পুলিশ ইতিমধ্যেই ফোটো রোবট সংস্থাপণ করে তাদের সক্রিয় সন্ধান শুরু করেছে. এনডিটিভি টেলি চ্যানেল জানিয়েছে, যে ধর্ষণ করার সন্দেহে পুলিশ ইতিমধ্যেই ২০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে.

যুবতীটি তার পেশাদারী কাজে নিয়োজিত ছিল তার বয়ফ্রেন্ডের সাথে. দুস্কৃতীরা তাদের টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যায় পার্শ্ববর্তী একটি পোড়ো বাড়িতে. সেখানে যুবকটিকে বেঁধে মারধর করার পরে তারা সাংবাদিকাকে ধর্ষণ করেছে. যুবতীকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে.