×
South Asian Languages:
রাশিয়া- ভারত, আগষ্ট 2010
ভারতের বিজ্ঞান ও শিল্প কেন্দ্র বাঙ্গালোর শহরে আধুনিকতম মহাকাশ প্রযুক্তির প্রদর্শনী শেষ হয়েছে. স্পেস এক্সপো – ২০১০ প্রদর্শনীতে ১০ টি দেশের প্রতিনিধি দল অংশ নিয়েছিলেন, দেশ গুলির মধ্যে ছিল : ভারত, রাশিয়া, জাপান, ইজরায়েল, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স ও নাইজিরিয়া. উচ্চ প্রযুক্তি ক্ষেত্রে কর্মরত প্রায় একশটি কোম্পানী তাঁদের আধুনিকতম প্রযুক্তি মহাকাশ গবেষণা সংক্রান্ত এই প্রদর্শনীতে দেখিয়েছে.
সাইবেরিয়ার তুভা প্রজাতন্ত্রে রুশ-ভারত নামে ভ্রাম্যমান প্রদর্শনী শুরু হয়েছে, তা উত্সর্গিত চিত্রশিল্পী ও দার্শনিক রোয়েরিখের পরিবারের প্রতি, ভারতের প্রতি এবং বৌদ্ধ দর্শনের প্রতি. এ সম্বন্ধে জানানো হয়েছে প্রজাতন্ত্রের হাম্বো লামার দপ্তরে. প্রদর্শনীতে দেখানো হচ্ছে নিকোলাই রোয়েরিখের আঁকা চিত্রের প্রতিরূপ, ভারতের বিভিন্ন জায়গার ফোটো.
কি করে প্রযুক্তির উন্নতির সঙ্গে পরিবেশ বিজ্ঞানকে খাপ খাওয়ানো যেতে পারে, পারমানবিক শক্তিকে বহু যুগ ধরে চলে আসা জীবনধারার সঙ্গে যোগ করা যেতে পারে, এই নিয়ে মানব সমাজের সেরা মাথারা চিন্তা করেই চলেছেন. ভারতও এই প্রশ্ন নিয়ে ব্যস্ত. আগামী দশ বছরে দিল্লী পরিকল্পনা করেছে দেশের পারমানবিক শক্তি উত্পাদন ক্ষমতাকে পাঁচ গুণ বৃদ্ধি করার – ২০ হাজার মেগাওয়াট তৈরী করার.
ভারতের বিমান বাহিনী ৫৯টি রাশিয়ার “ মি-১৭বি-৫ ” মার্কা হেলিকপ্টারের অতিরিক্ত ফরমাশ প্রস্তুত করেছে, এগুলি ২০০৮ সালের চুক্তি অনুযায়ী আগে ফরমাশ দেওয়া ৮০টি এই মডেলের হেলিকপ্টারের অতিরিক্ত. এ সম্বন্ধে “ ইন্ডিয়া স্ট্র্যাটেজিক ” পত্রিকাকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে বলেছেন বিমান বাহিনীর অধিনায়ক প্রদীপ বসন্ত নায়েক. তাঁর কথায়, আগে ফরমাশ দেওয়া ক্ষেপের প্রথম হেলিকপ্টারগুলি ভারত পাবে এ বছরের শেষ অবধি.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি ভারতের নেতৃত্বকে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে অভিনন্দন জানিয়েছেন. দিমিত্রি মেদভেদেভের বার্তায় উল্লেখ করা হয়েছে এই দেশের সার্বভৌম উন্নয়নে প্রভূত সাফল্যকে এবং দ্বিপাক্ষিক বন্ধুত্ব মূলক সম্পর্কে আরও ঘনিষ্ঠতা আশা করা হয়েছে. ভারতের সঙ্গে স্ট্র্যাটেজিক সহযোগিতা রাশিয়ার জন্য একটি অন্যতম প্রাথমিক কর্তব্য বলে মেদভেদেভ বিশেষ করে উল্লেখ করেছেন.
আগামী ১০ বছরে ভারত নিজের নৌবাহিনীতে যুক্ত করার পরিকল্পনা করছে ৩২টি নতুন যুদ্ধজাহাজ- ফ্রিগেট, কর্ভেট ও ডেস্ট্রয়ার. ভারতের নৌবাহিনীর ইস্টার্ন নেভাল কম্যান্ডের প্রতিনিধি অ্যাডমিরাল অনুপ সিং সাংবাদিকদের বলেন, “ এর বেশির ভাগ জাহাজ তৈরি করা হবে ভারতের ডকে.
এই বছরের শেষের আগেই সারা পৃথিবী জুড়ে রাশিয়ার দিক নির্দেশ ব্যবস্থা গ্লোনাসস চালু হয়ে যাবে. এই বিষয়ে রিয়াজান শহরে মন্ত্রীসভার এক বাইরের বৈঠকে ঘোষণা করেছেন. রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেছেন যে, সরকার বর্তমানে ২০২০ সাল পর্যন্ত নতুন রাষ্ট্রীয় রুশ উপগ্রহ নির্ভর বিশ্ব দিক নির্দেশ ব্যবস্থার লক্ষ্য নির্নায়ক পরিকল্পনার ধারণা তৈরী করছে.
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
আগষ্ট 2010
ঘটনার সূচী
আগষ্ট 2010
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
13
14
16
17
18
20
21
22
23
24
26
28
30
31