×
South Asian Languages:
রাশিয়া- ভারত, 2010
ভারত শিল্প কলার প্রতি আগ্রহ জাগায়. এ সম্বন্ধে অনেক শিল্পীই বলেছেন, সঙ্গীতকার, অভিনেতা সকলেই. রাশিয়ার জাতীয় শিল্পী ও মস্কোর রোয়েরিখ নামাঙ্কিত শিল্প ক্লাবের প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির আনিসিমভ এখন প্রচুর রঙ ও ছবি আঁকার কাগজ কিনছেন. জানুয়ারী মাসে তিনি তাঁর বন্ধুদের সঙ্গে ভারতে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছেন. এই দেশে তাঁর কত বারের এটা সফর হতে চলেছে, তা বলা দুষ্কর.
পঞ্চম প্রজন্মের ফাইটার বিমানের ভারতীয় ধরণ সংক্রান্ত নক্সা ও প্রযুক্তিগত প্রকল্প প্রণয়নের কনট্র্যাক্ট বিশ্ব অস্ত্র বাণিজ্য বিশ্লেষণ কেন্দ্রের ভার্সন অনুযায়ী সামরিক-প্রযুক্তিগত সহযোগিতার ক্ষেত্রে ২০১০ সালে রাশিয়ার দ্বারা সম্পাদিত কনট্র্যাক্টের রেটিংয়ে প্রথম স্থান অধিকার করেছে.এ রেটিং প্রকাশিত হয়েছে মঙ্গলবার. এ কনট্র্যাক্ট স্বাক্ষরিত হয়েছিল ২১শে ডিসেম্বর রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভের সরকারী ভারত সফরের সময়.
ভারতীয়রা ভালবাসে উত্সব, আনন্দ আর খুশীর সঙ্গেই তা পালন করে থাকে, যদিও ভারতীয়দের মধ্যে বেশীর ভাগের ধর্ম হিন্দুত্ব, তবুও বড়দিন আর ইংরাজী ক্যালেণ্ডার অনুযায়ী নববর্ষে ভারতের সব জায়গায় অন্য দেশ গুলির মতই উত্সব হয়. রাস্তা ঘাট, দোকান বাজার, ছোট বেচা কেনার জায়গা এই দিন গুলিতে লোকারণ্য হয়ে থাকে.
   রাশিয়া ও ভারত আবার বিশ্ব জনসমাজকে দেখিয়েছে, কিভাবে আন্তঃরাষ্ট্রীয় সম্পর্ক গড়ে তোলা উচিত. দশ বছর আগে মস্কো ও দিল্লি আন্তর্জাতিক-বিধানিক ক্ষেত্রে স্ট্র্যাটেজিক শরিকানার উপলব্ধি চালু করেছিল.
রাশিয়াতে মাংসের খাবার ভারত রপ্তানী করার কথা বলেছে. রাশিয়ার কৃষি নিয়ন্ত্রণ সংস্থা থেকে জানানো হয়েছে যে, এই বিষয়ে ভারতে রাশিয়ার এই সংস্থার প্রধান সের্গেই দাঙ্কভের্ত ও ভারতীয় শিল্প বাণিজ্য মন্ত্রকের কৃষি জাত ও অন্য খাদ্য রপ্তানী পরিষদের প্রধান অমর ত্রিপাঠী আলোচনা করেছেন.
১. রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ সরকারি সফরে ভারত গিয়েছিলেন. প্রথম যাঁর সঙ্গে তিনি দেখা করেছিলেন, তিনি ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রী এস. এম. কৃষ্ণ. ২. দিমিত্রি মেদভেদেভের ভারত সফরের সময়ে দিল্লীতে প্রায় তিরিশটি রাশিয়া ভারত দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক নিয়ে দলিল স্বাক্ষরিত হয়েছে, যার মধ্যে খনিজ তেল ও গ্যাস, পারমানবিক শক্তি বিষয়ে সহযোগিতা ও অন্য বহু বিষয়ে. ৩.
