×
South Asian Languages:
রাজনীতি 12 এপ্রিল 2013
ভ্লাদিমির পুতিন মহাকাশযাত্রা বিদ্যা দিবসে আমুর প্রদেশে “ভস্তোচনি” কসমোড্রোম পরিদর্শন করেন. সেখানে তিনি ভিডিও-যোগাযোগের মাধ্যমে আন্ত৪জাতিক মহাকাশ স্টেশনের মহাকাশচারীদের সাথে কথা বলেন, উত্সব উপলক্ষে তাঁদের অভিনন্দন জানান এবং তাছাড়া সেখানে তিনি মহাকাশ ক্ষেত্রের বিকাশ সংক্রান্ত একসারি প্রশ্ন আলোচনা করেন. রাষ্ট্রপতি বলেন যে, মহাকাশের আত্তীকরণে নিজের ভূমিকায় দেশ গর্ব অনুভব করতে পারে.
রাশিয়ার আকাশ ও মহাকাশ প্রতিরক্ষা বাহিনী উত্তর কোরিয়ার সম্ভাব্য রকেট ক্ষেপণকে কেন্দ্র করে পরিস্থিতির প্রতি লক্ষ্য রাখছে, শুক্রবার বলেছেন উপ-প্রধানমন্ত্রী দমিত্রি রগোজিন.
কয়েকদিন আগে পাকিস্তানের সংবাদ মাধ্যম আর তার পরেই ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছে যে, পাকিস্তানের পররাষ্ট্র প্রধান হেনা রব্বানি খার দেশের পার্লামেন্ট নির্বাচনে নিজের কেন্দ্র থেকে আর ভোটে দাঁড়াচ্ছেন না.
সিরিয়া সম্পর্কে রাষ্ট্রসঙ্ঘ ও আরব রাষ্ট্র লীগের বিশেষ প্রতিনিধি লাখদার ব্রাহিমি ১৮ই এপ্রিলের মধ্যে পদত্যাগ করতে পারেন. এ সম্বন্ধে শুক্রবার লিখেছে লেবাননের “আস-সাফির” পত্রিকা কায়রো-তে কূটনৈতিক উত্সকে উদ্ধৃত করে. পত্রিকাটি লিখেছে যে, নিজের পদত্যাগ পত্রে ব্রাহিমি গোটা আরব রাষ্ট্র লীগের উপর এবং পৃথক পৃথকভাবে তার সদস্যদের উপর দায়িত্ব আরোপ করেছেন “সিরিয়ার ধ্বংসের” জন্য.
প্রাথমিক মতভেদ থাকা সত্বেও জি-৮এর দেশগুলির পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা মুখ্য আন্তর্জাতিক সমস্যাবলীর বিষয়ে সহমতে পৌঁছাতে সমর্থ হয়েছেন. লন্ডনে সাক্ষাত্কারের ফলাফল বিশ্লেষণ করে এই উক্তি করেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভ. আমরা সমর্থ হয়েছি ইরানের পারমানবিক প্রকল্প, কোরিয় উপদ্বীপে পারমানবিক সমস্যা, সিরিয়ায় সংকট, আফ্রিকায় চলতি সব সংঘাতের প্রশ্নে একইধরনের পদক্ষেপ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিতে.
“জি-৮” গ্রুপের সদস্য দেশগুলির পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা গুরুতর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে, যদি উত্তর কোরিয়া পরবর্তী রকেট ক্ষেপণ করে অথবা পারমাণবিক পরীক্ষা চালায়. এ সম্বন্ধে বৃহস্পতিবার বলেছেন বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী উইলিয়াম হেগ লন্ডনে “জি-৮” সাক্ষাত্ শেষ হওয়ার পরে.
শুক্রবার মার্কিনী বিদেশ দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে, যে আমেরিকার মতে, চীন কোরিয় উপদ্বীপে চলতি সমস্যাবলীর সমাধানের ক্ষেত্রে আরো অনেক বেশি সক্রিয় ভূমিকা নিতে পারে. “চীনের স্থিতিশীলতা অর্জন করার জন্য যথেষ্ট ক্ষমতা রয়েছে, আর পারমানবিক রকেটের পেছনে চলতে থাকা উত্তর কোরিয়ার দৌড় – স্থিতিশীলতার পরম শত্রু” – বলেছেন মার্কিনী বিদেশ দপ্তরের নামোল্লেখ না করা প্রতিনিধি.
