণ দেওয়ার ঐতিহ্য বর্তমানে – বেশী দিনের নয়.
১. রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় ব্যাঙ্ক ২০১৪ সালে সোচী শহরে অনুষ্ঠিতব্য ২২তম শীত অলিম্পিক ও একাদশ শীত কালীণ প্যারা অলিম্পিক ক্রীড়া উপলক্ষে স্মারক মুদ্রা প্রকাশ করছে. ফোটোতে: চারটি ৩ রুবল মূল্যের রুপালী মুদ্রা যাতে অঙ্কিত হয়েছে "বিয়াথলন", "পাহাড়ী স্কি", "স্কেট নৃত্য" ও "আইস হকি". ২.
বিশ্বের নেতৃস্থানীয় অর্থনীতিবিদদের ভাল ভবিষ্যদ্বাণীর ভাণ্ডার ফুরিয়ে গিয়েছে. বিশ্ব ব্যাঙ্ক ও আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের বিশেষজ্ঞরা বলছেন বিশ্ব এখন নতুন সঙ্কটের প্রান্তে এসে দাঁড়িয়েছে. সব কিছুর মূলে – সার্বভৌম ঋণ, ঋণের সুদ বৃদ্ধি ও উন্নতিশীল দেশগুলির অর্থনীতি অতিরিক্ত ভাবে উত্তপ্ত. এই পরিস্থিতিতে বিনিয়োগের জন্য আগ্রহোদ্দীপক দেখতে লাগছে রাশিয়াকে, এই কথা বিশ্বাস করেন অর্থমন্ত্রকের প্রধান আলেক্সেই কুদরিন.
"আজকের দিনটি স্মরণীয় হবে. অনেক কিছুই শেখাবে", – লিখেছিলেন বিখ্যাততম রুশ লেখক ও শিল্পী নিকোলাই রোয়েরিখ ১৫ই এপ্রিল ১৯৩৫, যখন ২০টিরও বেশী দেশ তাঁর সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সংরক্ষণ সংক্রান্ত তৈরী দলিল গ্রহণ করেছিল. তারপর বহু বছর চলে গিয়েছে, আর "রোয়েরিখ চুক্তি" স্বাক্ষরের দিনটি, ১৫ই এপ্রিল, আন্তর্জাতিক সংস্কৃতি দিবস বলে উদযাপিত হয়েছে.
১২ই এপ্রিল সারা বিশ্বের রেডিও তরঙ্গের শ্রোতারা মহাকাশ থেকে ইউরি গাগারীনের কন্ঠস্বর নিজেদের যন্ত্রে শুনতে পাচ্ছেন. ঐতিহাসিক ধ্বণির রেকর্ডিং ও তার মধ্য গাগারীনের বিশ্ব বিখ্যাত "চলো যাই!" পৃথিবীর কক্ষপথ থেকে ছোট উপগ্রহ "কেদর" সম্প্রচার করছে. এই উপগ্রহের নাম দেওয়া হয়েছে বিশ্বের প্রথম মহাকাশচারীর পৃথিবীর সঙ্গে যোগাযোগের সাঙ্কেতিক নাম থেকে.
১২ ই এপ্রিল ১৯৬১ সাল – আজ থেকে পঞ্চাশ বছর আগে – সোভিয়েত মহাকাশচারী ইউরি গাগারীন ইতিহাসের নতুন পাতা উল্টেছেন, তিনিই বিশ্বে প্রথম মহাকাশে পাইলট চালিত উড়ান করেছিলেন. এই যুগান্তরের ঘটনা মানবেতিহাসে মহাকাশ যুগের শুরু ঘোষণা করেছিল, মহাকাশ ও মানুষ এই গবেষণার সম্পূর্ণ একটি দিকের উন্নয়ন করেছিল, নতুন প্রযুক্তি ও বৈজ্ঞানিক গবেষণার উদ্ভব হয়েছিল.
১. বিশ্বের প্রথম মহাকাশচারী ইউরি গাগারীনের ৫০ বছর আগের ঐতিহাসিক মহাকাশ ভ্রমণ, পৃথিবীর মানুষের কাছে অমর হয়ে রয়েছে বহু নিত্য ব্যবহার্য জিনিসের মধ্য দিয়ে. সেই রকমের বহু স্যুভেনিরে – পেয়ালা, টি শার্ট, টুপি ও ডাকটিকিটে আর ফোটো পোষ্টকার্ড ও অন্যান্য বহু ছাপা জিনিসে – পোস্টার ও ক্যালেণ্ডারে.
ইউরি গাগারীনের মহাকাশ ভ্রমণ বিংশ শতাব্দীর এক উজ্জ্বল ও ভাগ্য নির্দেশক ঘটনা হতে পেরেছিল ও তা মানবেতিহাসের এক নূতন অধ্যায়ের সূচনা করেছে. রাশিয়ার লোকেরা এই বিষয়ে গর্ব অনুভব করেন যে, প্রথম ও নির্দিষ্ট পদক্ষেপ মহাকাশ অভিযানের ক্ষেত্রে তাঁদের দেশের লোকই করেছিলেন.
এবার থেকে ১২ই এপ্রিল সারা বিশ্বে আন্তর্জাতিক প্রথম মহাকাশচারী দিবস পালিত হবে. আজ আনুষ্ঠানিক ভাবে রাষ্ট্রসংঘের সাধারন সভায় এই সম্বন্ধে ঘোষণা করা হবে. নিউইয়র্কের রাষ্ট্রসংঘের প্রধান দপ্তরে ইউরি গাগারীনের মহাকাশচারনার সুবর্ণ জয়ন্তী উত্সবের প্রাক্কালে এই অনুষ্ঠান হতে চলেছে.     এখন অবধি ১২ই এপ্রিল – শুধু রাশিয়াতেই মহাকাশ গবেষণা দিবস পালিত হত.
১. এই বছরে বিশ্ব বিখ্যাত "রুস্সকিয়ে ভিতিয়াজি" (রুশ বীর) নামের যুদ্ধ বিমান চালকদের দলের ২০ বছর পূর্ণ হয়েছে. ২. "রুস্সকিয়ে ভিতিয়াজি" দলের পাইলটেরা চতুর্থ প্রজন্মের এস ইউ – ২৭ যুদ্ধ বিমান দিয়ে তাদের কৌশল প্রদর্শন করে থাকেন আর তাঁরাই হলেন বিশ্বের একমাত্র চালক দল, যাঁরা একক ও দলগত ভাবে সর্ব্বোচ্চ কৌশলের চালনা এই শ্রেনীর বিমানে দেখাতে পারেন. ৩.
রাশিয়ার রাজনৈতিক ব্যবস্থার বাইরে থাকা বিরোধী পক্ষের নেতাদের সারিতে নিজেদের মধ্য ভাগাভাগি বাড়ছে. তাঁরা আগের মতই কোন এক রকমের জনমত তৈরী করার পরিকল্পনার পথ নিতে পারছেন না, নেই তাঁদের কোন সম্মিলিত রাজনৈতিক মঞ্চ আর দেশের জন্য বোধগম্য কোনও সামাজিক – অর্থনৈতিক উন্নতির পরিকল্পনাও তাঁদের নেই.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30
এপ্রিল 2011
ঘটনার সূচী
এপ্রিল 2011
1
2
3
6
8
9
10
13
14
16
17
18
22
23
24
25
26
28
29
30