যদি রাশিয়া ও ন্যাটো জোট রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থা বিষয়ে প্রত্যেক পক্ষের উপযুক্ত ভূমিকার বিষয়ে সহমতে আসতে না পারে তবে কয়েক বছর পরেই রাশিয়া ও আমেরিকার রাজনীতিবিদেরা কঠিন সমস্যার সামনে পড়বেন বলে মনে করেছেন দিমিত্রি মেদভেদেভ. ভারতে সরকারি সফরের দ্বিতীয় দিনে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি মুম্বাই শহরে ভারতের প্রযুক্তি ইনস্টিটিউটের ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষকদের সঙ্গে দেখা করেছেন ও বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক ঘোষণা করেছেন.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ ভারতের “বলিউডের” বৃহত্তম চলচ্চিত্র-স্টুডিও পরিদর্শন করেছেন. তিনি রাশিয়া ও ভারতের চলচ্চিত্র-নির্মাতাদের সাথে চলচ্চিত্রের ক্ষেত্রে দু দেশের সহযোগিতার সম্ভাবনা আলোচনা করেন, স্টুডিওতে শুটিং দেখেন এবং একজন বিখ্যাত অভিনেতার সাথে আলাপ করেন. মেদভেদেভকে দেখানো হয় শেষ একটি মিলিত প্রকল্প- বহু সিরিজের “ইন্দুস”("হিন্দু") নামে চলচ্চিত্র, যা তোলা হয়েছে দু দেশের অভিনেতা ও কোম্পানির অংশগ্রহণে.
মুম্বাই শহরে সফরে এসে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ টেকনলজির ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষকদের সঙ্গে দেখা করেছেন. রাশিয়ার দেশ নেতা অংশতঃ উল্লেখ করেছেন যে, "ন্যাটো জোটের উচিত মস্কোর সঙ্গে রকেট প্রতিরোধ ব্যবস্থা সংক্রান্ত সমস্ত প্রশ্নে সহমত হওয়া.
রাশিয়া সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে সংগ্রামে ভারতকে সাহায্য করতে প্রস্তুত অস্ত্রসজ্জা ও প্রকৌশল সরবরাহ করে, এবং তাছাড়া মনে করে আরও ঘন ঘন সামরিক মহড়া পরিচালনা করা সম্ভব, বলেছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ. তিনি বলেন, “রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি হিসেবে প্রথম বার আমি ভারত সফরে এসেছিলাম মুম্বাইয়ে ভয়ঙ্কর সন্ত্রাসের কয়েক দিন পরেই.
ভারত সফরে অবস্থিত রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ আজ আগ্রায়  তাজমহল দেখতে যাবেন এবং তারপর যাবেন মুম্বাই শহরে. মুম্বাইয়ে তিনি “আই.আই.টি”-তে ছাত্র ও অধ্যাপকদের সাথে সাক্ষাতে মিলিত হবেন. কথা হবে দু দেশের উচ্চ শিক্ষায়তনগুলির মাঝে যোগাযোগ প্রখর করার, সর্বপ্রথমে, উচ্চ প্রাকৌশলিক ক্ষেত্রের বিশেষজ্ঞ প্রস্তুত করা উচ্চ শিক্ষায়তনগুলির মাঝে.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভের স্থিরবিশ্বাস যে, সন্ত্রাসবাদীদের অবশ্যই সমর্পন করা দরকার. ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রী মনমোহন সিংয়ের সাথে আলাপ-আলোচনার পরে
রাশিয়া ও ভারত সামরিক সহযোগিতার ধারায় যোগাযোগে সন্তুষ্ট, বলা হয়েছে রুশ-ভারত মিলিত ঘোষণাপত্রে. এ দলিলে বলা হয়েছে, রাশিয়া ও ভারত সামরিক ধারায় নিয়মিত যোগাযোগে সন্তুষ্ট এবং ভবিষ্যতেও মিলিত সামরিক মহড়া পরিচালনার ক্ষেত্রে সহযোগিতা বিকাশ করতে চায়... সমস্ত ধারায়, সেই সঙ্গে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে সংগ্রামেও.
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রী মনমোহন সিংয়ের আলাপ-আলোচনার ভিত্তিতে গৃহীত মিলিত ঘোষণাপত্রে বলা হয়েছে, রাশিয়ার পক্ষ পারমাণবিক সরবরাহকারী দেশের গ্রুপে ভারতের যোগদানে সহায়তা করতে প্রস্তুত. বিশেষ করে, দলিলে উল্লেখ করা হয়েছে যে, রাশিয়া ও ভারত বিশ্বব্যাপী পারমাণবিক অস্ত্র প্রসার নিরোধের ব্যবস্থার গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হিসেবে পারমাণবিক রপ্তানির নিয়ন্ত্রণের বহুপাক্ষিক ব্যবস্থা সুদৃঢ়করণে আগ্রহী.