  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামা ঘোষণা করেছেন, যে উত্তর কোরিয়ার সময় হয়েছে আঘাত হানার ও যুদ্ধ শুরু করার রাজনীতি বন্ধ করার. বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের সাধারণ সম্পাদক বান কি মুনের সাথে হোয়াইট হাউসে সাক্ষাতের পর ওবামা বলেছেন, যে তারা উভয়েই এই বিষয়ে একমত, যে উত্তর কোরিয়ার যৌধেয় অভিযান বন্ধ করার সময় হয়েছে, যে নীতি তারা অবলম্বন করে চলেছে.
আঞ্চলিক বিরোধ গুলি রাজনৈতিক- কূটনৈতিক পথেই মীমাংসা করা প্রয়োজন. অর্থনৈতিক ভাবে বৃহত্ অষ্ট দেশের পররাষ্ট্র প্রধানদের পক্ষে সম্ভব হয়েছে আন্তর্জাতিক সমস্যা গুলির সমাধান নিয়ে সম্মিলিত অবস্থান গ্রহণ করার. লন্ডনে এই জি৮ পররাষ্ট্র মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক শেষ হয়েছে. ইরানের পারমানবিক পরিকল্পনা, কোরিয়া উপদ্বীপ এলাকায় পরিস্থিতি ও সিরিয়া – বৈঠকের আলোচ্য তালিকায় সবচেয়ে তীক্ষ্ণ বিষয় ছিল.
পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতির পদে ১৯৯৯ সাল থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত ক্ষমতাসীন থাকা জেনারেল পারভেজ মুশারফ সি-এন-এনকে প্রদত্ত সাক্ষাত্কারে স্বীকার করেছেন, যে কোনো বিশেষ ক্ষেত্রে চালকবিহীন ড্রোন থেকে পাকিস্তানের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে আঘাত হানার অনুমতি তার অধীনস্থ সরকার দিয়েছিল. এতদিন পর্যন্ত পাকিস্তানের কর্তৃপক্ষ আমেরিকার ড্রোন থেকে আঘাত করার সঙ্গে কোনোরকম ভাবে জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করে আসছিল, যা দেশবাসীর প্রবল অসন্তোষের কারণ হয়েছে.
যদি দক্ষিণ কোরিয়া সংঘাতের রাজনীতি বর্জন না করে, তাহলে উত্তর কোরিয়া ক্যাসোন শিল্প তালুক একেবারেই বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছে. এই ঘোষণা করেছেন বিশেষ তালুক পরিচালন বিভাগের প্রতিনিধি. তিনি যোগ করেছেন, যে নিজের শ্রমিকদের ক্যাসোন থেকে দেশে ফিরিয়ে নেওয়ার বিষয়ে পিয়ংইয়ংয়ের সিদ্ধান্ত হচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্ররোচনাপন্থী কার্যকলাপের প্রত্যুত্তর.
ইউরোপীয় সংঘ আলাপ-আলোচনার টেবিলে সিরিয়ার সংকটের সমাধানের ধারনায় অনড় এবং বিরোধীদের সেই সব দলকে সমর্থন করে, যাদের কাম্য গণতান্ত্রিক বিবর্তন. ব্রাসেলসে অনুষ্ঠিত ব্রিফিংয়ে এই কথা ঘোষণা করেছেন ইউরো কূটনীতি দপ্তরের প্রধান ক্যাথরিন এ্যাশটনের সরকারী মুখপাত্র মাইকেল মান. তার কথায়, ইউরোপীয় সংঘ যে কোনো সহযোগিতা করতে রাজি সেই সব দলের সাথে, যারা সিরিয়ায় সর্বাগ্র গণতান্ত্রিক পরিবর্তনের স্বপক্ষে মতপ্রকাশ করে.
সিরিয়ার স্থানীয় সমণ্বয়কারী কমিটির প্রতিনিধিরা ‘আল-কায়িদা’র নেতা আইমান আজ-জাওয়াহিরির দেওয়া সিরিয়ায় চরমপন্থী ঐস্লামিক রাষ্ট্র গড়ার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন. “দেশের আভ্যন্তরীন ব্যাপারে তার ঔদ্ধত্যপূর্ণ অনুপ্রবেশের আমরা নিন্দা করছি” – বলা হয়েছে তাদের প্রচারপত্রে. সেখানে উল্লেখ করা হয়েছে, যে সিরিয়াবাসীরা নিজেরাই দেশের ভাগ্য নির্ধারণ করতে সক্ষম.
এপ্রিল 2013
ঘটনার সূচী
এপ্রিল 2013