রাশিয়া ও ভারতের সম্পর্ক বর্তমানে সুবিধাজনক স্ট্র্যাটেজিক সহযোগিতার স্তরে উন্নীত হতে পেরেছে বলে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহ নয়া দিল্লী শহরে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা শেষ হওয়ার পরে এক যৌথ ঘোষণাতে সাংবাদিক সম্মেলনে বলেছেন. রাশিয়া ও ভারতের মধ্যে সহযোগিতার বিষয়ে নূতন সম্ভাবনাময় দিক প্রতি বছরের সাথেই আরও উদ্ভূত হচ্ছে.
ভারতে সরকারী সফরে অবস্থিত রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ আজ ভারতের বিরোধী পক্ষের নেত্রী সুষমা স্বরাজের সাথে সাক্ষাত্ করেছেন. এ সাক্ষাত্ হয়েছে "তাজ প্যালেস" হোটেলে, যেখানে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি থেমেছেন. স্বরাজ ভারতের প্রধান বিরোধী পার্টি- ভারতীয় জনতা পার্টির প্রতিনিধিত্ব করছেন. এর আগে মেদভেদেভ ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রীমনমোহন সিংহের সাথে আলাপ-আলোচনা করেছেন.
রাশিয়া ও ভারত বিদ্যুত্শক্তির ক্ষেত্রে সহযোগিতা প্রসার করতে চায়, বলা হয়েছে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী স্রী মনমোহন সিংয়ের আলাপ-আলোচনার ফলাফলের ভিত্তিতে গৃহীত মিলিত ঘোষণাপত্রে. তাছাড়া, আলাপ-আলোচনায় “কুদানকুলাম” পারমাণবিক বিদ্যুত্শক্তি কেন্দ্রের প্রথম ও দ্বিতীয় ব্লক চালু করার সফল প্রস্তুতির বিষয় এবং অতিরিক্ত ব্লক নির্মাণ সংক্রান্ত আলাপ-আলোচনার গতি আলোচিত হয়েছে.
রাশিয়া ও ভারত মহাকাশে সহযোগিতা প্রখর করার ব্যাপারে সমঝোতায় এসেছে, সেই সঙ্গে চাঁদের অধ্যয়নে, মানবচালিত মহাকাশযানের যাত্রায় এবং রাশিয়ার “গ্লোনাস” নেভিগেশন ব্যবস্থার ব্যবহারে. এ সম্বন্ধে বলা হয়েছে মিলিত ঘোষণাপত্রে, যা গৃহীত হয়েছে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রী মনমোহন সিংয়ের আলাপ-আলোচনার ভিত্তিতে.   
রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভের ভারত সফরের ফলাফলের ভিত্তিতে একসারি আন্তঃসরকারী দলিল, সেই সঙ্গে  তেল ও গ্যাস ক্ষেত্র এবং পারমাণবিক ক্ষেত্র, এবং তাছাড়া তথ্য প্রকৌশলের ক্ষেত্রে সহযোগিতা সংক্রান্ত দলিল স্বাক্ষরিত হয়েছে. রাশিয়া ও ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা দু দেশের পৃথক পৃথক গ্রুপের লোকেদের পারস্পরিক যাত্রার পরিবেশ সরল করা সম্পর্কে চুক্তি স্বাক্ষর করেছেন.
রুশ-ভারত সম্পর্ক “বিশেষ প্রাধান্যমূলক স্ট্র্যাটেজিক শরিকানার” চরিত্র ধারণ করেছে. এ কথা আজ বলেছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রী মনমোহন সিং নয়া-দিল্লিতে আলাপ-আলোচনার ফলাফল সংক্রান্ত সাংবাদিক সম্মেলনে. মেদভেদেভ আবার বলেছেন যে, পণ্য-আবর্তন বৃদ্ধির কর্তব্য এখনও জরুরী রয়েছে, যার ৭০ শতাংশের উপর নবায়নভিত্তিক.
আগের
1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31
জানুয়ারী 2010
ঘটনার সূচী
জানুয়ারী 2010
1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
14
15
16
17
18
19
20
21
22
23
24
25
26
27
28
29
30
31